অবেলায় ভালোবাসা পর্ব-২০

0
152
অবেলায় ভালোবাসা পর্ব-২০
অবেলায় ভালোবাসা পর্ব-২০

অবেলায় ভালোবাসা পর্ব-২০

লেখা –সুলতানা ইতি

গাইথি- ঠিক আছে আমি রাজি
চুহেস- আমি রাজি নয়

গাইথি- তুমি তো রাজি হবে সাথে তোমার গাড় ও রাজি হবে, এভাবে গল্পগুজবের মধ্যে সবাই গিয়ে পৌছলো,

আর একদিন পর অনুষ্ঠান দুই বাড়িতে সবাই ব্যাস্ত
চুহেস বল্লো অনুষ্ঠান টা তার বাড়িতেই হবে
এতে আহমদ মেহেরা প্রথমে রাজি না হলে ও পরে রাজি হয়

আমেরিকা থেকে শ্রুতিদের আসতে বলা হয়েছিলো
কিন্তু শ্রুতি সাইমুমের সাথে বিয়ে না দেয়ায় আসবে না বলে দিয়েছে
কথা টা শুনে গাইথির মন খারাপ হলে ও পরে নিজেকে মানিয়ে নেয়

চুহেস- তার রুমে বসে আছে এমন সময় নিহার আগমন
চুহেস- কিছু বলবে নিহার

নিহার- স্যার আপনার ফ্রান্সে যাওয়ার ডেইট টা আর ও এগিয়ে আনতে হয়েছে

চুহেস ভ্রু কুঁচকে বল্লো
– কেনো

নিহার- রাবেয়া খালা খুব বেশি অসুস্থ উনি আপনাকে শেষ বার দেখতে চাইছে

চুহেস- কি বলছো এখন কি হবে কাল তো আবার এংগেজমেন্ট

নিহার- তাতে কোন প্রব্লেম নেই স্যার পরশু আপনার ফ্লাইট

চুহেস- ওহ তা হলে ঠিক আছে কিন্তু গাইথি কে কথা টা বলতে হয়

নিহার- স্যার একটা বলতে চাই
চুহেস- বল

নিহার- গাইথিকে এখন কিছু বলার দরকার নেই কাল অনুষ্ঠান মিছামিছি মন খারাপ করে বসে থাকবে,অনুষ্ঠানের পরে বুঝিয়ে বলবেন

চুহেস- ঠিক বলেছে নিহার, তোমাকে ধন্যবাদ

নিহার- ওয়েলকাম স্যার, তা হলে আমি আসি

অনুষ্ঠান শুরু হবে সন্ধ্যা পরে বিকেল থেকেই গেস্টরা আসা শুরু করেছে
চুহেসের বিজনেস পার্টনার দের ইনভাইট করা হয়েছে, সব মিলিয়ে দু শোর উপরে মেহমান ইনভাইট ফেল,

গাইথি আর নিধিপা পার্লারে চলে গেছে, অনেক আগেই
নিহার চুহেস কে রেডি করছে

নিহার- স্যার আপনাকে অনেক সুন্দর লাগছে আজকে, বিশেষ করে স্যুট টা আপনাকে অনেক মানিয়েছে

চুহেস- ধন্যবাদ, তোমাকে ও কম লাগছে না আজ

ঘন্টা খানেকের মধ্যে গাইথিরা চলে এসেছে
এই পুরো অনুষ্ঠান দেখা শুনা করবে নিধিপা

নিধিপা- ঘোষণা দিলো প্রথমে নাচ গান,
তার পর হবে আংটি পরানো
সবাই এক সাথে হাত তালি দিয়ে উঠলো

এবার ঐশী ঘোষনা দিলো এখন আপনাদের সামনে পরিবেশিত হবে একটা কাপল ডান্স,আর এতে পার্ফম করবে নিধিপা এন্ড নিহার
সবাই এক যোগে হাত তালি দিয়ে উঠলো

নিহার আর নিধিপা নাচে স্টেজে গেলো, কিন্তু দুজনেই দাঁড়িয়ে আছে কি ভাবে কি দিয়ে শুরু করবে বুঝতে পারছে না, এদিকে একটা হিন্দি গান বেজে উঠলো

নিধিপা নিহারের কানে কানে বল্লো
– হিন্দি গানের তালে নাচতে পারবো না আমি

নিহার- ওকে গান চেঞ্জ করতে বলি
গান শুরু হলো নিহার আর নিধিপা নাচ ও শুরু করলো
“আমার মনে ঘরে একটু একটু করে ভালোবাসার ঘর বুনেছি রঙিন স্বপ্ন দিয়ে

যেমন করে পাখি বাদে নিজের সুখের ঘর সুতো ছাড়া বুনে বুনা ভালোবাসার ঘর”

এই গানের সাথে তারা নাচ দিলো, নাচ শেষে সবাই হাত তালি দিয়ে শুভেচ্ছা জানালো তাদের কে

এর পর নিধিপা, উপস্থিত সম্মানিত গেষ্ট দের উদ্দেশ্য ঘোষনা করলো,এবার পার্ফম করবে, ঐশী এন্ড আদনান

আদনান তো ঘোষনা শুনে চমকে উঠে বলে কি আমি নাচবো?

