ফাল্গুনের_ফুল part-2

0
397

ফাল্গুনের_ফুল
part-2
#Writer_Farzana

রাত হয়ে গেলো…রাতের খাবার খেয়ে শুয়ে পড়লাম। রাতে আর পড়বো না, দুপুরে না Biology বই টা কত্তো পড়লাম 😜। আমার বাবা দেশের বাইরে থাকে, সেই সুবাদে বাড়িতে এত্তোগুলি room থাকতেও আমরা একি রুমে থাকি। আমরা দুই বোন অপেক্ষা করছি আম্মুর ঘুমের। রাত ৯:০০ টা বাজে, গ্রামতো তাই গভীর রাত টা যেন রাত ৯:০০ টায়ই চলে আসে।
আপু: দেখো তো আম্মু ঘুমিয়েছে নাকি। (ফিসফিস করে)
আমি: আম্মু.. আম্মু…(যেহেতু ঘরের light off তাই আস্তে করে ডাকি দিলাম 😟)
আম্মু: কি? 😡
আমি: (যাহ 😬 মনে হয় ঘুম টা ভাঙিয়েই দিলাম। আবার কতক্ষণ অপেক্ষা করতে হবে কে জানে😧) পানি খাব।
আম্মু: T- table এ রাখা আছে, খেয়ে নাও 😠…
অগত্য পানিটা খেতেই হলো.. তারপর আমরা দুইজন 🤐… আধা ঘন্টা পর মনে হলো আম্মু ঘুমিয়েছে। এবার আর ডাক দিলাম না, আমার কি মাথা খারাপ নাকি যে ডাক দেবো…😛 আপু উঠে লুকিয়ে রাখা ভাইয়ার gift করা ফোন টা নিয়ে পাশের রুমে গেলো কথা বলতে। যদিও বিয়ে ঠিক তাও আম্মুর কথা বলা পছন্দ না। আম্মুর কথা..যদি বিয়ে না হয়। আমি উঠে গিয়ে আস্তে করে TV ছাড়লাম.. আব্বু তো আবার হজ্জ্ব করেছে তাই বাড়িতে Dish line নেই। আর আমাদের পরিবার আবার ধার্মিক এবং রক্ষণশীল দুই টাই। তাই Tv-র ব্যাপারে not interested তারা। এটা নষ্ট হলে next time আর TV পাবোনা। যাই হোক যেহেতু dish line নেই তাই অগত্য India-র national channel টাই দেখবো। ও বলাই তো হয়নি dish line না থাকলে কি হবে আমাদের TV তে national channel টা আসে। India আর Bangladesh এর সময় এর deference মাত্র ৩০ মি:। তাই India-র সময় ৯:৩০ টা অর্থাৎ Bangladesh-র সময় রাত ১০:০০ টায় Hindi movie দেয় 🤪.. আজ দিয়েছে Tere naam movie.. Salman এর.. আমার favourite hero…😜😜😜

cousin এর কাছে শুনেছি Tere naam movie-র নাকি happy ending হয়। Happy ending আমার ভীষণ পছন্দ, তাই দেখছি 😃.. Omg 😭😱😭😱 এইটা কি হলো, মরে গেলো কেনো? এই বার মনে হচ্ছে আমার সেই cousin টাকে পেলে মেরে ভর্তা করে ফেলতাম 😡। এটা তো sad ending হলো। Happy ending না হলে আমি সেই movie দেখিনা। সে যারই movie হোক না কেন। ধ্যাত, মেজাজ টাই খারাপ হয়ে গেলো 😡… কাল আবার স্কুলেও যেতে হবে। রাত ১:৩০ বাজে, পরিচালক আর আমার cousin এর চৌদ্দ গোষ্ঠি ধুয়ে দিতে দিতে ক্লান্ত হয়ে ঘুমিয়ে গেলাম।
আম্মু: ফাল্গুনী…. এখনো ঘুমাচ্ছো তুমি। এই বার যদি result খারাপ হয় না…😠😡
আম্মুর মেঘের মতো গর্জন শুনে উঠে পড়লাম। আর ৫ মি: যদি শুয়ে থাকিনা, তাহলে আমার উপর বজ্রপাত হতে পারে 😞.. ঘুম থেকে উঠেই আমার friend লতার কাছে call করলাম…
আমি: স্কুলে যাওয়ার সময় আমাকে নিয়ে যাস।
লতা: আজ তো স্কুল বন্ধ, তবে কোচিং আছে বিকাল ৩ টায়।
শুনে তো আমি ভীষণ খুশি.. মনে হচ্ছে সারা পাড়ায় মিষ্টি বিলাই 😜😛। কিন্তু আমার তো টাকা নাই, তাই আর মিষ্টি বিলানো হলো না। যাই হোক, আম্মু কে স্কুল বন্ধের ব্যাপার টা জানিয়ে অনেক সময় নিয়ে ফ্রেস হলাম। তারপর চিন্তা করলাম, সকালের ইংরেজি প্রাইভেট টা দুপুর ২ টায় পড়তে যাবো। আর কোচিং টা করবো না.. ভালোই idea টা তাইনা 😝😜.. রাতে movie দেখে যে মেজাজ খারাপ হয়েছিলো, এখন স্কুল বন্ধের কথা শুনে সেটা ভালো হয়ে গিয়েছে 😜।
দুপুর হয়ে গিয়েছে, যথা সময়ের আগেই ready হলাম। জানেনই তো আমি পড়াশোনায় খুবই মনোযোগী 😛। আজ আর বোরকা পডলাম না। একটা নস্যি কালারের ডালিম হাতার জিপসি পড়েছি golden পাথর দিয়ে কাজ করা, সাথে চুরি পায়জামা। আর ওড়নায় আছে golden ছোট ছোট লাভ। আর চুল টা বেধেছি পেন্ছিলের মতো কাটা দিয়ে। ভালোই লাগছে দেখতে..😛.. ( কেউ যখন নিজের প্রশংসা করে না তখন নিজেই নিজের প্রশংসা করতে হয় 😜😜) আম্মুকে বলে বাড়ি থেকে বের হলাম.. উদ্দেশ্য প্রাক্তন মাথা স্যার মানে head teacher এর বাড়ি….

