অদ্ভুত ভালোবাসা পর্ব :- ৭

0
507

অদ্ভুত ভালোবাসা পর্ব :- ৭
__অন্না
,
নীরা:::: আরে আরে কি করছেন আপনি,,, আপনি এই কাজ টা করতে পারেন না ,,,
,
নিলয়:::: মাই ডিয়ার নীর পাখি আমি সব করতে পারি,,,,
,
নীরা:::: কাজ টা কিন্তুু ভালে করছেন না ,, আমি কিন্তুু চিৎকার করবো,,,,
,
নিলয়:::: নীর পাখি তোমার এই মাথায় যে কি ঘুরপাক খায় আমি বুঝি না ভাবছো??
,
নীরা:::: কি বুঝছেন আপনি???
,
নিলয় :::: এই যে আমায় ট্যপে ফেলে বাসায় থেকে বের করে তুমি পালাবে এখান থেকে,,,, তাই এ ব্যবস্থা ,
,
নীরা:::: তাই বলে আপনি আমার পায়ে শিকল পরিয়ে রাখবেন,,,, আমি পালাবো না সত্তি,,,,আমাকে বিশ্বাস করেন,,সত্তি বলছি,,,
,
নিলয়:::: জানি তো তুমি পালাবে না নীরু, আমি তোমাকে অনেক বিশ্বাস করি জানো ,,,,, তাইতো তোমার পায়ে শিকল পরিয়ে দিলাম,,,
,
নীরা:::: আপনি খুব বাজে একটা লোক, এ্যা,,,,,,,,,,,,
,
নিলয়:::: নো ড্রামা ওকে,,, তুমি যে ড্রামা করার মেয়ে না আমি খুব ভালো করেই জানি,,,, আে শোনো এ বারির চারদিকে সিসি ক্যামেরা ফিট করা আছে,,, আর তার লাইভ আমি আমার এই ট্যাবে দেখতে পাবো,,, সো পালানোর চেষ্টাও করোনা,,,, so don’t be smart,,, undastand???
.
নীরা:::: পৃথিবীর সবচেয়ে বাজে লোক আপনি,,, আমি আপনাকে খুন করবো,,,
,
নিলয়:::: তোমার হাতে খুন আমি সেদিনই হয়েছি যেদিন তোমায় আমি প্রথম দেখেছি,,,,, সো আমার জন্য একদম চিন্তা করো না,,,, আমি জলদি ফিরে আসবো,,, নিজের খেয়াল রেখো জান ,,,, ( নীরার কপাল এ চুমু দিয়ে যেতে শুরু করলো)
,
নীরা::::: জান মাই ফুট,,,বাসায় এসে দেখবেন আমি নেই,,, পালাতে না পারলেও কিছু একটা করবই,,,,
,
নীরার কথা শুনে নিলয় অচিরেই নীরাকে বিছানার সাথে ধরে নিজের ঠোঁটে নীরার ঠোঁটে চেপে ধরে টানা দশ মিনিট নিয়ে কিস করে,,,,, নীরা এই অনুভুতি আগেও পেয়েছে ,,, নীরা আবেশে চোখ বন্ধ করে ফেলে,, ,, নিলয় নীরার ঠোট ছেরে নীরার মুখের দিকে তাকিয়ে দেখে নীরা চোখ বন্ধ করে আছে, কিন্তুু চোখ দিয়ে পানি পরছে,,,নিলয় নীরার চোখে চুমু খেয়ে বললো,,,
,
নিলয়:::: নীর পাখি এখান থেকে পালানো তো দুরের কথা কিছু করার চিন্তা মাথাতেও আনবা না,, কারন এখন তোমার ওপর তোমারই আর কোনো অধিকার নাই,,,তোমার ওপর অধিকার টা আমার,,, তুমি জান আমার। আর আমার জান টার যেনো কোনো ক্ষতি না হয় সেটা তুমি খেয়াল রাখবে, একটা আঁচর ও যেনো না পরে ,, তা না হলে আমি যে কি করবো তুমি চিন্তাও করতে পারবে না,,,, বালিসের নিচে ফোন আছে, আমার টাকায় কেনা, বাবার টাকায় না, ওন করে নাও আমি ফোন দিবো,, বোরিং লাগলে টিভি দেখো , আর কিছু লাগলে তিশাকে ডেকো,,,, এর বিপরীত কিছু হলে কপালে দুঃখ আছে বলে দিলাম,,,,,
,
নিলয় অফিসে চলে গেলো,,, নীরা চুপটি করে বিছানায় বসে পরলো,,,
নীরা:::: তোর সাহস কি করে হয় আমার সাথে এমন করার,আমাকে কি তোর মানুষ বলে মনে হয়না নাকি,,, তোর কি ধারনা আমি তোকে ভয় পাই,,বেয়াদব ছেলে, যখন তখন আমায় কিস করা,,,, এভাবে শিকল পায়ে পরাতে পারলি , খচ্চর পোলা, আটকে রাখবি রাখ,তোর জীবনটা আমি তেজপাতা করে না দিছি তো আমার নাম নীরু না,,,, এ what নীরু,, নীরা আমার নাম নীরা,, নীরা না,, আল্লাহ্ দুনিয়াতে এত ছেলে থাকতে তুমি আমার কপালে এই গুন্ডাকে গুছিয়ে দিলে ,, আমার বোঝা শেষ তুই রাক্ষস সত্তি কনোদিনও আমায় ছারবি না,,, আল্লাহ্ পথ দেখাও কি করলে আমি এই রাক্ষস টার কাছ থেকে মুক্তি পাবো,,,,,,, ফোন এর কথা বললোনা,,, কই ফোন,,,,, বাহ্ এত্ত দামি ফোন,,,

