অদ্ভুত ভালোবাসা season 2 পর্ব:১০

0
442

অদ্ভুত ভালোবাসা season 2 পর্ব:১০
writer :অন্না
,
,
,
,
এর মধ্যে কলিং বেল বেজে উঠে
,
তিশা::: যাও তোমার গুন্ডা চলে এসেছে,,,
,
নীরা দৌড়ে গিয়ে দরজা খুলেই থমকে দাড়ায়,,,,
,
নিলয় মুনিরাকে কোলে নিয়ে দাড়িয়ে আছে,,,,
,
নীরা তাকিয়ে দেখে মুনিরার জামাকাপর ছেরা, চুল উসকো খুসকো,,,নীরার পা কেপে ওঠে ওদের ওভাবে দেখে,, তিশা দৌড়ে এসে নীরাকে আকড়ে ধরে,,,,,
,
তিশা ::: ভাই,,, তুই এটা কি করেছিস, ওকে এ বাড়িতে কেনো এনেছিস? ,, পাগল হয়ে গেছিস নাকি হ্যা??,,,,
,
মামুনি ::::: নিলয় এটা তুই কি করেছিস???
,
নিলয় কাউকে কিছু না বলে ভেতরে এসে মুনিরাকে সোফায় ছুরে ফেলে দেয়,, তারপর ডাইনিং টেবিলের ওপর থেকে জগ ভর্তি পানি নিয়ে মুনিরার মুখের ওপর ঢেলে দেয়,,,,,,, মুনিরা হকচকিয়ে উঠে বসে অসহায় দৃষ্টিতে নিলয়ের দিকে তাকিয়ে থাকে
,
নীরা::: হচ্ছে টা কি???
,
নীরা এসে নিলয়ের হাত থেকে জগ টা নিতে গেলো,,আর নিলয় নীরার দিকে হাত বারিয়ে আসতে বারন করে,,,,
,
নিলয়:::: আমাকে টাচ্ করোনা নীর পাখি,,,,,,

,
নীরা:::: কেনো???
,
নিলয়::: কারন আমি পাপ হাত নিয়ে জরিয়ে নিয়েছিলাম,, আমি চাইনা তোমার গায়ে এ নোংরা লাগুক,,,
,
মামুনি ::: কি হয়েছে বাবা? ওর ও অবস্থা কেনো?
,
নিলয়:::: এ তো শুরু মা,,, আমার নীর পাখির ক্ষতি করতে চেয়েছিলো না ও,, দেখো ওর দিকে তাকিয়ে,,, আল্লাহ্ সব পাপের শাস্তি চোখের ওপর দেখিয়ে দেয়,,, কিছু গুন্ডা ওকে ছিরে ছিরে খেতে শুরু করেছিলো,,, আমার জন্য এ পর্যায়ে বেচে গেছে,,, ইচ্ছা তো ছিলো ওকে ওভাবে রেখে আসতে,,,কিন্তু আমার নীর পাখি আমাকে পুরাই পাল্টে দিয়েছে,,,,, ওকে বাচালাম,,, আমি জানি ও আমার নীরের ক্ষতি করার চেষ্টা করেছে,,, তার পরেও ওকে ওভাবে রেখে আসতে পারলাম না,, যতই হোক আমার নীর পাখি আমাকে মানুষ বানিয়ে দিয়েছে,,,অমানুষের মতো কাজ করতে পারলাম না ,,,, ,,,
,
মামুনি :::: তুই যা করেছিস একদম ঠিক করেছিস, কিন্তু এরা দয়ার মর্ম বুঝেনা,,,,,
,
মুনিরা উঠে মামুনির পা জরীয়ে ধরে,,,
,
মুনীরা :::: আমাকে মাফ করে দাও মামুনি,,, আমি আমার ভুল এর শাস্তুি পেয়েছি,,, জেল থেকে ছারা পাবার পর বাবা আমাকে বাড়িতে ঢুকতে দেয় নি,,, আমার বন্ধু,বান্ধব,আত্নীয় স্বজন কেউ আমাকে আশ্রয় দেয় নি,,, আমি কোথায় যাবো বলো,, তোমরা ছাড়া আমার কে আছে,,,,,,
,
মামুনি:::: কাদিস না মা,,, তুই তোর ভুল বুঝতে পেরেছিস এটাই অনেক,, কিন্তু আমি তোকে এবাড়িতে থাকতে দিতে পারবো না,, জানিস তো বিশ্বাস এমন একটা জিনিস যা একবার হারালে দ্বিতীয়বার আর ফিরে পাওয়া সম্ভব নয়,,,,

