♥Love At 1st Sight $2 Part – 16

0
138

Love At 1st Sight $2

Part – 16

writer-Jubaida Sobti

নিচে গিয়ে স্নেহা দাদীর সামনে দাঁড়ায়…

দাদী : ওমা! একি

স্নেহা : [শাড়ী ধরে ঘুরে ঘুরে] কেমন লাগছে বলোতো দাদী! 😋

দাদী : এমনই একটা মেয়ে খুজছিলাম আমার রাহুলের জন্য…তুই তো আমার মনের ভাবনাই কেড়ে নিলি….

হঠাৎ, পেছন থেকে

রাহুল : এই যে মেডাম! আপনার ঢং করা শেষ হলে এবার একটু যাবেন?…আমার কিছু কথা ছিলো দাদীর সাথে…

স্নেহা : দেখেছো তো দাদী..😟 নিজের বউএর সাথে কেউ এভাবে কথা বলে?…

রাহুল : এক্সকিউজ মি! আমি তোমাকে বিয়ে কবে করলাম…?

স্নেহা : [ দাদীর কানে ফিসিফিসিয়ে ] দেখেছো আবার…দেখেছো?
আগেই বলেছিলাম ও শিকার করবে না…সব ঐ ঘামান্ডি নেহার চাল!, তুমি না বরং এক কাজ করো ওকে আজ বাইরে বেরুতে দিওনা…তাতে ও নেহার থেকে দূরে দূরে থাকবে…আর আমার… 😬!

দাদী : [একটু হেসে স্নেহার কানে কানে] ঠিক বলেছিস! ওকে ঐ নেহার থেকে দূরে দূরে রাখতে হবে…😕

রাহুল : তোমরা কানে কানে উইস্পার করে কি বলছো বলো তো?..😕

স্নেহা : কই! নাতো কিছু না! দাদী বলছে…শীঘ্রই আমাদের বিয়েটা..ধুমধাম করে দিয়ে দিবে…😍

রাহুল : ওকে ফাইন!😕 so তোমার বাবা মায়ের নাম্বারটা তো দিলানা দাদীকে…

স্নেহা : [ বিড়বিড় করে ] শয়তান একটা..😒আবারো ফাঁসিয়ে দিচ্ছে…

রাহুল : You ok sneha?..😕

স্নেহা : হ্যা হ্যা!…আমি ঠিকাছি.. আরে দাদী আমিতো বিশ্রাম করিনি…মাথাটা এখনো ঘুরাচ্ছে…জার্নিং করে এসেছি তো…উফফ!😖

দাদী : আচ্ছা ঠিকাছে যা!😊

রাহুল : [মনে মনে] What a drama😐..

[ স্নেহা রাহুলকে মুখ ভেংগিয়ে চলে যাচ্ছিলো…আবার হঠাৎ মাথায় একটা বুদ্ধি এলো… এই মিষ্টার তেডি স্মাইল আমাকে ফাসাতে চেয়েছিলো তাই না…এবার দেখুক আমি কিভাবে ফাসায়😕….স্নেহা পাশ কাটিয়ে যেতে ইচ্ছে করে টেবিলের সাথে বারী খেয়ে পড়ে যায়]

রাহুল : [ স্নেহার দিক এগিয়ে গিয়ে ] careful damn it!😡…দেখে হাটতে পারো না?

দাদী : আরে স্নেহা😟 ব্যথা পেয়েছিস?..

স্নেহা : উফ দাদী! ব্যথা পেয়েছি মানে..আমার তো মনে হচ্ছে আমি আর কখনো… হাটতেই পারবো না…

দাদী : আরে রাহুল! হা করে দেখছিস কি?..যা গিয়ে ডাক্তার নিয়ে আয়😟

স্নেহা : আরেহ! না নাহ! ডাডাক্তার কেনো…

রাহুল : দাদী! আমি দেখছি..😕 you don’t worry[ স্নেহার পা ঘষতে থাকে ]

দাদী : দারা আমি আইস্ ব্যাগ নিয়ে আসছি…😟 [ দাদী তাড়াহুড়ো করে আইস্ ব্যাগ আনতে যায়]

স্নেহা রাহুলের দিকে..ব্লাশিং হয়ে তাকিয়ে আছে…😍

রাহুল : what😕

স্নেহা : [পায়ের দিক শাড়ী আরেকটু তুলে রাহুলকে ইশারা করলো আরেকটু উপরে মাঝতে😉]

[রাহুল স্নেহার পায়ে স্লাইড করতে লাগলো… 😍]

স্নেহা : [পা টেনে নিয়ে ] এক্সকিউজ মি!😕 একটু চান্স পেলে হয় তাই না…

দাদী : [আইস্ ব্যাগ নিয়ে এগিয়ে এসে] ধর নে..রাহুল…এটা মেঝেদে..

