অদ্ভুত ভালোবাসা পর্ব :৩০

0
432

অদ্ভুত ভালোবাসা পর্ব :৩০
__অন্না
,
নিলয় ধুম করে বেরিয়ে গেলো,,, নীরা চুপচাপ বসে পরে,,,, ঘন্টা খানিক পরে আচমকা এসে নীরাকে কোলে তুলে নিয়ে গিয়ে গাড়িতে বসিয়ে দেয় ,,,, তারপর কাজী অফিসের সামনে গাড়ি দার করায়,,,, নীরা শুধু হা হয়ে নিলয়ের দিকে তাকিয়ে আছে,,,, নিলয় গাড়ি থেকে নেমে নীরার হাত ধরে টানতে টানতে গাড়ি থেকে নামিয়ে হাত ধরে টানতে টানতে ভেতরে নিয়ে যায়,,,,, নীরা বুঝতে পারে আজ ওর সাথে কি ঘটতে চলেছে,,,,,
,
নিলয়:::: কাজী সাহেব বিয়ে পরানো শুরু করেন ,,,,
,
নীরা::;; এভাবে আমি বিয়ে করবো না,,,,
,
নিলয়::: কেনো নীর পাখি? তুমি না বললা আমাদের বিয়ে টা কাবীননামা না হলে স্বীকৃতি পাবে না,,, তোমার ইচ্ছাতেই তো এটা হচ্ছে,,,( রাগে কটমট করতে করতে কথাগুলো বলে),
,
নীরা:::: মা,বাবা,মামুনি, বাবাই,তিশা এদের বাদ দিয়ে আমি এ কাজ করতে পারবো না,,,
,
নিলয়:::: আমিও সেটাই চাইছিলাম কিন্তুু তোমার বড্ড তারা আমার কাছ থেকে পালানোর,,,, তোমাকে তো আটকাতে হবে বলো জানপাখি( দাতে দাত চেপে)
,
নীরা::;:; (আল্লাহ্ এটা হবারই বাকি ছিলো আমি উনাকে আটকাই কি করে,, এই স্টুপিড এর মতো কাজটা কেনো করতে গেলাম আমি,,,)
,
নিলয় নীরার কানের কাছে গিয়ে ফিসফিসিয়ে বলে,,,
,> আমার রাগ টা আর বারাবেন না,,, অনেক কষ্টে রাগ টা কন্ট্রোল করে রাখছি,,, এবার কিন্তুু তান্ডব করে দিবো,,,,,
,
নিলয়ের কথা শুনেই নীরা চুপ মেরে বসে যায়,,,, নীরা বুঝতে পারে এই ছেলেকে আর কোনো ভাবেই বোঝানো সম্ভব না,,,,,
,
বিয়ের এক পর্যায়ে নীরাকে কবুল বলতে বললে নীরা চুপ করে থাকে,,,, কিছুতেই কবুল বলে না,,,, নিলয় এতে আরো রেগে যায়,,,চিল্লিয়ে উঠে,,,,
,
নিলয়:::: কবুল বলবা নাকি খাবে আর পাচ টা কানের নিচে,,,,,
,
নীরা নিলয়ের কথা শুনেই
,
নীরা:::: ক,,,,,,,,,
,
নিলয়::::what the,,,,,,
,
নীরা:::: ক,,,,,বু,,,,ল
,

পোকা মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন =>

 

 

 

 