head teacher এর বাড়ি যাওয়ার সময় স্কুলের মধ্যে দিয়েই গেলাম, স্কুল বন্ধ তাই। স্কুলের পাশেই মসজিদ , সবাই নামাজ পড়ে চলে গেছে। তাই মসজিদের সামনে থাকা সোনারু ফুলের গাছ থেকে কিছু ফুই নিলাম। তারপর সোজা চলে গেলাম teacher এর বাড়িতে। এ সময়ে কেউ পড়েনা, তাই কোন student নাই। বাড়িতে sir, sir এর বউ আর তিন মাসের এক নাতনী আছে, নাম লিলি। Sir এর কাছে আমার মূলত পড়া ওর জন্যেই। Head sir এর মেয়ের twins baby হয়েছিলো, তাই একটা কে এখানে রেখে গেছে। Sir এর বউ সেদিন বিরক্ত হলেও আমি খুব খুশি হয়েছিলাম 😛😛। কিছুক্ষণ পর…
Sir: ফাল্গুনী তুমি বস, আমি লিলির জন্যে দুধ কিনে নিয়ে আসি।
আমি: জ্বি sir…😛
Sir: তুমি ততক্ষণে passage টা আার dowry system paragraph টা লিখে ফেলো।
আমি: জ্বি sir…🙂
Sir চলে গেলেন বাইরে..
আমি: লিলি কোথায় আন্টি?
Sir এর বউ: ও তো ঘুমায়..
আমি: ও আচ্ছা..😙
কি আর করবো ফুলগুলি পাশে রেখে answer paper টা খুলে সুন্দর করে copy করে দিলাম 😜😜। এখন তো ২:৪৫ বাজে, sir এর বাড়িতে মোরগ জবা ফুল আছে। Sir এর বউ কে বলে তুললাম। তারপর সূচ, সুতা নিয়ে মালা গাঁথা শুরু করলাম। Color combination টা দারুন হয়েছে 😱। হলুদ আর গাঢ় লাল। যদিও আমার dress এর সাথে match হয়নি, তারপরও জোর করে match করে পড়ে ফেললাম..😜😛 হাতে, গলায়, কানে পড়লাম, ও হ্যা টিকলিও পড়লাম ফুলের। তারপর লিলি উঠলো ওকে নিয়ে ঘুরলাম কিছুক্ষণ। ৩:৩০ বাজে এখনো sir আসেনি।
আমার চেয়েও বেশী ফাঁকিবাজ দেখছি, এই জন্যেই মনে হয় সময় শেষ হওয়ার সাথে সাথেই job টা গেছে। তাই হয়তো কেউ আর request করেনি যে, sir আর অনত:ত ১ টা মাস job টা করেন আমাদের জন্যে। অবশ্য কেউ করেছিলো কিনা জানিনা 😏😏। গুড়িগুড়ি বৃষ্টি পড়ছে এখন বাড়ি যেতে হবে.. লিলি কে ওর নানুমনির কাছে দিয়ে, খাতাটা রেখে বাড়ির দিকে রওনা দিলাম। স্কুল যেহেতু বন্ধ তাই সেখান দিয়েই যাব 😛😛। স্কুল মাঠে চলে এসেছি, পুকুরে বৃষ্টির ফোটা পড়ছে, দেখতে ভালোই লাগছে। তাই গাছের নিচে দাড়িয়ে দেখছি…😛😛
এমন সময় মনে হলো class room থেকে কেউ ডাকছে, ফাল্গুনী….😬😬

