অদ্ভুত ভালোবাসা পর্ব:-১০

0
627

অদ্ভুত ভালোবাসা পর্ব:-১০
_ অন্না

,
নীরা ওয়াসরুম থেকে বের হয়ে এসে দেখে যে মুনিরা আর নিলয় বিছানায় বসে গল্প করছে,,আর মুনিরা কথায় কথায় নিলয়ের গা এর ওপর ঢুলে ঢুলে পরছে,,,,
,
নীরা:::( এই মেয়েটা এতো অসভ্য কেনো,লজ্জা করে না এভাবে পরপুরুষের গায়ে ঢলে পরতে,, বেহায়া, নির্লজ্য মেয়ে কোথাকার, আর উনাকে দেখো না কেমন ওর সাথে দাতঁ দেখিয়ে গল্প করছে,, লুচু ছেলে একটা) good morning মুনিরা আপু,,,
,
মুনিরা :::: ( বিরক্ত নিয়ে) সেইম হেয়ার,,,
,
নিলয়::::: কিরে রাত এ ঘুম কেমন হলো??
,
নীরা::( কেনো রে ওর ঘুম কেমন হলো তুই যেনে কি করবি)
,
মুনিরা:::: খুব একটা ভালো না রে…
,
নীরা((( আমি বুঝিনা শাকচুন্নি তোর ঘুম কেনো হয় নি)
,
নিলয়:::কেনো ঘুম হয়নি??? আমায় ডাকলে পারতি( নীরাকে শুনিয়ে)
,
নীরা:::)(কেনো রে তোকে কেনো ডাকবে তুই কি ওকে কোলে নিয়ে ঘুম পারিয়ে দিতিস নাকি,,, বেয়াদপ ছেলে)
,
মুনিরা::: তোর কি আমার জন্য আর সময় আছে,,
,
নীরা:::( কেনো রে শাকচুন্নি তোরে টাইম দিতে হবে কেনো রে,, তুই কোন রানী ভিক্টোরিয়া,,)
,
নিলয়:: আরেহ্ বলেই দেখতি,,,
,
নীরা:::( শালা লুচু পোলা,, রাতে আসিস আমার কোলে শোবার জন্য তুলে আছার যদি তোরে আমি না দিছি তো আমার নাম নীরা না হ্)
,
নীরা নিলয়ের মুখের ওপর টাওঢাল টা ছুরে ফেলে হনহন করে রুম থেকে বেরিয়ে যায়,,,
,
মুনিরা::: দেখলি কেমন বেয়াদব মেয়ে,, এত্ত মেয়ে থাকতে তুই একে যে কেনো বিয়ে করতে গেলি,,,কে জানে,,, ,তোর লাগে নি তো,,
,
নিলয়;::: ( তুমি যে আমার মায়াজাল এ আটকে গেছো নীর পাখি দেখি তুমি কেমন করে এ জাল ছিরে বেরিয়ে যাও) নারে লাগেনি,,, তুই যা আমি ফ্রেস হয়ে আসছি,,
,
মুনিরা;;;; আমি থাকি তুই যা,,,, একসাথে যাবো,,
,
নিলয়::: ঠিক আছে,,,
,
,
এদিকে নীরা হনহন করে ড্রয়িং রুমের সোফায় গিয়ে বসে নখ কামড়াতে শুরু করে,,, নীরার রাগ হলে এটাই করে,,,, তিশা নীরাকে দেখে বেশ বুঝতে পারে নীরার এ আচরনের কারন টা কি,,, তিশা মনে মনে ভাবলো নীরাকে আর একটু রাগিয়ে দেওয়া যাক,,,
,
তিশা::: ভাবি good morning
,
নীরা:::; মরনিং
,
তিশা::: ভাই উঠছে ভাবি?
,
নীরা ::: উঠেনি আবার,,, উনার মুনির সাথে রসিয়ে রসিয়ে গল্প করছে,,
,
তিশা:::: তাই বলো,, মৃনিরা আপু আসলেই ভাই সকাল সকাল উঠে তাছারা তো সকাল এ ডেকেও তোলা যায় না,,,
,
নীরা::: তাই?
,
তিশা::: হ্যা তাই তো দেখো আজ দুজন সারাদিন একসাথে থাকবে, ভাইকে কোথাও যাইতে দিবে না,,
,
নীরা:::: থাকাচ্ছি তোমার ভাইকে ওর সাথে,,,,,
,
বলেই নীরা হনহন করে রুমে চলে যায়,, গিয়ে দেখে মুনিরা এখনও বিছানায় বসে আছে, আর নিলয় ওয়াসরুম থেকে বের হচ্ছে,,,, নীরা গিয়ে ওয়্যারড্রপ থেকে ব্ল্যাক শার্ট,সুট,প্যান্ট,টাই বের করে দিয়ে নিলয়কে রেডি হতে বললো অফিসে যাবার জন্য,,,,