রাহুল : She is already fine…দাদী 😕

দাদী : সত্যি স্নেহা 😟 ঠিকাছিস তুই?..

স্নেহা : হ্যা দাদী! রুমে গিয়ে একটু আরাম করলে ঠিক হয়ে যাবে…

দাদী : হ্যা হ্যা!..যা আরাম কর..রাহুল! একটু ধরে দিয়ে আয়…

স্নেহা : [ উঠে দাঁড়াতে অভিনয় করছে ] আহ!…

দাদী : কি হলো রাহুল!😨 হ্যা করে দেখছিস কি?..ধর ওকে…

[রাহুল গিয়ে স্নেহাকে ধরে…]

স্নেহা : [ রাহুলের কাধে হাত দিয়ে ফিসফিসিয়ে ] শুনো আমাকে ফাঁসাতে যেও না ওকে…নাহলে নিজেই ফেসে যাবা😎

আর এখন গুড বয়ের মতো চুপচাপ আমাকে কোলে তুলে নাও…😍

রাহুল : Shut-up😕

স্নেহা : হুহ😏

অর্ধেক গিয়ে..রাহুল স্নেহাকে ছেড়ে দিলো…

স্নেহা : আরেহ!😨

রাহুল : এখন আর দাদী দেখবে না…So তোমার ড্রামা এখন অফ করো…

স্নেহা : [ রাহুলকে টেনে ধরে.]..দেখবেনা মানে…দেখো রাহুল তুমি কিন্তু বেশি করছো এসব মোটেও ভালো হচ্ছে না…

রাহুল : ভালো হচ্ছে না?…আর তুমি যা করেছো তা ভালো হয়েছে?…ওয়াও স্নেহা তোমার এখনো সাহস হচ্ছে না তোমার বাবার নাম্বার দিতে…আর তুমি বলছো আমি যা করছি ভালো করছিনা?..

স্নেহা : রাহুল!😟 আমি! আরে কথাতো শুনো..

[ রাহুল রেগে চলে যায় ]

স্নেহা : [ মনে মনে ] i m sorry রাহুল 😭…আমি তোমাকে কষ্ট দিতে চাইনি…কিন্তু..

সিফা : স্নেহা!

স্নেহা : [চোখ মুছে পেছন তাকায়] হ্যা?..

সিফা : কি হয়েছে?..😟

স্নেহা : কিছুনা😔

সিফা : রাহুল কিছু বলেছে তাই না?..😟

স্নেহা : ভাবী আমি রাহুলকে কষ্ট দিতে চাইনা..আমি তো ওকে অনেক…😭

সিফা : ওকে ওকে! এতো সহজে ভেঙে পড়লে চলবে?.. বলো?..রাগ যখন করেছে মানাতে তো হবে…

স্নেহা : [ ভাবীকে ঝড়িয়ে ] থেংক ইউ ভাবী!

সিফা : আচ্ছা চলো তোমাকে কিছু দেখাবো…

[ সিফা স্নেহাকে নিয়ে রুমে চলে যায়…ফাবিহা স্নেহাকে দেখে অনেক খুশী হয়…]

রাতে,

হঠাৎ, দরজা টুকা দিলো.

রাহুল দরজা খুললে দেখে, দাদী
রাহুল : আরে দাদী হঠাৎ!

দাদী : [ভেতরে ঢুকে] দেখ রাহুল অনেক হয়েছে…অভিনয় এবার আমি সত্যি সত্যি স্নেহার বাবা মায়ের সাথে কথা বলতে চায়!😒

রাহুল : দাদী! আমিতো তোমাকে সব বলেছি! স্নেহা নিজ থেকে যতোক্ষণ বলবেনা ততোক্ষণ আমি কিছুই করবো না…

দাদী : কিন্তু আর কতোদিন?..