ঘোষনা শেষ করে নিধিপা আর নিহার এলো আদনানের কাছে

নিহার- ভাইয়া চলুন ভাবির সাথে ডান্স করবেন

আদনান- তোমাদের কি মাথা খারাপ হয়েছে আমি ডান্স করবো,আমি সকলের মুরুব্বী, ভুলে যাচ্ছো কেনো কন্যা পক্ষ থেকে আমি কন্যারর বড় ভাই

নিধিপা- এতো কিছু শুনছি না ভাইয়া,আপনি আমাদের মুরুব্বী নয়,আমাদের মুরুব্বী হচ্ছে চাচাজান,আমরা কিন্তু উনা কে বলিনি আপনাকে বলেছি,

নিহার- সো আসুন ডান্স ফ্লোরে
আদনান কে নিহার আর নিধিপা টেনে নিয়ে এলো মিউজিক শুরু হলো আদনান তো নাচতে পারেই না বরং নিহার আর নিধিপা আদনাকে নাচার চেষ্টা করে অনেক মজা করলো

এর পর একে সবার পার্ফম শেষ হলো অনুষ্ঠানের শেষ পর্যায় চলে এলো এবার ঐশী ঘোষনা করলো
-এবার কাপল ডান্স নিয়ে আসছে আপনাদের মাঝে আজকের এই আয়োজন যাদের কে ঘিরে, চুহেস মেহেরা এন্ড গাইথি মেহেরা, এখন পার্ফম করবে আমাদের বিশেষ এই দুই ব্যাক্তি,সবাই জোরসে হাত তালি দাও ওদের জন্য

গাইথি যদি ও ঐদিন ঝোকের মাথায় ডান্স করতে হ্যা বলেছিলো কিন্তু এখন সত্যি তার মাঝে একটা ঝড়তা কাজ করছে, এতো মানুষের সামনে চুহেসের সাথে ডান্স করবে কি করে

নিধিপা টেনে নিয়ে এলো গাইথি কে
নিহার টেনে নিয়ে এলো চুহেস কে, ওদের কে স্টেজে রেখে ওরা সরে গেলো

গাইথি লাজরাংগা চাহনিতে চুহেসের দিকে তাকিয়েছে
চুহেসে ও গাইথির দিকে তাকিয়ে মিষ্টি একটা হাসি দিলো

মিউজিক শুরু হলো
নিধিপা গাইথি কে ইশারা করে ডান্স শুরু করতে বল্লো।
গাইথি সব ঝড়তা সংকোচ দূর করে ডান্স শুরু করলো, চুহেস ও তার সাথে যোগ দিলো
” দিলখোগায়া হোগায়া কিসিকা
আবরোসেতা মিলগায়া খুশিকা
আখোমে খাবেসা কিসিকা
আবরোসেতা মিলগায়া খুশিকা
ইশতানায়াহা রাফবা
দিলচুরায়াহা হে কিউজে মুঝে
কয়িডো,তেরিও,তেরিও,তেরিও,হায় রাফবা
তেরিও,তেরিও,তেরিও,

খুলকি বিধাঁয়ে খুলকি ঘাটায়ে
সারফেমে আয়ে আসমা
সারোদিশায়ে খাসকে বুলায়ে
তুসাবহে মেহেরবাও

হু হামিতোয়াহি রাফবা
কাসামসে ফাতায়ে
দিলহে নাহি কয়িজোর কয়িজো
তেরিও, তেরিও,তেরিও”

ডান্স শেষে দুজনেই ফিরে এলো স্টেজে থেকে গেষ্টরা সবাই এসে তাদের শুভেচ্ছা জানালো,
খুব ভালো পার্ফম করেছে গাইথি আর চুহেস

নিধিপা এসে গাইথি কে বল্লো
– দোস্ত হিন্দি গানের তালে ডান্স করে একদম ফাটিয়ে দিয়েছিস,তুই যে এতো ভালো ডান্স জানিস এটা জানতাম না

নিহার চুহেস কে বল্লো
– স্যার আপনাদের পার্ফম পাটাপাটি হয়েছে
নিহার আর ও কিছু বলতে যাচ্ছিলো

নিধিপা নিহার কে থামিয়ে দিয়ে বল্লো
– আর কথা নয় চলো এখন ও আসল কাজ বাকি, এনাউন্স টা সেরে ফেলি আগে

নিধিপা এনাউন্স করলো গেস্টদের উদ্দেশ্য করে
চমৎকার একটা ডান্স করেছে আমাদের স্যারর এন্ড ম্যাডাম,এবার শুরু হতে যাচ্ছে অনুষ্ঠানে অন্তিম এন্ড স্বরনীয় অধ্যায়, সবাই এসে ঘিরে দাড়ালো চুহেস এন্ড গাইথি

চুহেস গাইথির অনামিকা আংগুলে আংটি পরিয়ে দিলো
গাইথি ও চুহেস কে আংটি পরয়ে দিলো

সবার হাত তালি ও ফুলের পাপড়ি ছোড়াছুড়ির মাঝে চমৎকার একটা সময় কেটে গেলো এন্ড অনুষ্ঠান সমাপ্তি হলো

খাওয়া দাওয়ার পরে গেস্টরা চলে গেলো
এই রাতে আদনান রা আর তাদের ফ্লাটে ফিরে যায়নি, চুহেস দের এখানে তাদের থাকার ব্যাবস্থা করেছে

গাইথি নিজের রুমে গিয়ে ফ্রেশ হয়ে বিছানায় শরির টা এলিয়ে দিলো,আজ অনেক ধকল গেছে, তবু ও আজকের দিন টা ভুলে যাওয়ার মতো নয় চোখ বন্ধ করলেই যেন সব চোখের সামনে ভেসে উঠে

এদিকে সারাদিন ব্যাস্ত সময় পার করে চুহেস যখন রুমে এলো রেস্ট নেয়ার জন্য তখন তার মনে হলো দেশের বাইরে যাওয়ার কথা টা এখন ও গাইথি কে জানানো হয়নি

to be continue