,
মুনিরা:::: নিল চল না আজ কোথাও গিয়ে ঘুরে আসি,, আজ কোথায় যাস না,,,
,
নীরা::: না,,, ওর জরুরি কাজ আছে ওকে অফিসে যেতেই হবে,,,, আপনি এখনও দারিয়ে আছেন কেনো???
,
নিলয়’::: না বলছিলাম যে,,,,,
,
নীরা এমন ভাবে নিলয়ের দিকে তাকালো যে নিলয় জামাকাপড় তুলে সুরসুর করে ওয়াসরুমে চলে গেলে,,,
,
নীরা:::: মুনিরা আপু আপনি এখন যান,, ও অফিসে যাবে তো অফিস থেকে এসে আপনার সাথে গল্প করে,,, আর শুনুন এভাবে নক না করে যখন তখন রুমে আসবেন না , এখন নিলয় বিবাহিত,,, সাধারন ম্যানার্স টুকু আপনার থাকা উচিৎ,,,,
,
মুনিরা নীরার কথা শুনে রাগে কটমট করতে করতে রুম থেকে বেরিয়ে গেলো,,, তিশা রুমের বাহিরে থেকে সব দেখে,,,
,
তিশা::: (বাহ্ ভাবি বাহ্ তুমি তো কামাল করে দিচ্ছো,,, এটুকুতেই এমন,,, তাহলে সামনে না জানি আরও কি কি করবে,,, তুমি তোমার রাগকে এমন ভাবেই ধরে রাখো তাহলেই আমার প্ল্যান টা সাকসেস্ হবে,,, হিহিহিহিহি ভবি u are the best)

,
খাবার টেবিলে সবাই নাস্তা করছে,,,
,
নিলয়ের মা::: মুনিরা মা তোমার আম্মু কবে আসবে?
,
মুনিরা::: আসলে দেখতেই পাবেন,, আর আপনার জেনে কি হবে? ,
,
নিলয়ের মা এর মন খারাপ হয়ে গেলো মুনিরার কথা শুনে,,, উনি উঠে গেলেন খাবার ছেরে,, নিলয় ও মুনিরাকে কিছু বলে না,, কারন ও নিজেই এরকম করে,, তিশা নীরার দিকে তাকিয়ে থাকে,,,
,
নীরা::: মুনিরা আপু একটা কথা বলি রাগ করবেন না,, বড়দের সাথে কি করে কথা বলতে হয় আপনি কি সেই শিক্ষা পান নি???
,
মুনিরা::: how dare you?? আমাকে এ কথা বলার সাহস কই পাও,,, যে যেমন তার সাথে তেমন করেই কথা বলতে হয়,,,
,
নিলয়::: নীরা তুমি কি বলছো???
,
নীরা:::: যে আপনার মা এর সাথে এমন ব্যবহার করে আপনি তার হয়ে আমাকে ধম্কাচ্ছেন???
,
নিলয়::: ও তো ভুল কিছু কিছু বলে নি, উনার আমাদের পরিবার সম্পর্কে এত কথা জানতে হবে কেনো???
,
নীরা নিলয়ের সাথে কোনো কথা বলে না,, তিশার হাত ধরে উঠে চলে আসে,,,
,
মুনিরা::: কোন মেয়েকে বিয়ে করছিস তুই যে তোকে সম্মান করে না,, আমি আর এক মুহুর্ত ও এবাড়িতে থাকবো না,,,
,
নিলয়::; তুই রাগ করিস না,, আমি অফিস থেকে এসে নীরাকে বোঝাবো,,, তুই ফুপিকে কিছু বলিস না,, আমি এসে সব দেখছি,,,
,
নিলয় অফিসে চলে গেলো,, আর মুনিরা ওর মা কে ফোনে সব জানিয়ে দিলো,,, এদিকে নিলয়ের মা নিলয়ের কথা শুনে খুবই কষ্ট পায়,,, ও যাই বলুক কিন্তুু বাহিরের লোকের সামনে এই কথা নিলয় বলাতে উনি খুবই কষ্ট পায়,,, এদিকে তিশা রুমে গিয়ে কান্না করতে থাকে,,,
,
নীরা::: এই মেয়ে কাদছো কেনো?? একদম কাদবে না,,, আমি এখনও আছি তো,,, তোমার ভাইকে তোমাদের কাছে ফিরিয়ে দিবো আমি,,, আমার ওপর বিশ্বাস রাখো,,,
,
তিশা::: আমার একদম সহ্য হয় না মামুনির সাথে কেউ এমন ব্যবহার করলে,,, কিন্তুু আমার তো করার কিছুই নাই,,
,
নীরা :::; টেনশন করো না,,, আমি আছি,,, এখন চলো তো কোথাও গিয়ে ঘুরে আসি,,, চলো আমার কলেজে যাই,,, যাও রেডি হয়ে নাও,,,,,,,
,

