অদ্ভুত ভালোবাসা season 2 পর্ব:৪

0
363

অদ্ভুত ভালোবাসা season 2 পর্ব:৪
লেখিকা: অন্না
,
,
,
,
,,
নিলয়::: নীর পাখি,
,

,নীরা:::: হ্যা
,
নিলয় :::: বড্ড ভয় পেয়ে গেছিলে তাই না,কি ভেবেছিলা? আমি মরে গেছি????
,
,
নীরা রাগি লুকে নিলয়ের দিকে তাকায়,,,,,
,
নিলয়;::: আরে কুল নীর পাখি আমি তো যাস্ট ফান করছিলাম,,,
,
নীরা ::: গাড়ি থামাও
,
নিলয়::: কেনো??
,
নীরা:::থামাতে বলেছি তুমি থামাও
,
নিলয়::: আরে বাবা থামাবো তো,বাট কেনো সেটা তো যাস্ট বলো
,
নীরা ;::: তুমি থামাবে কি না?
,
নিলয়::: আচ্ছা আচ্ছা,, নাও কি করবে এবার করো,,,
,
নীরা ঝট করে নিলয়কে জরীয়ে ধরে হাউমাউ করে কান্না করে দেয়,,,
,
নিলয়::: আরে কি হলো?নীর পাখি,,,
,
আরে আমি ফান করে বললাম তো,, আমি ঠিক আছি তো
,
নীর রিল্যাক্স,, আমাকে নিয়ে ভয় পাবার কি আছে বলো তো?
,
নীরু,,,,,

 

,
আরে জান তুমি বোঝো না কেনো নীর পাখি থাকতে নিলয়ের কিচ্ছু হবে না,,, নীর,,,,,
,
এই পাগলি থাম এবার,, আমি কি মরে গেছি যে তোর এভাবে কাদতে হবে???
,
নীরা;;:; খুব খারাপ হবে কিন্তু আর একবার এ কথা বললে,,, তুমি আমায় একটুকুও ভালোবাসোনা
,
নিলয়::: তাই? তো আপনার এ ধারনা হলো কি ভাবে?
,
নীরা::: তা না হলে আমায় কথায় কথায় এ কথা বলতে না
,
নিলয়:::আচ্ছা এত্ত কান্না করার কি আছে আমি তো ঠিক বুঝতে পারছি না,,,
,
নীরা::: তুমি জানো আমি কত ভয় পেয়ে গেছিলাম,
,
নিলয়::: তাই?
,
নীরা::: না,আমি বাসায় যাবো
,
নিলয়’::: কেনো,,
,
নীরা;:: ভালো লাগছে না,
,
বাসায় গিয়ে নীরার মুখ চোখ দেখে নিলয়ের মা চিৎকার করে উঠে
,
মামুনি ::: কি রে মা তোর চোখ মুখের এ অবস্থা কেনো?
,
নীরা::: না মানে এমনি তেই
,
মামুনি ‘:” নিলয় তোকে আবার মেরেছে তাই তা?
,
নিলয়;::: মামুনি তোমার কি মনে হয় আমি সব সময় ওকে মারি???
,
মামুনি ::’ সেটাই তো স্বাভাবিক,,
,
নীরা::’ মামুনি ও আমাকে মারে নি
,
মামুনি;:: তাহলে?
,
নিলয়::’ তুমি শোনো ওর কাছে আমি গেলাম ফ্রেস হয়ে নেই,,, আর খাবার রেডি করো
,
নীরার মুখে সব শুনে মামুনি হাসতে হাসতে শেষ
,
নীরা::: মামুনি তুমি এমন করছো কেনো?
,
মামুনি ::: আমি বলেছিলাম না তুই আমার ছেলেটাকে ভালো না বেসে থাকতে পারবি না,,
,
নীরা:: হুম
,
নিলয়::: কি গল্প হলো? ফ্রেস হবে না?
,
নীরা::: যাচ্ছি,,
,
মামুনি ::: মেয়েটা তোকে ওনেক ভালোবাসে রে
,
নিলয়::: জানি আমি
,
মামুনি :::: আল্লাহর কাছে একটাই দোয়া করি তোরা যেনো সারাজিবন এভাবে ভালোবেসে একসাথে থাকিস
,
নিলয়::: ভয় তো সুধু একটাই কারো নজর না লেগে যায় আমার নীরএর ওপর,,, ওকে নিয়েই আমার যত্ত চিন্তা,, ভালো মন্দ কিছু বোঝেনা, যে যা বলে সেটা নিয়েই লাফাতে শুরু করে,,,,
,
নীরা:::: কি বললে তুমি?
,
নিলয়::: খুব ক্ষিদে লাগছে,খাইয়ে দিবে নীর পাখি?
,
নীরা::: ক্ষিদে লাগছে আর খাওয়া বাদ দিয়ে চুপ করে দাড়িয়ে আছো,,, মামুনি জলদি খাবার বারো,,,
,
মামুনি ::: সব রেডি আছে তোরা আয়,,
,
নীরা নিলয়ের হাত ধরে টেনে খাবার টেবিলের সামনে এনে চেয়ারে বসিয়ে দিলো, তারপর নিজে হাতে খাবার তুলে নিলয়কে খাইয়ে দিলো,,,
,