এই রে..😲😬😰 আমি তো ভূলেই গিয়েছিলাম যে কোচিং আছে.. স্কুলের মধ্যে দিয়ে যাওয়া যাবেনা, এখন ভূলের মাসুল দিতে হবে 😭😬😨। এখন তো নেছার sir এর period, উফ্ অসহ্য লাগে 😠। খুব ভাব নেয়.. গেলো শীতে বলে.. তোমরা সবাই সোয়েটার পড়নি কেনো? 2nd hand সোয়েটার কিনে নিতে পারোনা 🤑🤑.. উফ 😠😡… Class এর ছেলেরা তো বলে নেছার পাগলা 😃… আর তার ক্লাসেই এখন যেতে হচ্ছে.. এসব ভাবতে ভাবতেই ক্লাসে গেলাম.. ওম্মা 😱 একি, এ কে? এতো নেছার sir না.. সে যেই হোক dress up টা কিন্তু habby সুন্দর। কালোর ভেতরে সাদা বল প্রিন্ট shirt in করা ছাড়া, হাতা টা ভাজ করে কব্জির উপরে উঠিয়ে রাখা, গায়ের রং হলুদ ফর্সা। এ তো salman এর চেয়েও সুন্দর। আমি তো পুরা ফিদা 😱😋
Sir: এই মেয়ে তোমার নাম কি?
আমি: জ্বি, জ্বি sir ফাল্গুনী..
Sir: ও আচ্ছা ফাল্গুনের ফুল, তা ক্লাসে না এসে বাইরে দাড়িয়ে ছিলে কেন? আর এতো late ই বা হলো কেন?
আমি: জ্বি sir, আমি মনে করেছি স্কুলের সাথে, সাথে মনে হয় কোচিং ও বন্ধ তাই…( ডাহা মিথ্যা কথা) 😉
Sir: হুম, যাও বসো। এর পর থেকে ভালো করে জেনে নেবে.. 😎😎।
আমি: জ্বি sir.. কথা টা বলতেই মাথার কাটা টা ভেঙে চুল খুলে কাটা টা পড়ে গেল। 😐😐 উফ্, কাটা টা তুলে বাইরে ফেলে দিলাম।
লতা জায়গা করে দিলো ওর পাশে,বসতে যেয়ে দেখি সব ছেলেরা আমার দিকে তাকিয়ে আছে😗। বোরকা ছাড়া এসেছি তাই মনে হয়, হনুমান গুলি 🙉।
লতা: কিরে, তোকে না সকালে বললাম যে বিকালে কোচিং আছে। ভূলে গেলি কিভাবে? TV তে কোন দিন কোন cartoon হয় সেটা তো ভূলিস না (ফিসফিস করে) 😠😠।
আমি: আরে ভূলিনি, আসতে ইচ্ছা করলো না। তা কে রে এই টা, নেছার sir কই? (Sir এর দিকে তাকিয়েই বললাম 🙂)।
লতা: উনি নেছার sir এর friend, উনার নাম সামির। উনি ইন্জিনিয়ার, sir এর বাড়িতে বেড়াতে এসেছেন। আর sir গিয়েছেন teachers training এ। তাই গতকাল থেকেই Samir sir ক্লাস নিচ্ছেন, ৬/৭ দিন ক্লাস নেবেন আর কি..
আমি: ও তাহলে ইন্জিনিয়ার দেখতে এমন লাগে, এই মানুষের মতোই তো লাগে দেখতে। আবার দেখ দুইটা পাও আছে 😉😉।
লতা: ফাজলামি বাদ দিবি..😆😆
আমি: হুম, তো ৬/৭ দিন কম হয়ে গেলো না..
লতা: তুই কি ফিদা হয়ে গেলি নাকি 😋😋?
আমি: আরে না, dress up দেখেই তো আমার পছন্দ হয়নি। ( ডাহা মিথ্যা কথা 😉) sir এর দিকে তাকিয়েই কথা গুলি বলছি..
লতা: তাহলে এভাবে তাকিয়ে আছিস কেন?😃
আমি: (চোখ নামিয়ে ওর দিকে তাকিয়ে) মনোযোগ দিয়ে পড়া শুনছি..😊
লতা: তাহলে বল sir কি বললো?
আমি: sir বললো, মনোযোগ দিয়ে আমার কথা শোন..😋
লতা: এ ছাড়া আর কিছু শুনিসনি?😃
আমি: আর কিছু বলেছে নাকি? 🤔🤔
লতা: হুম, বুঝলাম 😃।
আমি:😊😊😊
যথারিতী বাধ্য হয়ে সব class শেষ করে বিকাল ৫ টায় বাড়ি ফিরলাম..🙁

Coming soon interesting part..🌸Farzana🌸

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here