,
নীরার ওর মা এর কথা মনে পরে যায়,, তাই দেরি না করে ওর মা এর কাছে ফোন দেয়,,,
,
নীরার মা:::: হ্যালো কে বলছেন???
,
নীরা::: কেমন আছো মা? বাবা কেমন আছে,,,,
,
নীরার মা’:::: কেন মুখে তুই ফোন করছিস তুই, যে কাজটা করছিস তারপর ভাবলি কি করে আমরা ভালো আছি,,, ,
,
নীরা::: মা তুমি বিশ্বাস করে আমি ইচ্ছে করে কিছু করিনি আমাকে ব্লেকমেইল করে,,
,
নীরার মা:::: তাই, তাহলে তুই কেনো কাল ওখান থেকে ফিরে আসলি না, এসে আমাদেে কাছে মাফ চাইলি না , ওইছেলেটার বাড়িতে কেনো তুই,???
,
নীরা::: আমি এখানে তোমাকে কে বলেছে???
,
নীরার মা::: ওই ছেলেটাই ফোন দিছিলো , তুই তো নিজের সুখ বেছেই নিছিস তো আমাদের কথা না ভাবলেও চলবে তোর।
নীরা:: নিলয় ফোন দিছিলো???

নীরার মা : :;;; নাটক করবিনা একদম,,,

,
নীরা :::: আমি বাবার সাথে কথা বলবো মা,,
,
নীরার মা:::: চেষ্টাও করবি না,তোর বাবা অনেক কষ্ট পেয়েছে,, পিয়াস এর পরিবার নেহাৎ ভালোমানুষ তাই অপমানটা করেনি,তোর জন্য শুধু তোর জন্য আমাদের মান সম্মান সব নষ্ট হয়ে হয়ে গেছে ,,, খবরদার যদি আর একবার আমায় ফোন দিছিস তো,,, তোর সাথে আমাদের কোনো সম্পর্ক নাই,,,
,
নীরা::::: হ্যালো হ্যালো মা,,,,(কাদতে শুরু করে) তোমরা আমায় ভুল বুঝছো মা, ,,,,
,
তিশা ঘরে এসে নীরার ফোনের সব কথা শুনতে পায়,,, তিশা নিরার ঘারে হাত দেয়,,, নীরা তিশাকে জরিয়ে ধরে হাউমাউ করে কান্না করতে লাগে,,,
,
নীরা :::: তোমার ভাই আমাকে জীবন্ত মেরে ফেললো,আমার বাবা মার কাছে আজ আমি মৃত, আমি কোনোদিন ও তোমার ভাইকে ক্ষমা করবোনা,, আমার জীবনটা নষ্ট করে দিছে তোমার ভাই,,আমি কি করবো বলো এখন,,, মরতেও পারবো না আমি নিজের ইচ্ছায়,,,
,
তিশা::: শান্ত হও ভাবি, শান্ত হও, এভাবে কান্না করলে শরীর খারাপ করবে,,,
,
নীরা::: আমি কি করে শান্ত হই বলো,,
তিশা:::চলো তো উঠো তোমাকে এক জায়গা থেকে ঘুরিয়ে নিয়ে আসি,,,
,
নীরা ::: গুন্ডাটা আমায় আটকে রেখে গেছে দেখছো না,
,
তিশা ::: wait a minute,,,
,
তিশা নীরার পা থেকে শিকলটা খুলে দিলো,,
,
নীরা::: তুমি কি করে খুললে? আমি তখন থেকে টানাটানি করছি কিন্তু,,,
,
তিশা;;;; নিলয় এর বোন আমি ওর টেকনিক টা জানা আছে আমার, তুমি ও যেনে যাবে আস্তে আস্তে,,, চলো তারাতারি,,, আবার এসে তোমায় আটকে রাখবো, নয়তো তোমার সাথে সাথে আমাকেও মেরে ফেলবে,, ।
,
নীরাকে নিয়ে তিশা ওদের বারির পিছনে বাগানে নিয়ে আসে,,,
,
নীরা:::: বাহ্ ওনেক সুন্দর তো তোমাদের বাগান। এত্ত ফুলের গাছ, ,,
,
তিশা::: হুম সব ভাইয়ের পছন্দ,,,
,
নীরা::: এই দোলনাটাও তোমার ভাইয়া লাগিয়েছে??