নীরা আর তিশা রেডি হয়ে বেরিয়ে যায়,,, আর মুনিরা নিলয়কে ফোন দিয়ে বলে যে নীরা খুব সেজে গুজে বাহিরে গেছে,,, নিলয় তো শুনেই অফিস থেকে বেরিয়ে পরে…..

,
নীরা আজ নীল রংয়ের সালোয়ার পরছে,, নীল রং এর চুরি, কালো টিপ আর হালকা লিপস্টিক,,,
,
তিশা::: ভাবি তোমাকে যা লাগছে না আমি নিজেই প্রেমে পরছি আর ছেলেগুলার ই বা কি দোষ বলো এভাবে তাকিয়ে না থেকে যাবে কোথায়???
,
নীরা::: তোমার ভাই থাকলে সব গুলার ঘার মটকে দিতো,,, দেখো দেখো আমার জন্য কতো ছেলে লাইন দেবার জন্য দাড়িয়ে আছে,,,আর আমি কার ঘাড়ে ঝুললাম,,, ওই গুন্ডাটার গলায়,,, :-/
.
তিশা::: তাই নাকি আমার ভাই কি ফেলনা নাকি,,, তুরি মারলেই মেয়ের লাইন লেগে যাবে,,, উধাহরন সরুপ মুনিরা আপু,,,

,
নীরা::: তুমি থামবে নাকি বাসায় চলে যাবো??
,
তিশা::: আরে না না না চলো চলো,, কিন্তুু যাই বলো ভাবি মুনিরা আপু ভাইকে খুবই ভালোবাসে মনে হয়,,, তুমি চলে গেলে ও ভাইকে খুব যত্নেই রাখবে,,,
,
নীরা কিছু বলতে যাবে ঠিক তখনই একটা ছেলে নীরার সামনে হাটু গেরে বসে পরে,, তারপর এক গুচ্ছ লাল গোলাপ এগিয়ে দিয়ে প্রপজ করে বসে,,, নীরা কিছু বলতে যাবে ঠিক তখনই ছেলেটার পিছে নিলয় এসে দাড়ায়,, নিলয়কে দেখে নীরা আর তিশা দুজনেই ভয় পেয়ে যায়,,, নীরা ভালোভাবেই বুঝতে পারে ছেলেটির কপালে দুঃখ আছে,,, নীরা তাই পরিবেশ বাচাতে চেষ্টা করলো,,,
,
নীরা::: আরে ভাইয়া কি করছেন কি উঠেন,,, আমি বিবাহিত ভাই আর এইটা আমার ননদ,,,
,
তিশা::: হ্যা ভাইয়া এটা আমার ভাবি,, আপনি যান না এখান থেকে,,,
,
ছেলেটি নীরার কথা শুনে আফসোস করে বলে চলে যেতে গগিয়ে আবার ফিরে এসে নীরাকে ফুল গুলো নিতে সেই রকম জোরাজুরি করতে লাগলো,,, নীরা কিছু না ভেবেই ফুল গুলো হাত এ নিলো,,, আর নিলয় নীরার গালে আচমকাই এসে ঠাস করে ঠাপ্পর মেরে হনহন করে টেনে নিয়ে গাড়িতে বসিয়ে দেয়,,,,, ,
,
তিশা::: (হায় আল্লাহ ভাবি তো আজ শেষ,, কে বাচাবে আজ ভাবিকে,,, কেনো জে কলেজে আসতে গেলাম কে জানে,, আর কেনো যে ভাবি ফুল গুলো হাত এ নিতে গেলো কে জানে,, এখন কি হবে)))

