অদ্ভুত ভালোবাসা পর্ব:-২১

0
395

অদ্ভুত ভালোবাসা পর্ব:-২১
—-অন্না
,
আশিক:;;; তোর সাথে আমার কিছু কথা আছে,,,
,
নীরা:::: হুম বলে ফেল,,,
,
আশিক;;;:; আমি তোকে ভালোবাসি,,,
,
নীরা::::What!!!!!!!!!!!!!!!!!!!
,
আশিক::::: সত্তি বলছি আমি তোরে অনেক ভালোবাসি সেই প্রথম দিন থেকেই,, প্লিজ তুই আমায় ফিরিয়ে দিস না,,, একবার তুই রাজি হয়ে যা ওই শয়তান নিলয়কে আমি,,,,,,
,
নীরা:::: মুখ সামলে কথা বল আশিক,,, he is my husband,,,,,
,
আশিক::::: কিইইইইইইইইই,,,,,
,
নীরা:::: হুম, নিলয় আমার হাসবেন্ড,,, এক মাস হলো আমাদের বিয়ে হয়েছে,,,,
,
আশিক:::: কি যা তা বলছিস এসব,,, মানিনা আমি এ বিয়ে,,, তুই শুধু আমার নীরা শুধুই আমার,,,,
,
নীরা:::: দেখ আশিক পাগলামো করিস না,, তোকে আমি খুব ভালো বন্ধু ভাবি,, সারাজীবন আমাদের এই সম্পর্ক টিকে থাকতো,,,, কিন্তুু আজ তুই যা বললি এর পর থেকে তোর সাথে আমার আর কেনো সম্পর্ক থাকলো না,,,,
,
আশিক::::: এমন করিস না নীরা,,, আমি তোকে ভালোবাসি রে, আমার ভালেবাসার কি কেনো মুল্য নাই তোর কাছে,,,,
,
নীরা ;;;;; শোন আমি অন্য একজনের নিজস্ব সম্পত্তি,,, আর বাঙালি মেয়েদের বিয়ে একবারি হয়,, সেটা যে পরিস্থিতিতে হোক না কেনে,,,, যেমন ভাবেই হোক আমার আর নিলয়ের বিয়ে টা হয়েছে,আর আমি মন থেকে বিয়ে টা মেনে নিয়েছি….
,
আশিক:::: বিয়ে টা মেনে নিলে তো হচ্ছে না,, তুই কি নিলয়কে মন থেকে মেনে নায়েছিস বল? ভালোবাসতে পেরেছিস বল???
,
নীরা::::: পেরেছি আমি নিলয়কে ভালোবাসি,,,,,
,
আশিক :::: মিথ্যে বলছিস তুই,,,,
,
নীরা:::: এ নিয়ে অহেতুক তোর সাথে কোনো তর্ক করতে চাচ্ছি না,, একটা কথাই বলবো আমায় ভুলে যা,,,,
,
বলেই নীরা কলেজ থেকে বেরিয়ে আসলো,,,,বাহিরে এসে দেখে ড্রাইভার চলে গেছে,,,,,
,
নীরা:::::: আমার কাছে আছে টা কি সব ছেলেগুলাকেই আমার পিছে কেনো পরতে হয় বুঝিনা,,,, ধুর জীবনটাই আমার তেজপাতা হয়ে গেলো,,,, ড্রইভার টাও চলে গেলো,,, আমি বাসায় যাবো কি করে? পার্স টাও তো আনতে মনে নাই,,, আল্লাহ্ আমায় কেনো এতো সমস্যা দুহাত ভরে দান করো বুঝিনা,,,, আমায় এতো ভালোবাসার কি দরকার একটু কম ভালোবাসলেও তো পারো নাকি,,,, এখন কি করি,,,,,, গুন্ডা টাকে একটা ফোন দেই,,,,, কোনো মেয়ে ফোন রিসিভ করে,,
,
নীরা:::: হ্যালো,,,,কে আপনি???
,
মেয়েকন্ঠ::: আপনি কে বলছেন???
,
নীরা:::: আমি নীরা,,, নিলয় কই,,,
,
মেয়েকন্ঠ :::: আমি উনার পিএ,,,স্যার জরুরি মিটিং এ আছে,,,
,
নীরা::: থাকুক মিটিং এ তোমার স্যার কে এক্ষুনি ফোন দাও,,,,
,
পিএ::: সরি ম্যাম ফোন দেওয়া যাবে না,,,
,
নীরা:::: যাবে না মানে ,,,, দিবা কি না তাই বলো,,,,
,
