Love_At_1st_Sight $2 Part : 4

0
522

♥️#Love_At_1st_Sight $2
Part : 4
writer-Jubaida Sobti
স্নেহা তাড়াহুড়ো করে, পর্দা টেনে জানালার পাশে লুকে পড়ে…
রাহুল তার গিটারটা রেখে দরজা খুলে রুম থেকে বের হয়, স্নেহা পর্দাটা টেনে নিজের শরীর লুকাতে ব্যস্ত।
রাহুল গিয়ে স্নেহার গায়ের থেকে পর্দাটা একটানে সরিয়ে দেই…
স্নেহা : ??
রাহুল : কি করছো এসব হুম?..?
স্নেহা : হি-হি কে?..আমি??
রাহুল : [একটু রেগে] এইখানে কি আর মানুষ আছে??..তুমি ছাড়া আর কাকে বলবো?..
স্নেহা : ও হে! তাইতো! আসলে আমি পর্দাটা দেখছিলাম..অনেক সুন্দর…
রাহুল : Oh really ..?
স্নেহা : আচ্ছা এটা কি কাপড়ের তৈরী?…
রাহুল : কেমনি পারো এতো ড্রামা করতে?..
স্নেহা : মোটেও ড্রামা না.. বুঝলা…by the way আমি এটা বলছিলাম যে অনেক সুন্দর গিটার বাজাতে পারো..??
রাহুল : i know that!?
স্নেহা : এক্সকিউজ মি! নিজের তারিফ নিজে করে নাকি…ছিঃ লজ্জা করে না…
রাহুল : Obviously এটা আমার তোমাকে বলা উচিৎ ছিলো লজ্জা করে না তোমার… একটা মানুষের রুমে…এভাবে উকি দিতে?..
স্নেহা : লজ্জা করবে কেনো হে?..আমি কি অন্যকারো রুমে উকি দিচ্ছি…আমি তো তোমার রুমে উকি দিচ্ছি…
রাহুল : what?..?
স্নেহা : i mean! আমার হবু ইয়ের রুমে?
রাহুল : হবু ইয়ে মানে?..?
স্নেহা : ওসব তুমি বুঝবা না! যাও সরো আমি একটু রুমটা দেখি…
[স্নেহা রাহুলকে হাত দিয়ে সরিয়ে হুট করে রুমে ঢুকে পড়ে…]
রাহুল : [রুমে এগিয়ে এসে] What the hell?
স্নেহা : what the hell না..এটা একটা রুম…আর তোমার Commonsense নেই একটা মেয়ের সাথে কিভাবে কথা বলতে হয় জানো না?..
রাহুল : ওহ রিয়েলি! জানি না একটু শিখাও না…প্লিজ!
স্নেহা : ওয়াও? হাউ ব্রিলিয়ান্ট…এইভাবে নরম সুরে বলবা বুঝেছো…
রাহুল : ????
স্নেহা : এভাবে তাকাইওনা ওকে…শুভ দৃষ্টিতে তাকাবা…বুঝেছো…??
রাহুল আর না হেসে পারলো না…
স্নেহা : বাকা স্মাইল্টা অনেক সুট করে তোমাকে..?
রাহুল : তারিফ আছে তোমার…এত্তো কিছু বলি গায়ে লাগে না তোমার…
স্নেহা : ধুর রাখো তো…[ স্নেহা খাটে বসে রাহুলের গিটার টা হাতে নিলো… ]
রাহুল : Don’t touch it!
স্নেহা : কেনো ধরলে কি হবে?..?
রাহুল : এটা বাজানো তোমার পক্ষে সম্ভব না… so এর থেকে বেটার অপশন..
স্নেহা : [ গিটার রেখে দাঁড়িয়ে গিয়ে ] Excuse me?? কি বলতে চাও তুমি হুম?…সম্ভব না মানে?…তোমার ঐ পেত্নীটার মতো ভাববে না আমাকে বুঝলা!
রাহুল : ওকে ওকে! রিলেক্স!?
স্নেহা : হুম! আচ্ছা শুনো..
রাহুল : Yes! mam
স্নেহা : I Love You ???