রাহুল : আর বেশীদিন নেই দাদী!…স্নেহা আমার থেকে বেশীদিন দূরে থাকতে পারবে না…এটা আমার বিশাস্

দাদী : ঠিকাছে!😒 তাহলে [ দাদী চলে যায়]…

দরজা বন্ধ করে রাহুল খাটে শুতে যাবে ঠিক সেই সময় আবার দরজা বাড়ি দিলো… রাহুল দরজা খুলে দেখে…স্নেহা অনেক ভাবসাব নিয়ে দাঁড়িয়ে আছে…নিশ্চয় মাথায় কিছু পাকিয়ে এসেছে..😕

রাহুল : কি চায়?..😕

স্নেহা : তোমাকে😌

রাহুল : Lol 😏[দরজা বন্ধ করে দিচ্ছিলো স্নেহা রাহুলকে ধাক্ষিয়ে ভেতরে ঢুকে পড়ে]

স্নেহা : শুনো তুমি যাই করো…আমি কিন্তু এতো সহজে হার মানছিনা..বলেদিলাম…

রাহুল : Shut-up😕আর যাও এখন আমাকে ডিস্টার্ব করোনা…

স্নেহা : কিহ!😱 আমি ডিস্টার্ব করছি তোমাকে?..[ রাহুলকে ধাক্ষিয়ে] বলো?..আমি ডিস্টার্ব করছি তোমাকে?..

রাহুল : আরেহ! ধাক্ষাচ্ছো কেনো?..পড়ে যাবো তো…😳

স্নেহা : [রেগে] ঠিকাছে! আর ডিস্টার্ব করবো না গেলাম আমি😡… [ স্নেহা রাগ করে রুম থেকে বেড়িয়ে যায়….রাহুল হাসতে থাকে 😂রাগলে ড্রামাকুইনটাকে আরো কিউট লাগে..😍]

পরদিন সকালে,

স্নেহা ঘুম থেকে উঠে…ফ্রেশ হয়ে…রুমে বসে আছে…বাড়ির কথাও অনেক মনে পরছে তার 😞ভাবতে ভাবতে রুম থেকে বের হয়!
রাহুলের জানালার দিকে উকি দিতে দেখে রাহুল রুমে নেই…ধীরেধীরে রুমে ঢুকে…দেখে
টেবিলের উপর লেপটপ্টা পড়ে আছে…মাথায় বুদ্ধি এলো স্নেহার এবার চেক করা যাক ঐ মিস্ ইউনিভার্স এর সাথে কি কি চ্যাট করেছে…😖
স্নেহা লেপটপে হাত দিতে যাবে ঠিক সেইসময়,

রাহুল : Stop it!😕

স্নেহা : [চমকে গিয়ে] আ..আমি দেখছিলাম.. লেপটপটা খুব সুন্দর…হিহি😊 এটা কিসের তৈরী?…

[রাহুল হেসে দিলো 😂আর প্রথম যেদিন রুমের জানালায় উকি দিয়ে পর্দা কিসের তৈরী জিজ্ঞেস করেছিলো সেটা মনে পড়ে গেলো, গাড়ীর চালে বসে গাড়ীটি কিসের তৈরী জিজ্ঞেস করছিলো সেটাও মনে পড়ে গেলো ]

স্নেহা : নাহ! মানে [বিড়বিড় করে কি যেন বলতে লাগলো 🙈]

রাহুল : কি করতে এসেছো সেটা বলো?…

স্নেহা : শোনো…এভাবে বলছো কেনো? আমি এখন থেকে এই বাড়ীর বউ..আই মিন! তোমার বউ..So আমি এইরুমে আসতেই পারি…এটা আমার অধিকার.. 😕

রাহুল : [স্নেহার দিক এগিয়ে এসে..😍] ওহ! এই বাড়ীর বউ?..আমার বউ..😍 নাহ কি যেন বললে?…অধিকার রাইট!😍

স্নেহা : [ঘাবড়ে গিয়ে] হ্যা😶..নাহ মানে..

