ভালোবাসি

0
355

গল্প : ভালোবাসি

লেখিকা : নীল পরী

আজ “রাহির” কলেজ এর প্রথম দিন। খুব ভালো লাগলো দিনটা। নতুন প্রকৃতি, নতুন আবহাওয়া, নতুন টিচার্স, আর হারামি নতুন ফ্রেন্ডস।প্রতিদিন খুব ভালোই লাগে ক্লাস করতে টিচার্সদদের বকা শুনতে,, কিন্তুু এমন সব হারামি ফ্রেন্ডস থাকলে টিচার্সদের বকা শুনতে কোনো শএুর দরকার পরে না। তবুও অরা বেষ্ট ফ্রেড। আর নতুন নতুন কলেজ গেলে ছেলেদের থেকে প্রেমের অফার তো আসবেই। তাই বল কি প্রেমে করতে হবে না। তার পর ও ভালো লাগা বলে একটা কথা তো আছেই। অনেকটা দিন পার হয়ে গেলো একটি ছেলেকে দেখতে দেখতে ভালোলেগে গেলো। আসলে এই ছেলেটাকে রাহিরই খুব বিরক্ত লাগতো। কিন্তুু কখন যে কেমন করে ভালোবেসে ফেললো বুঝে উঠতে পারেনা। যাই হোক রাহির ভালোলাগার মানুষটির নাম হলো ” নাহিদ”
নাহিদের সাথে ভালো করে যে দিন কথা হলো তা হলো….
রাহি : হাই,,,,( মুগ্ধতার চোখে)
নাহিদ : ( অবাক চোখে তাকিয়ে আছে)
রাহি: কি হলো,? শুনতে পাচ্ছো না বুঝি.. এমন করে তাকিয়ে আছো কেনো যেনো ভূত দেখছো???
নাহিদ : না মানে…..
রাহি:না মানে কি হুমমমম।
নাহিদ : আসলে আমি ভাবছি যে তুমি আমাকে পছন্দ করো না, আর সে তুমি আমার সাথে কথা বলছ নিজে থেকে তা কোনো কারণ ছাড়াই।
রাহি : হুমমমম তাই তো।
নাহিদ : হুমমম তাই।
রাহি : তাই না আসলে কিছু বলার ছিল আমার তোমার সাথে।
নাহিদ : অহহহহহ, ওকে বলো তাহলে….
রাহি : এখন ভুলে গেছি পরে বলব ( কেনো জানি লজ্জা লাগলো)
নাহিদ : ওকে ঠিক আছে মনে পরলে বলো।
রাহি : ওকে ( নিচে তাকিয়ে একটু হাসি মুখে)।

এমন করে চলে গেলো কিছু দিন। নাহিদের সাথে কথা হয় বাট বলতে পারে না মনের কথা। একদিন কথা বলতে বলতে হঠাৎ নাহিদ রাহিকে বলল…
নাহিদ : “রাহি” আমার না একটি মেয়েকে ভালোলেগে গেছে, সত্যি বলতে কী আমি তার প্রেমে পরে গেছি….
রাহি : (চুপ)
নাহিদ : এই রাহি চুপ কেনো তুমি কিছু বলো কি করে মেয়েটাকে বলবো।
রাহি 🙁 চুপ কান্না চোখে)
নাহিদ: রাহি আমার দিকে তাকাও তো।
রাহি : ( মাথা নিচু করে আছি)
নাহিদ : এই রাহি এই তুমি কাদঁছো কেনো..??
রাহি : কিছু না বলে নাহিদ কে জরিয়ে ধরে কান্না চোখে বলতে লাগলাম নাহিদ…(বলেই চুপ করে আছি)
নাহিদ : বলো কি হয়েছে..???
রাহি : আমি তোমাকে ভালোবাসি।
নাহিদ : (মনে মনে হাসে কিছু বলে না চুপ করে শুন্ছে)।
রাহি: নাহিদ আমি তোমাকে কেমন করে জেনো ভালোবেসে ফেলেছি কিন্তু বলতে পারছি না। এখন তুমি বলো যে,,(কথাটা শেষ না হতেই)
নাহিদ : i love you rahi
রাহি 🙁 চমকে গিয়ে) তুমি না বললে তোমার একটি মেয়েকে ভালো লেগেছে..???
নাহিদ : আরে পাগলি সেই মেয়েটি তো তুমিই,,,আমি আগে দেখতে চেয়েছিলাম যে তুমি আমাকে ভালোবাসো কি না। তাই বলছি,, তুমি বুঝ না হুমমমম।
রাহি : হুমমম অনেক ভালোবাসি আমি তোমাকে নাহিদ।
নাহিদ: আমিও….এখন তো বলো…..
রাহি : কি..???
নাহিদ : ভালোবাসি….
রাহি : হুমমমম,, খুব ভালোবাসি নাহিদ,
নাহিদ : হুমমমম
রাহি: i love you
নাহিদ : i love you too
রাহি : আমাকে ছেড়ে যাবে নাতো কখনো…???
নাহিদ : না যাবো না। যত বাধাই আসুক না কেনো আমরা এক সাথে তার সমাধান করবো।
রাহি : হুমমমম