রাহুল : What!???
স্নেহা : এতো অবাক হওয়ার কি আছে
I Love You??
রাহুল : Seriously! তুমি একটা!??
স্নেহা : আমি একটা কি থেমে গেলে কেনো বলো…হে হয়তো ভাবছো পাগল তাই না?… হে আমি তাই আমি পাগল তোমার জন্য…
রাহুল : ????
স্নেহা : এভাবে কি দেখে আছো..?শোনো ঐ নেহার সাথে তোমার মোটেও যায় না…তুমি বরং এক কাজ করিও ওকে ফেসবুক থেকে ব্লক করে দিও…
[ বির বির করে] পারলে পুরো লাইফ থেকে ব্লক করে দিও..
রাহুল : বিরবির করে কি বলছো?..??
স্নেহা : কই কিছু না…?
হঠাৎ ফাবিহা দৌড়ে আসে রুমে,
ফাবিহা : টিচার নিচে চলো তোমাকে একটা জিনিষ দেখাবো…
স্নেহার হাত ধরে টেনে ফাবিহা নিচে চলে যায়… স্নেহা ফাবিহার ফ্রেন্ডসদের সাথে দেখা করে…বাড়ী চলে যায়…
বাসায় এসে রিলেক্স হয়ে খাটে শুয়ে পড়ে স্নেহা…
মার্জান : কি হলো এতো লেইট করলি যে..
স্নেহা : [হতাশ হয়ে] জানিস মার্জান আমি না রাহুলকে আই লাভ ইউ বলেছি…
মার্জান : রাহুলকে আবার তুই কোথায় পেলি…??
[স্নেহা একলাফে উঠে বসে] আর মার্জানকে সব খুলে বলে..
মার্জান : [মনে মনে] ভেবেছিলাম…ডান্সে বিজি থাকবে তাতে রাহুলের ভুতটা মাথা থেকে সরে দাঁড়াবে…কিন্তু এইতো রাহুলের বাড়ী গিয়েই হাজির…?
স্নেহা : এই মেয়ে?.. ? কি ভাবছিস…
মার্জান : কই নাতো কিছুনা…?
স্নেহা : জানিস! রাহুলের পরিবারের সবাই অনেক ভালো.. ?কিন্তু জানিনা ও এমন কেনো… ?
কথায় কথায় খালি..এংগরি রিয়েক্ট করে..আমার ফিলিংসটাই বুঝে না…?
[সারাদিন স্নেহা রাহুলের চিন্তায় মগ্ন ছিলো..আর তাকে নিয়ে বিভিন্ন সপ্ন দেখা…?]
পরদিন ভার্সেটিতে গিয়ে স্নেহা দেখতে পায়…পার্কিং এর ওদিক রাহুল, নেহা, তাদের আরো অনেক বন্ধু-বান্ধব গাড়ীর উপর বসে আড্ডা দিচ্ছে..
গেইড দিয়ে ঢুকতেই..রাহুলের চোখ স্নেহার উপর পরে,…
স্নেহাকে দেখে রাহুল উঠে হঠাৎ নেহাকে ঝড়িয়ে ধরে…অনেক রোমান্স শুরু করে দেই।
[স্নেহার ভোর দুটো কপালের উপর উঠে যায়…লাগছে কেউ তার বুকের মধ্যে তীর ছুড়ে মেরেছে…]
স্নেহা : [মনে মনে] না আর দেখা সম্ভব না…বিড়বিড় করতে করতে চলে গেলো স্নেহা…
ক্লাসে গিয়ে মুখ ফুলিয়ে বসে রইলো..
মার্জান : পাগল নাকি স্নেহা তুই..? নেহা ওর গার্লফ্রেন্ড ও চাইলেই ওকে ঝড়িয়ে ধরতে পারে…
স্নেহা : কেনো?.. এতোক্ষণ তো ঠিকই বসে ছিলো…আমি আসার পরেই বা কেনো ঝড়িয়ে ধরলো…?
শায়লা : হে সেটাই তো তুই আসার পরে কেনো ধরলো..?