রাহুল : [স্নেহার কোমোড়ে হাত দিয়ে কানে উইস্পার করে ] শিস্! সব অধিকার যখন চাইছো…তাহলে এটা বাকি থাকবে কেনো…স্নেহা!

স্নেহা : [ রাহুলকে ধাক্ষা দিয়ে সরিয়ে] ছিঃ.. 🙊কি আজিব আজিব কথাবার্তা 😖

রাহুল : আরে! ছিঃ কেনো এটাওতো একটা রুলস বিয়ের পরে😎

স্নেহা : আরে বিয়ে কবে হলো?😰

রাহুল : 😎সেটাইতো..তুমিও বউ কবে হলে?

স্নেহা কিছু না বলে দৌড়ে রুম থেকে বেড়িয়ে যায়![মনে মনে] এই মিস্টার তেডি স্মাইলের সাথে আজকাল পারা যাচ্ছে না😖

[ Rahul blushing ]

ব্রেক ফার্স্ট করে রাহুল ভার্সেটি যাওয়ার জন্য তৈরী…হয়.. স্নেহাকে না বলেই ভার্সেটি চলে যায়,

ঢুকতেই আসিফ এগিয়ে আসে,

আসিফ : আরে দোস্ত, কি অবস্থা?..

রাহুল : Happy Birthday দোস্ত😊

আসিফ : থেংক ইউ ব্রো…. আর শোন আজ পার্টিতে কিন্তু স্নেহাকে ও নিয়ে আসবি! কেমন!

নেহা : [দূর থেকে] হেই রাহুল!

আসিফ : এসে গেছে তোমার আরেকটা…তুই থাক ভাই আমি যায়! [ আসিফ চলে গেলো ]

নেহা : আরে রাহুল! এতো লেইট করলে কেনো…কখন থেকে ওয়েট করছি…শুনো আজ সন্ধায় পার্টিতে..কিন্তু আমরা কাপল ডান্স দিবো ওকে?..😍

রাহুল : দেখি…..

স্নেহা : দেখি মানে?

রাহুল : ক্লাস? ক্লাস লেইট হচ্ছে let’s go😊 নেহা!

রাহুল এর ভার্সেটিতে ক্লাস করতে মোটেও ভালো লাগছিলো না…এইদিকে স্নেহা ও আসেনি..মিস্ করছে অনেক ড্রামাকুইনটাকে.. চুপচাপ নেহাকে ও না বলে বাড়ী চলে আসে…

রুমে ঢুকতেই দেখে অলরেডি স্নেহা রুমে ঢুকে বসে আছে…রাহুলকে দেখে একটু ঘাবড়ে যায়!

রাহুল : Excuse me! তুমি আমার রুমে কি করছো…

স্নেহা : কোথায় গিয়েছিলে?..😕

রাহুল : কোথায় আবার?..ভার্সেটি গিয়েছি…রাতে আসিফের বার্থডে পার্টি আছে..তার কিছু Arrangement বাকি ছিলো..

আচ্ছা আমি তোমাকে কেনো এসব বলছি বলো তো?…😕 আর যাও রুম থেকে আমি চেঞ্জ করবো…

স্নেহা : হুম! So পার্টিতে কে কে আসছে😏

রাহুল : [ শার্ট খুলতে খুলতে ] সবাই… But তুমি ছাড়া…

স্নেহা : আমি ছাড়া কেনো?..😕

[ রাহুল ধীরেধীরে স্নেহার দিক এগিয়ে আসে]

স্নেহা : [ বুঝতে পারলো রাহুল তাকে নার্ভাস করার জন্য কিছু একটা করবে তাই আগেভাগে বলে দিলো ] ওকে ওকে… I understand কাছে আসছো কেনো আমি যাচ্ছি 😬

[রাহুল একটু হেসে ফিরে গেলো স্নেহা ব্লাশিং🙈]

সন্ধায়,

রাহুল পার্টিতে যাওয়ার জন্য তৈরী…হয়,
ভাবতে লাগলো স্নেহাকে কেমনি বুঝাবে সে পার্টিতে যাচ্ছে….তাই স্নেহার রুমের সামনে গিয়ে ভাবী ভাবী চিৎকার করতে লাগলো….