বিয়ে টা নিলয়ের রাগে ভালোভাবেই শেষ হয়ে যায়,,, এবাে বাসায় ফেরার পালা,,,, নীরা আর গাড়িতে ওঠে না,,,,গাড়ির পাশে চুপচাপ দারিয়ে আছে,,, কারন নিলয়ের রাগ একটুকুও কমে নি,,,,ও যে এমন একটা কাজ আবার করতে পারে কেনোদিন ও ভাবে নি,,,,,
,
নীরা:::( এই ছেলেটা আজ আমায় আস্ত রোস্ট বানিয়ে খাবে,,,, আল্লাহ গো বাচাও আমায়,, আমার কাজ কি ভুল ছিলো,,, আমার দেখার মধ্যে কি কোনো ভুল ছিলো,,,, যদি সত্তিই ভুল থেকে থাকে তো আজ আমার কপালে দুঃখ আছে,,,, আমি ওর সাথে যাবো না,,, কি করি,,, করি,,,,, হ্যা চুপচাপ কেটে পরি,,,)
,
নীরা ভেবে ভেবে চুপচাপ কেটে পরে,,, রাস্তায় এসে রিক্সা ডেকে যেই না উঠতে যাবে তখনই নিলয় নীরার হাত টা ধরে,,,,
,
নীরা:::: কোন শয়তান রাক্ষস রে আমার হাত,,,,,,,,,,
,
নীরা তাকিয়ে দেখে নিলয় রাগি লুক নিয়ে নীরার হাত টেনে ধরে দাড়িয়ে আছে,,,,
,
নীরা:::: আ,,,,,প,,,,,,নি???আ,,,,,স,,,,লে আমি,,,, আমি,,,,, আমি আপনাকেই খুজতেছিলাম,,,, কই গেছিলেন???
,
নিলয় চুপ করে আছে,নীরা ভালোকরেই বুঝতে পারে ওর কথাটা টা নিলয় মোটেই বিশ্বাস করে নি,,,,,
,
নীরা::::: আমি,,,, পানি খাবো
,
নিলয়’ নীরার কথা শুনে ওর হাত আলতো করে ধরে গাড়িতে এনে বসিয়ে দেয়,,,, তারপর পানির বোতলের মুখ খুলে নীরা হাতে ধরীয়ে দেয়,,,, নীরা ঢকঢক করে পানি খেয়ে নিলয়ের দিকে আস্তে আস্তে আস্তে নিলয়ের দিকে তাকালো,
কিন্তুু নিলয় সেই একই লুকে এখনও নীরার দিকে তাকিয়ে আছে,,,,,,,,,
,
নীরা :::;; বাসায় যাবো,,,,
,
নিলয় কিছু না বলেই ধপ করেই গাড়ির দরজা লাগিয়ে দিয়ে গাড়িতে উঠে ড্রাইভ করতে শুরু করে,,,,রাস্তাটা নিলয়ের বাড়ির দিকে না যেয়ে বাংলোর দিকে যেতে দেখেই নীরা চিল্লিয়ে ওঠে,,,,,
,
নীরা:::: আপনি আবার এখানে যাচ্ছেন কেনো আমি বাসায় যাবো মামুনির কাছে,, আমি এখানে যাবো না,,,,
,
নিলয় নীরার সাথে কোনো কথাই বলছে না,,, চুপচাপ ড্রাইভ করে যাচ্ছে,,,, নীরা বেচারি চিল্লিয়ে চাল্লিয়ে থেমে গেলো,,,নিলয় বাংলোতে ঢুকে গাড়ি পার্ক করে নীরাকে নামতে বলে. নীরা চুপ করে বসে থাকে,,,, আর নিলয় নীরাকে টেনে কোলে তুলে নিয়ে বাসার মধ্যে নিয়ে যায়,,,,,,,, বাসার মধ্যে এসে নিলয়ের রুমের সামনে নীরাকে নামিয়ে দিয়ে হাতটা চেপে ধরে রুম টা খুলে দেয়,,, নীরা অবাক হয়ে যায় রুম টা দেখে,,, কারন পুরা রুম ফুলে ডেকোরেশন করা,,,,,, মনে হচ্ছে কেউ ফুল দিয়ে পুরা রুম ঢেকে দিছে,, নীরার রুমটা দেখে মন টা পুরাই ভালো হয়ে যা,,, মন খুলে হাসি দিয়ে রুমে ঢুকে যায়,,,, কিন্তুু নীরা এ ফুলের ব্যপার টা বুঝতে পারেনা,,, নীরা ফুল গুলো নেড়েচেরে ফুলের ঘ্রান নিচ্ছে,,,, হঠাৎই নীরার মুখটা শুকিয়ে যায়,,, ও বুঝতে পারে এ ফুলের পিছে কারন কি আর নিলয়ের এসব করার পিছের কারন কি,,,, নীরা দৌড়ে রুম থেকে বের হতে গেলেই নিলয় এক হাতে নীরার কোমড় জরিয়ে ধরে নিজের কাছে টেনে নিয়ে আর এক হাত দিয়ে দরজা লক করে দেয়,,,,,
,
নীরা::::;ছারুন আমায়,,প্লিজ ছারুন,,,,, আমি এসবের জন্য এখনও তৈরি হই নি,,,, আমার সময়,,,,
,
তার আগেই নিলয় নীরার ঠোট দুটি নিজের আয়ত্তে করে নেয়,,,,,, নীরা লাফালাফি শুরু করে দেয়,,,, নিলয় নীরারে টেনে একেবারে নিজের বুকের সাথে মিশিয়ে নেয়,,, আস্তে আস্তে নীরার কোমড় থেকে হাত নামিয়ে পেটে স্লাইড করতে থাকে,,,,, নীরা ধাক্কা দিয়ে নিলয়কে সরিয়ে দিয়ে ঠোট মুছতে মুছতে রুম এর দরজা তে হাত দেয়,,,, নিলয় গিয়ে নীরাকে কোলে তুলে নিয়ে এসে বিছানার ওপর শুইয়ে দেয়,,,,,

,
নীরা:::; কাজটা মোটেই ভালো করছেন না,,,, আমার সময় লাগবে আপনাকে মেনে নিতে,,,,,
,
নিলয় নীরার কেনো কথাই কানে নিচ্ছে না, নিজের শার্টটা খুলে ফ্লোরে ছুরে মেরে নীরার ওপর ঝুকে পরে,,,,নীরা উঠে যেতে লাগলে নিলয় নীরার দুহাত নিজের আঙ্গুলের ফাকে নিয়ে শক্ত করে ধরে বন্দি করে নেয়,,, তারপর আবার নীরার ঠোটে কিস করতে গেলে নীরা মুখ ঘুরিয়ে নেয়,,,, এতে নিলয়ের রাগটা ওভার হয়ে যায়,,,, এক ঝটকায় নীরার বুকের ওপর থেকে শাড়ির আচলটা সরিয়ে নীরার ওপর ওর অধিকার টা পুরন করতে ব্যাস্ত হয়ে পরে,,,,,
,
নীরা বাধা দিয়েও পেরে উঠছে না নিলয়ের সাথে,,,, নিলয় আজ ভালোবাসা দিয়ে নীরাকে ভরিয়ে দিচ্ছে না,,, নিজের রাগ টা কমানোর চেষ্টা করছে,,,,নীরার দোষ একটাই ও বারবার নিলয়ের কাছ থেকে পালানোর চেষ্টা করে,,,,
,
নীরা চুপচাপ নিলয়ের দেওয়া এ শাস্তি সহ্য করতে থাকে,,,,,,,,,,

প্রিয় পাঠক আপনারা যদি আমাদের (গল্প পোকা ডট কম ) ওয়েব সাইটের অ্যাপ্লিকেশনটি এখনো ডাউনলোড না করে থাকেন তাহলে নিচে দেওয়া লিংকে ক্লিক করে এখনি গল্প পোকা মোবাইল অ্যাপসটি ডাউনলোড করুন  👇👇👇👇👇👇

https://play.google.com/store/apps/details?id=com.golpopoka.android

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here