স্নেহা : এবার দেখ আমি কি করি…মিষ্টার রাহুল ঐ নেহাকে দিয়ে আমাকে Jealous করাচ্ছে…এবার আমাকে দেখে ও Jealous করবে…
শায়লা : তুই আবার! কাকে ঝড়িতে ধরবি?..?
রিফাত : Don’t worry স্নেহা তুই আমাকে ঝড়িয়ে ধরিস..??
শায়লা : তুই তো আবুল একটা তুকে দেখে কে Jealous করবে??
স্নেহা : Just wait and see guyss?
মার্জান : দেখ স্নেহা উল্টা পাল্টা কিছু করিস না?
স্নেহা : ধুর গাধা! এতো ভয় পাস কেনো তুই বলতো?… আচ্ছা শোন আমাদের প্রজেক্ট ক্লাস কবে শুরু হচ্ছে?..
মার্জান : কবে?..??
জারিফা : কাল থেকে..
স্নেহা : ওকে..?
ক্লাস শুরু হয়…
[স্নেহা কিছুক্ষণ পর পর রাহুলের দিকে তাকাই…আর রাহুল দেখে ও না দেখার ভান করে…]
স্যার : কাল প্রজেক্ট ক্লাসের জন্য…তোমাদের লিষ্ট নেওয়া হচ্ছে…হেল্প এর জন্য তোমরা যাকে পার্টনার করতে চাও…তাদের নামটা একসাথে করে দিও…আর হে রিমেম্বার…নাম কিন্ত ফাইলে সেভ হয়ে গেলে আর চেঞ্জ করা যাবে না..so be careful…
স্নেহা : রিফাত শোন!
রিফাত : হে বল!
স্নেহা : স্যার যাওয়ার পরে, নাম কিন্তু তুই লিখবি বুঝেছিস..?তারপর ফাইলটা সবাই দেখে মতো টেবিলে রেখে চলে যাবি…কিছুক্ষণ পরে আমি একটু চেঁচিয়ে উঠবো সবাই যখন আমার দিকে তাকাবে জারিফা! তখন তুই ফাইলটা উঠিয়ে নিভি..তারপর কেউ না দেখে মতো আমার কাছে নিয়ে আসবি… আর শোন কাজটা কিন্তু নেক্সট ক্লাসের স্যার আসার আগেই করতে হবে.. So hurry up!
স্নেহার কথা মতো রিফাত সবার নাম নিয়ে লিখে ফাইলটা টেবিলেই রেখে দিলো…
কিছুক্ষণ পর স্নেহা আআহ! করে চেঁচিয়ে উঠলো…
সবাই স্নেহার দিকে তাকালে,
স্নেহা : কোকরোছ ছিলো!?
রাহুল : [দূর থেকে ফিসফিসিয়ে] Dramabazz ?
স্নেহা : ?
জারিফা এসে স্নেহার পাশে বসে,…
স্নেহা কেউ না দেখে মতো ফাইলটি খুলে… দেখে রাহুলের নামের পাশে নেহার নাম…
স্নেহা নেহার নামের সামনে একটি S বসিয়ে দেই… তারপর ফাইলটি জারিফাকে দিয়ে দেই…স্নেহা আবার চিৎকার করে… সবাই স্নেহার দিকে তাকাই…
স্নেহা : না আসলে বলছিলাম যে! ফাইলটা স্যারকে দিয়ে আসা উচিৎ…
রাহুল আবার স্নেহার দিকে তাকিয়ে হেসে উঠে…আর মনে মনে ভাবতে লাগলো…কি আজিব মেয়ে..লিমিট আছে একটা নাটক করার…?
ক্লাস শেষে বেরুতে যাবে ঠিক সেই সময় রাহুলের সাথে..ধাক্ষা খেলো স্নেহা…
রাহুল : দেখে হাটতে পারো না..!
স্নেহা : তোমার ওতো চোখ আছে.. তুমিই বা কেনো দেখে হাটো না..?
রাহুল : stupid?
