Love_At_1st_Sight_$2 Part – 3

0
680

Love_At_1st_Sight_$2
Part – 3
writer-Jubaida Sobti
স্নেহা ও ব্লাশিং হতে হতে চলে গেলো…?
হঠাৎ স্নেহারর সামনে এসে পথ আটকায় নেহা..
স্নেহা : heyy?? কি খবর তোমার?.. কি ব্যাপার বলো তো হঠাৎ?
নেহা : তুই থেকে তুমি?..woW good job…i like it…
স্নেহা : না আসলে!?
নেহা : Shut-up let me finished! ?
স্নেহা :??
নেহা : তোমার মতো মেয়েদের কি আমি চিনি না মনে করেছো..?তাই না?
nd listen তুমি যেটা চাইছো সেটা কখনোই সম্ভব নাহ!.. আর তোমার মতো তো রাহুলের জন্য কতো মেয়েই পাগল…
but he is only mine?
স্নেহা : So what!??
নেহা : So what! মানে?..? রাহুলের আশেপাশে ঘুরঘুর করা বন্ধ করো..নাহলে!
স্নেহা : [আঙুল তুলে] হেই…চুপ!?
নেহা : ??
স্নেহা : ?নাহলে কি?… হুম! বল?…কি করবি?..
ডং এর আর শেষ নেই…??নিজেকে মিস্ ইউনিভার্স মনে করিস তাই না?..চেহেরা দেখলেই মন চায় দুই-চারটা বসিয়ে দেই… এতোই যখন দরদ রাহুলের জন্য তাহলে… গিয়ে ওকে ফিটার খাইয়ে ঘুম পারিয়ে দে…নাহলে আবার হলিগলি থেকে মানুষ এসে উঠিয়ে নিয়ে যাবে…
নেহা : What is হলিগলি?..?
স্নেহা : ভার্সেটিতে পড়তে আসছে আর এখনো হলিগলি ছিনেনা…?? থাক তোমার চেনা লাগবে না…
নেহা : [রাগান্বিত ভাবে] Stupid ?
স্নেহা : You too ?
নেহা রেগে আগুন হয়ে চলে যায় আর স্নেহা হাসতে থাকে…?? এই মিস্ ইউনিভার্সকে জুলাইতে অনেক মজা লাগে..
[After Class]
মার্জান : স্নেহা! কি বলছিলি রাহুকে?..? স্যার তোদের দুজনকে তো একসাথে ডেটিং করতে পাঠিয়েছিলো..
স্নেহা : হে..ডেটিং করেই এসেছি..কিন্তু ঐ নেহা বেচারির জন্য আফসোস হচ্ছে..?? বেচারিকে অনেক কথা শুনিয়ে দিলাম…নিশ্চয় এতোক্ষণে রাহুলকে আমার নামে অনেক কিছু বুঝিয়ে দিয়েছে?
জারিফা : স্নেহা! ?তুই নেহাকে চিনিসনা..ও যেমন দেখতে তেমন মোটেও নয়…অনেক ডেঞ্জারাস একটা মেয়ে…
স্নেহা : আরে ধুর…ওর চেয়ে বড় ডেঞ্জারাস আমি…ও আবার কি করবে আমাকে…
জারিফা : বলা যায় না! আমরা তো যতো পারি ততোই ওদের গ্রুপ থেকে আলাদা থাকার চেষ্টা করি…?
ওর গ্রুপটা ছেলেদের চেয়েও অনেক খারাপ…মেয়ে হয়েও সহজসরল মেয়েদের রেগিং করে,
স্নেহা : এসব ঐ রাহুল জানে না?..?
মার্জান : সব জানে…ঐ যে রুপের বাহাদুর… আর নয়তো ওর মতো মেয়েকে কে গণে…
শায়লা : By the way…স্নেহা রাহুল আর তোর জুটিটা কিন্তু পার্ফেক্টই মানাবে ঐ নেহার চেয়ে… ?
দেখ আমি তো তোদের কাপল নেইম ও ভেবে ফেলেছি… ?
রাহুল + স্নেহা = রাস্নেহা কেমন লাগলো বল?…
স্নেহা : সুপার ডুপার…???
মার্জান : যার বিয়ে তার খবর নেই… পাড়া পড়সির ঘুম নেই…? তোর ও একই অবস্থা স্নেহা..