এমন করে চলতে থাকে দিন। রাহির ফ্রেন্ডস আর নাহিদের ফ্রেন্ডস খুব খুশি তাদের নিয়ে। ভালোই যাচ্ছিলো দিন। কিন্তু কেমন করে জানি বাসায় এক এক করে সবাই জেনে যায়। প্রতিদিন কলেজ ও যেতে পারে না আর নাহিদ কে ছাড়া রাহি থাকতে পারে না। আর নাহিদ ও। কিন্তু ফোনে কথা হয় তাদের। রাহি খুব কান্না কাটি করে,,, এমন করে চলে যায় কিছু দিন,,, না পেরে নাহিদ রাহির বাসায় আসে আর রাহিকে ডাকতে থাকে….
নাহিদ : রাহি রাহি….
রাহি : নাহিদ তুমি এসেছ….আমাকে নিয়ে যাও তুমি।
নাহিদ : হুমমমম নিয়ে যাবো কিন্তুু এভাবে না বিয়ে করে আমার বউ বানিয়ে।

রাহির বাবা তাই নাকি, আমার বাড়ি এসে আমার মেয়েকে বিয়ে করবে বলছ এত বড় সাহষ তোমার।
রাহি : বাবা আমি নাহিদ কে ভালোবাসি
রাহির বাবা : ভালোবাসো,, মানি না আমি
রাহি: তুমি না মানো তাতে আমার কিছু যায় আসে না।
রাহির বাবা রেগে রাহিকে চর মারলো আর নাহিদ কে বাড়ি থেকে বের করে দিলো।রাহি বলে নাহিদকে এই জীবনে না পেলে এই জীবন আমি চাই না। নাহিদ এর ও একই অবস্থা নাহিদ রাহি না খেয়ে খেয়ে নিজেদের শেষ করে দিতে চাচ্ছে। নাহিদ এর মা বাবা ছেলের এই অবস্থা আর দেখতে পাড়ছে না তাই রাহির বাসায় যায় নাহিদ তে সাথে নিয়ে। রাহির বাবা বলে….
রাহির বাবা : আপনারা এখানে কেনো এসেছেন…?
নাহিদের মা : কেনো এসেছি বুঝতে পারছেন না আপনি। দেখুন আমার ছেলেকে কি অবস্থা হয়েছে।
রাহির বাবা : তো আমি কি করবো..???
নাহিদের মা : আপনার কি একটু ও মায়া লাগে না। নিজের মেয়েকে দেখুন তো একবার।আপনার জিৎ এর জন্য এই ছেলে মেয়ে দুজন মরে যাবে।
রাহির বাবা : রাহির দিকে তাকিয়ে তার চোখ দিয়ে পানি চলে আসে, বলে কি অবস্থা বানিয়েছিস তুই মা।
রাহি : বাবা তাতে তোমার কি তোমার তো কিছু যায় আসে না।
নাহিদের মা : মেনে নেন অদের।আর আপত্তি কইরেন না।
রাহির বাবা : রাহি আমি কি তকে ভালোবাসি না মা।
রাহি : বাবা তুমি আমাকে ভালোবাসো,, কিন্তু নাহিদ ও আমাকে ভালোবাসে,, আমার জীবনে তোমাদের দুজনের ভালোবাসাই চাই….
রাহির বাবা : নাহিদ তুমি আমার মেয়ের সাথে প্রেম করো..????
নাহিদ : না
রাহি : নাহিদ কি বলছ তুমি…?
নাহিদ : আমি তো রাহি কে ভালোবাসি ,,, প্রেম আর ভালোবাসা এক না।
রাহি : হুমমম আমি ও ভালোবাসি ( নাহিদ কে জরিয়ে ধরে)

সবাই দুজনকে মেনে নিল মাঝ খানে কষ্ট ও পেতে হলো,,,

সমাপ্ত

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here