পিএ::::: সরি পাগল কে বোঝানো সম্ভব না,,,,
,
নীরা ;;;; কি বললা তুমি আমি পাগল?? এই তুমি,,,, আমাকে পাগল বলা কোন গাছের পেত্নী রে তুই,,, তোর খবর করছি আমি,,,,,
,
আশিক::: নীরা তুই আমাকে ভুল,,,,,
,
নীরা:::: আর একটা কথা বললে এমন একটা থাপ্পর খাবি সারাজীবন মনে রাখবি,,, একদম সামনে আসবি না আমার,,,,,,,,
,
আশিক আচমকাই নীরার হাত টেনে ধরে,,,
,
আশিক;;;; কি ভাবিস আমাকে তুই,তুই আমার না হলে কারো হতে পারবি না,,,
,
কথাটা শুনেই নীরা আশিকের গালে থাপ্পর মেরে দেয়,,,
,
,
নীরা এমনিতেই রেগে ছিলো, তারপর আবার নিলয়ের পি এ নীরাকে আরো রাগিয়ে দিছে,,আবার আশিকের এমন ব্যবহারে , নীরা রীতিমতো ভয় পেয়ে যায়,,, রিক্সা ডেকে নিলয়ের অফিসে চলে যায়,,,, অফিসের সামনে আসতেই নীরা রিক্সা থেকে লাফ দিয়ে হনহন করে অফিসের মধ্যে ঢুকে পরে,,,, আর রিক্সা চালক ভারার জন্য চিল্লাচ্ছে,,,কিন্তুু নীরার কানে কিচ্ছু যাচ্ছে না,,, রিসিফসনে নিলয়ের রুম নম্বর শুনে এক প্রকার দৌড়েই নক না করেই রুমে ঢুকে পরে,,,নিলয়ের রুমে ওনেক ক্লাইন্ট ছিলো,,, নীরা ধুপ করে চলে
চলে আসাতে সবাই দাড়িয়ে যায়,,,,,,
,
নিলয়:::: নীর তুমি এখানে???
,
এর মধ্যে দুজন সিকিউরিটি গার্ড এসে নীরাকে হাত ধরে বের করতে যাবে তখনই নিলয় চেচিয়ে ওঠে,,,,
,
নিলয়’::::: how dare you, do you know who his she,,,,, she is my wife,,, get out of hear stupid gayus,,,,
,
নিলয় ইসারাতে সবাইকে বেরিয়ে যাইতে বলে,,,, এর মধ্যে একজন বলে ওঠে,,,
,
>স্যার মিটিং টা জরুরি,,,,
,
নিলয়::::: আমি সবাইকে বাহিরে যাইতে বলছি ব্যাস,,,,,
,
আর কেউ কোনো কথা না বলে রুম থেকে বেরিয়ে গেলো,,, নীরা রীতিমতো ভয় পেয়ে যায়.ও ভাবতে পারেনি,,,, রাগে ভয়ে ও চুপটি করে দাড়িয়ে আছে,,, নিলয় নীরার কাছে এগিয়ে আসে,,,,,
,
নিলয়::::: কি হয়েছে আমার জান পাখিটার,,, কে কি বলছে তোমায়?? আমায় বলো,,,,
,
নীরা ভাবছিলো এভাবে রুমে আসার জন্য নিলয় ওকে বকবে,,,, কিন্তুু নিলয়ের কথা শোনার সাথে সাথে নীরা নিলয়কে জরিয়ে হাউমাউ করে কান্না করতে করতে শুরু করে,,,
,
নিলয়:::: জান কি হইছে তোমার কাদছো কেনো? কেউ কিছু বলেছে? কে তোমায় কি বলেছে জান বলো,,,,
,
এর মধ্যে নিলয়ের পি,এ আসে রুমে,,,,
,
পি,এ:: :::: স্যার আপনার ফোন টা,,,
,
নীরা ফোনের কথা শুনেই মাথা ঘুরে তাকিয়ে দেখে মেয়েটা ফোন নিয়ে দাড়িয়ে আছে,,,, নীরা ঝট করে ওর হাত থেকে ফোন টা নিরে সজোরে মেঝেতে আছার মারলো,,,
,
নিলয়:::: নীর পাখি,,,,
,
কিছু না বলেই নীরা মেয়েটার চুল ধরে টান দেয়,,,,
,
মেয়েটা:::: আহ্ কি করছেন কি লাগছে তো আমার,,,,
,
নিলয় ::: জান পাখি কি করছো টা কি ওর লাগছে তো ছারো ওকে,,,,,
,