স্নেহা : রোমান্টিক মুডে আছি..বুঝেছিস..?খারাপ করিস না মুডটা…
শায়লা : আচ্ছা চলনা কোথাও খেতে যায়…ক্লাস করতে ভালো লাগছে না?
স্নেহা : ফুচকা?..?
শায়লা : ওকে ডান..?
মার্জান : ওহ মাই গড ফুচকা??…চল চল…দেরী করছিস কেনো..
স্নেহা তার ফ্রেন্ডসদের নিয়ে বেড়িয়ে পড়ে… ফুচকা খেতে…
খেয়ে বাস্ করে হোষ্টেলে ফিরে যায়…
বিকেলে স্নেহা মোবাইল হাতে নিয়ে বসে..
ফেসবুকে ঢুকতেই দেখে…রাহুল আর নেহার কাপল পিক… ? just now আপলোড করেছে… স্নেহা একটা এংগ্রি? রিয়েক্ট বসিয়ে দিলো…
রাহুলের ফোটো এলভামে ঢুকে দেখতে পেলো.. নেহা আর রাহুলের চুম্বক লাগানো ফোটোর অভাব নেই… স্নেহার মাথা ১০০ডিগ্রী সেলসিয়াসে হাইপার হয়ে যাচ্ছে..??
পরে চ্যাটলিষ্ট চেক করে দেখে রাহুল অনলাইনে…
স্নেহা : ঐ হিরো!
রাহুল seen but no reply
স্নেহা : কি হলো Answer দিতে কি গা জলে?..?
রাহুল seen but no reply
স্নেহা : ঐ পেত্নির সাথে চ্যাট করছো তাই না?..
রাহুল : just shut-up she is more beautiful then you..understand?
স্নেহা : হি-হি ? তোমার রুচির তুলনাই হয় না…?
রাহুল : get lost!
স্নেহা : you too?
ফেসবুক থেকে বেরিয়ে পড়লো স্নেহা…মুখ ফুলিয়ে বসে আছে..
মার্জান : কি হলো আবার?..? মুর্তি হয়ে আছিস কেনো?..
স্নেহা : কি আর হবে?..ঐ রাহুলটাকে এতো করে পটাচ্ছি কোনো ভাবেই পটছে না…??
মার্জান : আগেই বলেছিলাম! পটার মতো ছেলে না..?
স্নেহা : কিন্তু আমিও এতো সহজে হার মানছি না! কাল গিয়েনি ভার্সেটি আচ্ছা মজা শিখাবো…?
মার্জান : আচ্ছা শোন টিউশন দেখতে বলেছিলি না? একটা পেয়েছি..তুই কি করবি?…
স্নেহা : করলে তো ভালোই হয়…বাড়তি ইনকামটাও হয়ে যাবে!
মার্জান : তুই তো ভালো ডান্স পারিস..স্কুলে সব সময়…প্রথম পুরস্কার তুই নিতি ডান্সে… So করে দেখ…
স্নেহা : কোথায় গিয়ে করতে হবে?…
মার্জান : এইতো.. ভার্সেটি যাওয়ার সময় বাস্ থেকে যে সুন্দর বাড়ীটি দেখেছিলি..ওটাই..
স্নেহা : ওকে তাহলে করতে পারি..?
মার্জান : কাল উইকেন্ড আছে গিয়ে দেখে আসিস…
স্নেহা : [ মার্জানকে ঝড়িয়ে ] ওকে ডিয়ার…?
সকালে উঠে স্নেহা ফ্রেশ হয়ে…ফেসবুকে ঢুকে…
স্নেহা : Good Morning?
রাহুল : দেখো আমাকে বার বার টেক্সট করবা তো ব্লক দিবো..
স্নেহা : আহা! আর আমি চেয়ে থাকবো তাই না..? ব্লক দিবা তো তোমাকে দুনিয়া থেকে ব্লক করে দিবো…
রাহুল : You are such a shameless girl…
স্নেহা : আচ্ছা এতো পার্ট দেখাও কেনো?..সাভাবিক ভাবে কথা বলতে পারো না?..
রাহুল : No Need!
স্নেহা : Disgusting?
স্নেহা রেগে ফেসবুক থেকে বেরিয়ে পড়ে..? আর সজ্য হচ্ছে না এতো অবিচার..
