devil love(married life) part : 1

0
1238

devil_love(married life) part : 1
writer-kabbo mahmud

জোসনা রাতে জোনাকির আলোই বাহিরটা আজ অনেক সুন্দর লাগছে
কিন্ত এটা একটি জীবন নিয়ে গল্প তাই সেই গল্পটাই আপনাদের শুনাতে চাই::::::::::::

এই রাতে রুমটিতে আজ চারিপাশে ফুলের পাপড়ি ছড়ানো আর সাথে রয়েছে অনেকগুলো মোমবাতি । চারিপাশে ফুলের গন্ধে মৌ মৌ করছে কিন্ত এই রুমেই বসে রয়েছে এক কিশোরী বধূ যার আজ নতুন জীবনের শুরু।
বিছানার মাঝে তানিশা ইয়া বড় ঘোমটা দিয়ে বসে রয়েছে চুপটি করে আর মনে মনে কিছু যেন ভাবছে /////

তানিশাঃ বজ্জাতের হাড্ডি এতক্ষন অপেক্ষা করছি তাও আসছেনা!! কত সপ্ন ছিল আমার এই রাত নিয়ে কিন্ত আজ তা হবেনা আজ উনার সাথে আমার সকল হিসাব ঠিক করে নিতে হবে অনেক বড় একটা সমস্যা চলে গেল তাই উনার সাথে আমি কিছু শেয়ার করতে চাই কিন্ত উনি আসছেন না কেন???. আস্ত ডেভিল তার উপর আবার রাগী জানিনা কখন কী করে
–হাজারো কথা তানিশা বলে চলেছে আর কাব্য ছাদের উপরে একপাশে দাঁড়িয়ে।
কাব্যঃ কত বড় একটা গেম খেলা করলে তুমি মিস্ তানিশা। যখন আমার সাথে এসএমএস করতে তখন ভাবতাম আমি কি এতোটাই নিষ্ঠুর ছিলাম? তোমার সাথে কত দুষ্টুমি ভালবাসার খেলা খেলেছি সেগুলো তোমার আমার মায়াতে বাধাতে পারল না আর আমার গল্পের মায়াতে পড়ে গেলে? হতে পারি ওটা আমি কিন্ত আসলেই আমি না এই গেমের উপহার তোমাই পেতে হবে ডিয়ার ::: তুমি আমার কাছে এসে ভুল করলে এবার বুঝবে

-কাব্য রাগী মুড নিয়ে নিচে চলে গেল —
-রুমে এসে দরজাটি লক করে ধীরে ধীরে তানিশার দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। —তানিশার কাছে বসে**

কাব্যঃ যাও ফ্রেশ হয়ে এসো**

–কাব্যর কথাই তানিশা সম্মতি দিয়ে ফ্রেশ হতে চলে গেল আর কাব্য একটি বালিশ ও চাদর নিচে ফেলে দিয়ে সুয়ে পড়ল
★কিছুক্ষনপর তানিশা রুমে এসে এমন অবস্থা দেখে অবাক হয়★

তানিশাঃ আপনি চাদরটি এভাবে ফেলে দিয়েছেন কেন??(কাব্যর পাশে দাঁড়িয়ে)

কাব্যঃ ওগুলো নিয়ে শোফার উপরে যাও

তানিশাঃ কেন?

কাব্যঃ বুঝতে পারছ না? তোমার সাথে আমি এক বিছানায় একসাথে ঘুমাতে পারব না তাই ওখানে যে ঘুমাও

তানিশাঃ ইহহহ আপনার সমস্যা আপনি যান আমার আপনার সাথে এক ঘরে এক বিছানাতে ঘুমাতে কোন অসুবিধা নেই **দেখি সরেন আমি ঘুমাবো খুব ঘুম পাচ্ছে

–তানিশাও কাব্যর একপাশে চুপটি করে সুয়ে পড়ে আর কাব্য তানিশার দিকে ড্যাবড্যাব করে তাকিয়ে আছে **কাব্য উঠে বসে বিছানা থেকে উঠে দাড়াই তারপর তানিশাকে কোলে তুলে নেই।

তানিশাঃ একি কী করছেন আপনি??
–তানিশাকে কোলে করে শোফার উপরে ধপাসসসস……..

