Love_at_1st_sight  Part : 2  

0
132

Love_at_1st_sight😍😘💞
Part : 2

writer-Jubaida Sobti
সকালে ঘুম ভাংগলো আবার মোবাইলের রিংটোনে…
উঠে মোবাইলটা ধরলাম।
সেই Unknown নাম্বার থেকে আবার ফোন দিলো।
স্নেহা : হ্যালো! কে?
Unknown : no respons 
স্নেহা : কি বেপার শুধু আমার কন্ঠ শুনতে ফোন দেন নাকি?😡
Unknown ফোন কেটে দিলো।
কি জানি আজাইরা খালি কল দেই😫কিন্তু কথা বলেনা।
যাক ফ্রেশ হয়ে রেডি হয়ে কলেজ যাচ্ছি ।
সামনে যেতেই শায়লাকে পেলাম দুজন একসাথে ঢুকলাম কলেজে। শায়লা আর আমার বাসা একই রাস্তাতেই পরে।
কলেজে ঢুকে দেখি কিছু জুনিয়রদের দার করিয়ে কি যেন বলছে সিনিয়ররা। আমরা দুজন পাশ কেটে চলে যাচ্ছিলাম হঠাৎ ঐ খান থেকে একটা আওয়াজ এলো এই যে মিস. ইন্নোসেন্ট দাড়ান।
দাঁড়িয়ে পড়লাম পিছন ফিরে দেখি ঐ ছেলেটাইতো।
স্নেহা : জি স্যার বলেন?😔
রাহুল : নোটিশ বোর্ড দেখেছো?😕
স্নেহা : জি স্যার। 😔
রাহুল : কিসে পার্টিসিপেট করছো?😎
স্নেহা : জি স্যার হেল্পার (helper)😬
রাহুল : ওহ গুড! এই নাও এগুলো আমার Assignment করে দিবা।😎
স্নেহা : 😐জি স্যার।
রাহুল : শুধু জি স্যার জি স্যার করো কেনো আর কিছু বলতে পারো নাকি না? 😕
স্নেহা : জি স্যার 😧
রাহুল : আচ্ছা যাও
স্নেহা চলে যাচ্ছিলো। হঠাৎ পিছন ফিরে তাকিয়ে দেখলো রাহুল তার দিকে এখনো তাকিয়ে আছে। রাহুল তাড়াতাড়ি চোখ সরিয়ে অন্যদিকে চলে গেলো।
স্নেহা 😌 Blushes 
কলেজ শেষ করে বাসায় আসলাম।
সন্ধায় বাবা একটি নতুন মোবাইল কিনে এনেছে।
রাশু : (স্নেহার ভাই) বাবা তুমি আমার জন্য একটা আনলানা 😒😒
বাবা : আনবো তোর জন্যেও আনবো আগে তুই তোর আপুর মতো 12th এ উঠ তারপর।
রাশু : কিন্তু বাবা আমার সব ফ্রেন্ডরা এইরকম ফোন ব্যবহার করে 😔
বাবা : ওদের রেজাল্ট ও ঐরকম আসেরে বাবা 😃
স্নেহা : আচ্ছা যা আমারটা তুইও ব্যবহার করবি কিন্তু এক শর্তে রেজাল্ট যদি খারাপ আসে তাহলে মোবাইল ছোয়া বন্ধ।
রাশু : ওকে ওকে 😊
স্নেহা : চল এইবার পড়তে আয়।
রাতে মা ডিনারের জন্য ডাক দিলো আমার আগে রাশু দৌড় দিলো খাবে তা না পড়ার ফাঁকিবাজ 😃
মা আবার ডাক দেওয়াতে আমিও যাচ্ছিলাম হঠাৎ মেইন দরজার বাইরে কারো ছায়া দেখতে পেলাম তাই ঐদিকে গিয়ে কে কে বললাম কিন্তু কারো সাড়া নেই।😟
আমার আওয়াজে বাবা এসে দেখলো কেউ নেই। বাবা বললো হয়তো আমার লেগেছিলো কেউ আছে।