,

নিলয়::::ফরিদা,,,,,, ফরিদা,,,,
,
ফরিদা::: জ্বি ভাইজান,,,,
,
নিলয়::’: ওকে নিয়ে যা আর তোর কোন কাপড় পরিয়ে দে,,,,, আর কিছু খাইয়ে দে,,,,
,
নিলয়ের কথায় মুনিরা কেদে ফেললো,,, ফরিদা ওকে নিজের সাথে নিয়ে গেলো,,
,
মামুনি :::: ও কোথায় থাকবে???
,
নিলয়;::: সেটা আমি কি করে জানবো,,,বিপদে পরেছিলো সাহায্য করেছি,,,তাই জন্য কি আমি ওকে আমার বাসায় রেখে দিবো,??? শোনো না,, ওর মতো মেয়েরা কখনও পালটাতে পারে না, ও আমার নীর এর জন্য বিপদজনক,,, ওকে এ বাড়িতে রাখা সম্ভব নয়,,,,,
,
একটু পরেই মুনিরাকে সাথে নিয়ে ফরিদা আসলো,,,,,, মুনিরা এগিয়ে নীরার হাত ধরতে লাগলো,,,,
,
নিলয়::: হেই স্টপ,,, ডোন্ট টাচ্,,,,
নীর আমার কাছে এসে দাড়াও,,,
,
মুনিরা::: ভয় নাই,, আমি ওর কোনো ক্ষতি করবো না,, আমি ভাবির কাছে মাফ চাইতে গেছিলাম,,,,
,
নীরা :::: না মাফ চাইতে হবে না, তুমি যে নিজের ভুল বুঝতে পেরেছো এটাই ওনেক,,,,,
,
নিলয়:::: আপনাকে কেউ বকবক করতে বলে নি,,, চুপচাপ আমার পিছে এসে দাড়ান,,,

,
,
নীরা::: কিন্তুু,,,,,,,
,
নিলয় এবার রাগি চোখে নীরার দিকে তাকালো,, নীরা এক পায়ে দু পায়ে
নিলয়ে পিছে এসে দাড়ায়,,,,

,
মুনিরা:::: আমি আসি মামুনি,,, আমি আর তোমাদের কষ্ট দিতে চাই না,,,, অনেক কষ্ট দিয়েছি তোমাদের,, এ পাপের শাস্তি আমি পাচ্ছি,,, আমাকে তোমরা ক্ষমা করে দিও,,,,
,
নিলয়::: দাড়া,,,,
,
নিলয় রুমে চলে গেলো,,, তার পর অনেকগুলো টাকা এনে মুনিরার মুখের ওপর ছুরে ফেলে দিলো,
নিলয়ের কাজে সবাই হতবাগ
,
নিলয়::: এগুলো তুলে নিয়ে এখান থেকে বেরিয়ে যা
,
মুনিরা::: এগুলোর কোনো দরকার নাই,,,
,
নিলয়:::: এতো তারাতারি প্রয়োজন ফুরিয়ে গেলো,,, এগুলোর জন্যই তো তোরা এতকিছু করলি,,,, যা দুর হয়ে যা আমার সামনে থেকে,,,,,
,
নীরা:::: মুনীরা আপু,,,,
,
নিলয় পিছু ঘুরে নীরার দিকে তাকালো,,, নিলয়ের চোখ দেখে নীরা চুপ মেরে গেলো,,,
,
মুনীরা::: ভালো থেকো ভাবি,,,, ,,,

মুনিরা বাসা থেকে বের হয়ে গেলো,, নিলয় গিয়ে ঠাস করে দরজা লাগিয়ে রুমে চলে গেলো,,, তার পর সাওয়ার নিয়ে বের হয়ে দেখে নীরা এখন ও ঘরে আসেনি,,, রুম থেকে বের হয়ে এসে দেখে সোফায় বসে নখ কামড়াচ্ছে,,,
,
নিলয়কে দেখে নীরা উঠে কিচেনে গিয়ে কাজ করতে ব্যস্ত হয়ে পরলো,,, এটা দেখে নিলয় রেগে যায়,,,
,
নিলয়::: নীর ঘরে এসো,,,,
,
নীরা:::::……
,
নিলয়::: নীর,,,,,,
,
নীরা::: ব্যস্ত আছি,,, পরে যাবো,,, আপনার কিছু লাগলে বলেন,,,,,
,
নিলয় নীরার কথা শুনে আরও রেগে যায়,,, কিচেনে গিয়ে নীরাকে কোলে তুলে নিয়ে রুমে চলে আসে,,,,
,
নীরা ::: মেয়েদের কোলে তুলতে খুব ভালো লাগে তাই না? দেখলেই কোলে নিতে মন চায়???
,
নিলয়:::: বাজে কথা বলবানা,,, কয়টা মেয়েকে কোলে নিতে দেখেছো তুমি??
,
নীরা::: আজ তো চোখের ওপরই দেখলাম,,, আর কি দেখবো ;
,
নিলয়::: আজ তো,,,,
,
নীরা”:::: আজ,কাল কোনো কথা শুনতে চাই না,,, আপনি যা মন চায় করেন,, আমার কথা ভাবতে হবে না আপনার,,,
,
নিলয়’::: নীর,,,
,
নীরা::: কোন সাহসে এখন আবার গোসল করলেন হ্যা,,, আবার বেশি করে অসুস্থ হবাে চেষ্টা করছেন? আপনার যা ইচ্ছা করেন যাকে ইচ্ছা কোলে নিয়ে কেনো জরীয়ে নিয়ে থাকেন,,, আমি আর কিচ্ছু বলবোনা,,,,,
,
নিলয়::: সরি নীর পাখি আমি কি করে দেখতাম কোনো মেয়ের ওপর ঘটা অত্যাচার,আর ওর সেন্স ছিলো না তাই আমাকে ওকে এভাবে আনতে হলো,, , ওর যায়গায় যে কোনো মেয়ে হলে আমি এটাই করতাম,,,
,
নীরা ::::: কিহ্,,,,,, কি বললেন আপনি? যে কোনো মেয়ে? এত্ত সখ??? এত্ত দুর??????
,