তানিশাঃ উউউ মামুনিইই গো তোমার মেয়ে গেলো গো…. এই ডেভিল আমাকে মেরে ফেলবে *আমার কোমরটা গেলো এ্যাাাাাাাাা (ন্যাকা কান্না)

কাব্যঃ চুপ একদম চুপ(ধমকে )

কাব্যর ধমক দেওয়াতে তানিশা চুপ মেরে যাই

কাব্যঃ আর একটা কথা না বলে এখানে চুপ করে ঘুমাও
**
কি হলো ঘুমাও(ঝাঁড়ি দিয়ে)

তানিশা দ্রুত সুয়ে পড়ে চোখ বুজে ফেল

কাব্য তানিশার এমন ভয় দেখে মুচকি হাসি দিয়ে বিছানায় যেয়ে সুয়ে পড়ে

কিছুক্ষণ পর তানিশা কাব্যর দিকে ঘুরে
তানিশাঃ আপনার সাথে আমার কিছু কথা আছে

কাব্যঃ হুম বলো(তানিশার দিকে চেয়ে)

তানিশাঃ আমি জানি আমি না বুঝে কী থেকে কী করি তা আমারও অজানা কী থেকে কী করে ফেললাম সেটা আমি বুঝে উঠতে পারছিনা হয়তো এমনটাই আমার জীবনে ছিল।

আপনার সাথে আমার অনেক রকম ঝামিলা হয়েছিল হয়তো আপনি আমাই ভালবেসে ওরকম করতেন কিন্ত আমি সেগুলো ভালো mind এ নিতাম না নিজেকে অসহ্য মনে করতাম আপনার প্রতি বিরক্ত ছিলাম কারণ আমি আগে থেকেই একজন এর প্রতি দূর্বল ছিলাম যেটা আপনি এখন জানেন তাই আপনার প্রতিটি কাজ আমার কাছে ভালো লাগত না আপনার প্রতি কোন ইচ্ছা ছিল না কিন্ত পরবর্তীতে আমি সব বুঝতে পারি এবং আপনাকেও বুঝি তাই আমি এরকম করি এখন আপনি আমার কথা গুলো ভেবে দেখবেন বুঝতে পারলে ভালো আমি চাই অতীতে যা হয়েছে সেসব ভুলে যেয়ে নতুন ভাবে আমার জীবনটা শুরু করতে যদি আপনিও চান তাহলে আমি কৃতজ্ঞ।

**কাব্য তানিশার কথা গুলো মন দিয়ে শুনছিল
কাব্যঃ আচ্ছা আমাকে ভাবতে দাও

তানিশাঃ আচ্ছা

কাব্যঃ তানিশার সব কথাগুলো আমার কাছে স্পষ্ট আমি বুঝতে পারছি তানিশা আমার ভালবাসায় কেন দুর্বল হয়নি কারণটা হলো তানিশা আগে থেকেই একজনের প্রতি দুর্বল ছিল তাই কী করতে সব কী করে ফেলেছে আসলেই তো আমি এটুকু sense কাজে লাগাতে পারিনি? আর দেরী নয় আমি সব সময় যা করি এখনো সেটাই করব। অতীত নিয়ে আমি থাকিনা তাই সব সময় বর্তমান আর ভবিষ্যৎ নিয়ে থাকি এখন আমাই নিজের বর্তমান ঠিক করতে হবে তানিশার সাথে অতীতে কী হয়েছে আর না হয়েছে সেসব ভুলে যাওয়াই ভালো আমাকে এখন ওর জন্য প্রস্তুতি নিতে হবে(কাব্য এক গাল মুচকি হাসি দিয়ে আবার ভাবে) আসলেই তানিশা তুমি আমাকে বদলে দিলে আমি তোমাকে কষ্ট দিতে চেয়েছিলাম আর তুমি সব ভুল মিটিয়ে দিলে ★এভাবেই পাশে থেক আমার খুব ভালবাসা দেবো তোমাই।(ভাবনা থেকে বের হয়ে) তানিশা