পরদিন সকালে আবার সেই Unknown এর ফোনে ঘুমটা ভেঙে গেলো।
ঠিক আগের মতোই কিছু বলেনা। বোধয় আমার আওয়াজ শুনতেই ফোন দেই 😂
উঠে নাস্তা করে রেডি হয়ে কলেজ গেলাম। কলেজে ঢুকার সময় প্রত্যেক দিনের মতো ঐ যে মিঃ হ্যান্ডসাম এর এন্ট্রি আজ সামনাসামনি পড়লাম কিন্তু কিছুই বললো না। একটা কিলার স্মাইল দিয়ে চলে গেলো
সবাই বোর্ড চেক করছে যে যেটাই পার্টিসিপেট করছে ঐ বেপারে জেনে নিচ্ছে। আমিও গিয়ে দেখলাম…
দেখে মাথা ঘুরিয়ে উঠলো।😨
আমার পর শায়লা ও আসলো তারটা চেক করতে আমরা দুজন একই সাতে পরেছি।😟
শায়লা : সর্বনাশ এই বজ্জাতটার হেল্পার বানাইছে আমাদের। এইটার নেকামি এটিটিউড গুলো দেখলেই মাথা ধরে।😖 মিস: নেহা।
স্নেহা : হেল্পার হওয়াটাই দোষ ছিলো বুজি আমাদের 😒
শায়লা : দাড়া একমিনিট এইখানে লিখা আছে নেহা with রাহুল তার মানে তারা কাপেল ডান্স করবে।আমরা তাদের হেল্পার 😕
স্নেহা : কিন্তু আমাদের ক্লাসের বাকিরা হেল্পার হয়েছে ইভেন ডিজাইনের আমরা দুজন কেনো ডান্সের হতে গেলাম 😒
শায়লা : সেটাইতো আচ্ছা চল প্রেক্টিসে নাহলে আবার লেইট হলে মিস: নেহা থেকে মিস: ডাইনেসোর💀 হয়ে যাবে😄
প্রেক্টিস রুমে ঢুকলাম।
নেহা : ও তো তোমরা দুজন হলে আমার হেল্পার।
টিচার : নেহা come on.. dance 1st..
নেহা : মেম, একটু রেস্ট দরকার I m so tried 😴
টিচার : ওকে only 15 mins.
নেহা গিয়ে রাহুলের গলায় হাত দিয়ে,
নেহা : রাহুল😍
রাহুল : হুম!
নেহা : চলনা কালকে date যায়।
রাহুল : 😄 Date with u funny joke.. চেহেরা দেখেছিস তোর?
নেহা : come on রাহুল এই ফেইসের জন্যই হাজার ছেলে পাগল 😕বুঝেছিস।
রাহুল : সস্তা জিনিসের ক্রেতা বেশী বুঝেছিস 😜
নেহা : দেখিস তুই আমার চেয়ে সুন্দর মেয়ে আর পাবি না তোর জন্য।
রাহুল : আমারটা তো আল্লাহ স্পেশালি আমার জন্য বানিয়েছে রেখেছে সেটা ঠিক পেয়েই যাবো,,
শায়লা আর স্নেহা দুজন ওদের কথাগুলো শুনছিলো চুপি চুপি, 😉
শায়লা : ভালোই হলো অন্তত কেউ একজন এই খাডুসটাকে রিজেক্ট করলো এইবার যদি দেমাগটা একটু কমে আরকি।
স্নেহা : কিন্তু মেয়েটাতো সত্যিই সুন্দর স্যার রিজেক্ট করলো কেনো । 😳
শায়লা : আরে এই সুন্দর এর ভেলু নেই ক্যারেকটারলেস।
স্নেহা : মানে।😳

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here