,
নীরা:::( ভাব দেখানো হচ্ছে আমি যা ইচ্ছা করি তোর কি রে,, আমি কি তোর মতো কাউকে জরিয়ে ধরছি হ্যা,,ব্যাটা খচ্চর,,, আমার গালটা কি সরকারি পেয়েছে যে যখন তখন মারবে,,, কিন্তুু যেভাবে আছে মনে হচ্ছে আমার কপালে দুঃখই আছে,,,, আল্লাহু বাচাও আমায়,,,,)
,
নিলয় গাড়ি থামিয়েই নীরাকে নামিয়ে টেনে রুমের দিকে নিয়ে যেতে শুরু করে,,,, মুনিরা নীরাকে ওভাবে টানতে দেখেই নিলয়ের সামনে এসে দাড়ায়,,,
,
মুনিরা::: নিল তুই ওভাবে ওকে টানছিস কেনো?? ওর হাত ছার,,
,
নিলয়’::: এখন আমার সামনে থেকে সর প্লিজ আমার মাথা গরম আছে,,,
,
মুনিরা::: মাথার কি দোষ বল যে মেয়েকে বিয়ে করছিস মাথা তো গরম থাকবেই,,, তুই আমার সাথে চল তোর মন ভালো করে দিবো,,,
,
নীরা::::হ্যা হ্যা মুনিরা আপু ওকে আপনার সাথে নিয়ে যান,আমার ওনেক কাজ আছে, আমি বরং যাই,,,
,
কিন্তুু নিলয় হাত ছারে না,,, আরো শক্ত করে হাত ধরে রাখে,,,
,
তিশা::::ছারনা ভাই, ভুল হয়ে গেছে,, তোকে না বলে আর কোথাও যাবো না আমরা,,,
,
নীরা::: কেনো যাবো না,, একশ বার জাবো হাজার বার জাবো,,, উনি বলার কে, আর আমাদের তো কোনো ভুল হয়নি,, এত্ত সুন্দরী মেয়ে আমি ছেলেরা তো প্রপেজ করতেই পারে,,, আমি কি আর কারো কোলে গগিয়ে বসেছি নাকি যে ভুল হবে,, ,,,,,,,,,,,,,,,,,,
,
নিলয় এবার নীরাকে সবার সামনে কোলে তুলে নিয়ে রুমে দাড় করিয়ে রুম লক করে দেয়,,, নীরা সাহস নিয়েই বললো,,,
,
নীরা;::: আচ্ছা আমি কি কারো সাথে ডেট এ গেছি???নাকি কারো সাথে,,,,,,,,,,,,,,,,
,
নিলয়::: তোমার সাহস কি করে হয় এসব কথা বলার?কার হুকুম নিয়ে তুমি সেজে বের হইছো,,,?
,
নীরা :::: আমার লাইফ আমি যা ইচ্ছা করতে পারি,, আপনার কি??

