আমার বুড়ো part : 12

0
729

আমার বুড়ো part : 12

লেখিকা সুরিয়া মিম

!
আমি আমার বৌ কে দেখিনি অনেকক্ষণ ওকে দেখে আসি,

জানিনা কোনো নারীর তার স্বামীর ভাগ দিতে কেমন লাগে?

তবে জীবনের এই মুহূর্তে এসে বৌয়ের ভাগ দিতে আমার পরান টা কেপেঁ কেপেঁ উঠছে,
….
এই যে ইমান কি ভাবছ তুমি?
…..
আমার ছোটো ছেলেটার কথা ভাবছি?
..
কেন ইশান আবার কি করেছে?
….
ছোটো ছেলেটা বড়ই মায়ের ন্যাওটা জানো,
এই এতো বড় হয়েছে তবু ও মা ছড়া কিছু বোঝে না,
….
দিনে দশবার ফোন দিয়ে মায়ের সাথে কথা বলবে,
সেই ছেলে ছয়মাস মায়ের সাথে কথা না বলতে পেরে আমার সাথে ও কথা বলা বন্ধ করে দিয়েছে,
….
ছেলে তো এই ছয় মাসে ঘটে যাওয়া কোনো ঘটনা জানেনা,
জানলে ও আমার দিকে ফিরে ও তাকাবেনা,
….
ছেলে আমার ভালোর ভালো খারাপের জম,
এখন আমার ভয় ও যদি এখানে ফিরে ওর মায়ের কাছে চলে যায় তাহলে,

ইশানের তো এখনো বিয়ে শাদী হয়নি না,
…..
না,

বুড়ো তুমি আমাকে বিয়ে করে ও তোমার বৌ কে ভুলতে পারনি তাই না?
….
চল্লিশ বছরের সংসারে এতো এতো অভ্যাস মানুষ বদলে গেলে ও অভ্যাস বদলায় না,
তাই আমার ওকে ভোলা ও সম্ভব না,
….
মা রাত হয়ে গেছে গেস্ট রাও চলে গেছে তুমি গিয়ে ফ্রেশ হয়ে নাও,
….
আমি বাবা কে ডেকে দিচ্ছি,
..
ওকে মা,
….
শাওয়ার নিয়ে রুম এসে দেখি,
….
আমার বুড়ো শাওয়ার নিয়ে এসে ভিজে চুল মুছতে টাওয়াল খুজে বেড়াচ্ছ,
….
বেখেয়ালে উনি আমার সাড়ির আচল তুলে মাথা মুছতে শুরু করে,
….
মাথা মোছা শেষ হলে,
আমার সাড়ির আচল টা ছেড়ে দিলে ভালো হয়,

ইয়ে মানে আমি না বুঝতে পারিনি সরি,

হঠাৎ করে উনি আমার কাছে এক পা এক পা করে এগিয়ে আসতে থাকেন,

হুট করে আমার কাছে এসে মাথায় ঘোমটা দিয়ে বলে,
….
তোমার হৃদয় টা তো এতো বড়ো,
সেখানে কি আমার বেশি না একটু জায়গা হবে না নাকি?
….
না হবে না বুড়ো,

দেখো বুড়ি কিপটেমো করোনা,
শুধু একটু জায়গা চাইছি,
স্বামীর অধিকার তো চাই নি,
…..
তখন খেয়াল করে দেখি মেয়ে আমার দরজায় দাঁড়িয়ে ওর মুখ চেপে হাসছে,
….
বুড়ো তোমাকে আমি এমনি এমনি বিয়ে করিনি,
….
তাহলে কেন করেছ?
….
তোমার পয়সা প্রপার্টি ব্যাংক ব্যালেন্সের জন্যে,

তখন উনি হাসতে হাসতে আমাকে বলেন,

তাহলে কালকেই আমার সমস্ত স্থাবর অস্থাবর সম্পত্তি তোমার নামে লিখে দিবো,
বিনিময় তোমার আমাকে ভালোবাসতে হবে,

ভালোবাসার জন্যে ঘুষ দিতে হবেনা এমনি তেই পেয়ে যাবেন,
…..
বাবা তুমি না আস্তে একট…..
….
কি?
….
কিছুনা,
..
আজকে আমার মা কে তোমাকে দিয়ে গোলাম,
সামলে রেখো প্লিজ,

হ্যা অবশ্যই,
….
মেয়ে যেতেই উনি দরজা লাগিয়ে আমার কোলে মাথা রেখে শুয়ে আর আমি ওনার মাথায় হাত বুলিয়ে দেই,
….
তারপর উনি ঘুমতেই আমি ওনার গায়ে কাঁথা টেনে দিয়ে ওনার পাশে শুয়ে পরি,
…..
কিছুদিন ধরে লক্ষ করছি মেয়ে আমাকে কিছুতেই ছাদে যেতে দিচ্ছে না,
….
আজকে ওর বাবার সাথে ছাদে হাটতে যেতেই আমি পাশের ফ্লাটে খেয়াল করে দেখি,

খান সাহেব সেখানে দাঁড়িয়ে আছেন,

হঠাৎ বুড়ো টা আমাকে কোলে তুলে,
সোফায় বসিয়ে পকেট থেকে পায়েল বেড় করে পরিয়ে দেয়,
….
আমি হাসবো না কাঁদবো বুঝতেই পারছিনা,
….
হঠাৎ মাথায় ঘোমটা টেনে দিয়ে বলে,
….
যদি বৌ সাজো গো আরো সুন্দর লাগবে গো,

বুড়ো বয়সে ভীমরতি হয়েছে তোমার?

হ্যা খুব গো হা হা হা,

চলবে

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here