গিয়ে রেডি হয়েনে টিউশনে যাবে বলে!…
মার্জান : শোন! তুই যেতে পারবি একা?..
স্নেহা : হে পারবো Don’t worry!?
মার্জান : ওকে Bye! খেয়াল রাখিস!
স্নেহা গিয়ে পৌছালো,
বাড়ীটি ক্রস করেই প্রতিদিন..ভার্সেটি যাওয়া হয়..স্নেহা ভেবেছিলো..বাইরে এতো সুন্দর ? ভেতরে কেমন হবে আল্লাহ জানে! ইশ কখনো যদি দেখতে পেতাম..আজ ফাইনালি বাড়ীটিতেই ঢুকতে যাবে স্নেহা!
গেইড দিয়ে ঢুকতেই দাড়োয়ান সালাম দিয়ে স্নেহাকে তার পরিচয় জানতে চায়…স্নেহা তার পরিচয় দিলে তাকে ঢুকতে দেই!
বাড়ীর ভেতরে ঢুকতেই স্নেহার মনে হচ্ছে যেনো…কোনো এক প্রাসাদে ঢুকছে…মনে মনে ভাবতে লাগলো স্নেহা এতো বিশাল বড় বাড়ী… বাব্বা! বাইরে থেকে তো ভেতরে দেখতে আরো অদ্ভুত ?
হঠাৎ স্নেহার মনে পড়লো সে তো বাইরে থেকে নক না করেই ভেতরে ঢুকে পড়েছে…?
হঠাৎ একজন মহিলা পিছন থেকে ডাক দিলো কে বলে?..
স্নেহা ফিরে তাকাতেই দেখে..মধ্যবয়সী একটি মেয়ে…চেহেরায় অনেক মায়া রয়েছে…
স্নেহা : সরি! আসলে আমি না বলেই ঢুকে পড়েছি… আসলে আমি টিউশন দিতে এসেছি… i mean teacher? dance teacher..
মেয়েটি : ও হে! it’s ok…?আমার মেয়ের জন্যই বলা হয়েছে আপনাকে..আসুন…
স্নেহা মেয়েটির পিছন পিছন যায়, স্নেহাকে একটি বড় ড্রইং রুমে বসতে দেই…
স্নেহা চারদিক শুধু চেয়ে যাচ্ছে…এতো অদ্ভুত করার মতো ঘর..?
হঠাৎ একটি পিচ্ছি মেয়ে এগিয়ে আসে স্নেহার দিকে,
মেয়েটি : হ্যালো টিচার?
স্নেহা : হ্যালো!..কি নাম তোমার..?
মেয়েটি : ফাবিহা?
স্নেহা : How cute! name…?
হঠাৎ,মেয়েটির মা ও এগিয়ে আসে..
মেয়েটির মা : আমার নাম…সিফা তুমি আমাকে সিফা বলে ডাকতে পারো! আর আমার মেয়ে ফাবিহা! ওর ডান্সের অনেক শখ.. স্কুল প্রতিযোগীতায় দু-বার 1st হয়েছে…? ৩মাস পর বড় একটি ডান্স প্রোগ্রাম আছে… এতে অনেকেই participate করছে…তাই ভাবছি এই তিনমাসে যদি আরেকটু ভালো প্রেকটিস্ করতে…পারে তাহলে হয়তো ওর জন্য ভালো হবে!…
স্নেহা : Don’t worry আমি ফাবিহাকে এমন ডান্স শেখাবো… দেখবেন ফাবিহা 1st prize নিয়ে আসবে?
সিফা : আচ্ছা তুমি ফাবিহার সাথে বসো আমি তোমার জন্য কফি নিয়ে আসি!?
এই বলে ওনি চলে যায়,
স্নেহা ফাবিহার সাথে বসে অনেক্ষণ গল্প করে…
[হঠাৎ শিরির দিকে তাকাতেই স্নেহা Shocked হয়ে যায়?]
কাধে সাধা তাওয়েল ঝুলিয়ে ভেজা চুল হাত দিয়ে ঝেড়ে ঝেড়ে….নামছে রাহুল?
[Sneha’s heart beating fast?]
রাহুল হঠাৎ স্নেহাকে দেখে দাঁড়িয়ে পড়লো?