,
নিলয় ওর সুট আর সুট টা খুলে বিছানায় ছুরে ফেললো,,, তারপর শার্ট এর হাত এর বোতাম খুলে জরাতে শুরু করলো,, নীরা এ দেখে আর একটা কথাও বললো না,,,
,
নিলয়::: হু কি বলছিলে যেনো??
,
নীরা::: আ,,,,,প,,,,,নি এভাবে এগিয়ে আসছেন কেনো???
,
নিলয়::: তুমি এভাবে পিছাচ্ছো কেনো,,, প্রশ্নের উত্তর নিবানা,,
,
নীরা:::; ন,, না,,, আমার কোনো প্রশ্নের উত্তর লাগবেনা,,
,
নীরা পিছাতে পিছাতে দেওয়ালের সাথে ঠেকে যায়,,,নিলয় নীরার মুখের কাছে চলে যায়,,, খুব কাছে, নীরার মুখের ওপর নিলয়ের নিঃশাস গিয়ে পরছে
,
নিলয় ::: তোমাকে না বারন করছিলাম লিপস্টিক দিবা না, আমি নিজেকে কন্ট্রল করতে পারি না ( ঘোর লাগা কন্ঠে)
,
নীরা ::: আ,,,,,আমি তো,,,,
,
নীরার কথা শেষ করতে পারে না তার আগেই নিলয় নীরার ঠোটে নিজের ঠোট টা ডুবিয়ে দিবে সেই সময়েই মুনিরা দরজা জোরে জোরে ধাক্কাতে শুরু করে,,, নিলয়ের ঘোর টা কেটে যায়,, নীরা তারাতারি গিয়ে দরজা খুলে দেয়,,, আর মুনিরা নীরার দিকে তাকিয়েই নিলয়ের হাত ধরে টানতে টানতে রুম থেকে বের করে নিয়ে যায়,,,নীরা নিলয়ের জাবার দিকে তাকিয়ে থাকে,,,
,
নিলয়::; কি হইছে এভাবে টানছিস কেনো??
,
মুনিরা::: তুই আগের মতো নাই অনেক পাল্টে গেছিস,,, আমাকে আর আগের মতো ভালো বাসিস না,,,
,
নিলয়::: কে বললো তোকে এসব কথা, আমি এখনও আগের মতই আছি,,, তুই বুঝতে ভুল করছিস পাগলি,,,,
,
,
মুনিরা:::: মোটেই না,,, তুই আমায় আগের মতো কেয়ার করিস না,,, সময় ও দিস না,,, সব সময় নীরার সাথেই থাকিস,, জানিস নীরা আমায় কি বলছে???
,
নিলয়::: কি বলছে???
,
মুনিরা::;; আমায় সবসময় তোর ঘরে যাইতে বারন করছে,,, তোর থেকে দুরে থাকতে বলছে, আর যত তারাতারি এ বাসা থেকে চলে যেতে বলছে ( ন্যাকাকান্না করে)
,
নিলয়::: সত্তি ও এসব বলছে??
,
মুনিরা ;:::; নয়তো আমি কি মিথ্যা বলছি??? আমি কালকেই এ বাসা থেকে চলে যাবো এভাবে আর অপমানিত হতে পারবো না,,,,

,
নিলয় ::; কাদিস না চল আমার সাথে,,,
,
মুনিরা :;;; কোথায়???
,
নিলয়::;; নীরা,,,,, নীরা,,,,
,
নীরা :::: কি??
,
নিলয়:::; মুনিরার কাছ থেকে মাফ চাও
,
নীরা::: কেনো??
,
নিলয় :::; তুমি ওর সাথে মিস বিহেব করছো তাই,
,
নীরা::: আমি কোনো মিস বিহেব করি নাা,,,
,
মুনিরা::: থাক না নিল,,,আমি কাল চলে যাবো,,
,
নিলয়:;; তুই কেনো যাবি,,, নীরা ওর কাছে মাফ চাও,, তুমি ওকে আজ রুমে যেসব কথা বলছো সেসব কথা তোমার বলা উচিৎ হয় নি তুমি ওর কাছে sorry বলো,,,
,
নীরা ::: কেনো সরি বলবো? আপনার মুনিরার বোঝা উচিৎ যে আপনি এখন বিবাহিত,,, আমি থাকি সেই রুমে, যখন তখন নক না করে রুমে ঢোকা টা উচিৎ না,,,
,
নিলয়:::: আমি কোনো কথা শুনতে চাই না তুমি সরি বলো ব্যস,,,
,
নীরা:::: সরি মুনিরা আপি,,, আমার ভুল হয়ে গেছে,,,, আমি আমার লিমিট টা ক্রস করে ফেলছি, আসলে আমার তো এখানে কোন জিনিস বা কারো ওপর অধিকার নাই,, নিলয় আপনার আর ওর রুম টাও আপনার আপনি যখন তখন ওর রুমে আসতে পারেন,, , ভুল বসতো আপনাকে অনেক কথা বলছি আমাকে মাফ করে দিবেন,,,

