অদ্ভুত ভালোবাসা পর্ব  ৫

0
565

অদ্ভুত ভালোবাসা পর্ব  ৫
—– অন্না

,
নীরা সাইনটা করতে শুরু করে,, ঠিক তখনই কেউ পেপারটা টান দিয়ে নিয়ে নেয়,,, নীরা তাকিয়ে দেখে নিলয়,,, ভয়ংকর দৃষ্টিতে নীরার দিকে তাকিয়ে আছে, চোখ দুটো লাল টকটকে হয়ে,,, নিলয় কে দেখে নীরার পুরা শরীর ঠান্ডা হয়ে গেলো ভয় এর চোটে,,, নীরা কিছু বলতে যাবে ঠিক তখনই নিলয় নীরার গালে ঠাস্ করে কষিয়ে থাপ্পর মেরে দিয়ে পেপার টা টুকরো টুকরো করে ছিরে নীরার মুখের ওপর ছুরে ফেলে দিলো,,,,

,
পিয়াস :::: কি করলি ভাই এটা তুই,,,

,
নীরার মা :::: এই বেয়াদব ছেলে তুমি এখানে কি করে এলে হ্যা, সাহস কি করে হয় আমার মেয়ের গা এর ওপর হাত তোলার, আমার মেয়ের জীবনটা নষ্ট না করে তুমি শান্ত হবা না,,, বেরিয়ে যাও এখান থেকে,,, নীরার বাবা বের করে দাও এই ছেলে কে,,,

,
এর মধ্যে আট,দশ জন ছেলে এসে নীরার মা, বাবা, পিয়াস এর মা বাবা, সবার পিছে এসে দাড়ায়,,,,,,

,
পিয়াস,,,, নিলয় কি করছিস তুই এইসব আজ আমার বিয়ে, তুই এই সিনক্রিয়েট করছিস কেনো,,, নীরাকে কি তুই আগে থেকে জানতিস???,

,
নিলয় পিয়াসের কথা শুনো নীরার দিকে আগুনের চোখে তাকালো, আর নীরা ভয় পেয়ে চেয়ার থেকে উঠে নিলয় এর হাত থেকে একটু দুরে গিয়ে গুটিশুটি মেরে দাড়ালো,,,

,
নীরার মা :::: ও কি বলবে তোমায়,, সেই কলেজ এর প্রথম দিন থেকে আমার মেয়েটার পিছে পরে আছে,,, অন্য যায়গায় বিয়ে ঠিক করার জন্য সবার সামনে নীরার বাবা কে যা নয় তাইববলে অপমান করছে,, বাজে ছেলে একটা, বাবা মা এর কোনো শিক্ষা নাই,তা না হলে কারো ঘরের মেয়ের সাথে এমন করতে পারে,,,

,
নিলয় ::::: আপনি আপনার মেয়েকে কি শিক্ষা দিয়েছেন যে প্রথম স্বামী থাকা কালীন অন্য কাউকে বিয়ে করে???

,
নীরার মা:::: মানে??? কি বলতে চাচ্ছ???
,
নিলয় ::: নীরা আপনার ঘরের মেয়ে ছিলো ৩ দিন আগে এখন ও আমার স্ত্রী,,, আইন মতে ও আমার বিয়ে করা বউ,, এই দেখেন প্রমান ( সই করা পেপার টা দেখিয়ে)

,
নীরার মা ::: নীরা এই ছেলেটা যা বলছে তা কি সত্তি,,,,

,
নীরা:::: মা,,,,আ,,,,স,,,লে,,,,,

,
নীরার মা নীরাকে ঠাস্ ঠাস্ করে দুটো থাপ্পর মেরে দেয়,,,

,
নীরার মা:::: আগে যদি যানতাম তোর জন্য আমাদের মান সম্মান সব ধুলোয় মিটিয়ে যাবে তাইলে তোকে আতুর ঘরেই গলা টিপে মেরে দিতাম,,,

,
নীরা:::: মা তুমি বিশ্বাস করো,,, আমি পেপার এ সই করতে চাই নি উনি আমাকে জোর করে,

,
নীরার মা::: জোর করে???? জোর করে কিভাবে কাউকে সই করানো যায়,, আমায় বোঝাতে আসবি না,,,,,,