রাহুল : [স্নেহার কাছে] ঐ তুমি এইখানে কি করছো?…?? আমার পিছন নিতে নিতে বাড়ী পর্যন্ত পৌছে গিয়েছো তাই না..?
স্নেহা : ???ফাবিহা! আমাকে একটা চিমটি কাটো!
আমি কি সপ্ন দেখছি????
রাহুল স্নেহাকে জোড়ে একটি চিমটি দিলো…
স্নেহা : আআহ!?
রাহুল : [রেগে]তোমার এসব ড্রামা বন্ধ করো বুঝলে…?এইখানে কেনো এসেছো বলো?
সিফা : আরে রাহুল!? কি হলো?..
রাহুল : ভাবী ওকে এইখানে কে আসতে দিয়েছে?..?
সিফা : [রাহুলে কাছে গিয়ে ফিসফিস করে] কি করছিস রাহুল ওনি ফাবিহার ডান্সটিচার…আর এইভাবে মিসবিহেভ করে নাকি মানুষের সাথে…?
রাহুল : ডান্সটিচার??!
স্নেহা : yes! i m?
রাহুল : ? Again dramabazz..
রাহুল রেগে চলে গেলো.. আর স্নেহা হাসতে থাকে…?
সিফা : সরি! আসলে ও এমনি!? তোমাকে চিনতে ভুল করেছিলো হয়তো…
স্নেহা : আরে নাহ! আমি কিছু মনে করিনি…ও প্রতিদিনই আমার সাথে এমন করে…
সিফা : মানে?..?
স্নেহা : মানে আমি আর রাহুল Same ভার্সেটিতেই পরি…
সিফা : ওহ তাই?…আগে বলোনি কেনো?…আমি তো জানতামি না…
স্নেহা : আচ্ছা রাহুল আপনার কি হয়?..
সিফা : রাহুল আমার একমাত্র দেবর!?.
ফাবিহা : মাম্মা, আমি আমার ফ্রেন্ডসদের আসতে বলি…ওদের আমি আমার নিউ টিচারকে দেখাবো…?
সিফা : No! মাম্মা… আজই তো এসেছে টিচার…কাল থেকে স্টার্ট করো ওকে..?
স্নেহা : it’s ok… no problem.. আমিও একটু দেখতে চাই ফাবিহার ফ্রেন্ডসদের.. কি বলো ফাবিহা?.. ?
ফাবিহা : ইয়ে?…থেংক ইউ টিচার..
ফাবিহা খুশি হয়ে দৌড়ে চলে গেলো তার ফ্রেন্ডসদের ডাকতে…স্নেহা আর সিফা হাসতে লাগলো…
সিফা : অনেক দুষ্টু ফাবিহা! তোমার মাথা খেয়ে ফেলবে…??
স্নেহা : তাই…??
সিফা : আচ্ছা তোমার নামটাই তো জানা হলো না?
স্নেহা : জি আমার নাম স্নেহা?
সিফা : তোমার মতোই কিউট নামটা ?জানো বাড়ীতে সারাদিন একা থাকি…অনেক বোরিং লাগে!
স্নেহা : ? আচ্ছা! আপনাদের বাড়িতে আর কেউ নেই?..
সিফা : ফাবিহার বাবা অফিসে গেছে!..আর আমার দাদী শাশুড়ি আছে..রুমের মধ্যেই আরাম করছে হয়তো আর রাহুলকে তো দেখেছো…ভার্সেটি থেকে এসে রুম…আর বন্ধুদের সাথে আড্ডা…এসবি ওর কাজ…বাড়িতে কি হচ্ছে না হচ্ছে ওর কোনো খবর নেই…
স্নেহা : এই রুমের মধ্যে বসে সারাক্ষণ কি করে..
সিফা : ঐ যে ওর বউ একটা আছে না..ওটা নিয়ে সারাক্ষণ পড়ে থাকে..?
[স্নেহার মনে হলো তার ধম আটকে গেলো.. ?]
স্নেহা : বউ মানে?..??
সিফা : আরে…ওর গিটারের কথা বলছি..! সারাক্ষণ ওটা নিয়ে পড়ে থাকে…??
স্নেহা : [বড় একটি নিশাস ফেলে] ওহ! ? আমি আরো কি ভাবছিলাম…
সিফা : আচ্ছা রাহুল তোমার সাথে এমন রিয়েক্ট কেনো করলো…যেনো তোমাকে ও চিনেই না..?
