Love_at_1st_sight ??? Part : 15

0
359

Love_at_1st_sight ???
Part : 15

writer-Jubaida Sobti
রাহুল : কিন্তু তুমিই তো একটু আগে বলেছিলা তোমাকে হেল্প করতে.. So ?
স্নেহা : [একটু পিছিয়ে] হ্যাঁ বলেছিলাম ভুলে??….
রাহুল : ( স্নেহাকে একটানে রাহুলের কাছে টেনে নেই..) ভুলে তাই না?.. .? তাহলে আমিও ভুল করে ফেলি..
স্নেহা : (লজ্জায় নিচের দিকে তাকিয়ে? Blushing)
রাহুল আস্তে আস্তে স্নেহার সব জুয়েলারি খুলেদিলো…(Sneha’s heart beating faster?) এবং সেই সুযোগে রাহুল স্নেহার কপালে, কোমোড়ে, হাতে, গলায়, সব জায়গায় টাচ করেই যাচ্ছে…?
[Rahul enjoying that moment ?]
রাহুল স্নেহাকে কোলে তুলে নিলো..এবং খাটে শুয়ে দিয়ে…(স্নেহার কানে কানে উইস্পার করে..)
রাহুল : স্নেহা I love u?
স্নেহা রাহুলকে ঝরিয়ে ধরে.. রাহুল ও স্নেহাকে শক্ত করে ঝড়িয়ে ধরে..
স্নেহা রাহুলের মাকে খুব যত্ন করে সেবা করে যায় এবং তিনি আগে থেকে অনেকটা সুস্থ হয়ে উঠে, তা দেখে রাহুল ও অনেক খুশী হয়ে যায়..?
কিন্তু এই সুখ বেশীদিন রইলো না রাহুলের মায়ের কপালে.. রাহুল আর স্নেহার বিয়ের দুমাস পরেই রাহুলের মা মারা যায়..
এরপর থেকে স্নেহা বাড়িতে খুব একা হয়ে যায় আগে মা কে নিয়ে সময় কাটাতো,এখন তিনিও নেই,..
রাহুল ও এখন অফিসে যায়..সকালে গেলে রাতে বাসায় ফিরে… বাকি সময় গুলো স্নেহার বোরিং লাগে,…
রাহুল রাতে আসলে স্নেহা সারাদিনের জমে থাকা কথা সব একসাথে বলতে থাকে….রাহুলের ও তার কথা গুলো শুনতে ভালো লাগে…?
একদিন রাতে,রাহুল স্নেহা দুজনে খাটে বসে টিভি দেখছে,স্নেহা রাহুলের বুকে মাথা রেখে শুয়ে আছে,
স্নেহা : রাহুল!
রাহুল : হুম!
স্নেহা : আচ্ছা একটা পিচ্ছি মেহেমান আসলে কেমন হয়?
??ও এদিক ওদিক হাটবে…
ওর ছোট ছোট কাপড় থাকবে ?? আর আমি অনেক গুলো ফোটো তুলে ইন্সটেগ্রামে আপলোড দিবো… ??
রাহুল : yaa… not bed??
স্নেহা : ?? yaaa কি হ্যাঁ?..,…
আপনি আমার কথা শুনছেন… not..bed মানে ?
আমি কতো important কথা বলছি আর আপনি?…
রাহুল : ?ok stop the tv,?
then স্টার্ট করি চলো 
( এই বলে রাহুল স্নেহার কাছে আসতে লাগলো,)
স্নেহা : ?? Shut-up রাহুল।
রাহুল : আচ্ছা কয়টা লাগবে বলো ?
স্নেহা : ?কি বলেন এসব ইডিয়ট ?
রাহুল : ( স্নেহাকে ঝরিয়ে ধরে)… বলো… 1,2,3,4,/9,10/12,13 ??..কয়টা?
