জুয়াড়ি স্বামী প্রথম পর্ব

0
360

জুয়াড়ি স্বামী প্রথম পর্ব
লেখক/ ধ্রুব

?‍♂?‍♂?‍♂?‍♂?‍♂?‍♂?‍♂?‍♂

বাঁসর ঘরে ডুকে নতুন বউয়ের নাকে কানে গলা থেকে গয়নাগাটি গুলো নিয়ে বের হতে নতুন বউ(নীলা) বলে উঠলো

নীলা/ এতরাতে এই গয়নাগাটি গুলো নিয়ে আপনি কোথায় যাচ্ছেন

ওহহহ বুঝেছি… শাশুড়ি আম্মাকে দিবেন যত্নে রাখার জন্য তাইনা

বউয়ের কথা শুনে বউয়ের দিকে চোখ দুটো বড় বড় করে বললাম

আমি/ যা দেখেছিস ভুলে যা
কান থাকতে বয়রা আর চোখ থাকতে অন্ধ হয়ে থাকবি

আর শোন বেশি প্রশ্ন করবিনা তাহলে এ বাড়ি নয় বাপের বাড়ি গিয়ে থাকতে হবে

ঘুমিয়ে যা তুই আমার ফিরতে দেরি হবে

আমি যে এসব গয়নাগাটি নিচ্ছি তা যেন কেউ না জানে
যদি কেউ জানতে পারে তাহলে তখন-ই আমি তোকে তালাক দিবো

বলে বের হয়ে চলে আসলাম

নীলা ঘরে বসে বসে কাঁদছে আর ভাবছে এ কার সাথে আমার বিয়ে হলো
যে বাঁসর রাতে বউকে একা রেখে বাহিরে রাত কাটায়

আমি গয়নাগাটি গুলো বন্ধক রেখে এক বন্ধুর কাছ থেকে টাকা নিয়ে খেলতে বসলাম

সাথে মদ সিগারেট তো আছে
একটার পর একটা সিগারেট টানতে লাগলাম

শেষরাতে বাড়ি ফিরে দরজা টোকা দিতে নীলা দরজা খুলে

আমি একটু অবাক হলাম

এত তাড়াতাড়ি নীলা কিভাবে দরজা খুললো

নীলাকে জিজ্ঞেস করতে সে বলে

আমি/ কি ব্যপার টোকা দিতে না দিতে তুমি দরজা কিভাবে খুললে

নীলা/ আমিতো ঘুমাইনি দরজায় হেলান দিয়ে বসে রইলাম
আপনার আসার অপেক্ষা

আমি একটু তাড়াহুড়ো করে ভিতরে ঢুকলাম

যদি কেউ জানতে পারে তাহলে সর্বনাশ হয়ে যাবে

ভিতরে ঢুকে অনেক গুলো টাকা আর গয়নাগাটি গুলো নীলাকে দিয়ে বললাম

আমি/ এই নাও তোমার গয়নাগাটি আর এই কিছু টাকা তোমার কাছে রেখে দাও

নীলা/ এই গয়নাগাটি এতগুলো টাকা কোথায় পেয়েছেন আপনি

আমি/ বললামনা কোন প্রশ্ন করবিনা যা বলছি তাই করে
একটু ধমক দিয়ে বললাম নীলাকে

নীলা ভয় পেয়ে আমাকে বলে

নীলা/ কোথায় রাখবো

আমি/ আমার মাথায়
যত্তসব ন্যাকামি

নীলার কাছ থেকে গয়নাগাটি আর টাকা গুলো নিয়ে আম রাখলাম

কিরে তোকে তো আজ খুব সুন্দর লাগছে আয় একটু কাছে আয়

ভোর হতে এখনও কিছুটা সময় বাকি আছে তাই চল তোকে একটু আদর করি

আজ না আমাদের বাঁসর রাত

বলে আমি নীলাকে টান দিয়ে কাছে টেনে নেই

নীলাকে বিছানায় শুয়ে দিয়ে

ওর হাতে আমার হাত ওর পাঁয়ে আমার পাঁ

নীলাকে চুমু খাচ্ছি একটু জোর করে বটে কিন্তু তাতে কি বউ হয় আমার জোর হোক আর ইচ্ছাতে হোক আমার পাওনা আমি ঠিক-ই বুঝে নিবো

নীলাকে চুমু খেতে নীলা ওয়াক ওয়াক করতে। লাগলো

মাথা খারাপ হয়ে গেছে আমার এই মেয়ের এখন বমি করার শখ হলো

নীলা/ ছাড়ুন আমাকে আপনার মুখ থেকে খুব বাজে গন্ধ বের হচ্ছে আমার একদম সহ্য হচ্ছেনা

একে নেশা মাতাল ছিলাম ২এ নারীর দেহের ছোঁয়া

তাই নীলাকেও আমি ছাড়িনি

নীলা অনেক চেষ্টা করেছে নিজেকে ছাড়িয়ে নিতে কিন্তু পারেনি

কারন… আমি একটা হিংস্র বাগের মত ক্ষুধার্তো ছিলাম তাই

নিজের স্বাদটা পুরোপুরি নিয়ে নীলাকে ছেড়ে দিলাম

অন্যদিক ফিরে শুয়ে রইলাম

এলোমেলো হয়ে শুয়ে আছে নীলা

চোখে জল বুকভরা কান্না

কিন্তু কে শুনে তার এই কান্নার শব্দ আর শুনলে কি কেউ এগিয়ে আসবে

সবাইতো জানে আজ আমাদের বাঁসর রাত

কখন যে ঘুমিয়ে পড়লাম বুঝতে পারিনি

সকালবেলায় কারও চুলের পানি চোখে পড়লো তাতে আমার ঘুম ভাঙ্গে

চোখ মেলতে দেখি সে আর কেউনা আমার নতুন বউ নীলা

আমি/কি ব্যপার কি হয়েছে

নীলা/ কই

আমি/ তাহলে আমার ঘুম ভাঙ্গলে কেন

নীলা/ না মা……নে আপনার ফোনটা নিতে গিয়ে আপনার ঘুম ভাঙ্গে গেলো সরি

আমি উঠে নীলার কপালে একটা চুমু খেয়ে বললাম

আমি/ ছোটবেলার স্বপ্ন আমার প্রতিদিন সকালে ঘুম ভাঙ্গতে বউয়ের কপালে চুমু খাবো

আজ সেই স্বপ্নটা বাস্তব করলাম

আমার কথাটা শুনে নীলা হারিয়ে গেলো অন্য এক জগতে

এই মানুষটা কি সে মানুষ….. যে শেষরাতে আমার সাথে জোর করে…..

রাত আর সকাল দুটোর মাঝে কতটা পার্থক্য

আমি/ এই কি ভাবছো

চলবে….????

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here