,
,
রাতে নীরা বসে বসে আইসক্রিম খাচ্ছে,,, তখন নিলয় রুমে এসে দেখে নীরা আইসক্রিম খাচ্ছে,,
,
নিলয়:::: নীর পাখি কি করছো তুমি?
,
নীরা::: চোখ দুটো কি অফিসে ফাইল এ আটকে রেকে এসেছো?
,
নিলয়::: মানে?
,
নীরা::: মানে দেখতে পাচ্ছো না কি করছি?
,
নিলয়:::: দেখতে তো পাচ্ছিই,, রাত করে আইসক্রিম খাচ্ছো কেনো? ঠান্ডা লেগে যাবেনা?
,
নীরা: না
,
নিলয়;::: না মানে? সামনে পরিক্ষা আর তুমি নিজের ওপর কোনো খেয়ালই রাখছো না
,
নীরা;;:: তুমি কি নিম পাতার রস খেয়ে আসছো?
,
নিলয়::: মানে?
,
নীরা::: এতো তেতো তেতো কথা বলছো কেনো?
,
নিলয়::: কিহ্ আমার কথা তেতো??
,
নীরা;;: তা নয়তো কি?
,
নিলয়::: আচ্ছা তাই?,

,
নিলয় টাই টা খুলতে খুলতে নীরার। দিকে এগিয়ে যায়,,
,
নীরা::: তুমি আমার দিকে আসছো কেনো?
,
নিলয়::: নিম পাতার রস তোমাকে খাওয়াবো বলে,
,
নীরা::: মানে?
,
নিলয়: মানে
,
নিলয় নীরাকে টেনে বিছানায় ফেলে দিয়ে নীরারর ঠোট দুটো নিজের আয়ত্তে করে নেয়, গভীরভাবে নীরার ঠোটে কিস করতে থাকে,,,, একটু পরে নিলয় নীরাকে ছেরে দিয়ে নীরার মুখের দিকে তাকিয়ে দেখে নীরা চোখ বন্ধ করে নিলয়ের শার্ট খামচে ধরে আছে,,
,
নীরার মায়াবি মুখ দেখে নিলয় আবার নীরার ঠোটে হালকা করে একটা ভালোবাসার পরশ দিয়ে নীরার কানে ফিস ফিস করে বলে
,
নিলয়;::’ নীর পাখি ফ্রেস হয়ে নেই অনেক আদর করবো,, এখন তো ছারো,,,
,
নিলয়ের কথায় নীরা চোখ খুলে বড় বড় করে নিলয়ের দিকে তাকিয়ে হালকা করে ধাক্কা দিয়ে নিজের ওপর থেকে নিলয়কে ফেলে দিয়ে উঠে পরে
,
নীরা:::: ধ্যাত তুমি না দিন দিন অসভ্য হয়ে যাচ্ছো,,,,
,
নিলয়”::: আচ্ছা তাহলে একটু অসভ্যতামি করতে হচ্ছে,,,
,
নীরা::: হাত ভেঙে পা এর সাথে ঝুলিয়ে দিবো,,,
,
নিলয়::: তাই? তাহলে তো আমার কাছে আসতে হবে,, আসো
,
নীরা::: ধ্যাত
,
বলেই নীরা রুম থেকে বের হয়ে গেলো,,, রাতে সবাই একসাথে খেয়ে যে যার ঘরে চলে গেলো, কিন্তুু নিলয় অনেকক্ষন যাবত ঘরে বসে আছে কিন্তুু নীরার কোনো পাত্তা নেই,,, নিলয় উঠে গিয়ে দেখে নীরা ড্রয়িংরুমের সোফায় আধোশোয়া হয়ে ঘুমিয়ে আছে,, এটা দেখে নিলয় মনে মনে হাসতে থাকে
,
নিলয়:::: পাগলি,, যেখানে সেখানে কি ভাবে যে বাচ্চাদের মতো ঘুমিয়ে পরে না,, আর সেই পরে আমাকে এসে কোলে নিয়ে ঘরে আনতে হবে
,
নিলয় নীরাকে কোলে তুলে নিয়ে রুমের মধ্যে চলে যায়, তারপর নীরাকে নিজের বুকের মধ্যে জরীয়ে নিয়ে ঘুমিয়ে পরে,,,,
,
পরদিন সকালে নীরা উঠে দেখে ও নিলয়ের কোলের মধ্যে, এভাবে নিজেকে নিলয়ের কোলে দেখে হালকা একটা হাসি দিয়ে নিলয়কে জরীয়ে ধরে আবার ঘুমিয়ে পরে,,
,
পরে নীরা উঠে দেখে নিলয় পাশে নাই,,,
,
মামুনি :::: কি রে উঠে পরেছিস? জলদি রেডি হয়ে নে, কলেজে যেতে হবে না?
,
নীরা:::: ভালো লাগছে না,
,
মামুনি ::: তাও যেতে হবে,,, কদিন পরে পরিক্ষা,
,
নীরা ::: হ্যা, জরুরি ক্লাস আছে,,,
,
নীরা রেডি হয়ে এসে দেখে মামুনি ওনেক খাবার নিয়ে বসে আছে,,,
,
নীরা::: এতো খাবার কে খাবে?.
,
মামুনি ::: তোর জন্য,,
,
নীরা;::: তুমি পাগল হলে?
,
মামুনি;::: নিলয় বলে গেছে তোকে বেশি বেশি খাওয়াতে, তুই নাকি শুকিয়ে গেছিস,তোর ওজন কমে গেছে,,,
,
নীরা::: কে বললো ওকে এইসব বাজে কথা,
,
মামুনি ”:;; আমি জানিনা আমায় দ্বায়িত্ব দিয়েছে পালন না করলে আমায় আবার রিমান্ডে নিবে,,,
,

