আমার পাগলি প্রেমিকা ৩য় পার্ট  

0
353

আমার পাগলি প্রেমিকা ৩য় পার্ট
.
….#জেএইসজনি
.
.
আমিঃ আচ্ছা রাগ করতে হবে না,, তোমরা যখন ইচ্ছে তখন এখান থেকে ফুচকা খাবে,, আমি মামাকে বলে দেবো
মিরা বসা থেকে উঠে এসে আলতো করে জড়িয়ে দরে বললো,, ইউ আর গ্রেড ভাইয়া,,
,
নিলা এইটা দেখে রেগে গিয়ে ইরাকে ধাক্কা দিয়ে সরিয়ে বললো , এই তুই কি করছিস,
মিরাঃ সরি দোছ,, খুশি তে নিজেকে দরে রাখতে পারিনি,,
আমিঃএত খুশি হোয়ে লাভ নেই,, এক শর্তে খাওয়াবো,,
সবাই এক সাথে ঃ কি?
আমিঃ শর্ত হলো আমার মহারাণি কে দেখে রাখতে হবে,,
আনিসা ঃ এইটা আর কি শর্ত আমরা রাজি,,
আচ্ছা তা হলে তোমরা খেতে থাকো।,,
মামা আমাদের টা দেন,,
.
আমিঃনিলা হা করো,,
নিলা অভিমান করে মুখ সরিয়ে নিল,,
আমিঃ পাগলি একটা হা করো,, নিলা কে খাইয়ে দিলাম,,
নিলাঃ হা করুন,,
আমিঃ আচ্ছা দেও
,,
খাওয়া শেষ করে বললাম, তা হলে আজ আমি উঠি।,,
তোমাদর কাছে তো আমার নাম্বার আছেই,, কোনো সমস্যা হলে আমাকে ফোন দেবে,,
ওরা ফুচকা খেতে খেতে বললো, আপনি যান, আছে, সমস্যা নেই,,
আমিঃ তোমার আবার কি হলো,,
নিলাঃ আপনি এখনি চোলে যাবেন,,
আমিঃ পাগলি একটা এর জন্য হোপ করে থাকতে হয়,, এদিকে আসো, এই তোমরা ওই দিক তাকাও,,
আমি নিলার কাপালে একটা চুমু দিয়ে সেখান থেকে চোলে আসি,,
নিলা এক ধ্যানে আমার চোলে যাওয়ার দিকে তাকিয়ে রইলো।
..
আমি আমার কাজে চোলে গেলাম,,
.
এর দু দিন পর আমার অফিসে রাহাত এসে হাজির,
হাতে মিষ্টির পেকেট।
,
রাহাত সোজা এসে আমার পা দরে সালাম করতে লাগলো,,
আমিঃআহা কি করছো উঠো,
,
রাহাত ঃ স্যার আমার চাকরি হোয়েগেছে,,
আমিঃ ভালো,,
,
রাহাতঃস্যার মিষ্টি খান,,
.
আমিঃ আমার জন্য দু পিজ রেখে বাকি গুলো বাহিরে যারা গার্ড দিচ্ছে তাদের কে খাইয়ে আসো,,
,,
রাহাত আমার কথা মতো আমার জন্য দু পিজ রেখে,, বাকিগুলো ওদের কে খাইয়ে আসলো,,
রাহাত ওদের খাইয়ে আমার কাছে আসলো,,
আমিঃ তা যয়েন কবে থেকে করছো,,,
,
রাহাত ঃ এক সপ্তাহ পড় স্যার!
আমিঃ ভালো,
রাহাত ঃ স্যার, মা আপনাকে একবার যেতে বোলছিল!
আমিঃ আচ্ছা আমি যাবো, কাল যেতে পারি,,
রাহাত ঃ আচ্ছা স্যার, তাহলে আমি আসি,,
আমিঃ ঠিক আছে যাও
,
পর দিন দুপুরে গেলাম নিলাদের বাসায়,,
,,
নিলার মাকে সালাম দিলাম,,
নিলার মা ঃ বাবা কি করে যে তোমার ঋৃন শোধ করবো, তুমি যে কত বড় উপকার করলে,,
.
আমিঃ কি যে বলেন না আপনি,, মা যেহেতু বোলেছি, সে হিসেবে এটুকুতো করতেই পারি,, আচ্ছা আপনার সাস্থ এখন কেমন,,
,
নিলার মাঃ মোটামুটি ভালই,, আজ কিন্তু দুপুরে খেয়ে যেতে হবে,, কোনো না করতে পারবে না,,
আমি ঃআচ্ছা ঠিক আছে,,,
নিলার মাঃএই নিলা ছেলেটাকে মিষ্টি দে আমি রান্না ঘরে গেলাম,,
,
কিছুক্ষন পর নিলা মিষ্টি নিয়ে এলো,,
,,
নিলাঃএই নিন মিষ্টি খান,
একটা মিষ্টি মুখে দিতেই, নিলা বললো,
নিলাঃ আচ্ছা আপনি কি আমাদের উপর করুনা করছেন, আমাদের দুরঅবস্থা দেখে,,
,,
নিলার কথা শুনে মুখ থেকে মিষ্টি টা,পরে গেল,,