,
তিশা::: না ওটা বড় আম্মু থাকা কালিন লাগানো হয়েছে,উনি দোলনা খুব পছন্দ করতেন তাই,,, আর এটা বড় আম্মুর কবর,,
,
নীরা::; বড় আম্মু???
,
তিশা: নীলয় ভাইয়ার আম্মু,,,,
,
নীরা::: বাসাতেই কবর দিছে??
,
তিশা:::: না বাবাই নাকি দিতে চায় নাই,পারিবারিক কবরস্থানে দিতে চাইছিলো কিন্তু ভাইয়ার কান্নায় এখানেই কবর দিছে,,, একটা কথা জানো, প্রায়ই ভাইয়া এখানে এসে আম্মুর কবর এর ওপর এসে শুয়ে থাকে,,,
,
নীরা::;: কেনো???
,
তিশা:::: ভাইয়ার ভালোবাসার খুব অভাব জানো, আম্মু মারা যাবার পর তাকে কেউ আর তেমন ভালোবাসেনি,, বলতে পারো ভাইয়া নেয় নি,,, আমার মা কে তো ভাইয়া দেখতেই পারে না,, সব সময় খারাপ ব্যবহার করে,, আমি সবই দেখি,,, ভাইয়ার কটু কথা, আর মা এর নিরবে কান্না,,, আমি কিছু বলি না, কারন ভাইয়ার কোনো দোষ নাই জানো,,, ভাইয়া মনে আমার ফুফু এমন বিষ ধালছে যে বিষ আর কখনও ওঠানো সম্ভব না,,, ভাইয়া আমার মা এর সাথে কথা না বললেও আমায় খুব ভালোবাসে যানো ,
,
নীরা::: তোমার বাবা কিছু বলেন না এনিয়ে,,,
,
তিশা::: বাবাই যখন কিছু বলেছে ভাই এখানে এসে আম্মুর কবরের ওপর শুয়ে চিৎকার করে কাদেছে,,,,, আর বলেছে “”” আম্মু তুমি আমায় তোমার কাছে নিয়ে যাও,আমায় কেউ ভালোবাসে না, “”””
বাসার সবাই কাদে ওর এই কান্না দেখে,,, জানো এখনও ভাইয়া এখানে এসে কাদে,,,
বাবাই ভাইয়াকে আর কিছু বলে না, কলেজে বাজে বন্ধুদের সাথে মিশে নিজের জিবনটা নষ্ট করছে,,,, কারো কনো কথা শুনে না,,,
কারো শাষন পায়নি তো,,,,
ভাবি বিশ্বাস করো আমি আজ অনেক খুসি শুধু আমি না মামুনি ও ভাইয়া তোমার কথায় আজ অফিসে গেছে আর মামুনির হাত এর রান্না ও খাইছে,,,,
,
নীরা ::; তোমার ভাইকে দেখে বোঝা যায় না এত্ত কষ্ট মনে আটকে রাখছে,,,
,
তিশা:::: ভাবি তুমি একটা কথা রাখবে আমার???
,
নীরা;:::: বলো,,,
,
তিশা::: ভাবি আমার ভাইটাকে ছেরে যেওয়া না, ও খুব ভালোবাসে তোমায়,,,
,
নীরা’::;; আমি তোমার ভাইকে ভালোবাসিনা,,,,
,
তিশা:::: ভাবি ভালোবাসোনা বাসতে কতক্ষন???
,
নীরা :::; কখনও সম্ভব না,,,
,
তিশা::: আচ্ছা বাজি লাগাও,,,
,
নীরা :::: বাজি,,,
তিশা:::: আচ্ছা তাইলে বাজির আগে তোমার আমার কিৃছু কথা রাখতে হবে,,,,
,
নীরা::: কি?
,
তিশা:::: আমার ভাইকে মামুনির কাছে ফিরিয়ে দিতে হবে তোমার,,,
,
নীরা:::: আমি কি করে???
,
তিশা ::::: সেটা আমি জানিনা,,, আর এ কাজটা করলে বাজিতে তুমি হারবে তো! ১০০%,, কিন্তুু বাই এনি চান্স জিতলে আমি নিজ দ্বায়িত্বে ভাইয়ার কাছ থেকে মুক্তি দিয়ে দিবো,,,, কি রাজি,,,???