স্নেহা : ও! হে…আসলে আমাদের মধ্যে একটু ঝগড়া হয়েছে… তাই ও..?
সিফা : ও আচ্ছা! বুঝতে পেরেছি…
[হঠাৎ, একজন কাজের লোক এসে সিফাকে বলতে লাগলো তাকে দাদী ডাকছে]
সিফা : আচ্ছা স্নেহা! ফাবিহা আসতে আসতে! তুমি..রাহুলের সাথে গল্প করো…আমি একটু দাদীর সাথে দেখা করে আসছি..ওনার ওষুধের সময় হয়ে গিয়েছে তো তাই…
আমি রাহুলকে পাঠাচ্ছি তুমি বসো?
স্নেহা : ওকে ওকে…No problem! রাহুলকে পাঠাতে হবে না..ওর রুম কোনটা বললেই হবে.. i mean ওর রুমটাও দেখা হয়ে যাবে…
সিফা : ওকে ঠিকাছে! উপরে উঠে..লেফট সাইডের রুমটা রাহুলের..?
স্নেহা : থেংক ইউ?
সিফা চলে যায়, আর স্নেহা ধীরেধীরে উপরে উঠে…আর মনে মনে ভাবতে লাগলো..
[ কি না কপাল…কোথার থেকে কোথায় মিলিয়ে দিলো আল্লাহ…? মিষ্টার হেন্ডসামের বাড়িতেই আমি ওয়াও ভাবতেই অবাক লাগছে ]
[স্নেহা ধীরেধীরে লেফট সাইডের রুমের সামনে গিয়ে উপস্থিত হলো ]
[কেমন যেনো বুকটা ধুপধুপ করছে স্নেহার ??]
কানে গিটারের সফটেট..মিউজিকের শব্দ শুনতে পেলো ?…রুমের দরজাটা লাগানো… গিটারের সাউন্ডটা শুনতে স্নেহার ভালোই লাগছে..তাই আর হ্যান্ডসামকে ডিষ্টার্ব করলো…না তখন আবার বাজানো বন্ধ করে দেবে, ধীরেধীরে স্নেহা জানালার পাশে গেলো..
আর রাহুলকে দেখতেই…ব্লাশিং হতে লাগলো…??
স্নেহা [ জানালার পর্দা সরিয়ে ফিসফিস করে ] যা হওয়ার হবে….তোমাকেতো আমি পেয়েই ছাড়বো… মিষ্টার?
দরকার হলে ঐ পেত্নীটাকে খুন করবো?
[ হঠাৎ রাহুল জানালার দিকে তাকালো…আর স্নেহা তাড়াহুড়ো করে লুকে পড়লো…]
রাহুল গিটার বাজানো বন্ধ করে জানালার দিকে কিছুক্ষণ চেয়ে আছে…তার মনে হচ্ছিলো কেউ যেনো জানালার দিকে তাকিয়ে ফিসফিস করছে..? আবার ভাবছে হয়তো ওর মনে হয়েছে..কিন্তু কেউ তো নেই…
রাহুল আবার বাজানো শুরু করলে, স্নেহা আবার জানালার দিকে তাকায়..
[ মিট মিট করে হাসতে থাকে স্নেহা..??]
আবারো ফিসফিস করে বলতে লাগলো… কি না বাজাচ্চো বস্… পুরাই রোমান্টিক মোমেন্ট নিয়া আনলা??
গিটার হাতে পুরাই ??ডেশিং লাগছে ? [স্নেহা নিজের চোখে নিজে হাত দিয়ে]
স্নেহা কি যা তা বলছিস নজর লাগবে তো হ্যান্ডসামের?
স্নেহা দূর থেকে রাহুলকে ফ্লাইং কিস্ দিতে লাগলো…
অমনিই হুট করে রাহুল জানালার দিকে তাকিয়ে স্নেহার কান্ড দেখতে পেলো…
স্নেহা : ???? [Shocked ]
রাহুল : [ মনে মনে ] তাইতো বলি আমার এমন কেনো মনে হচ্ছে কেউ আমাকে ফোলো করছে…এই ড্রামাকুইন যে বাড়ীতে তা তো আমি ভুলেই গেলাম..
চলবে…

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here