নিলয়:::: এই মেয়ে এটা তো আমি কথার কথা বলেছি,,,,
,
নীরা ::: কথার কথা,,??? বুঝি তো সব,,,
,
নিলয় নীরাকে চট করে সোফায় বসে নীরাকে কোলে বসিয়ে বুকের সাথে জরীয়ে নেয়,,,,
,
নিলয়:::: কি বুঝিস হ্যা??? কি বুঝিস??
,
নীরা::: কথায় কথায় এভাবে বকো কেনো?
,
নিলয়:::: আপনার সাথে তো মুখে কথা বলে হয় না,,, মুঙুর চিনো? সেটা নিয়ে তোমার সাথে কথা কথা বলতে হবে,,,, কথায় কথায় মুঙুর দিয়ে পিটাতে হতে,, তাহলে আর বেশি বুঝবাও না,, আর বেশি বকবাও না,,,,
,
নীরা::’ কিহ্্্ আমি বেশি বুঝি?
,
নিলয়::: এভার,,,,
,
নীরা::: ছারো আমায় ছারো,,, আমি আজই বাসায় চলে যাবো,,,,, থাকবো না তোমার কাছে,,,,,
,
নিলয় আরো শক্ত করে নীরাকে জরীয়ে ধরে,,,,
,
নিলয়::: কোথাই যাবি আমায় ছেরে?
,
নীরা :::: মর,,,,
,
নিলয় নীরার ঠোটে ঠোট ডুবিয়ে দেয়,,,,
,
নিলয়::: আমি সত্তি সরি জান পাখি,, আমি এতোকিছু ভেবে কাজ করিনি,, তখন যেটা মাথায় এসেছে সেটাই করেছি,,,,
,
নীরা;::: আমি কিচ্ছু মনে করিনি,,, আমি নিলয়কে চিনি,,,, ও আর যাই করুক ওর নীর পাখিকে কখনও ঠকাবেনা,,,
,
নিলয়::: i love you nir pakhi,,,
,
নীরা::: i love you too 3 4 5 6 7 8 9 10
,
নিলয়::: স্টপ,,, এতো ভালোবাসতে হবে না আমায়
.
নীরা::: কেনো? এত্ত ভালোবাসার কেউ আছে না কি?
,
নিলয়:::: হুম আছে তো দেখছেন না তার কোলে বসে আছি আমি,,,,
,
নীরা::’ এটা কেমন কথা হলো?
,
নিলয়::: যেমন আপনি শুনতে চাইলেন,,,,
,
নীরা বুঝলো নিলয় রেগে গেছে,,,,রাগ যখন করেছে রাগ তো ওকেই ভাঙাতে হবে,,,, নীরা নিলয়কে হালকা করে জরীয়ে ধরে,,
,
নিলয়::: এতো আস্তে জরীয়ে ধরলে কারো রাগ ভাঙে না,,,
,
নীরা এক গাল হেসে নিলয়কে শক্ত করে জরীয়ে ধরে,,, নিলয় ও নীরাকে জরীয়ে ধরে,,,,,,,,
,


,
মুনিরা:::: কাজ টা কমপ্লিট করতে পারলাম না,,, নিলয় মেয়েটাকে আমার কাছেই ঘেসতে দিলো না,,,

,
আকাশ::: ডেন্ট ওয়্যারি,, আস্তে আস্তে কাজ কর,, তাহলে অবশ্যই সফল হবি , কথায় আছে না সবুর এ মেওয়া ফলে,,,,,,,
,
,
,be continue ♥♥♥

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here