স্বামীর ভালোবাসা অন্তিম পর্ব

0
1362

স্বামীর ভালোবাসা অন্তিম পর্ব

লেখিকা সুরিয়া মিম

!
পাপাই তোমার পেটে হাত দিয়েছে,
…..
হা হা হা,
….
বাবা তুমি কি চোখে বেশি দেখ হুম?
.। .
না আমি ঠিক দেখি,
পাপাই তুমি মাম্মামের পেটে হাত দিয়েছ,

কোই নাতো নাতো?
.
দেখো পাপাই মিথ্যে বলা মহাপাপ,
তুমি মিথ্যে বলো কেন?
….
মাম্মাম দেখো পাপাই মিথ্যা বলে,
.. ।
এই যে তুমি বাসায় কি জায়গা কম পরেছে?
যে শপিং মলে বসে শরু হয়ে গেছ?
….
ভালোবাসা কোনো জায়গা মানে না,
সে শুধু ভালোবাসতে জানে,

ওমা তাই?
এতো জানতে হবে না আমাদের শপিং হয়ে গেছে,
….
এবার দয়া করে নিজের টা করতে চলুন,
..
তারপর আমরা ওনার জন্যে ট্রাউজার, ট্রাক সুট এবং টি শার্ট কিনে বাসায় ফিরে যাই,
….
দেখতে দেখতে কেটে যায় একটি বছর,
..
এই এক বছরে উনি আমার ওপরে,

কোনো স্বামী অধিকার ফলাতে আসেননি,
….
কোনো প্রকার জোরাজুরি করেননি,
..
আমার স্বাধীনতায় কোনো হস্ত্যক্ষেপ করেননি,
….
একটু ও বদলে জাননি,
আমাদের ফিরে পাওয়ার খুশি তে আবারো ফ্যামিলি সহ হজ করতে যায়,

তবে এই একবছরে আমি ওনার প্রতি দূরবল হয়ে পরেছি,
….
উনি ওনার সাইকোলজিক্যাল প্রবলেম অনেক টা রিকোভার করেছেন,

তবু ও উনি রাতে মাঝেমধ্যেই আমাকে জড়িয়ে কান্নাকাটি করেন,
….
আমি জানি উনি এখনো আমার ভালোবাসা পাওয়ার লোভে,

বুকভরা আশা নিয়ে বেঁচে আছেন,

তার ওপরে আজ আমাদের সপ্তম বিবাহবার্ষিকী,
….
আর ওনার কোম্পানিরো সপ্তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী,
…..
তাই আজকে বাসায় গ্রান্ড পার্টির আয়োজন করা হয়েছে,

কাল রাতে আমার হাতে একটা লাল বেনারসি দিয়ে বলেন,
….
তোমাকে এই সাড়ি টায় খুব মানাবে,
কালকে তুমি এটা পরলে আমি অনেক খুশি হবো,
…..
তারপর উনি গোল্ডেন কালারের কমপ্লিট সুট পরে নিচে চলে যায়,

তখন আমি ওনার দেওয়া লাল বেনারসি পরে,……
……
হালকা সাজুগুজু করে, খয়েরি কালারের লিপস্টিক, ভারী ঝুমকো ও খোপায় বেলিফুলের মালা পরে পার্টি তে চলে যাই,
……
পার্টি তে যেতেই সবাই আমাকে ঘুরে ঘুরে দেখতে থাকে,

তখন উনি এসে আমার হাত ধরে বলে,

আজকে তোমাকে নতুন বৌয়ের মতো লাগছে,
….
সাথে সাথে আমার মিহাদ মিশান এসে বলে,

মাম্মাম পাপাই তোমাদের অনেক অনেক সুন্দর লাগছে,
..
তোমাদের ও অনেক সুন্দর লাগছে টুনটুনিরা,
…..
হঠাৎ আমার টুনটুনি দুটো ছুটে গিয়ে,
রুহানের থেকে মাইক্রোফোন টা কেরে নিয়ে বলে,
…..
লিসেন লিসেন পাপাই এবার মাম্মাম কে কিস্ছি দিবে,
..
ওদের কথা শেষ হতে না হতেই,
….
উনি আমার কাছে এগিয়ে এসে,
আমার গাল দুটো চেপে ধরে,
.. ..
আমার ঠোঁটের পাশে আলতো করে চুমু একে দেয়,
….
সাথে সাথে হাত তালি ও হাসির রোল পরে যায়,
…..
আর আমি লজ্জায় লাল হয়ে ওনা কে ছেড়ে রুমে চলে যাই,
..
হঠাৎ উনি আমার গলায় আলতো করে চুমু একে দেয়,
……
আমি তখন ওনার কাছ থেকে সরে আসার চেষ্টা করতেই উনি,

ওনার চোখেরজল মুছতে মুছতে বলেন,
….
আগে ভাবতাম আমি বেলি ফুলের গন্ধে পাগল,

এখন দেখি আমি ভু্ল,
কারন শুধু মাএ তোমার গন্ধ আমাকে পাগল করে তোলে,
….
আমি নিজের ওপর থেকে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলেছি সে অনেক আগেই,

এখন তোমার লোভ আমাকে লোভী করে তুলেছে,

কিছু তেই কিছু হচ্ছে না,
নিজেকে সামলাতে পারছিনা,

তুমি কি আমাকে তোমার করে নেবে?
….
ভালোবাসবে আমাকে?
. …..
যেখানে থাকবেনা কোনো সন্দেহের প্রতারণা ও তৃতীয় ব্যক্তির বিচরণ,
….
সেখানে থাকবে শুধু আমাদের বিশ্বাস, ভরসা ও ভালোবাসা,
থাকবো শুধু তুমি আর আমি,

আপনি পারবেন?
আমাকে সত্যিকারের ভালোবাসা দিয়ে ভরিয়ে দিতে?
…..
শুধু আমার হয়ে থাকতে?
……
পারবো খুব পারবো তোমার আর কোনো কষ্ট হবে না আমি তোমাকে ছুয়েঁ বলছি.
….
তারপর আমরা একে অপর কে আষ্টেপৃষ্ঠে জড়িয়ে ধরে মন খুলে কাঁদতে থাকি,
….
কারন এতো দুঃখের নয় সুখের কান্না,

যেটা আমরা একে অপর কে জড়িয়ে কাঁদছি,
….
তারপর হঠাৎ করে লাইট অফ হয়ে যায়,
……………
আর আমরা একে অপরের হয়ে যাই ,
……..সমাপ্ত……..

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here