এই বলে, রাহুল চলে যাচ্ছিলো স্নেহা রাহুলের হাত ধরে ফেলে…
স্নেহা : দেখো! মিষ্টার.. আই লাভ ইউ বলেছি! জীবনের ফার্ষ্ট এই কাউকে…So যতই পালাতে চেষ্টা করো..কোনো…লাব নেই..
রাহুল স্নেহার হাত ছুটিয়ে চলে গেলো..
স্নেহা খিলখিলিয়ে হাসতে থাকে…
[স্নেহা হোষ্টেলে গিয়ে….ফ্রেশ হয়ে অপেক্ষা করতে থাকে.. কখন বিকেল হবে..]
বিকেলে, স্নেহা রাহুলদের বাড়ী যায়….
ফাবিহা : হ্যালো টিচার! ?
স্নেহা : হেই?! কি খবর তোমার..
ফাবিহা : এইতো ভালো..
স্নেহা : আর বাকিরা কই?..
ফাবিহা : মা রুমেই আছে..ডাকবো!
স্নেহা : না থাক! চলো আমরা শুরু করি..
ফাবিহা স্নেহাকে বাড়ীর পিছনের দিকে নিয়ে গেলো জায়গাটা অনেক সুন্দরই…বিকেলে বসে চা খেতে অনেক দারুন লাগবে এই জায়গাটিতে…
ফাবিহা : টিচার! আমি প্রতিদিন এই জায়গাটাতে প্রেক্টিস করি!
স্নেহা : দারুণ তো জায়গাটা..
ফাবিহা : ?
স্নেহা : ওকে! Step 1 ফার্ষ্টে.. ?মিউজিক ছাড়া হবে!… আমি আমার হাত যেভাবে ইশারা করবো তুমি জাষ্ট ফলো করবা..
ফাবিহা : ওকে!?
স্নেহা ফাবিহাকে ষ্টেপ ?দেখিয়ে দিয়ে এদিকওদিক ঘুরে তাকাচ্ছিলো!
হঠাৎ, পিছন থেকে একজন বয়স্ক মহিলাকে দেখতে পায়…মহিলাটি স্নেহার দিকে এগিয়ে আসলো,স্নেহার বুঝার বাকি রইলো না এটাই হবে রাহুলের দাদী..
দাদী : তো তুমিই স্নেহা তাই না?..
স্নেহা : জি? আপনি কিভাবে জানলেন?..
দাদী : কাল সারাদিন তোমার গল্প বলছে ফাবিহা! আমার ডান্স টিচার এমন আমার ডান্স টিচার অমন…
স্নেহা : ???তাই বুঝি!
দাদী : তুমি নাকি রাহুলের ক্লাসমেট?..
স্নেহা : ??জি!
দাদী : ওহ ভালোই তো!?? আচ্ছা আমি আসি!ঠিকাছে…এখন কথা বললে আবার ডিষ্টার্ব হবে পরে কথা বলবো!
স্নেহা : ওকে!?
দাদী চলে গেলো…
স্নেহা : ফাবিহা! তোমার ইয়ে কোথায়?…
আই মিন তোমার চাচ্চু?..?
ফাবিহা : ওহ! চাচ্চু এখনো বাসায় আসেনি!
স্নেহা : ওহ!…?
স্নেহা ফাবিহাকে ডান্স শিখিয়ে…সিফা এবং দাদীর সাথে জমিয়ে আড্ডা দিলো..
তারা স্নেহার গল্প শুনে অনেক মজা পেলো…
দাদী : পুরো বাড়ীটাই খালি খালি…তুমি আসাতে অনেকদিন পর হাসছি…নাহলে!
স্নেহা : উফ! দাদী স্নেহা যেখানে!
সেখানে খালি খালি লাগার কথায় উঠে না…?? So এখন থেকে হ্যাপি হ্যাপি থাকবা… তোমার শরীরের জন্য ও ভালো হবে…??
দাদী : আচ্ছা দুষ্টু…?
স্নেহা : আচ্ছা দাদী! আমি এখন যায়..৯:০০ টা বেজে গেছে গল্প করতে করতে, বেশী রাত হলে, আবার সমস্যা হবে!…
দাদী : ওহ! হে…তা তো খেয়াল করিনি!? আচ্ছা এক কাজ করো তুমি বসো তোমাকে পৌছে দিতে বলি রাহুলকে..
