Contract_marriage★  part- 9

0
144

Contract_marriage★
part- 9

writer-Jubaida Sobti
নিলা : কি লুকাবো। কিছুইতো না।
আবির : নিলা আমার ব্যাপারে তুমি সব জানো। তোমার ব্যাপারে ও আমি সব জানি তবে আমায় মিথ্যা বলার কি দরকার। বলো আমাকে কি হয়েছে?
নিলা :(কেঁদে কেঁদে) কাল যখন আপনার পরিবারের ফোন আসবে। তখন মামা মামীর সপ্ন ব্যর্থ হয়ে যাবে। তারা আমাকে ছোট থেকে লালনপালন করে বড় করেছে। মমিতা আপুর সংসারটা ও তেমন ভালো চলছে না। শশুরবাড়ি ছেড়ে বাবার বাড়ী উঠে এসেছে। শ্রেয়ার পড়া লিখার খরচ এসব মিলিয়ে মামা আর ভাইয়ার উপর অনেক প্রেশার যায়। তার মধ্যে এতো কষ্টের মাঝে বার বার আমার কারণে ওদের ও কষ্ট পেতে হচ্ছে। আর আমি চায় না এসব ভবিষ্যৎ এ ও হোক।তাই আমি ডিসিশন নিয়েছি এর চেয়ে ভালো তাদের থেকে দূরে সরে গিয়ে তাদের জিবনের বোঝা কমিয়ে দি।
আবির : কিন্তু নিলা তোমার কি মনে হয় মামা তোমাকে বোঝা মনে করে?
নিলা : কখনো না! মামা আমাকে নিজের মেয়ের মতোই ভাবে। কিন্তু আমার নিজেকে নিজেই তাদের কাছে ছোট মনে হচ্ছে। আপনাকে তো বলেছি আমার বিয়ে কতোবার ভেঙেছে। সবার কতো আশা ছিলো এই বিয়ে নিয়ে।
আবির : সব আমার কারনে তাই না নিলা।দেখিও নিলা তুমি আমার চেয়ে ভালো বর পাবা।
নিলা : (চুপ করে কেঁদে😭 চলছে)
আবির : নিলা আমি তারাকে ভালোবাসি তাই তোমাকে বিয়ে করছি না।
নিলা : তো কে বলেছে আমাকে ভালোবাসতে।আমাকে ভালোবাসতে হবে না আবির। (কেঁদে কেঁদে) 😭
আবির : মানে! কি বোঝাতে চাচ্ছো?😶
নিলা : (কেঁদে কেঁদে) আবির আপনি আমাকে বিয়ে করেন। আমার জন্য নয় আমার মামা মামীর দিক চেয়ে হলে ও। আপনি আমাকে যেদিন বলবেন ঐদিনি আমি আপনার জীবন থেকে চলে যাবো।
আবির : কিন্তু!!! এটা সম্ভব হবে নাকি?
নিলা : এক সপ্তাহ ‘ একমাস ‘ দুই মাস যে দিন বলবেন ঐদিনি চলে যাবো। আমি আপনাকে প্রমিস করছি আবির।
আবির : হুম!! তবে তারা ও বলেছে এক বছর পরে সে ভেবে বলবে। তারা ঢাকায় গিয়েছে মেডিকেল পড়ার জন্য।
কিন্তু হে!! নিলা আমি তোমার উপর ভরসা করে এই বিয়েতে রাজি হতে পারি তবে আমাকে প্রমিস করো আমি যেদিন বলবো ঐদিনি তুমি আমার জীবন থেকে চলে যাবা। কারণ নিলা আমি তারার জায়গা আর কাউকে দিতে পারবো না। আমার জীবনে শুধু তারা আর কেউ নয়।
নিলা : আমি আজ এই মুহুর্তকে সাক্ষী রেখে ওয়াদা করছি আপনি যেদিন বলবেন ঐদিনই আমি আপনার জীবন থেকে চলে যাবো।😞
আবির : ঠিকাছে নিলা তাহলে এখন বাসায় যাও।
নিলা : আপনি কই যাবেন?
আবির : কই আর যাবো ঐ হিটলারের কাছে। চলো তোমাকে আগে পৌছেদি।
নিলা : আমি যেতে পারবো!
আবির : আচ্ছা তখন দেখেছিতো কতোদূর যেতে পারো।
আমি বারবার গিয়ে ঐসব বলতে পারবো না যে আমার চাচা আর্মি ” মামা পুলিশ ” দাদা মেজিস্ট্রেড। হা! করে দেখছো কী চলো এবার।
নিলা : চলেন।
নিলা নিলার বাসায় এসে গেছে ড্রইং রুমে গিয়ে চিঠিটা নিয়ে তাড়াতাড়ি ছিড়ে ফেলে দিয়েছে।
আবির ও তার বাসায় এসেছে।
দাদি : আরে আবির তুই আমি জানতাম তুই আসবি। দেখ আবির তুই নিলার চেয়ে ভালো মেয়ে আর পাবি না সে তোর জন্য একদম পারফেক্ট।
আবির : জি! দাদি আসলে আমি বুঝতে পারিনি। এখন বুঝতে পেরেছি।
বাবা : মা ওর থেকে জিজ্ঞেস করো এটা কোনো ওর নতুন প্লান নয়তো।😐
দাদি : চুপ করবি তুই!! আবির তার নিজের ভুল নিজে শিকার করেছে। যা এখন বিয়ের যা যা লাগবে তৈরী কর।
আবির আবিরের রুমে চলে গেলো।
চিন্তা করছে কি হচ্ছে তার সাথে।
নিলা ও তার রুমে বসে ভাবছে। আর কান্না করছে।
চলবে….😊

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here