নীরা কোনে কথার উত্তর না দিয়ে দুহাত এ মেয়েটার চুল ধরে টানতে থাকে,,,, নিলয় শেষমেষ না পেরে নীরার কোমড়ে হাত দিয়ে চ্যংমোড়া করে পিছে থেকে টেনে ছাড়িয়ে নেয়ে,,,,
নীরা আবার যেতে লাগলে নিলয় দুহাত দিয়ে শক্ত করে জরিয়ে ধরে,,
,
নিলয়:::: নীর কি করছো টা কি? ও আমার পি,এ,,, তুমি এমন করলে আমার বদনাম হয়ে যাবে না,,,,কি করছে ও?
,
নিলয়ের কথা শুনে নীরা দুহাত দিয়ে নিলয়ের গলা জরিয়ে ধরে একটু কান্না করে,, কাদতে কাদতে বলে,,,
,
নীরা:::: এ্যা,,,,,,,,, ওই শাকচুন্নিটা আমায় পাগল বলছে,,,,
,
নিলয়:::: কি এত্ত বড় সাহস আমার নীর পাখিকে পাগল বলার,,,,
,
পি,এ:::: না স্যার আসলে মিটিং চলাকালিন উনি আপনার ফোনে কল করেছিলো,,, তো আমি বারবার বলছিলাম আপনি মিটিং এ তাও উনি আপনার সাথে কথা বলতে চাইছিলো,,,তার জন্যই তো বলছিলাম পাগলকে বোঝানো সম্ভব না,,,, এতে আমার কোনো দোষ নাই স্যার,,,,
,
নিলয় বুঝতে পারে ওর পি এর কোনো দোষ নাই কিন্তুু নীরাকে তো শান্ত করতে হবে,,,,,
,
নীরা::::: এ্যা,,,,,,,এ্যা,,,,,, দেখলেন শাকচুন্নিটা আপনার সামনেও আমায় পাগল বললো,,,,,,
,
নিলয়:::::: এই শাকচুন্নি,,,,, সরি সরি মিস আলো,,,, তোমার আমার নীর পাখিকে পাগল বলা একদমই ঠিক হয়নি,,, খুব বড় অন্যায় করছো,,,, জলদি ম্যাডামের কাছে sorry বলো,,,, (ইশারায় একটু রিকুয়েস্ট কর।)
,
পি,এ::::: সরি ম্যাম আমার সত্তি ভুল হয়ে গেছে আর কোনোদিনও এমন ভুল হবে না,,,,,
,
নীরা::::ঠিক আছ। ঠিক আছে,,,, যাও এখান থেকে,,,,
,
পি এ চলে যেতেই সিকিউরিটিগার্ড আবার আসে,,,,
,
নিলয়:: আবার কি চাই?
,
> স্যার ম্যাম রিক্সা ভাড়া না দিয়েই চলে এসেছে,,,, রিক্সা চালক টাকার জন্য বসে আছে,,,,
,
নিলয়:::: কত টাকা???
,
> ৫০ টাকা স্যার
,
নিলয় টাকা বের করে দিলো গার্ড টাকা নিয়ে চলে গেলো,,,,, নিলয় নীরাকে কেবিনের সোফায় বসিয়ে পানির গ্লাস বাড়িয়ে দেয় নীরা পানি খেয়ে সোফায় হেলান দিয়ে বসে,,,,,
,
নিলয়:::: এখন বলো তো জান পাখি আমায় ফোন করেছিলে কেনো? এখন তো কলেজ টাইম,,,,
,
নীরা::::: বাসায় যাবার জন্য, আমি পার্স টা আনি নাই,আর ড্রইভার ও চলে গেছিলো তাই……
,
নিলয় কিছু বলতে যাবে ঠিক তখনই এর চোখ গেলো নীরার হাতের দিকে,,,, তখন আশিক নীরার হাত চেপে ধরাতে নীরার হাতে রক্ত জমাট বেধে লাল হয়ে আছে,,,, নিলয় বুঝতে পারলো নীরাকে কেউ কিছু বলেছে যাতে ও খুব ভয় পেয়ে গেছিলো,,,, নিলয় নীরার কাছে গিয়ে ওকে জিগ্যেস করে,,,
,
নিলয়::::কলেজে তোমায় কে কি বলছে???
,
নীরা নিলয়কে দেখে বুঝতে পারলো
ও রেগে গেছে,,,,, কি বলবে ভাবছে,,, আশিকের কথা বললে তো ও আশিক কে মেরেই ফেলবে,,,,,
,
নীরা::::: কই কিছু না তো,,,,

