ভাবির বোন ৬ষ্ঠ পর্ব

0
929

ভাবির বোন ৬ষ্ঠ পর্ব

#_জেএইসজনি
.
.
সাগর আসলে ওকে নিলার সাথে পিছন বসতে বললাম,তখন নিলা বলো,
নিলাঃ না ভাইয়া আপনি সামনে বসেন,,
কি আর করার,, সাগর সামনে বসলো আর আমি নিলার সাথে পিছন বসলাম,,
.
গাড়ি চলছে আপন গতিতে এয়ারপোর্টের দিকে,,
আর আমি চুপচাপ বসে আছি,,
নিলা হঠাৎ আমার হাতের আঙুল গুলো ওর হাতের আঙুল দিয়ে পেচিয়ে দরলো,,
আমিঃএই কি করছেন,,ছারেন,,সাগর দেখবে,,
নিলা আমার চোখের দিকে তাকিয়ে অন্যহাত দিয়েও আমার হাত চেপে দরলো,,
.
আমি হাত ছারাতে না পেরে চুপ করে থাকলাম,,
নিলা আমার এক হাত ওর দুহাতের মাঝে চেপে দরে আছে,,
আমার অবস্থা দেখে নিলা আমার চোখের দিকে তাকিয়ে মুচকি একটা হাসি দিলো,,
সামনে থেকে সাগর আমাদের কাহীনি দেখে হাসছে,,
নিলা আমার হাতটায় হঠাৎ একটা চুমু দিলো,
.
আমি সিহরিত হোয়ে গেলাম ওর আলতো ছোয়ায়.
ওর দিকে রাগী চোখে তাকালাম,,সামনে ওরা বসে আছে তাই কিছু বলতে ও পারছি না,,
নিলা আমার চোখের দিকে তাকিয়ে
মুখ চেপে হাসছে,,,
.
কিছুক্ষন পর এয়ারপোর্টে এসে নামলাম,,
প্লেন ল্যান্ড করতে এখনো, এ ঘন্টা বাকি,, তাই কিছু চিপস জুস নিয়ে নিলাম সাথে,,,
নিলা পাসে তাই পর্মালিটির জন্য নিলাকে বললাম,, কিছু খাবেন আপনি ,,,
নিলা ঃআপনার আদ খাওয়া জুস দিলেই হবে,,
আমিঃকি!
নিলাঃ যেটা শুনেছেন সেটাই,,
আমিঃআমি কাউকে ভাগ দিতে পারবো না,, আপনার যা খেতে ইচ্ছে হয় এখান থেকে নিয়ে নিন,,
নিলা,আমার যা খেতে ইচ্ছে হয় তাতো এই কেন্টিনে নেই,
আমি ঃতাহলে কোথায় আছে,,
নিলাঃ দুষ্ট একটা হাসি দিয়ে বললো,,আপনার কাছে আছে,,
আমি ঃকি পাগলামো কথাবার্তা,, আমি গেলাম,,
.
সাগর পাসের মোরে সুখ টান দিতে গিয়েছে..
এয়ারপোর্টের ভিতর গিয়ে কাউন্টারে বসলাম,,,
নিলা ও এসে আমার পাসে বসলো,,,
আমি জুসের বোতলের কাকটা খুলে মুখ লাগিয়ে খাচ্ছি,,
নিলা আমার খাওয়ার দিকে তাকিয়ে আছে,,
অর্ধেক শেষ হোতেই নিলা টান মেরে জুসের বোতলটা নিয়ে মুখে লাগিয়ে চুমুক দিয়ে জুস খেতে লাগলো,,
আমি ঃএটা কেমন অসভ্যতামি,,,
.
নিলা তৃপ্তির একটা হাসি দিয়ে বললো,,অসভ্যতামি না,,এটা ভালোবাসা,,
আমি কিছু না বলে চুপ করে থাকলাম,,
এবার চিপস খাবো তখন ভাবলাম আবার থাবা দিতে পারে তাই,, নিলাকে জিগাসা করলাম,, চিপস খাবেন,,আরেকটা আছে,,,আমারটা থাবা দিবেন না,,
নিলা ঃদেন,, থাবা দেওয়ার কোনো কারন নেই,,চিপস এ আপনার ঠোটের কেনো ছোয়া পাওয়া যাবে না,,
.
আমিঃ(কি মেয়েরে বাবা কোনো লজ্জা সরম নেই,কি বলে,,,)নিন,,
নিলাঃএত লজ্জা পাচ্ছেন কেনো,,
.
দুর কি জালায় পরলাম,, সাগর হারামি টায় যে কোথায় গেলো,,,
.
কিছুক্ষন পর প্লেন এয়ারপোর্টে ল্যান্ড করলো,,
আমরা ভিতরে গেলাম,,
গিয়ে তো দেখি আরেক কান্ড,,,
সাগর হারামীটা কোন একটা মেয়ের সাথে সমানে জগরা করছে,,
.
মেয়েটাকে পিছন থেকে দেখা যাচ্ছে না,,,
ওর কাছে গেলাম,,সাথে নিলা আছে,,
.
আমিঃকিরে কি হোয়েছে?
সাগর ঃআর বলিস না,,এই পেত্নিটা কোথা থেকে যেনো এসে গায়ে পরলো,, আর এখন বলছে নাকি আমার দোষ,,
.
মেয়েটা পিছন ঘুরতেই নিলা এবং মেয়ে দুজন দুজন কে জড়িয়ে দরলো,,
নিলাঃকেমন আছিস,,
মেয়েটা ঃভালো আর থাকতে পারলাম কোথায়,কাউন্টার থেকে বের হোতেই এই দামরা ছেলেটা এসে আমার গায়ে পড়লো,,