 

গল্প পোকা মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন =>

 

 

 

 

,
সবাই নীরার দিকে তাকিয়ে আছে ,,, নীরার কথা শুনে সবাই চুপ হয়ে গেলো এমনকি নিলয় ও,,,
,
বলেই নীরা নিরবে ওখানে থেকে চলে আসলো,,,
,
তিশা::: ভাই কাজটা তুই মোটেই ভালো করলি না, ভাবি অনেক কষ্ট পেয়েছে
,
মুনিরা::: আমার জন্য তোদের মধ্যে ঝগড়া হোক আমি চাইনা নিল,,,,,, আমি কাল চলে যাবো,,,
,
নিলয়::: আহ্ মুনি বার বার এক কথা বলিস না সরি বললো তো ও তোকে,,, তার পরো কেনো এই কথা বলছিস? যা রুমে যা,,,
,
নিলয়ের ফোনে ফোন আসলো অফিস থেকে আর নিলয় বেরিয়ে গেলো,,,, নীরা রুমে এসে ইচ্ছা মতো কান্না করতে থাকে,,,
,
তিশা:::: ভাবি কেদোনা,,, শাচুন্নিটা তোমার গুন্ডাকে নিজের বসে করে নিচ্ছে এখনও সময় আসে নিজের জিনিস নিজের করে নাও নয়তো কেউ নিয়ে চলে যাবে,,, চলো মামুনি ডাকছে,,,,
,
নীরা::: তুমি জাও আমি আসছি,,,,
,
নীরা চোখে মুখে পানির ছিটা দিয়ে এসে নিলয়ের মা এর রুমে যায়,,,
,
নীরা:::: মামুনি আসবো??
,
নিলয়ের মা :::: আয় মা,, আমি খুব খুসি তুই আমাকে মামুনি বলছিস,,,
,
নীরা:::: না,,, আসলে,,,,
,
নিলয়ের মা::: থাক কিছু বলতে হবে না ,, তোর সাথে কিছু কথা আছে আয় বস,,,
,নীরা গিয়ে সোফায় বসে পরে,,, তিশাও এসে বসে,,,,
,
নিলয়ের মা:::: আজকে নিলয় যেটা করলো এতে নিলয়ের কোনো দোষ নাই মা, সব মুনিরার সাজানো চক্রান্ত মিষ্টি কথায় নিলয়কে দিয়ে এসব করাচ্ছে,,, আজ তোকে কিছু কথা বলি,,, মুনিরার মা মানে তোদের ফুপি আমার সাথে ঠিক এমনই করে নিলয়কে আমার কাছ থেকে দুরে সরাইছে,,, আজ মুনিরা আবার এমন করে নীরাকে নিলয়ের কাছ থেকে সরাবে,,,