গল্প পোকা মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন =>

 

 

 

 

,
নিলয় ::::: তোমাকে কিছু বলতে হবে না আমি নিজেই সব জেনে নিচ্ছি,,,, কিন্তুু যদি জানতে পারি যে তোমার সাথে খারাপ কিছু হয়েছে তো তোমার কপালে খারাপ আছে,,,,
,
নীরা :::: ( এখন কি করি এই গুন্ডাটাকে না থামালে যে আশিক এর সাথে সাথে আমার কপালেও দুঃখ আছে) শোনেন না,,,,,
,
নিলয় কিছু না বলে উঠে চলে যেতে লাগলে নীরা নিলয়ের হাত ধরে আর নিলয় নীরার হাত জোর করে ছারিয়ে দিতে লাগে,,,, এক পর্যায়ে নীরা হাত ধরে ব্যাথায় আহ্ করে উঠে,,,,
,
নিলয় ধরফর করে নীরার হাত ধরে হাত এর দিকে তাকিয়ে নীরার দিকে অগ্নিময় দৃষ্টিতে নীরার দিকে তাকায়,,, নীরা নিলয়ের দিকে তাকিয়েই ভয় পেয়ে যায়,,,
,নিলয় এবার চিল্লিয়ে ওঠে,,,,
,
> তোমার হাত এর এ অবস্থা কে করছে? কার বুকের পাটা যে নিলয়ের জানের ওপর হাত তোলে,,, তার কলিজাটা ছিরে নিবো আমি,,,,
,
নীরা কিছু ভেবে পায় না,,, ধুপ করে নিলয়ের কোলের ওপর বসে পরে,,,,
,
নীরা;::: শোনেন না আমি বলছি কিন্তুু আপনি তাকে কিছু বলবেন না হ্যা,,,,
,
নিলয়::::…..
,
নীরা:::: কলেজে ঢুকতেই একটা ছেলে আমায় প্রপোজ করে,, আমি রাজি না হওয়াতে আমার হাত ধরে টানাটানি করতে,,,,,,
,
নীরার কথা শুনে নিলয় আরো রোগে গেলো,,,,
,
নিলয়:::: কোন কুত্তার বাচ্চার এত্ত বরো সাহস তোমার হাত ধরে,,,
,
নীরা:::: কলেজের না,, বাহিরের,,,,, না মানে কলেজ এর হইলে তো আমি চিনতাম….
,
নিলয় নীরার কথা একদম বিশ্বাস করে না,,, কারন ও জানে যে নীরা কাউকে বাচানোর জন্য বানিয়ে বানিয়ে মিথ্যা বলছে,,,,,,,,
,
নীরা:::: শোনেন না,
,
নিলয় রাগে ফসফস করছে,,, কিন্তুু নীরা ওর কোলে বসাতে কিছু করতে পারছে না আবার নীরাকে নামাতেও পারছে না,,,,,
,
নীরা বোঝে নিলয়ের রাগ সহজে কমবে না,,,,
,
নীরা ::::: একটা কথা বলবো???
,
নিলয়:::: হুম,,,
,
নীরা::::: আমায় একটা হলুদ শাড়ি কিনে দিবেন???
,
নীরার কথা শুনে নিলয় হাসবে না কাদবে ভেবে পাচ্ছে না,,,,
,
নীরা:::: আমার বান্ধবির কাল গায়ে হলুদ তাই হলুদ শাড়ি পরতে হবে,,,
,
নিলয়:::: হুম
,
নীরা :::: ( নাহ্ কি যে করি,,, রাগ তো ভাঙাতেই হবে)
,
,
নীরা আস্তে আসতে নিলয়ের মুখের সামনে নিজের মুখ নিয়ে নিলয়ের চুল মুঠি করে ধরে নিলয়ের ঠোটে নিজের ঠোট চেপে ধরে,, …..
,
নিলয় হতবাগ হয়ে যায় নীরার এ কাজে,,, নিমিশেই ওর রাগ মাটি হয়ে যায়,,, নিলয় নীরার কোমড় জরিয়ে ধরে,,,, নীরা নিলয়ের ছোয়ায় কেপে ওঠে,,, নিলয়ের চুল আরো শক্ত করে মুঠো করে ধরে,,,, একটু পরে নীরা নিলয়ে কানে কানে বলে,
> একটা কথা বলবো রাখবেন?
,
নিলয় মাথা নাড়িয়ে সম্মতি জানায়,,,
,
> আমায় কোলে নিয়ে এখন নিচে নিয়ে জাবেন সবার সামনে দিয়ে???
,
নিলয় কোনো কথা না বলে নীরাকে কোলে তুলে নেয়,,,,,
,
continue♥♥♥

প্রিয় পাঠক আপনারা যদি আমাদের (গল্প পোকা ডট কম ) ওয়েব সাইটের অ্যাপ্লিকেশনটি এখনো ডাউনলোড না করে থাকেন তাহলে নিচে দেওয়া লিংকে ক্লিক করে এখনি গল্প পোকা মোবাইল অ্যাপসটি ডাউনলোড করুন  👇👇👇👇👇👇

https://play.google.com/store/apps/details?id=com.golpopoka.android

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here