ভেবে দেখো তুমি হাজার চেষ্টা করলেও ভাইয়ার কাছ থেকে পালাতে পারবে না,,,
,
নীরা:::; তাহলে তো রাজি হইতেই হবে,,, আমি রাজি,,,,
,
তিশা:::that’s like a good girl,এখন জলদি চলো,, তোমার গুন্ডা আবার এসে দেখলে আমার মাথা কেটে নিবে,,,,
,
নীরা:::: একটা কথা তো বলাই হয়নাই,, বাড়ির চারপাশে নাকি সিসি ক্যামেরা লাগানো আর,,,,
,
তিশা::: তোমার ননদ কে তুমি কি কাচা খেলোয়ার ভাবছো??? এই দেখো,,,,
,
নীরা:::: তোমার ভাইয়ার ট্যাব তুমি কই পেলে,??
,
তিশা:::: তোমার না জানলেও চলবে,,, এখন জলদি চলো,,,
,
নীরা :::: তুমি যাও আমি আসছি,,,
.
তিশা:::: জলদি এসো আমি গেলাম,,,,,
,
নীরা নীলয়ের মা এর কবর জিয়ারত করে দোলনায় বসে দোল খেতে থাকে,,, আর ভাবতে থাকে,,,,
,,,,,আচ্ছা আমি সত্তিই কি বাজিতে হেরে যাবো,,, নিলয়কে কি সত্তিই,,,, আর উনি এতোটা একা থাকে কেনো? এতটা একা কেউ থাকতে পারে? আমি কি পারবো আন্টির সাথে উনার মিল করাতে,,, আমাকে তো পারতেই হবে,,, আমাকে এখান থেকে বের হতেই হবে,,, ভাবতে ভাবতেই কেউ নীরার গালে কষে ঠাপ্পর মারলো,,, নীরা হুরমুর করে
দোলনা থেকে নিচে পরে গেলো,,,
,
নীরা:::: আল্লাহ্ গো,,,,,কোন সয়তান রে,,,,,,,( তাকিয়েই), আ,,,,,প,,,,নি????
,
নীরা তাকিয়ে দেখে নিলয়,,, সেই একটা লুক নিয়ে নীরার দিকে তাকিয়ে আছে,,, নীরার তো নিলয়কে দেখেই জান উরে গেলো,,,
,
নিলয় আচমকাই নীরাকে টেনে তুলো নীরাকে জরিয়ে ধরে ঠোঁটে কিস করতে শুরু করলো,,, নীলয় নীরাকে আজ ছারতেই চাচ্ছে না,,, এদিকে নীরার দম আটকে যাবার উপক্রম,,, নীরা সমস্ত শক্তি দিয়ে নিলয়কে ধাক্কা দিয়ে হাপাতে শুরু করে নিলয় আবার নীরাকে টান দিয়ে এনে নীরার ঠোট দুটো আবার আকরে ধরে,,, নীরা আর সহ্য করতে না পেরে নিলয়ের ঠোটে কামড় মেরে দেয়,,,,,
নিলয় তাও নীরাকে ছারে না,,, ,,,,, এদিকে নীরার জান বেরিয়ে যায় যায় অবস্থা,,,,, নিলয় এবার নীরাকে ছেরে দিয়ে টানতে টানতে বারির ভিতর নিয়ে আসে ,,,,,
,
তিশা:::: ভাই কি করছিস??? ভাবির লগছে তো,,, ছার ছার ভাবিকে,,,
,
নিলয়ের মা:::: ওকে ওভাবে টানছিস কেনো বাবা,,, ছেরে দে ওরে,,,
,,
,নিলয় কারো কথা কানেও নিলো না নীরাকে
রুমে নিয়ে এসে লক করে দেয়,,,,,,,

,
continue,,,,,,♥

 

প্রিয় পাঠক আপনারা যদি আমাদের (গল্প পোকা ডট কম ) ওয়েব সাইটের অ্যাপ্লিকেশনটি এখনো ডাউনলোড না করে  থাকেন তাহলে নিচে দেওয়া লিংকে ক্লিক করে এখনি গল্প পোকা  মোবাইল অ্যাপসটি ডাউনলোড করুন =>
       👇👇👇👇👇👇

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here