বেইমানীvsলাভ পার্ট_৪

বেইমানীvsলাভ পার্ট_৪
#জামিয়া_পারভীন

রুমেসা নিজের ঘরে চলে গিয়ে অস্থির হয়ে গেছে। এই প্রথম কোন ছেলে তার সাথে এমন ফাজলামো করছে। কিন্তু একটা খারাপ ধারণা মনে আছেই। ভাই যেমন, ছোট ভাই তেমন হতেই পারে। এসব মনে করে আবারো উদাসীন হয়ে যায় রুমেসা।😭

রুমেসা প্রায়ই দিন রাত্রে সবাই ঘুমালে বারান্দায় গিয়ে কাদে। আর এটা পাশের রুম থেকে সৌরভ শুধু খেয়াল করে।
সৌরভ মনে মনে প্লান করে এই কান্নার রহস্য উদ্ধা করেই ছাড়বে। 😞😞

তাই কয়েক দিন পর দুপুরে আবির তার দাদীর সাথে খেলছে, রুমেসা রান্নাঘর এ । 😊
এই ফাঁকে সৌরভ রুমেসার ঘরে ঢুকে দরজা লাগিয়ে তল্লাশি চালায় কিছু পাবে কিনা সেই আশায়। 😒😒

পেয়েও যায় আলমারি তে রাখা কিছু কাগজ যাতে স্পষ্ট লিখা রুমেসা টাকার বিনিময় এ এই বাসায় আছে। প্রথমে রুমেসা কে ভুল বুঝলেও পরে ঠিক বুঝে উঠতে পারেনা আসলে কি হয়েছে 😎😎.

এরই ফাঁকে রুমেসা ঘরেএসে দেখে দরজা ভিতর থেকে অফ।
কনফিউজড হয়ে নক দেয়, আর সৌরভ ভয়ে কাগজ গুলি লুকায় নিয়ে দরজা খুলে দেয়।

…. কি ব্যাপার আমার ঘরে কি করো??😡

…. তোমার ঘর নাকি??😈

…. তো কার ঘর মনে হয় ? দেখতে পাচ্ছেন না বাবুর কাপড়, খেলনা।😎

…. ও, সরি বেবি, আমি ভেবেছি আমার ঘর। তাই রেস্ট নিচ্ছিলাম।😃

…. আবার ফাজলামো করছেন। 😡

…. উম্ম, আমার তোমাকে খুব ভালো লাগে। 😊😊

…. ভুলে গেছেন আমি আপনার ভাইয়ের বউ।😲

…. তা কি ভুলা যায় বলো, তুমি এক টা বাচ্চার ও মা।😆😆

…. যান এখান থেকে নইলে চিৎকার দিবো😡😡😡

…. এতো চেতছো কেন সোনা একটু মজা করলাম। 😜😜😜

সৌরভ এবার পালায় রুম থেকে কিন্তু রুমেসা চিন্তায় পড়ে যায় সব জেনে গেলো না তো এই ভয় এ।

আর সৌরভ ও নিজ ঘরে গিয়ে কিছুই বুঝতে পারছেনা।
টেনশনে দুপুরে না খেয়েই ঘুমিয়ে পড়ে।

দুপুর গড়িয়ে বিকেল হলো রুমেসা কে আম্মা বলে কি ব্যাপার দেখো তো সৌরভ কি করছে খেতে আসছে না কেনো।

আচ্ছা আম্মা দেখছি বলে রুমেসা দোতালায় গিয়ে সৌরভের ঘরের দরজা নক করে।
দরজা না খুলায় ভিতরে ঢুকে, আর কাছে যেয়েই ধাক্কা দেয়।
কি ব্যাপার উঠছো না কেনো বলে আর সৌরভ ঘুমের ঘোরেই রুমেসা কে জড়াই ধরে। 💜 আর রুমেসা এক চিৎকার দেয় ভয় এ অসভ্য বলে।😈