আমি নিলার মুখের দিকে তাকিয়ে আছি, ও এভাবে আঘাত করে কথাটা
বলতে পারলো,,
নিলাঃ কি হলো খাচ্ছেনা কেন,,
আমিঃ তোমার আম্মুকে ডাকো,,
নিলা নিলার আম্মুকে ডাকলো,,
নিলার মাঃকি হোয়েছে বাবা,
আমি ঃ আমি চোলে যাচ্ছি,, ভালো থাকবেন,,
নিলার মা ঃ সেকি বাবা, তোমার জন্য রান্না করলাম, না খেয়েই চোলে যাবে,,
আমিঃ অফিস থেকে কল এসেছে, যেতে হবে,,
নিলার মাঃ মিষ্টিতো খেয়ে যাও,,
আমিঃ পরে এক সময় খাবো,,
আসি,,
,,
নিলা হতবাক হোয়ে চেয়ে আছে,, ভাবছে, মুখ ফসকে কি বোলে ফেললাম
আমি যখন গাড়িতে উঠতে যাব, তখন নিলা আমার হাত দরে ফেললো,,
নিলা ঃ কি হোয়েছে আপনার,, রাগ করলেন নাকি, আসলে মুখ ফসকে কথাটা বেরিয়ে গেছে ,
আমি কিছু না বলে নিলার কাছ থেকে হাতটা ছারিয়ে গাড়িতে উঠে বসলাম,,
তখন নিলার মুখ টা দেখার মতো ছিল,,
সেখান থেকে আমি চোলে আসলাম,,
,,
এত ভালোবাসি ওকে, আর সে কিনা তা করুনা মনে করে,,
,,
অন্যদিকে নিলাও কেদে কেদে একাকার,,
নিলা মনে মনে ভাবছে, কি বোলেফেললাম আমি,, ওনি কি রাগ করলো,,এখন আমি কি করবো,, ওনি যদি রাগ করে আর কথা না বলে, তা হলে তো আমি মরেই যাবো,, আমার সাথে কথা না বোলে থাকতে পারবে নাকি,,
এসব ভাবছে আর কাদছে,,,
,,
অন্য দিকে আমার ভিষন অভিমান হলো নিলার উপর, একথা কিভাবে বলতে পারলো,,
,,,
পর পর দুদিন আর নিলার সাথে কোনো যোগাযোগ করিনি,,
,
তার পরের দিন, আনিসা কল দিল,,
আমিঃ হ্যালো,
আনিসাঃ কি হোয়েছে ভাইয়া আপনাদের মধ্যে,, নিলা তো কেদে কেদে শেষ,, এই কথা বলেন,,
নিলার কাছে ফোনটা দিল,,
আমি কিছু বলছি না,,
অপর পাস থেকে নিলা হাউমাউ করে কাদতে লাগলো,,
নিলাঃ আমি সরি, আমি বুঝতে পারিনি, কি হলো কথা বলছেন না কেন,,, আমি কিন্তু ভিষন কান্না করছি,, কি হলো,
,,
আমি কলটা কেটে দিলাম,,
নিলা কান্না বন্ধ করে দিল,,
ওর বান্ধুবিরা বললো কিরে কি হোয়েছে,,
নিলাঃ কল কেটে দিয়ে ছে,,
মিরাঃ তুইও না, কেনো বলতে গেলি এ কথা, এখন বোঝ কেমন লাগে,,
নিলাঃবোঝবেতো উনি,,
আনিসা ঃ কি করবি তুই,
নিলা ঃ ওনার অফিসে যাবো, বুঝাবো এই নিলা কি জিনিস,,
,,
নিলা সেখান থেকে সোজা আমার অফিসে চোলে গেল,,
আমি তখন একটা ফাইল দেখছি,
,,
হঠাৎ দেখি নিলা অগ্নি মুর্তি ধারন করে আমার দিকে তেরে আসছে,,
,
সবাই যেহেতু নিলাকে চিনে, তাই ভিতরে আসতে কেউ বাধা দিল না,,
,,
নিলা আমার সামনে এসে অগ্নি চোখে তাকিয়ে থাকলো,
আমি কাজে মন দিলাম,
এমন একটা ভাব নিলাম যেন কিছুই হয়নি,
হঠাৎ নিলা আমার কলার চেপে দরলো,
আমিঃ কি করছো কি, ,ছারো, কেউ দেখে ফেলবে,,
নিলাঃ দেখুক,, সবাই দেখুক আপনি আমাকে কত কষ্ট দিচ্ছেন, কি বোলেছি আমি,, হ্যা কি বোলেছি, মুখ ফসকে না হয় একটা ভুল কথা বের হোয়ে গেছে,
তাই বলে আপনি আমার সাথে কথা বলবেন না,,(কেদে কেদে বললো নিলা) দরজার দিকে তাকিয়ে দেখি রহমত মুখচেপে হাসছে,, চোখ দিয়ে ইশারা করতেই চোলে গেল,,
এবার আমি কলার থেকে হাত ছারিয়ে নিলাকে বললাম
,