স্নেহা : সবসময় মজা ?
রাহুল স্নেহাকে আরো শক্ত করে ঝরিয়ে ধরে বুকে টেনে নেই…?স্নেহা ও রাহুলকে ঝরিয়ে ধরে,
স্নেহা : আচ্ছা রাহুল চলেন না কোথাও ঘুরে আসি?..
রাহুল : কোথায় যাবা?…?
স্নেহা : যেখানে আপনি নিয়ে যাবেন
রাহুল : ওকে ডান তাহলে কালকে,
স্নেহা : কিন্তু আমারতো, এখন বের হতে ইচ্ছে হচ্ছে ?
রাহুল : কিন্তু এতো রাতে কই যাবা..?
স্নেহা : চলেন আইসক্রিম খাবো…
রাহুল : আইসক্রিম পার্লার হয়তো এতোক্ষনে বন্ধ হয়ে গিয়েছে…?
আচ্ছা আমি তোমাকে কালকে নিয়ে যাবো… Sure তারপর তোমার যতো ইচ্ছে ততো আইসক্রিম খেও।?
স্নেহা : আমার আইসক্রিম পার্লারের আইসক্রিম খাওয়া লাগবে না…?
আমি রাস্তায় কতোগুলো ছোটো ছোটো গাড়ী করে আইসক্রিম বিক্রি করে না ঐগুলো খাবো…?
রাহুল : ইশশ, ?ঐ গুলো খেলে পেট বেথা করবে..
(স্নেহা রাহুলের দিকে তাকিয়ে ??)
রাহুল : ওকে মজা করছিলাম ?? চলো…
রাহুল এবং স্নেহা দুজনে গাড়ী করে বের হলো.. কোথাও আইসক্রিমের গাড়ী দেখতে পাওয়া যাচ্ছে না,
হঠাৎ,…রাস্তার opposite এ একটা আইসক্রিমের গাড়ী দেখতে পেলো…
রাহুল : তুমি গাড়ীতে বসো…আমি নিয়ে আসছি..
স্নেহা : ওকে
রাহুল আইসক্রিম কিনতে গেলো..
স্নেহা : ( মনে মনে) উফফ গাড়ীতে বসে আইসক্রিম খাওয়া আর ঘরে বসে খাওয়াটা ও তো same বুদ্ধু একটা আমি..
আমিও যায়…?
স্নেহা গাড়ী থেকে বের হয়ে রাস্তা পাড় হয়ে Opposite রাস্তায় যাওয়ার সময়.. একটা গাড়ী তারদিকে আসার শব্দ শুনতে পায়,
হঠাৎ স্নেহার চোখে গাড়ীর লাইট পড়লো.. এরপর কি হলো স্নেহা বুঝে উঠতে পারেনি…
রাহুল আইসক্রিম নিয়ে ফেরার সময় স্নেহার সাথে ঘটে যাওয়া ঘটনাটি দেখতে পেলো যা দেখার জন্য রাহুল মোটেও প্রস্তুত ছিলো না।…..
চারদিক হৈ চৈ পড়ে গেলো…
রাহুলের সেইদিনের কথা মনে পরে গেলো..
রাহুলের সাথেই কেনো এমনটা হয়…
রাহুল শক্ত হয়ে পাথর হয়ে গেছে…
রাহুল স্নেহার সামনে গিয়ে স্নেহাকে দেখার সাহস পাচ্ছে না… সে যা দেখেছে তা কি সত্যি নাকি সপ্ন।
হাত থেকে আইসক্রিম গুলো মাটিতে পড়ে যায়,
পৃথিবীটা কেমন নিষ্ঠুর ভাবে থেমে গেছে।
হঠাৎ রাহুল, স্নেহা বলে চিৎকার করে কেদে উঠে….?
দৌড়ে স্নেহার কাছে গেলো…
অনেকে সরে দাঁড়ালো..বুঝতে পাড়লো ছেলেটি হয়তো মেয়েটির কিছু হয়।…
(চলবে)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here