[স্নেহা না বলতে যাবে ঠিক সেই সময় রাহুলের নাম নিতেই স্নেহা থেমে যায়..]
স্নেহা : [মনে মনে] মিষ্টার হ্যান্ডসাম দিয়ে আসবে..ওয়াও..থেংক ইউ দাদী.. ?
দাদী : ফাবিহা যা চাচ্চুকে ডেকে আন..
[ফাবিহা গিয়ে তার হ্যান্ডসাম চাচ্চুকে ডেকে আনলো…আর চাচ্চু স্নেহাকে দেখে নাক মুখ ফুলিয়ে এক করলো ]
রাহুল : কেনো ডাকলা দাদী..
দাদী : ওহ! হে…অনেক রাত হয়ে গেছে স্নেহা একা বাসায় যেতে হয়তো প্রবলেম হবে..আজকাল রাস্তাঘাটের অবস্থাও তেমন ভালো না! তুই একটু ওকে পৌছে দিয়ে আয়!
রাহুল : What! আমি?..?
দাদী : হে তুই আরকি…
রাহুল : দাদী আমি ড্রাইভারকে ফোন করছি ও দিয়ে আসবে…
স্নেহা : না না!
সবাই স্নেহার দিকে তাকালে,
স্নেহা : আসলে! আমার একটু তাড়া আছে..ড্রাইভার আসতে আসতে নিশ্চয় ৫/১০ মিনিট লাগবে…কিন্তু আমার এক্ষুনি বের হওয়া দরকার… হোষ্টেলে আমার ফ্রেন্ড একা..ও আবার ভুতকে একটু বেশি ভয় পাই…
রাহুল : [বিড়বিড় করে] Again Drama?
দাদী : আচ্ছা রাহুল তুই দিয়ে আসলে কি হচ্ছে! যা না প্লিজ…দাদীর এই কথাটাও রাখবিনা..?
রাহুল : But দাদী ?
স্নেহা : It’s ok দাদী.. আমি একাই যেতে পারবো ?
এই বলে স্নেহা চলে যাচ্ছিলো…
রাহুল : [একটু জোড় গলায় ] ওকে ওয়েট!?
স্নেহার মনে লাড্ডু ফুটতে লাগলো.. ?
রাহুল হেটে এসে স্নেহার আগে বেরিয়ে পড়লো…
স্নেহা মিটিমিটি হেসে রাহুলের পিছু পিছু গেলো….?
রাহুল কিছু না বলে গাড়ি চালাতে লাগলো…
স্নেহা : দাদী কিন্তু অনেক ভালো.. ?
রাহুল : সবাইকে তো তোমার ড্রামাতে ফাসিয়ে নিয়েছো তাই এখন তো ভালোই হবে।
স্নেহা : ড্রামা মানে! দাদী নিজ থেকেই আগে বলেছে আমাকে পৌছে দিতে বুঝেছো!?
রাহুল : একা যেতে না পারলে টিউশন নিলা কেনো..
স্নেহা : তুমি আছো না তাই আরকি..?
রাহুল : ??বয়ে গেছে আমার…
[ everyone silent ]
স্নেহা : এভাবে চুপ করে আছো কেনো কিছু বলো…
রাহুল : আমার কথা বলতে ইচ্ছে করছে না…
স্নেহা তার ওড়নাটা ইচ্ছে করেই রাহুলের মুখের উপর উড়িয়ে দেই…?
রাহুল : পাগল নাকি তুমি?
স্নেহা আবারো একই কাজ করে…?
রাহুল : আরে! এক্সিডেন্ট হবো তো..?
স্নেহা : তো কি হয়েছে দুজনই একসাথে মরবো ওকে?..?
রাহুল : ????তুমি কি প্লিজ চুপ করবা?..এতো বক বক করো কেনো..
স্নেহা : তো কি করবো তোমার মতো মুখ ফুলিয়ে বসে থাকবো?.. আমি চুপ করে থাকতে পারি না…??