,
নীরা’:::: এমনটা করে ওদের লাভ কি???
,
নিলয়ের মা :::: বললে তোরা বিশ্বাস করবি না তোদের ফুপি নিলয়কে তার হাতে রাখছে,,, আমাদের কিছু সম্পত্তি বাদে প্রায় সব সম্পত্তি নিলয়ের নামে আছে,,,আর মুনিরার মা এর ইচ্ছে মুনিরার সাথে বিয়ে দিয়ে নিলয়ের বাবার সব সম্পত্তি নিজের নামে করে নিবে,,, আমি উনার প্ল্যান টা জানতাম তাই আমার কাছ থেকে নিলয়কে দুরে সরিয়ে দিছে,,, নিলয় তো ওর ফুপির কথায় উঠে আর বসে,,, তোরা জানিস তোদের ফুপি যে কেমন তা তোদের বাবাও জানে,,,
,
নীরা ::: আংকেল জানেন তো কিছু বলে না কেনো???
,
নিলয়ের মা::;; ও প্রতিবাদ করেছিলো কিন্তুু কোনো লাভ হয়নি বরং নিলয় ওর বাবার কাছ থেকে দুরে সরে গেছে,,, প্রতিবাদ করলে নিজের ছেলে হারাতে হবে,,, তাই কিছু বলে না,,, মা তুই পারিস আমার সংসার টা বাচাতে,,, ও তোর কথা শোনে কিছু একটা কর,,,,
,
নীরা কিছু না বলে বাগানে চলে আসে বাগানের দোলনায় বসে দুলতে দুলতে অনেক ভাবে,,,,
,
এদিকে নিলয়ের আসতে রাত ৮ টা বেজে যায়, এসে রুমে নীরাকে না দেখে মনে মনে ভাবে যে হয়তো তিশার কাছে আছে,,, ফ্রেস হয়ে এসে অনেক ক্ষন বসে থাকার পরও নীরা আসে না,,, নিলয়ের চিন্তা বেরে যায়,,, ও উঠে রুম থেকে বেরুতে থাকে তখন মুনিরা এসে নিলয়ের সাথে গল্প করবে বলে নিলয়ের হাত টেনে ধরে,,,
,
নিলয়::: আহ্ মুনিরা সব সময় ভালো লাগেনা,,, সর আমার কাজ আছে,,,
,
বলেই চলে আসে তিশার রুমে,,,
,
তিশা:: ভাই ভাবি কই,,কি করছে? দুপুরে তো খায় নাই,,,, আমার পরা ছিলো তাই বিকাল থেকে যাইতে পারি নাই,,,,
,
নিলয়’:::: মানে কি ও এখানে নাই রুমে নাই গেলো কই? আমি কখন থেকে বসে আছি ওর জন্য,,,
,
তিশা:::: বলিস কি,,,তুই খুসি তো??? মুনিরা আপু জানে তো??? যা তুই মুনিরা আপুর কাছে যা,,, ভাবি যেখানে যায় যাক তোর চিন্তা করতে হবে না,,,,
,
বলেই তিশা মানুমি মামুনি বলে দৌরে ওর মা এর কাছে আসে,,,
,
তিশা::: মামুনি ভাবি কে দেখছো???
,
নিলয়ের মা:::: না তো কেনো কি হয়েছে???
,
তিশা:::: ভাবিকে খুজে পাওয়া যাচ্ছে না,,,
,
নিলয়ের মা :::: হায় আল্লাহ্ কি বলিস,, পুরা বারিতে খুজেছিস,কই গেলো মেয়েটা???
,
তিশা:::: জাবেনা? ঠিক করেছে তোমার ছেলের কাছে কেউ থাকতে পারবে না,,,,,
,
এর মধ্যে নিলয়ের বাবাও আসে,, সব কথা শুনে উনিও নীরাকে খুজতে বের হয়,,,, রাত ১১ টা নিলয় আর ওর বাবা চারদিক খুজে বাড়িতে এসে ইচ্ছা মতো সবাইকে বকছে,,, এর মধ্যে নিলয়ের ফোনে কেউ ফোন দিয়ে রোড এক্সিডেন্ট এর কথা বলে,,, আর একটি মেয়ে নাকি মারা গেছে মেয়েটার গায়ে নাকি নিল রংয়ের সালোয়ার ছিলো,, সেটা শুনে নিলয় ফ্লোরে ধপ করে বসে নীরা বলে চিৎকার করে উঠে,,,,,
,
continue ♥♥♥

প্রিয় পাঠক আপনারা যদি আমাদের (গল্প পোকা ডট কম ) ওয়েব সাইটের অ্যাপ্লিকেশনটি এখনো ডাউনলোড না করে থাকেন তাহলে নিচে দেওয়া লিংকে ক্লিক করে এখনি গল্প পোকা মোবাইল অ্যাপসটি ডাউনলোড করুন  ??????

https://play.google.com/store/apps/details?id=com.golpopoka.android

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here