সৌরভের ঘুম ভাংতেই সরি বলে রুমেসা কে ছেড়ে দেয়।💔

…. সরি বুঝতে পারিনি, ঘুমিয়ে ছিলাম।😉

…. মিথ্যা বলতে হবেনা, আম্মা ডাকে। 😡

বলেই কাঁদতে কাঁদতে রুম থেকে বের হয়ে যায় আর চোখ মুছে নিচে যায়।😭

…. কি হইছে, চিৎকার দিলে যে। ( আম্মা বললো)😞

…. আপনের ছেলে খুব ফাজিল জানেন আম্মা।😊
ঘরে ঢুকলাম ডাকতে ইচ্ছা করেই গায়ে টিকটিকি দিয়ে দিয়েছে।😆😆

…. আসলেই ও একটা ফাজিল। ছোট থেকেই এমন, কিছু মনে করোনা।😆😆

…. না আম্মা কিছু মনে করিনি।😞😞

…. ও এসেছে ওকে খেতে দাও। 😫😫

বলেই ঘরে গেলো, পিচ্চি একা মনেই খেলছে।

ফাকা বুঝেই সৌরভ বলে মিথ্যে বললে যে।😞

…. তো কি করবো, বলতাম তুমি আমায় ঘুমের ঘোরে জড়ায় ধরেছো।😲😲

…. আসলে কি হইছে জানো, আমি তোমাকে নিয়ে স্বপ্ন দেখছিলাম। আর ওই মূহুর্তে তুমি গেছো তাই ভুলে ধরে ফেলেছি। 😃😃 সরি বেবি

…. চুপ, সব সময় ফাজলামো ভালো লাগেনা। নিজে খুলে খাও, হুহ, বায়। 😞😞

ওই মহারাণী, তুমি না পাশে থাকলে খেতে ইচ্ছা করেনা যে।😆😆

এতো দিন খাইছেন কিভাবে।😃😃

পানসে লাগতো, এখন মিষ্টি লাগে।😁😁

সেদিন ওই মুহুর্তে আসিফ এসে দেখে দুইজন কে এভাবে।
একটু রাগ হয় তার জোর গলায় বলে রুমেসা ঘরে এসো কথা আছে।

ঘরে গেলো রুমেসা আর সৌরভ ভাবে কথা শুনতেই হবে তাই পিছু নেয়।

…. কি ব্যাপার রুমেসা ওর সাথে তোমার এতো কি? 😡😡

…. আমার কি মানে, সে আমার দেওর হয় কথা তো বলতেই পারি।আম্মা খেতে দিতে বললো তাই দিছিলাম।😞

…. আমিও তো তোমার স্বামী আমাকে তো এতো যত্ন করোনা।😡😡

…. আপনি আমার স্বামী, ধোঁকাবাজ, আমাকে ধোঁকা দিয়ে এই বাড়িতে রেখেছেন আপনি ভুলে গেলেও আমি ভুলবো না।😡😡

…. খবরদার আমার ভাইয়ের সাথে যেন আর না দেখি।😡

…. ১০০ বার থাকবো। কি করবেন আপনি??😉

…. তখনি রুমেসা কে চড় মারে।😡😡

আর বাইরে থেকে সৌরভের এর ভুল ভাঙে আর রুমেসা কে বাঁচাতে ভাই বলে নক করে দরজায়।

কি ব্যাপার আসিফ রাগ করে সৌরভ কে বলে।😡

…. আমি একটা জিনিষ বুঝছি না, বিজনেস নিয়ে, কক্সবাজার শাখায় একটা প্রব্লেম হইছে আপনি একটু আমার ঘরে আসেন প্লিজ।

…. ওকে আসছি যা ঘরে।

রুমেসা কে বলে ওর জন্য তোমায় আজ ছেড়ে দিলাম নইলে দেখে নিতাম।

চলবে…..

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here