টেম্পরারি_বিয়ে _পর্ব_৩

0
164

টেম্পরারি_বিয়ে
_পর্ব_৩
Written by Avantika Anha
রাতে বৃষ্টি হচ্ছিলো । আমার আবার বৃষ্টি অনেক ভালো লাগে । তাই আর আটকাতে পারলাম না ।
আমি ভিজার জন্য দৌড় দিলাম ।
.
আবির : কই যাচ্ছেন ?
আমি : বৃষ্টি ভিজতে টাটা
আবির : রাতে ভিজিয়েন না ঠান্ডা লাগবে ।
আমি : আমি তো ভিজবোই
.
বলেই দৌড়…..
৪৫ মিনিট পর…..
আবির ভাবছে ” উনি এখনো এলো না কেনো ? এতো ভিজলে তো নির্ঘাত জ্বর আসবে । যাবো কি একটু দেখে আসি । “
.
আবির গিয়ে দেখলো আমি এখনো ভিজতেছি ।‌
আবির : এই মেয়ে আপনি এখনো ভিজছেন ?
আমি : কই কিছুক্ষণ মাত্র
আবির : এ্যা কিছুক্ষণ না এক ঘন্টা
আমি : ও মাত্র । আমি আরও ২ ঘন্টা ভিজবো ।
আবির : আপনি চলুন আমার সাথে
আমি : আমি তো যাবো না যাবো না যাবো না রে আমি যাবো না যাবো না যাবো না রে‌।
আবির : যেতেই হবে
আমি : পারলে নিয়ে যায়ে দেখান ।
আবির : আমাকে আন্ডারেস্টিমেট কইরেন না
আমি : এ্যা আইসে
.
আবির কথা না বাড়িয়ে আনহার কাছে গেলো ।
আমি : আপনিও ভিজবেন চলেন একসাথে ভিজি ।
আবির : আমি ভিজতে না আপনাকে নিয়ে যেতে এসেছি ।
.
এই বলে আবির আমাকে কে কোলে নিয়ে রুমের দিকে এগুতে লাগলো ।‌আমি লাফালাফি লাগালাম ।
আবির : লাফালাফি করে লাভ নাই আমি আপনাকে আর ভিজতে দিবো না ।
.
রুমে এসে আবির নামিয়ে দিলো আমাকে ।
আমি : আপনি একটা রাক্ষস ।
আবির : ওয়াও গুড
আমি : আমি ভিজবো
.
বলে আবার যেতে লাগলাম । এবার আবির হাত ধরে ফেললো ।
আমি : আম্মু আমি যাবো ।
আবির : এখানে আম্মু নেই আর আপনি যাবেন না ।
গিয়ে কাপড় বদলে নিন ।
আমি : আচ্ছা
.
আমি বাথরুমে ঢুকলাম । আসল প্লান তো এটা না । আমি তো ভিজবোই ।
.
আবির নিজের কাপড় বদলানোর জন্য কাপড় বের করতে লাগলো ।
.
এই ফাঁকে আমি দরজা খুলে আবার দৌড় দিছি ভিজতে ।
.
আবির : এ্যা এই মেয়ে এতো ফাজিল । আবার ধরে আনতে হবে এখন ।
.
আবির আবার আসলো ।
আবির : আপনি তো বেশ ফাজিল । একবার ধরে নিয়ে গেলাম । আবার চলে এলেন ।
আমি : এই আপনি আর আমার কাছে আসবেন না ।
আবির : আপনাকে তো আমি নিয়ে যাবোই ।
.
আমি : এই কাছে আসবেন না ।
.
আমি পিছাতে লাগলাম । আবির আমার দিকে এগুতে লাগলো ।
আমি পা পিছলে পড়ে গেলাম ।
আমি : আহ আম্মু গো
আবির : ভালো হইছে
আমি : সব আপনার জন্য
আবির : হাহা কোমর ভাঙ্গে গেছে নাকি ?
আমি : আম্মু আমার কোমর ভাঙ্গে গেছে ।
আবির : এবার চলুন
আমি : ওই‌ আমার পা মোচকে গেছে ।
আবির : ভালো হইছে
আমি : হুর
.
আবির : চলুন আমি নিয়ে যাচ্ছি ।
.
.
বলে কোলে করে নিয়ে গেলো ।
.
রুমে আবির আমাকে কাপড় দিলো চেন্জ করতে । সে বাথরুমে গেলো ।
.
আমি কাপড় টা বদলে ফেললাম ।
.
আবির এলো ….
আমি : আম্মু গো আমার পা গো । উহু কি ব্যাথা রে
আবির : হায় কপাল আপনাকে জোড় করতে কে বললো । আমার কথা শুনলে কি হতো ?
আমি : উহু পরে বইকেন । আমারে কাঁদতে দেন ।
আবির : এই মেয়েটা ওহো
আমি : আম্মু ব্যাথা ব্যাথা ব্যাথা
আবির : দেখি পা টা
আমি : না ব্যাথা
আবির : দেখি
আমি : উহু দেখেন
আবির : (দেখলাম মোচকে গেছে । হাত দিতেই )
আমি : আম্মু সরান ব্যাথা আম্মুর কাছে যাবো ( আমি চিৎকার দিতে শুরু করলাম )
আবির : একদম চুপ কোনো কথা না ।
আমি : ( গালি শুনে চুপ করে গেলাম । আমার উপর কেউ চিৎকার করলে আমি কেঁদে ফেলি তাই চুপ করে গেলেও চোখ দিয়ে পানি পড়তে লাগলো )
আবির : এতোটুকুতে কাঁদার কি
.
(আমি চুপ)
.
আবির : কি হলো কথা বলেন
আমি : আপনি চুপ করতে বলেছেন
আবির : আচ্ছা বাট কাঁদছেন কেন ?
আমি : আমার উপর কেউ‌জোড়ে চিৎকার করলে কেঁদে দেই তাই ।
আবির : হুম আপনি যে ডেইলি সোপের নায়িকা তাই‌এতো কাঁদেন
আমি : একদম না
আবির : এবার ওদিকে ঘুরেন‌
.
আমি ঘুরলাম । আবির কি জানি করলো পায়ে ।
আমি : আম্মুউউউউউ ( বলেই আবিরের হাত খামচে দিলাম )
আবির : ওহো
আমি : সরি
আবির : ইটস ওকে
.
কিছু সময় পর আবির কাজ করছিলো । আমি যেয়ে বললাম ” হাত টা দিন “
আবির : কেনো
আমি : দেন তো ( বলেই হাত টা টেনে ওষুধ লাগিয়ে দিলাম )
আবির : ওতো বেশি কাটে নি
আমি : যেটুকুই হোক কেটেছে তো । তাও আমার জন্য
আবির : ব্যাপার না । নিহাও এমন করতো ।
আমি : হুম । মন খারাপ ।
আবির : না
আমি : বললেই হলো । আপনার মুখ দেখলেই বুঝা যায় বুঝলেন ।
আবির : বাহ আপনি বুঝি জ্যোতিষী
আমি : হুর মজা নেন
আবির : আরে না
আমি : ঘুমান গিয়ে আমার ঘুম পাচ্ছে
আবির : হুম ঘুমান আমার কাজ আছে ।
আমি : ওকে গুড নাইট
.
আমি ঘুমিয়ে গেলাম । আবির কাজ শেষ করলো । তারপর আমার দিকে তাকালো আর হেসে দিলো ।
আবির : এই মেয়েটা এতোটা ফাজিল যা ভাবার বাইরে হাহা ।
.
বলে আবির ঘুমিয়ে পড়লো ।
.
চলবে…….

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here