স্নেহা : [দরজা খুলে হেলান দিয়ে দাঁড়িয়ে] এই যে মিষ্টার হ্যান্ডস্যাম! চেঁচাচ্ছো কেনো…

রাহুল : আমার বাড়ী, যা ইচ্ছে তা করবো… what’s your problem?…

স্নেহা : আই😡 এতো ভাব নিচ্ছো কেনো হুম?..

রাহুল : whatever! 😏 [মুখ ভেংগিয়ে চলে গেলো আর মনে মনে ব্লাশিং হয়ে ভাবছে এখন শিউর দাদীকে গিয়ে বলবে..তাকেও পার্টিতে নিতে, ]

স্নেহা : [মনে মনে] কি আজিব! এত্তো রাগতে হয়! 😖 এভাবে Avoid করলে তো….সুইসাইড করতে ইচ্ছে হচ্ছে!

No মিষ্টার রাহুল! যদি তুমি আমার এক কদম আগে হও তাহলে আমি তোমার দশ কদম আগে…হুহ😡 [ হুড়হুড়িয়ে স্নেহা নিচে নেমে এলো দেখে রাহুল দাদীকে বলে চলে যাচ্ছে! ]

স্নেহা : শুনছেন!😟

দাদী এবং রাহুল দুজনেই অবাক হয়ে তাকালো…

স্নেহা : [রাহুলের কাছে এসে] সাবধানে যাবেন কিন্তু!😟গাড়ী ধীরে চালাবেন! আপনিতো আবার এরো-প্লেন এর মতো গাড়ী চালান! আর তাড়াতাড়ি ফিরবেন😌আমি অপেক্ষায় থাকবো!

স্নেহার এমন কান্ড দেখে রাহুলের খুব হাসি পাচ্ছিলো…তাও লুকিয়ে হেসে নিলো!

দাদী : দেখেছিস! বউ হলে এমন হতে হয়😊

রাহুল : yeah! I see😎

দাদী : আরে রাহুল! তুই স্নেহাকে ও সাথে নিয়ে যা! ও বাসায় বসে একা বোর হচ্ছে!

স্নেহা : [দাদীর দিক এগিয়ে গিয়ে] নাহ দাদী নাহ! এভাবে বলবেন না…আমার পুরা ভরসা আছে রাহুলের উপর! ও আমাকে ছাড়া অন্য কোনো মেয়েরদিক চোখ তুলেও তাকাবে না😌

রাহুল : [মনে মনে হেসে, ড্রামাই পুরস্কার না অষ্কারটাই পাবে…এই মেয়ে!] ওকে দাদী! আমি যাচ্ছি! [ রাহুল বেড়িয়ে গেলো আর মনে মনে ভাবতে লাগলো.এটা কি হলো.. আজ মিস্ ড্রামাকুইন পার্টিতে আসার জন্য কোনো চাল চাললো না কেনো..ওকে ছাড়া ভালো লাগবে না😞ও কি কখনো বুঝবে না আমার লুকিয়ে থাকা ফিলিংস্ গুলা..

[ কিছুক্ষণ ভেবে..]থাক! বেড়িয়েছি যখন আসিফকে দেখা দিয়ে চলে আসবো…

রাহুল পার্টিতে গিয়ে পৌছায়! আসিফকে উইশ করে… খুব ইউনিক ভাবে সাজানো হয়েছে চারদিক…

নেহা : হেই রাহুল! what’s wrong with you?… তুমি আমাকে না বলেই চলে গেলে!

রাহুল : নেহা I was busy! so

নেহা : So?..😡 So what?…

রাহুল : So nothing bye! [ রাহুল গিয়ে তার ফ্রেন্ডস দের পাশে দাঁড়ায় ]

নেহার মনে মনে খুব রাগ উঠতে লাগলো… রাহুল আগে থেকে অনেক বেশিই Avoid করছে নেহাকে…

আসিফ : রাহুল! তুইতো এটা ঠিক করলিনা…

রাহুল : কোনটা?..

আসিফ : তুকে না বললাম স্নেহাকে ও সাথে আনবি!

রাহুল : আরে আমিতো ভেবেছিলাম ও কোনো না কোনো [ রাহুল চুপ হয়ে যায় সামনের দিক তাকিয়ে 😨]

আসিফ ও পাশফিরে তাকাতেই দেখে স্নেহা!