নিলাঃআচ্ছা হোয়েছে,,পরিচিত হোয়ে নে,,ওনি হলেন জনি, আপুর দেবর,,আর যার সাথে ধাক্কা লাগলো ওনি হলেন সাগর ভাইয়া, ওনার বন্ধু,,
এবার মেয়েটাকে দেখিয়ে দিয়ে নিলা বললো,,এ হলো আমার ফুফাতো বোন মিম,,,।
মিম হায় বলে আমার দিকে হাত বারিয়ে দিলো,, আমি যেই হাত বারাতে যাবো তখন নিলা মিমের হাত সরিয়ে দিয়ে বললো,,হোয়েছে সাগর ভাইয়ার সাথে পরিচিত হোয়ে নে,
মিম ঃওনার মতো বতজ্জাতের সাথে পরিচিত হতে আমার ভোয়েই গেছে,, চল,,
.
আমরা গাড়ির কাছে গেলাম,,,
গাড়ির পেছনে সিট আছে চার টা,,তাই আমি একদম পিছনের এক সিটে গিয়ে বসলাম,,
মিম আমার পাসে যেই বসতে যাবে তখন নিলা বললো, এই কি করছিস,, তুই ওখানে গিয়ে বস,,,
মিম ঃ আমি ওই বজ্জাতের সাথে বসতে পারবো না,, ,, আমি এখানেই বসবো,,,
এই বলে মিম আমার পাসে বসে পরলো,,
নিলা ভালোই যব্দ হোয়েছে,,,
,,
নিলা সাগরে পাসে বসে পরলো,,
আমি নিলার মুখের এক্সপেশন দেখে হেসে দিলাম,,
নিলা পিছন ঘুরে আমার দিকে তাকিয়ে কিছুটা রেগে বললো,, মেরে মুখ বেঙ্গে দেবো হাসলে,,,
আমি বাহিরের দিকে তাকিয়ে হাসি চাপিয়ে রাখার চেষ্টা করছি,,
নিলা এখনো রাগী ভাবে তাকিয়ে আছে,,
.
মিমঃতো আপনি কেমন আছেন,,
আমি ঃভালো,,তুমি,,
মিমঃভালো,,,
.
আমরা দুজন কথায় মসগুল,,নিলা বারবার পিছন ঘুরে আমাদের দিকে তাকাচ্ছে,আর রাগছে,,
.
নিলা হঠাৎ আমার দিকে রাগি চোখে তাকিয়ে বললো,, এই মিম ওনার গায়ের সাথে চেপে বসেছিস কেনো,, সরে বস,,
মিমঃকোথায় চেপে বসলাম,,আপনার দিকে কি চেপে বসেছি আমি,, (আমার দিকে তাকিয়ে বললো),,
আমিঃকই নাতো,,
মিমঃদেখেছিস,,(নিলার দিকে তাকিয়ে বললো)
নিলা আমার দিকে আবার সেই রাগি চোখে তাকিয়ে বললো, ওনার তো বালোই লাগে,,বদ কোথাকার,,,
মিমঃহোয়েছে এবার সামনে তাকা,,,
নিলা এবার সামনে তাকালো,,
.
মিম আবার আমার সাথে কথায় ব্যাস্থ হোয়ে গেলো,,
গাড়ির জাকুনিতে মিম বারবার আমার উপর এসে পরছে,,
নিলার এটা আর সয্য হলো না,,
সোজা আমাদের মাঝে এসে বসলো,,
দুজনের সিট তো,, তিনজন বসাতে একটু চাপাচাপি হচ্ছে,,
নিলা পুরো আমার গায়ের সাথে যেকে বসেছে,,
মিম আমি অবাক,,
মিমঃকিরে তুই সামনের সিট ছেরে এখানে আসলি কেনো,,
বসতে কষ্ট হচ্ছেতো,,
নিলাঃহলে হউক,,
মিমঃএখনো তো ওনার গায়ের সাথে তুই চেপে বসেচিস,,
নিলাঃবোসেছি তো কি হোয়েছে,চুপচাপ থাক,,
আমি উঠে যেই সামনের সিটে যাবো তখন নিলা হাত দরে টেনে বসিয়ে দিয়ে বললো,,চুপচাপ বসেন ,
আমি একটু ওর কাছ থেকে সরে বসার চেষ্টা করছি,,
কিন্তু যায়গা সল্পতে ওর গায়ের সাথে গা লেগে যাচ্ছে,,
নিলা ঃএখন সরে বসছেন কেনো,,একটু আগে তো,, একজন আরেকজনের উপর পরে ছিলেন,,
আমিঃওটা গাড়ির জাকুনিতে হোয়েছে,,,
নিলাঃএখন আমার উপর পরুন,,
আমিঃকি বলেন এসব,,,
মিমঃ কিরে নিলা কি বলছিস এসব,,আচ্ছা আমি সামনে যাচ্ছি,,
মিম সামনে গেলো,,
মিমঃ এই খবিস একটা সরেন বসবো,,( সাগর কে বললো)
সাগর ঃএত মিষ্টি করে বকা দেন কিভাবে,,
মিমঃপ্লট করছেন আমার সাথে,,মেরে রাস্তায় ফেলে দেবো ,
সাগরঃআপনি অনেক সুন্দর,,
মিমঃআবার প্লটিং করছেন আমার সাথে,,তখন তো বললেন আমি পেত্নি,
সাগরঃআরে তখনতো রেগে বলেছি,,
মিমঃহুম,
.
দেখতে দেখতে বাসার সামনে চোলে এসেছি,
সবাই গাড়ি থেকে নামলাম,,
সাগর বাদে আমরা সবাই ভিতর যাচ্ছি,,সাগর এখন আমাদের বাসায় যাবে না,বলে দিয়েছে,,