আমিঃআমি কথা বললেই কি না বললেই কি,, আমার ভালোবাসা তো করুনা, আমিতো ভালোবাসতে যানিনা,, সবাইকে করুনা করতে যানি,, আমার করুনা দিয়ে তুমি কি করবে তার চেয়ে বরং তুমি চোলে যাও,, যে তোমাকে ভালোবাসতে যানে তার কাছে যাও,,আমার কাছে আসছো কেন,,
নিলা এবার আমার মুখটা তার দিকে ফিরিয়ে বললো,,কি বললেন আপনি, কথা বলবেন না আপনি,,
আমি ঃ না, যে তোমাকে ভালোবাসতে যানে তার কাছে যাও,
,
দেখলাম নিলার চোখ ক্রোমশ লাল হচ্ছে,,
হঠাৎ ই নিলা আমার চুল গুলো খামছি মেরে দরে তার দিকে টেনে এনে, ঠোটের সাথে ঠোট মিলিয়ে দিলো,, কিছুক্ষন পর ছেরে দিল,,
,,
আমার দিকে কিছুক্ষন তাকিয়ে থেকে চোল যেতে লাগলো,,
আমি জানি ওর অভিমান পাহাড় পরিমান জমে গেছে,,
আমি পিছন থেকে নিলার হাত টেনে দরলাম।
নিলা এক ঝটকায় আমার হাত ছারিয়ে চোলে যেতে লাগলো,,
এবার দু হাত দিয়ে টেনে দরলাম,
নিলা এবার শব্দ করে কেদে দিল,,আর বললো ছারুন, আমাকে ছারুন, লাগবেনা আমকে আপনার,,

আমি চোলে যাবো, বহুদুরে চোলে যাবো,,, ছারুন আপনি,,
এবার একটান দিয়ে নিলাকে বুকের মাঝে চেপে দরলাম,,
এবার আর না পেরে শান্ত হোয়ে গেল,,
আমি ঃ এই কি বলছিলা তুমি, বহুদুরে কোথায় যাবে,,
নিলা হাতের মুঠো থেকে একটা কৌটা বের করে বললো,, এটা খেয়েই বহুদুরে চোলে যেতাম,,
,,
আমি চেয়ে দেখলাম,, এইটা একটা বিশের বোতল,,
আমি ঃকি পাগল পাগল কথা বলছো,, একটা মাইর দিবো, ফালাও এইটা,
নিলাঃ আজ সত্যি সত্যি এইটা খেয়ে নিতাম,, এইটার চেয়ে আপন মানুষের দেয়া কষ্ট যে আরো বেশি, আপনি যানেন,,
আমিঃ এইটা তো তোমার বুঝা উচিত,,
তোমাকে কত ভালোবাসি আর তুমি সেই ভালোবাসাকে করুনা হিসেবে দেখছো,,, আর একবার যদি এরকম কিছু বলো,, দেখবে সেইদিন আর আমাকে পাবেনা,,, তোমাদের এখান থেকেই চোলে যাবো,,
,
নিলা বোতলটা দেখিয়ে বলল,, সেই দিন এইটাও খেতে পারি,, এইটা খেয়েই সেই দিন শেষ হোয়ে যাবো দেখবেন,,
.
আমি নিলার হাত থেকে বিশের বতলটা নিয়ে জানালা দিয়ে বাহিরে ফেলে দিলাম,,আর ওকে বুকের মাঝে শক্ত করে চেপে দরে কেদে দিলাম,,