আসিফ : আরে স্নেহা Come! তোমার কথায় বলছিলাম! আমি ভেবেছি রাহুল তোমাকে আনে নি!

স্নেহা : Happy Birthday! 🎁😊

আসিফ : Thank you dear!😊 please come!

স্নেহা এসে রাহুলের পাশে দাঁড়ায়! রাহুল এখনো হা করেই স্নেহাকে তাকিয়ে আছে!😍[মনে মনে]ওয়াও!স্নেহা ওয়েষ্টার্ন ড্রেস্ পড়েছে…পুরাই বারবি ডল লাগছে এই ড্রামাকুইনকে😍

স্নেহা : [আস্তে করে রাহুলকে চিমটি দিয়ে] এভাবে তাকিওনা মিষ্টার হ্যান্ডস্যাম..😒

রাহুল : আআহ!😖

স্নেহা : কি ভেবেছিলে আমি তোমাকে এতো সহজে ছেড়ে দিবো 😏 No way! তোমার উপর ভরসা থাকলেও ঐ নেহা শয়তানটার উপর একদম ভরসা নেই!

[রাহুল স্নেহার দিক তাকিয়ে রইলো স্নেহাকে এতোসুন্দর লাগছে… তার থেকে চোখ সরাতে মুশকিল হয়ে দাড়াচ্ছে…😍]

স্নেহা : আবার হা করে তাকিয়ে আছো যে!😒

মার্জান : স্নেহা!😱 [ স্নেহা দৌড়ে গিয়ে মার্জানকে ঝড়িয়ে ধরে]

মার্জান : ভুলেই গেলি আমাকে!😰

স্নেহা : আরে তুকে কেমনি ভুলবো বল! তুইতো আমার কলিজার টুকরা!

[ রাহুল একটু হেসে ঐদিকটা সরে গেলো ]

মার্জান : কি হলো স্নেহা! এখনো রাগ ভাংগেনি!😜

স্নেহা : আমার মাথায় কিছুই আসছে না! রাহুলটাও একটু বুঝছে না! বাড়ি থেকে ও পালিয়ে এসেছি…জানিনা বাবা কি অবস্থায় আছে…😔

মার্জান : ওকে ওকে! আজ মন খারাপ করিস না…আজ শুধু মজা করবো! আর আমি কেনো এসেছি জানিস? শুধু তোর সাথে দেখা করবো বলে! আমি জানতাম তুই রাহুলের সাথে আসবি!

স্নেহা : কচু জানতি! ও আমাকে এনেছে😡 আমিতো দাদীকে বানিয়ে বুঝিয়ে এসেছি!

হঠাৎ,

নেহা : Hello guys! 😎

[মার্জান মুখ ভেংগিয়ে অন্যদিকে ফিরে গেলো! ]

নেহা : Wow! স্নেহা you looking so..

স্নেহা : So?..😕

নেহা : থাক! কিছু কথা না জানা ভালো তাই না?..
Anyway enjoy the party ওকে!

[ নেহা চলে গেলো আর মনে মনে বলতে লাগলো… খুব ভাব নাও তাই না মিস্ স্নেহা…আজ এমন জমিয়ে পার্টি হবে সবাই তোমার দিকেই হা করে তাকিয়ে থাকবে😏]

পার্টি খুব ভালোভাবেই চলছে…কেউ কেউ ডান্স আর হাসাহাসি করছে…আবার কেউ কেউ বসে আছে…স্নেহা মার্জান এর সাথেই একদিকে দাঁড়িয়ে আছে দূর থেকে রাহুল আর স্নেহার (eye contact😍) হচ্ছে..চোখে চোখে খুনসুটি রোমান্স..