সাগর মিম কে পিছন থেকে ডেকে বললো,,এই যে মিস,,সরি,,
মিমঃইট,স ওকে,,
সাগরঃআপনি সত্যিই কিন্তু সুন্দর,,
মিম একটা মুচকি হাসি দিয়ে বললো,,আবার প্লটিং,,,
এখন কিছু বলছি না,,,আবার দেখা হলে মেরে দেবো,,,
.
বাসায় গিয়ে আমি আমার রুমে চোলে গেলাম,,,
.
দুপুরে সবাই খেতে বসলাম,,
.
খাবারের মেনু দেখে জিবে পানি এসে গেলো,,
মিম আসবে বলে এত কিছু,,,
.
আমি গফাগফ খেতে লাগলাম,,
নিলা খাবার খাওয়া রেখে আমার খাওয়া দেখছে,,
.
মিমঃকিরে কোথায় তাকিয়ে আছিস,,,হা করে তাকিয়ে না থেকে খা,,
নিলা কিছুটা লজ্জা পেলো,,
,
আমি খেয়ে রুমে চোলে আসলাম,,
কিছুক্ষন পর বারান্দায় গেলাম,,
বারান্দায় গিয়ে দেখি
ইরা ফোনে কথা বলছে,,
.
আমি কাছে যেতেই ইরা ফোন কেটে দিলো,,
আমি ঃকিরে কার সাথে কথা বলছিস
ইরাঃককই কার সাথে কথা বলি,,
আমিঃআমি তো দেখলাম বললি,,,তা ছেলেটা কে,,
ইরাঃকেউ না,,
আমি ঃনতুন প্রেমে পরলি নাকি,,
ইরাঃতুমি না,,,ইরা লজ্জা পেয়ে চোলে গেলো,,
.
রাতে আমরা সবাই বসে গল্প করছি,, আর হাসাহাসি তে মেতে আছি,,
.
বেসি ক্ষন আর ওদের মাঝে না থেকে ছাদে চোলে গেলাম,,
.
নির্বিক ভাবে আকাশের দিকে তাকিয়ে আছি,, তখন নিলা এসে আমার পাসে দারালো,,
আমি একবার নিলার দিকে তাকিয়ে আবার আকাশের দিকে তাকালাম,,,
নিলা নরম সুরে বললো,,
চোলে আসলেন যে,,,
আমিঃএমনেই,,,
নিলাঃও,,,
নিলা কিছুক্ষন চুপ করে থাকলো,,
আবার বললো,,
নিলাঃসবার সাথে তো হেসে হেসে কথা বলেন,,,আমার সাথে কেনো বলেন না,,, খুব বেসি অপরাধ করে ফেলেছি তাই না,,
.
এই অন্ধকারেও নিলার চোখের বিন্দু বিন্দু পানি আমি স্পস্ট দেখতে পাচ্ছি.
.
To Be Continue….

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here