আমিঃ পাগলি এমন কথা কেউ বলে, ভুলেও আর এসব ছুবে না,,তুমি তো জানোই তোমাকে বড্ড বেশি ভালোবাসি,
নিলা আমার চোখের পানি মুছে দিয়ে বললো,, এখনতো দেখছি আপনি একটা পাগল,,এই ভাবে কেউ কাদে,, আমিও কিন্তু কেদে দেবো বোলে দিলাম,,আমিতো আপনার ছোট, ,আমি তো ভুল করতেই পারি,,তাই বলে আপনি এমন করবেন,,
আমি ঃ পাগলি তোমার এই ভুল যে আমাকে ভিষন আঘাত দেয়,,,
নিলাঃ আচ্ছা এখন চলেন,, ওই দিন তো মিষ্টি না খেয়েই চোলে এলেন,, এখন আমি নিজ হাতে আপনাকে মিষ্টি খাইয়ে দেব,,
আমি নিলা কে একটু কাছে এনে বললাম,, তোমার ওই ঠোটের চেয়ে বড় মিষ্টি আর আছে নাকি,,, এখন ওটা খাওয়ালে হবে,,
,,
নিলা লজ্জা পেয়ে আমার বুকের ভিতর মুখ লুকিয়ে বললো,, যান আমার বুঝি লজ্জা করে না,,
আমি ঃ ওরে আমার লজ্জাবতী রে, তখন বুঝি লজ্জা করেনি,,
নিলাঃতখন তো রাগের বসে দিয়েছি,,
আমি ঃ এখন ভালোবেসে দেও,,
নিলাঃ যান, আপনি না আসলেই একটা পাগল,,
নিলা আমাকে আরএকটু শক্তকরে
জড়িয়ে দরে বললো,, এই মিষ্টি আপনাকে সারাজিবন খাওয়াবো,,তবে কথা দিতে হবে,আমাকে অনেক ভালোবাসতে হবে,, কখনো ছেরে যেতে পারবেন না,,
আমিঃ আচ্ছা মহারানী ,,

নিলাঃ এবার চোখ বন্ধ করেন,
আমিঃ কেন,, মিষ্টি খেতে চোখ বন্ধ করতে হয়,,

নিলাঃ আমার লজ্জা লাগে,,
আমিঃ আচ্ছা করছি,,
,,
নিলার নরম ঠোট গুলো আমার ঠোটের সাথে লাগতেই, নিলা আমাকে
খামছি মেরে দরলো,, দুজন দুজনাতে হাড়াতে লাগলাম,,
কিছুক্ষন পর নিলা হঠাৎ আমার ঠোটে একটা কামর দিয়ে দিল,,
আমি, আউ করে শব্দ করে উঠলাম,,
নিলা পাসে দারিয়ে মিটিমিটি হাসছে,,,
,,
আমি ঃ কি করলে এটা,,
নিলাঃ এটা আপনার শাস্থি, আমাকে কষ্ট দেওয়ার জন্য,,,
আমি ঃ পরের বার আমিও দেখে নিবো,,

নিলাঃ আচ্ছা,, সারা জীবন দেইখেন,,

আমি এখন যাই,,
আমি ঃ আরএকটু থেকে যাও না,,

নিলাঃ না,, আম্মু টেনশন করবে,, কালকে কিন্তু কলেজে আসবেন,,
এখন যাই,,
আমিঃ এদিকে আসো,
নিলা ঃ আবার কি হলো,

আমিঃআসোতো,,
নিলাঃ এইতো আসলাম,,
আমি নিলার কপালে আলতো করে একটা চুমু দিলাম,,

এবার যাও,,
নিলাঃআপনি না আসলেই একটা পাগল,,আচ্ছা আসি ভালো থাকবেন,,

আমিঃসাবধানে যেও,, বাহিরে গাড়ি আছে, বোলে দিচ্ছি, এগিয়ে দেবে,,
,,
পাগলি একটা……..
……চলবে. ……..
.
,,
ভুলত্রুটি ক্ষমার চোখে দেখবেন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here