[রাহুল রাগান্বিত ভাবে স্নেহার দিকে তাকায়]
স্নেহা : ওকে ওকে ট্রাই করবো! ?
স্নেহা আর কিছু না বলে গাড়ীর জানালার উপর একটু মাথা বের করে বাতাস উপভোগ করছে..
রাহুল হঠাৎ গাড়ী থামিয়ে ফেললো…
স্নেহা : কি হলো আবার?..?
রাহুল : শোনো মাথা বাহিরে করবানা…বুঝেছো…?
স্নেহা : করলে কি হবে?..?
রাহুল : মাথা কেটে যাবে..?
স্নেহা : তাহলে করবো… ?
এই বলে আবার সেইম ভাবে বাতাস উপভোগ করতে লাগে স্নেহা…কিছুক্ষণ পর পর রাহুলের দিকেও তাকাচ্ছে…
রাহুল স্নেহাকে রাগান্বিতভাবে তাকায় আর গাড়ী চালায়…
হঠাৎ জ্যাম পড়াতে, গাড়ী থামলো… কিছু বাজে ছেলে অন্য গাড়ী থেকে… স্নেহাকে দেখে হেসে হেসে বিভিন্নরকম রিয়েক্ট করা শুরু করলো..
স্নেহা তাদের এসব দেখে মাথাটা জানালা থেকে সরিয়ে ভদ্র মেয়ের মতো হয়ে বসে পড়লো…
[ রাহুল তা খেয়াল করে একটু লুকিয়ে হেসে অন্যদিকে ফিরে গেলো…? ]
স্নেহা : [ফিসফিসিয়ে] হাসার কি আছে..
রাহুল : সরিয়ে নিলে কেনো বের করো মাথা..?
স্নেহা : ??
এবার ছেলেগুলোর গাড়ী রাহুলের গাড়ীর সামনে এসে…পড়লো… এবং তারা শিস বাজাতে লাগলো হাসাহাসি করে গান করতে লাগলো…
রাহুল তাদের কান্ড দেখে স্নেহার দিকে তাকালো… স্নেহা অনেকটা অস্থিরতা বোধ করছে…কেমন যেন রাহুল স্নেহার অন্য একটি রুপ দেখতে পেলো…একটু মায়া হলো রাহুলের?
রাহুল গাড়ীর সামনের লাইটিং ফ্লাশটা বাড়িয়ে দিলো… এবং ছেলেগুলোর চোখে গিয়ে লাইট পড়লো… এতে তারা গাড়ির দিকে তাকাতে চোখের দৃষ্টির সমস্যা হচ্ছিলো…
কিছুক্ষণ পড়ে জ্যাম ছুটাতে…রাহুল তাদের ওভারটেক করে জোড়ে টান দিলো…
এবার রাহুল খেয়াল করলো স্নেহা সস্থিবোধ হয়ে বসলো…
রাহুল আর স্নেহা দুজনই চোখাচোখি হয়ে পড়লো..
[rahul gave a tedi smile nd sneha blushing ?]
অত:পর পৌছালো,
স্নেহা : গুড নাইট!? এন্ড থেংকস..
রাহুল : [একটু হেসে] গুড নাইট..?
স্নেহা : বাই.. ?
রাহুল : ওকে বাই গো…?
স্নেহা গাড়ী থেকে নেমে রাহুলকে টাটা দিতে লাগলো… রাহুল চলে গেলো আর স্নেহা চেয়ে আছে..
রুমে ঢুকে স্নেহা কাধ থেকে বেগ রাখতেই,
মার্জান : কি হলো তোকে ফোন দিচ্ছিলাম রিসিভ করছিলি না কেনো?..কতো টেনশন হচ্ছিলো..?
[স্নেহা মার্জানকে সব খুলে বলে..?]
মার্জান : আরে ওয়াহ!..এখন তো দেখছি..কাহিনী পালটে গেছে??
স্নেহা : ধীরেধীরে দেখো বস্ আরো পাল্টাবে?
মার্জান : আমি তো কালকের অপেক্ষায় আছি… ওই নেহার কি হবে বলতো..??