[নেহা অনেক্ষণ ফলো করছে রাহুল স্নেহা থেকে তার চোখ সরাচ্ছেই না…রাগে নেহা ফুলতে থাকলো 😡]

নেহা : [ রাহুলের দিক এগিয়ে গিয়ে] Come on rahul! let’s dance… [নেহা রাহুলকে জোড় করে টেনে ডান্স করতে লাগলো… স্নেহা অবাক হলো রাহুল এমন কেনো করছে?..হ্যা জানে সে তার উপর রেগে আছে..তাই বলে নেহার সাথে এভাবে😖]

নেহা ফলো করলো…রাহুল নেহার সাথে Comfortable হয়ে নাচছে না..বারবার শুধু স্নেহার দিক তাকাচ্ছে…
নেহা তার এক ফ্রেন্ডকে ইশারা করলো স্নেহাকে ডান্স ফ্লোরে আনার জন্যে…
স্নেহাকে জোড় করে যেই না ডান্স ফ্লোরে আনলো….সাথে সাথে ইলেক্ট্রিসিটি চলে যায় চারদিকের লাইট অফ হয়ে গেলো!

স্নেহা হঠাৎ ধাক্ষা খেলো… অন্ধকারে কে তা খেয়াল করলো না…
ইতিমধ্যেই লাইট চলে আসে,

স্নেহা ডান্স ফ্লোর থেকে নিচে নেমে যেতে চাইলে… আবার থেমে যায়! কেনো যেনো লাগছিলো তার পিছনের…জামা ছিড়ে গেছে…ধীরেধীরে পেছনে হাত দিলে দেখে সত্যিই ছিড়ে গেছে…যেই না পা বাড়াতে যাবে ঠিক তখনি খেয়াল করলো…পেছনের দিক জামা খুলে যাচ্ছে 😰

রাহুল স্নেহার দিক তাকালে দেখে স্নেহা অনেক চিন্তিতো যেদিক দাঁড়িয়ে ছিলো ঐদিকেই এখনো দাড়িয়ে আছে…

নেহা রাহুলকে টেনে নিয়ে ডান্স ফ্লোর থেকে নেমে যায়!
রাহুল আবারো খেয়াল করলো স্নেহা খুব চিন্তিতো হয়ে দাঁড়িয়ে আছে…নয়তো ওখানেই এখনো দাঁড়িয়ে আছে কেনো..সবাইতো নেমে গেছে..

নেহা : [ চেঁচিয়ে ] স্নেহা তুমি সিংগেল পারফর্ম করবা নাকি?…

স্নেহার চোখ থেকে পানি গড়িয়ে পড়লো…স্নেহা বুঝতে পারলো নেহাই করলো এই কান্ড!

নেহার ফ্রেন্ডসরা সবাই হেসে উঠে,

রাহুল : [ মনে মনে ] এই স্নেহা ডান্স ফ্লোরে..দাঁড়িয়ে আছে কেনো…😕 [রাহুলের খুব রাগ উঠছে সবাই হাসাতে…আর স্নেহা ও সবাইকে তার ইনসাল্ট করানোর জন্য ঐখানে দাঁড়িয়ে আছে..]

হঠাৎ, রাহুল খেয়াল করলো স্নেহার চোখে পানি! এবং সে খুব Uncomfortable হয়ে দাঁড়িয়ে আছে…

রাহুল খুব অবাক হয়ে তার চোখ দিয়ে স্নেহাকে ইশারা করলো কি হলো…😕
স্নেহা কিছু বলছে না রাহুল জিজ্ঞেস করাতে চোখ দিয়ে আরো বেশি করে পানি ঝড়তে লাগলো…

নেহা তাড়াতাড়ি গিয়ে আবারো মিউজিক অন করে দিলো… এবং সবাইকে টেনে টেনে ডান্স ফ্লোরে নিতে লাগলো… নেহা স্নেহার পাশে গিয়ে ইচ্ছে করেই ধাক্ষা দেই…আর স্নেহা পড়ে যায়!

কিন্তু স্নেহা মাটিতে গড়িয়ে পড়লো না…কারো গায়ের উপর ঝাপটে পড়লো… রাহুল স্নেহাকে ধরতেই তার খালি পিটের মধ্যে হাত লাগে….

নেহা : [ চেঁচিয়ে ] Oh! my god! স্নেহা তোমার কাপড় তো ছিড়ে গেছে…😱

সবাই স্নেহার দিক ফিরে তাকালো,

স্নেহা কেঁদে রাহুলকে ধাক্ষিয়ে সরিয়ে…সোজা দৌড় দিলো,

নেহা আর তার ফ্রেন্ডসরা হাসতে লাগলো…
রাহুল😡 রেগে নেহাকে কিছু বলতে যাবে তখনি আবার ভাবলো না আগে স্নেহাকে দেখা উচিৎ..