নীরা;::: মামুনি,,,,,
,
মামুনি :::: যতটুকু পারিস খেয়ে নে না মা
,
নীরা রেডি হচ্ছে আর মামুনি পিছে পিছে ঘুরে ঘুরে নীরাকে খাইয়ে দিচ্ছে,,,
,
নীরা::: মামুনি বাই
,
বলেই দৌড়
,
মামুনি :::: নীরা,,,,নীরা,,,,খাবারটুকু শেষ করে তো যা
,
নীরা::: রেখে দাও, তোমার ছেলেকে খাইয়ে দিও,
,

,
নীরা কলেজে গিয়ে ক্লাসে ঢুকতেই নিলয় ফোন করে
,
নীরা::: বলেন,
,
নিলয়::: আমার জন্য খাবার রেখে এসেছো?
,
নীরা::: তোমাকে মামুনি বলে দিয়েছে?
,
নিলয়::: আজ কে বাসায় আসি তোমার ক্লাস নিবো
,
নীরা::: খুব আমার স্যার এলো রে ক্লাস নিবে,,,,
,
নিলয়::: সেটা দেখাই যাবে,,
,
নীরা::: আচ্ছা এখন রাখি ক্লাসে যাবো
,
নিলয়::: আচ্ছা, love you nir pakhi
,
নীরা::: কচু
,
নিলয়::: তাই????
,
নীরা::: বাই
,
নীরা ফোন টা কেটে দিয়ে ক্লাসে চরে যায়,,,,
ক্লাস করে বের হয়ে দেখে আকাশ দাড়িয়ে আছে, নীরা পাশ কেটে যেতে লাগে
,
আকাশ”::: আরে নীরা
,
নীরা::: হায় ভাইয়া,কেমন আছেন?
,
আকাশ ::: ভালো, তুমি?.
,
নীরা::: আমি সব সময় ভালো থাকি
,
আকাশ’:::: আচ্ছা,,,, চলো তোমাকে বাসায় ড্রপ করে দেই
,
নীরা:::না আমার জন্য গাড়ি আছে,,,
,
আকাশ::::তা হলে চলো গাড়ি পর্যন্ত এগিয়ে দেই,,
,
নীরা;::: না,,, আমি
,
আকাশ:::: আরে কাম ওন নীরা গাড়ি পর্যন্তই তো যাবো তোমার বাসায় তো ারর না,,,,,
,
নীরা:::: আচ্ছা চলেন,,,,
,
আকাশ::: আচ্ছা নীরা তোমাদের বিয়ের কতদিন হয়েছে?
,
নীরা::: এই তো ছয় মাস
,
আকাশ’::: মোটেই না ছয় মাস আট দিন নয় ঘন্টা পন্ঞাশ মিনিট বারো সেকেন্ড
,
নীরা আকাশের কথা শুনে কিছুক্ষন ওর দিকে তাকিয়ে থাকলো,,,
,
নীরা::: আপনি এতো জানেন কি করে?
,
আকাশ::: কিছু কথা না জানাই থাক,
,
নীরা: হুম
,

আকাশ::: তুমি এই বিয়েতে খুসি তো নীরা,,,
,
,
be continue ♥♥♥

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here