স্নেহা : কেমন আর হবে..ওই দিন রাহুল যখন ওকে ঝড়িয়ে ধরে ছিলো..তখন আমার যেমন লেগেছিলো…ঠিক তেমনি হবে ওর…??
মার্জান : ??
পরদিন ভার্সেটির ক্লাসে,
স্যার : দেখো আমি যাদের নাম একসাথে বলছি সবাই তিনতলার প্রজেক্ট ক্লাসে উপস্থিত হবা… স্যার সকলের নাম নিলো…দুজন দুজন করে…কিন্তু রাহুলের নাম বলেছে স্নেহার সাথে তা শুনে রাহুল Shocked হয়ে গেলো..?
নেহা : what is this রাহুল! এসব কি..তুমি ঐ স্নেহাকে তোমার পার্টনার করেছো?
রাহুল : No নেহা…আমি তোমার নামই দিয়েছি…কিন্তু এসব [ রাহুল স্নেহার দিকে তাকাতেই দেখে স্নেহা মুখ চিপে হাসছে]
রাহুলের আর বুঝতে বাকি রইলো না কান্ডটি কে করলো…?
নেহা রেগেমেগে এক হয়ে ক্লাস থেকে বেরিয়ে পড়ে…
রাহুল নেহাকে ডাকলেও নেহা শোনে না…রাহুল নেহার পিছে পিছে যাচ্ছিলো ঠিক সেই সময়…স্নেহা এসে রাহুলের পথ আটকায়…
রাহুল : কেনো করেছো এসব..?
স্নেহা : তুমি বাধ্য করেছো তাই…?
[ রাহুল রেগে স্নেহার দিকে এগিয়ে আসছিলো]
স্নেহা : আহ! স্টপ!… [স্নেহা রাহুলের শার্টে লাগিয়ে রাখা সানগ্লাসটি খুলে পড়ে নিলো… ]
রাহুল : ????
স্নেহা : কেমন লাগছে বলোতো..?
রাহুল : পুরাই ???
স্নেহা : ??থেংক ইউ..
রাহুল স্নেহাকে সরিয়ে চলে যাচ্ছিলো স্নেহা আবারো রাহুলের হাত ধরে ফেলে…
রাহুল : [ এবার খুব রেগে স্নেহাকে দেওয়ালের সাথে সজোড়ে ধাক্ষা দিয়ে দাড় করালো ] দেখো ? তুমি যা করছো না তার জন্য তোমার অনেক পচতাতে হবে!?
স্নেহা : দেখো সবাই তাকিয়ে আছে এভাবে রিয়েক্ট করছো কেনো?
রাহুল আশেপাশে একবার তাকিয়ে স্নেহার পাশ থেকে সরে দাঁড়ালো…
রাহুল চলে গেলো নেহার কাছে..
স্নেহা : [তার বুকে হাত দিয়ে ] বাপরে..এতো কাছে এভাবে আসার কি দরকার ছিলো…বুকটাই কম্পন শুরু করে দিয়েছে…?
এইদিকে রাহুল নেহাকে সামলাতে ব্যস্ত…
রাহুল : নেহা please understand আমি তোমার নামই লিখেছি…
নেহা : ??? তাহলে ভুতে মুছে দিয়েছে তাই না
রাহুল : ??ঐ স্নেহা এসব কান্ড করেছে..
নেহা : ????এতো বড় সাহস কি করে হয়!ওর
রাহুল : ওকে রিলেক্স নেহা! আমি প্রজেক্ট ক্লাস করবো না..
নেহা : কিন্তু এতে তো তোমার মার্কস্ কমে যাবে..
রাহুল : No problem
নেহা : ওকে i trust you..? প্লিজ গো…
রাহুল : কিন্তু?
নেহা : বললাম তো trust আছে তোমার উপর..
[রাহুল নেহাকে ঝরিয়ে ধরে..নেহা ও রাহুলকে ঝড়িয়ে ধরে]
কিছুক্ষণ পরেই প্রজেক্ট ক্লাস স্টার্ট হয়…
রাহুল আর স্নেহার সেইম প্রজেক্ট…
স্নেহা : আচ্ছা আমরা কোন প্রজেক্টটা বানাবো ?
