contract_marriage Part- 2

0
150
contract_marriage
Part- 2
writer-Jubaida Sobti
আবির নিলাকে সরি বলে। নিলা কিছু না বলে ওয়াস রুমে কাপড় ওয়াস করার জন্য চলে যায়। 
আবির ও চলে যাচ্ছিলো। হঠাৎ আবির আবার ভাবতে লাগলো ইসস মেয়েটার কাপড়টাই বরবাদ করে দিয়েছি।সরি বললাম ইটস ওকেটা ও বললো না। বেশি রাগ করেছে নাকি। ওয়াস রুমে গিয়ে একবার দেখে আসি।
তারপর আবির ওয়াস রুমের ঐদিকে গেল এবং নিলা ও আবিরকে দেখতে পেল। আবির নিলার চোখে পানি দেখতে পায় আবির নিলাকে গিয়ে বলে.. দেখো আমি কিন্তু ইচ্ছা করে করিনি সরি।
নিলা : ইটস ওকে।
আবির : তাহলে কাঁদছো কেন?
নিলা : কে বলেছে আমি কাদছি।😒
আবির: তোমার চোখ বলেছে।
নিলা তারাতারি চোখ মুছে চলে যাচ্ছিল।
আবির : শুনো
নিলা ফিরে তাকালো
আবির তাকে একটি টিসু দিয়ে বলে এটা নিয়ে যাও কাজে লাগবে। (আবির মুচকি হাসি দিয়ে)নিলা ও চলে আসে।
নিলাকে যে বর পক্ষ দেখতে আসে বরের মা নিলাকে আর আবিরকে একসাথে কথা বলতে দেখে ফেলে।
এবং নিলার মামাকে বলে আপনারা যে বললেন মেয়ের কোনো বয়ফ্রেন্ড নেই তাহলে নিলা এতক্ষন দাঁড়িয়ে ঐ ছেলেটির সাথে কি কথা বলছিল?
মামা : নিলা এসব কি শুনছি?
নিলা : না মামা ঐ ছেলেটিকে তো আমি চিনিনা। এই প্রথম দেখছি।
মামা বর পক্ষের মা কে বললো দেখেন নিলাকে আমি যতটুকু চিনি নিলা এমন না।নিলা যা বলছে তাই সত্য হবে।
বর পক্ষ বললো আচ্ছা আমরা বাসায় গিয়ে জানাবো আপনাদের।
নিলারা ও বাসায় ফিরে আসে।
মামি : নিলা শোন কি দরকার ছিল ছেলেটির সাথে কথা বলার।
নিলা: মামি আমি ইচ্ছা করে কথা বলিনি।ওকে তো আমি চিনিও না।ও আমাকে সরি বলতে এসেছিলো।
বর পক্ষের ফোন আসে মেয়ে রিজেক্ট।
অন্যদিকে আবির এর বাবা আবির এর উপর অনেক রাগে আছে। আবির মেয়ে রিজেক্ট করে দিয়েছে আবার।এবার ও আবিরের ভাবি আর দাদি আবিরকে বাচিয়ে নিয়েছে।
পরদিন সকালে আবির তার দাদিকে নিয়ে ডাক্তারের কাছে যায় দাদির চেকাপ এর জন্য। নিলাও যায় তার মামি আর শ্রেয়াকে নিয়ে ডাক্তারের কাছে।
আবির আর নিলার আবার ও দেখা হয়ে গেল।
আবির : Hey what’s up?
নিলা : জি আপনি 😳 আপনি এইখানে কি করছেন।
আবির : এইখানে মানুষ কি করতে আসে😂
নিলা : ও বুঝলাম তবে কি হয়েছে আপনার
আবির : ক্যানসার 😭
নিলা : 😱😱
আবির : hey! i m just kidding dear 😂
নিলা আবিরকে কিছু না বলেই চলে গেল।
আবির : আরে একটা বাই তো বলে যাও।😄
আবিরকে নিলার সাথে কথা বলার সময় আবিরের দাদি দেখে।
দাদি : যাক তুই তাহলে নিজের জন্য বউ নিজেই ঠিক করে রেখেছিস। তা আমাদের বললেই বা কি হতো।😏
আবির : আরে দাদি না আমিতো ওর নাম সহ জানিনা।
দাদি : তবে মেয়ে কিন্তু আমার অনেক পছন্দ হয়েছে।
আবির : উফফ দাদি চিনিনা জানিনা অম্নি বউ বানিয়ে দিলে।😡
দাদি : হয়েছে হয়েছে আমার সাথে আর ডং করতে হবে না।😁
চলবে…..😊
part- 3
বাসায় এসে দাদি আবিরের বড় ভাবীকে সব বলে ভাবি ও খুশি হয়ে যায়।
ভাবি : দাদি তবে আবির আমাকে যে কিছু বলেনি 😒
দাদি : আরে ও মনে হয় আমাদের সারপ্রাইজ দিতে চাচ্ছে।তবে ও সারপ্রাইজ দেওয়ার আগে আমরাই ওকে
সারপ্রাইজ দিয়ে দিবো।
ভাবি : কি সারপ্রাইজ দাদি?