তানিশাঃ হুম (চোখমেলে তাকিয়ে)
–কাব্য উঠে বসে তানিশার দিকে এগিয়ে যেয়ে তানিশাকে কোলে তুলে নেই তারপর বিছানায় সুয়িয়ে দেই***
তারপর ভালবাসার পরশে তানিশাকে রাঙিয়ে দেই
কিছুক্ষণপর★★

**তানিশা কাব্যর বুকের উপরে সুয়ে

কাব্যঃ আমি সব বুঝে গেছি Dear.. জানো আমি তোমাই খুব ভালোবাসি প্রথম শুভ্রর বিয়ের party তে তোমার সাথে দেখা আমি তোমাই চিনে ফেলেছিলাম কত কাহিনি পেরিয়ে এলাম ভেবে দেখো?

তানিশাঃ হুম, আমি সব ভুলে যেতে চাই সব এখন থেকে আমি তোমার মাঝেই থাকতে চাই এভাবেই তোমার বুকটি আমার জন্য রেখ আর কোন কিছু চাই না আমি

কাব্যঃ হুম রাখব তোমাই। কিন্ত তোমার দুষ্টুমি গুলো কোথাই গেলো আজ??

তানিশাঃ জানিনা। আমার জন্য একটি কাজ করে দিবেন?

কাব্যঃ হুম বলো

তানিশাঃ আমি অনেক সুন্দর কবিতে লিখি সুনবে একটা??

কাব্যঃ হুম বলো(চুলে বিলি দিতে দিতে)

তানিশাঃ

বাসরঘরে ডেভিল বলে
ভালোবাসব সুন্দর করে
কিন্ত ডেভিল জানেনা এটা
রাজকন্যা মারবে ঝাটা

কেমন হলো?? আমি জানি খুব ভালো হয়েছে কারণ আমি কোন খারাপ করতেই পারিনা তাই আমি চাই এটা পাব্লিশ করতে আপনি সাহায্য করবেন। করবেন তো??(কাব্যর দিকে চেয়ে)

–কাব্য স্পষ্ট বুঝতে পারছে তানিশা কী বোঝাতে চাইছে রাগে তার মেজাজটাই খারাপ কিন্ত নিজেকে ঠিক করে।

কাব্যঃ বাহ আমার বউ খুব সুন্দর কবিতা বানায় তো চিন্তা করোনা আমি সব কিছু করব এখন ঘুমাও রাত অনেক হয়েছে সকলে তোমাকে আবার সবাই দেখতে আসবে

তানিশাঃ হুমমমম,,,

★তানিশা কাব্যর বুকের উপরে ঘুমিয়ে পরে আর কাব্য তানিশার চুলে বিলি কেটে দেই আর একটা ভালবাসার পরশ একে দেই

কাব্যঃ গল্প দুজনেই লিখি কিন্ত আমাদের জীবনটাই গল্পের মতোই চলছে। আমিও এমনটাই চাই তোমাকে সারাজীবন কাছে পেতে I love you dear galbi (মুচকি হাসি দিয়ে) প্রতিটা দিন তোমাকে রাঙিয়ে দিতে চাই কিন্ত ভুল বুঝা বুঝি তো থাকবেই কেননা জীবনে সুখ দুঃখ আসবেই।

(আরো অনেক কথা মনে মনে বলছে কাব্য একসময় ঘুমিয়ে পড়ে)

চলবে

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here