রাহুল : Just Shut-up তোমার কোনো হেল্প এর দরকার নেই আমার বুঝেছো..তুমি তোমার মতোই বানাও
স্নেহা : কি আজিব…নিজের হবু বউ এর সাথে কেউ এভাবে কথা বলে..? তোমাকে না বলেছি…মিষ্টি মিষ্টি কথা বলতে…?
রাহুল : বউ মানে?
স্নেহা : হে বউ!? মানে এখনো হইনি..কিন্তু হবো আরকি তাই বলছি না হবু বউ?
রাহুল : [স্নেহার হাত চেপে ধরে] দেখো! তোমার এসব ড্রামা বন্ধ করো.. যদি ড্রামা আমিও শুরু করি না..তাহলে কিন্তু..খবর আছে..?
স্নেহা : ওয়াও?? এরকমই তো চাই..আমি জানি তুমি চুপ করে থাকার মতো ছেলে না..ফ্লিমের হিরোদের মতো..
রাহুল : Stop? আর একটাও কথা বলবে না…
স্নেহা : কেনো বলবো না হুম! তোমার সাথে না বলে কার সাথে বলবো… ??
রাহুল বিরক্তি হয়ে স্নেহার হাত ছেড়ে প্রজেক্ট তৈরীতে ব্যস্ত হয়ে পড়ে…..স্নেহা ও আর কিছু না বলে সে ও বানাতে থাকে..?
স্নেহা রাহুলের দিকে তাকিয়ে মিটি মিটি হাসতে থাকে…আর রাহুল কিছুক্ষণ পর পর রাগান্বিত ভাবে তাকায়…?
স্নেহা : দেখো রাহুল তুমি কি বানাচ্ছো আমি কিছুই বুচ্ছি না…আমাকে দেখতে ও দিচ্ছো না…?
রাহুল : কেমনি পারবা….সারাক্ষণ মাথায় যে কুবুদ্ধি নিয়ে ঘুরো.. ?
স্নেহা : সবাই একসাথে মিলে তৈরী করে ফেলছে…আমারটা এখনো শুরুও করিনি…?
রাহুল স্নেহার দিকে একবার তাকিয়ে আবার ব্যস্ত হয়ে পড়ে…
স্নেহা : প্লিজ! রাহুল অন্তত বলে দাও যে কিভাবে বানাবো.. আমার একটা তার ও মিলছে না…?
[রাহুলের মাথায় একটা দুষ্টু বুদ্ধি ঢুকলো এটাই? সুযোগ এই মেয়েকে চুপ করানোর]
রাহুল : অহ! তুমি পারছো না তাই তো..ওকে আমি হেল্প করছি…
স্নেহা : ওকে?..
রাহুল স্নেহার প্রজেক্ট এর ইলেক্ট্রিক্যাল সবই লাগিয়ে দিচ্ছে…এবং ধীরেধীরে স্নেহার অনেক কাছে চলে আসে…?
স্নেহা তা খেয়াল করলো…কোণা চোখে রাহুলের দিকে তাকাতেই দেখে রাহুল মিটি মিটি হাসছে…?
এদিক ওদিক তাকিয়ে কেউ না দেখে মতো রাহুল ধীরেধীরে স্নেহার কোমোড়ে স্লাইড করলো?
স্নেহার গাঁ শিউরে উঠলো…??
স্নেহা : [মনে মনে] কি আজিব ছেলে বললাম কি আর করছে কি??…. [স্নেহা একটু সরে দাঁড়াতে চাইলে রাহুল স্নেহাকে ধরে ফেলে]
রাহুল : [ স্নেহার কানে ফিসফিস করে] কি হলো স্নেহা…are you ok?..?
স্নেহা : ??? দেখো আমি কিন্তু এখন চিৎকার করে উঠবো…
রাহুল : বললাম তো ড্রামা যদি আমি শুরু করি তাহলে খবর আছে..?
[ Sneha Shocked?Rahul Rocks?]
চলবে..।।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here