দাদি : মেয়েটা আজ হাসপাতালে এসেছিল যেভাবে হোক ঐখান থেকে হলেও মেয়েটির ঠিকানা বের করে আমরা মেয়েটির বাসায় প্রস্তাব দিব।
ভাবি : ওকে দাদি let’s start 😋
দাদি আবিরের বাবা ও পরিবারের সবাইকে নিয়ে আবিরের বিয়ের কথা তোলে
আবিরের বাবা : দেখো মা এটা কোনো আবিরের প্লান নয়তো? কারণ ওকে আমি হারে হারে চিনি। কোনো কাজটাই ছেলেটা ঠিকভাবে করেনা।
দাদি : আরে ধুর তুই সব সময় আমার নাতিটার দোষ দিস কেন বলতো। তুর ছেলে কিন্তু পরির মতো বউ ঠিক করে রেখেছে। 😍 আমারতো অপেক্ষাই হচ্ছেনা।
পরদিন আবির এর বড় ভাবি নিলার ঠিকানা নিয়ে আসলো।
আবিরের দাদি দেরি করেনি নিলার বাসায় গিয়ে সব ঠিকটাক করে আসে।এবং বলে আমাদের ছেলে আবির নিলাকে খুব পছন্দ করে তাই আমরা কিছু চায়না শুধু মেয়ে চায়।নিলার পরিবার ও খুব খুশি এতবড় ঘর থেকে নিলার জন্য প্রস্তাব আসবে কেউ ভাবতে ও পারেনি।তাও আবার পরিবারের মানুষ গুলা ও কতো ভাল।নিলার ও কোনো আপত্তি নেই আবিরের জন্য আবির দেখতে সুন্দর স্মার্ট দাদির থেকে যতটুকু শুনছে আবির দুষ্টামি বেশি করে😌
যাই হোক দাদি কথা পাক্কা করে কাল আবির ও তার পরিবারকে নিয়ে আসবে বলে বিদায় নিল।
পরদিন সকালে দাদি ভাবিকে বলে আবিরকে রেডি হতে বলার জন্য।
ঐদিকে আবির তারাকে ফোন করে বলে দেখা করার জন্য কিন্তু তারা বলেছে সে তার মামার বাড়ি যাচ্ছে। যদি পারে তাহলে আসবে। আসুক আর না আসুখ আবির তো তারার জন্য অপেক্ষা করবেই।তারা বলে কথা।😍
ভাবি : আবির তুকে দাদি রেডি হতে বলেছে।😊
আবির : রেডি হব কেন?😶
ভাবি : বউ দেখতে যাবি বলে।
আবির : ভাবি ডিয়ার আমিতো বলেছি এসব বিয়ে টিয়ে আমি এখন করছিনা।😐
ভাবি : লুকিয়ে লুকিয়ে বউ ঠিক করছিস আবার বলিস বিয়ে টিয়ে তোর দারা হবে না।😠
আবির : ভাবি ডিয়ার কি বলছো তুমি আমি কিছুই বুঝতে পারছি না।😨
ভাবি : দেখ আবির এবার তোকে এমন মেয়ে দেখাবো তুই কখনো রিজেক্ট করতে পারবিনা।মেয়ের মামা ও রাজি হয়ে গেছে।
এই বলে ভাবি চলে যাচ্ছে
আবির : আরে ভাবি ডিয়ার শুনো কই যাও😖
আবির ভাবতে লাগলো লুকিয়ে লুকিয়ে আমি আবার কবে বউ ঠিক করলাম
তবে এবার যাকে দেখাবে তাকে আমি চাইলেও রিজেক্ট করতে পারবোনা। মেয়ের মামাও রাজি হয়ে গেছে 😰
আবির :😍😍😍😍😍 এবার বুঝলাম তারা ও তো মামার বাড়ি যাচ্ছে। আর আমি চাইলেও মেয়ে এবার রিজেক্ট করতে পারবো না।
তার মানে ভাবি মনে হয় জেনে গিয়েছে আমি তারাকে ভালবাসি। উফফ জানবেই না বা কেন আমার ভাবি ডিয়ার বলে কথা। তারাও তো আমাকে কিছু বলেনি এই বেপারে 
আচ্ছা বুজলাম সবাই মিলে আমাকে সারপ্রাইজ দিচ্ছে।
ওও তাহলে আমিও কি অভিনয় করতে জানি না বুঝি 😎
চলবে…😊

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here