ক্রাশেরসাথেবিয়ে পার্ট_০৯

0
1563

ক্রাশেরসাথেবিয়ে পার্ট_০৯
#jannatul_ferdous

রোদ,শিমুর আব্বু ভিতরে আসলো। তারপর হাসপাতাল থেকে বের হয়ে রোদ নিজে গিয়ে বাড়িতে ছেড়ে আসলো শিমুকে।রাগিনী শিমু রূপে বেঁচে আছে জানতে পেরে পুরো বাড়িতে আনন্দের বন্যা বয়ে গেলো।
কিন্তু ঝামেলা হলো শিমু বিয়েতে রাজি না।কোনো ভাবেই রাজি করাতে পারলো না শিমুকে।তাহলে রোদ কী পেয়েও হারিয়ে পেলবে তার রাগিনীকে।কী করবে ভেবে পাচ্ছিলো না রোদ।শেষে শিমুর সাথে কথা বলতে চাইলো সে।

কপিশপে দুইজন মুখোমুখি সবে আছে।

শিমু-যা বলার বলুন।

রোদ-আমাকে বিয়ে করবে না কেন?

শিমু-আমি অন্য কাউকে ভালোবাসি তাই।

রোদ-কী?

শিমু-হুমম।

রোদ-কাকে?

শিমু-রিহান কে ভালোবাসি।

রোদ-রিহান কে?

শিমু-ওর সাথে ৭মাস আগে দেখা হয়।এবং আমাদের রিলেশন আছে ৫মাসের।

রোদ-তুমি এটা করতে পারো না রাগিনী।

শিমু-আমি কতবার বলবো আমি রাগিনী না।আপনি ভুল করছেন।

বলেই শিমু চলে গেলো।রোদ সেখানেই বসে পরলো।রাত প্রায় ১২টায় বাড়ি ফিরলো রোদ।এসেই রোদ জড়িয়ে ধরলো রোদের আম্মুকে।নিজেকে বড্ড অসহায় লাগছে তার।

রোদের আম্মু-কী হয়েছে?

রোদ-আমার রাগিনী আমাকে ভুলে গেছে।ওর ক্রাশ বরকে ভুলে গেছে।

রোদের আম্মু-এত ভাবিস না।

রোদ-ও অন্য একজনকে ভালোবাসে।আমাকে ভালোবাসে না।

রোদের আম্মু-দেখবি ও তোর কাছেই ফিরে আসবে।যা রুমে যা।

রোদ উঠে রুমে আসলো।রাগিনীর ছবির দিকে তাকালো।কত সুন্দর স্মৃতি ছিলো এই রুমটাতে।আর আজকে….
ভেবেই দীর্ঘশ্বাস পেললো রোদ

;

পরেরদিন রিহান আর শিমুকে একসাথে দেখলো রোদ।চোখে পানি চলে আসলো নিজের ভালোবাসা অন্য কারো সাথে দেখে।শিমু রোদের দিকে তাকাতেই দুইজনের চোখাচোখি হতেই মুখ গুড়িয়ে নিলো রোদ।

হঠাৎ করেই শিমু উঠে আসলো।রোদের সামনে এসে বসে রোদের হাত ধরলো।
রোদ অবাক চোখে তাকাতেই শিমু বলে উঠলো——
তুমি আমাকে ভেবেছো আমি রাগিনী।কিন্তু আমার কিছুুই মনে নেই।জানি না অতীত কোনোদিন মনে পরবে কিনা।কিন্তু বাবা আমাকে সেদিন সব বলেছিলো।আমি বিশ্বাস করতে পারি নি সব কিছু।আমি ভাবতেও পারিনি আমার এরকম অতীত থাকতে পারে।বাবা নাকি আমার বাবা না,আমার নাকি মা,বাবা,ভাই সবাই আছে।তার উপর তোমার মত বরও আছে।আমি তোমাকেও বিশ্বাস করতে পারছিলাম না।তাই রিহান দিয়ে ছোট্ট একটা নাটক সাজাইছি।

রোদ-তাহলে তুমি আমাকে বিয়ে করবে।

শিমু-ভাবছি।

রোদ-প্লিজ।

শিমু-আচ্ছা শর্ত আছে।

রোদ-কী?

শিমু-আমাকে রাগিনী বলেই ডাকবে।আর হ্যা আমি না তোমাকে দেখে ক্রাশ খাইছি।তাই অন্য মেয়ের দিকে তাকালে চোখ খুলে মার্বেল খেলবো।

রোদ-আচ্ছা তারপর বলবা তোমার ক্রাশ বর শুধু তোমার।

শিমু-হুমম শুধু আমার।

রোদ-আচ্ছা শুধু তোমার-ই।

;

রোদ উঠে শিমুকে জড়িয়ে ধরলো।শিমুও জড়িয়ে ধরলো রোদকে।
বিয়েটা তাহলে আবারও হয়ে যাক ক্রাশের সাথে।
আপনাদেরও দাওয়াত রইলো।সঠিক সময়ে চলে আসবেন।

সমাপ্ত।

ঈদের শুভেচ্ছা রইলো।ঈদের আগে আর কোনো স্টোরি শুরু করবো না।আর ভুল-ত্রুটি হলে ক্ষমার দৃষ্টিতে দেখবেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here