রাহুলও দৌড়ে গিয়ে দেখে স্নেহা একটি কোণে গিয়ে কাপড় ঠিক করছে…

রাহুলের আসার শব্দ হলে…স্নেহা আরেকটু ভেতরের দিক সরে যায়…

রাহুল দেখলো…ছোট ছোট কিছু পর্দা দিয়ে…বাশ সাজিয়েছে…সেখান থেকে একটা খুলে নিয়ে রাহুল স্নেহার দিক এগিয়ে গেলো… স্নেহা না নিয়ে তার জল ভরা চোখ দিয়ে রাহুলের দিক তাকিয়ে থাকে…রাহুল বুঝতে পারলো স্নেহা অনেক ভয় পেয়ে আছে…না থাক আর রেগে থাকা যাবেনা এই মেয়ের সাথে…পর্দাটি দিয়ে স্নেহাকে মুড়িয়ে দিলো… রাহুল!

রাহুল : I am sorry স্নেহা!

স্নেহা : [কাদো কন্ঠে] It’s ok রাহুল!😭আমার এখানে আসাই উচিৎ ছিলো..না… আসলে আমি কোনো কিছুরই যোগ্য না…গায়ের মেয়ে এসব আমাকে মানায় না…আমি তোমাকে ডিসার্ব করিনা…মোটেও😔রাহুল..নেহা তোমার জন্য পার্ফেক্ট! আমিই তোমাদের মাঝে কাটা বেধে দাড়িয়েছি…

রাহুল : [স্নেহার কাছে এসে] স্নেহা listen to me!

স্নেহা : নাহ! কিছুই শুনতে হবে না!
তুমি শুনো কেনো গিয়েছিলে আবার গ্রামে…হ্যা?
আরে কোথায় তুমি আর কোথায় আমি! আমার তো এক পয়সার যোগ্য ও নেই তোমাকে ভালোবাসার!

রাহুল : Ok shut-up! 😡হয়েছে? সব বলা শেষ?

স্নেহা : কাছে আসবানা! যাও তুমি নেহার কাছে যাও😔..

রাহুল : [স্নেহার হাত কাছে টেনে নিয়ে] স্নেহা I am really sorry…

[স্নেহার পানি ঝরছে চোখ থেকে😔]

রাহুল : Ok come!

স্নেহা : কোথায়?..😟

রাহুল : শিস! Just Come!

[ রাহুল স্নেহাকে হাত ধরে নিয়ে সবার সামনে ডান্স ফ্লোরে উঠলো.. সবাই তাকিয়ে আছে হঠাৎ..
স্নেহাও অবাক হয়ে চারদিক দেখছে আবার রাহুলকে ও দেখছে…]

নেহা : [ মনে মনে ] সব প্লান এই রাহুল শেষ করে দিলো 👿 আর এই স্নেহার সাথে রাহুল ডান্স ফ্লোরে কেনো উঠছে..

রাহুল : [ স্নেহার দুনো হাত ধরে ] জানিনা স্নেহা! আমি তোমায় কি দিতে পারবো না পারবো… 😔 but এত্তোগুলা ভালোবাসা দিবো! যা তুমি কখনো কাউন্ট করতে পারবেনা আমার পুরো লাইফ জুড়ে শুধু স্নেহা! তুমি!

জানো লাইফে কতোকিছু দেখেছি?..

স্নেহা : 😭

রাহুল : কিন্তু সবচেয়ে Exclaimed জিনিষ ছিলা তুমি!আমার ও অনেক কষ্ট হচ্ছিলো..স্নেহা তোমার থেকে দূরে থাকতে!

স্নেহা u know I love you so much! to the square of infinity 😔

স্নেহার মুখ দিয়ে কিছু আসছিলো না😭..কিছু ভাববে সেই চিনতাও মাথায় নেই… জোড়ে কেদে রাহুলের বুকের মধ্যে ঝাপটে পড়ে…যেন পৃথিবীর সব সুখ এই জায়গাটাতে..

রাহুল ও শক্ত করে ঝড়িয়ে ধরে…

সবাই তালি দিয়ে উঠলো তাদের দেখে..👏👏

চলবে,

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here