,
পিয়াস,,,, দেখ ভাই, নীরা তোর সাথে থাকতে চায় না, তাই আমায় বিয়ে করার সিদ্ধান্ত নিছে,, তোদের বিয়ে টা তো আর এমন ভাবে হয় নি, তুই আইনিভাবে নীরা কে ছেরে দে, আমি ওকে বিয়ে করবো,,,,

,
নিলয় পিয়াস এর কলার ধরে,,,

,,,,,, নীরার নাম ও মুখে আনিস না,,,, বিয়ে করার চিন্তা মাথা থেকে ফেলে দে, নয়তো, ,

,
,,,,,,, নয়তো কি করবি তুই ভুলে যাচ্ছিস আমার ও কিন্তুু ক্ষমতা কম নাই,,

,
নিলয় পিয়াস এর নাক বরাবর একটা পান্চ মেরে দিলো,, পিয়াস ছিটকে পরে গেলো,,,

,
নীরা :::: বাবা ও বাবা তুমি বিশ্বাস করো যা হইছে আমি ইচ্ছা করে করি না,,, আমি এই বিয়ে মানি না,, ,

,
নীরার বাবা::::: সুপ্রীতী( নীরার মা) আমাদের মেয়ে আজ থেকে মরে গেছে,,, যে মেয়ে মা,বাবার মান সম্মান নিয়ে তামাশা করতে পারে সে মেয়ের দরকার নাই আমার,, চলো এখান থেকে,,,, আর আপনাকে বলছি,,, যে ছেলেটা আপনার বাবাকে ভরা পাবলিক প্লেসে সবার সামনে অপমান করে আর আপনি সেই ছেলেটার সাথে যখন ঘর করবেন ঠিক করেছেন তখন তার কাছেই থাকেন। আজ থেকে আমাদের মেয়ে মৃত,,,,

,
পিয়াস এর মা :::: চল বাবা আমাদের এমন মেয়ে লাগবে না,,, তোকে এর চেয়ে অনেক ভালো মেয়ে খুজে দিবো ,,,,

,
নীরা ”::::: বাবা, মা আমাকে একা ফেলে যেও না ,, আমার কে আছে বলো তোমরা ছারা,,, আমি এই বিয়ে মানি না,

,,
নীরার কথা ওর মা,বাবা কেউ শোনে না সবাই চলে যায়,,,

নিলয় :::: নীর পাখি তুমি মানো আর না মানো বিয়ে টা আমাদের ভাঙবার মতো নয়,,, এটা যে ভাবেই হোক তোমার মানতে হবে,,,,

,
নিলয় এর কথা শুনো নীরা নিলয় কে ধাক্কা মেরে দৌরে চলে যেতে নিলে নিলয় নীরাকে ধরে ফেলে ,,,,,

,
নীরা:::: আমি এই বিয়ে মানি না আর বেচে থাকতে মেনে নিবো না,,, আমি থাকবো না আপনার সাথে,,,

,
নিলয় এর রাগ এবার চরমে উঠে যায়, নীরাকে দেওয়ালের সাথে ধাক্কা মেরে দেয়,,, নীরা গিয়ে দেওয়ালের সাথে ধাক্কা খেয়ে ফ্লোরে ছিটকে পরে যায়,,,,

,
নীরা:::; আহহহহ্

,
নিলয় বুঝতে পারে নি নীরার লেগে যাবে,, নীলয় ছুটে গেলো নীরাকে তোলার জন্য,,,,

,
নীরা::::: একদম ছুবেন না আমায়,,

,
নীলয় কোনো কথা না বলে নীরাকে কোলে তুলে নেয়,,
,
নীরা:::: ছারুন, ছারুন আমায়,,, আমি আপনা,,,,,,,,,,,

,
কখাটা পুরো বলতে পারে না নীরা সেন্স হারিয়ে ফেলে,,,,
নীলয় নীরার মুখের দিকে তাকিয়ে দেখে নীরার কপাল বেয়ে রক্ত চুইয়ে চুইয়ে পরছে,,, তখন ধাক্কায় নীরার কপাল ফেটে গেছে,,,

,
নিলয় ::;: নীর পাখি, নীরু কথা বলো নীরু , কেনো যে তুমি আমার রাগ টা ওঠাও, ক্ষতি তোমারই হয়,,, বুঝনা কেনো,, তোমাকে ছারা আমি থাকতেই পারবো না,,,
নিলয় আর দেরি না করে নীরাকে হাসপাতাল এ নিয়ে যায়,,, সেখানে নীরাকে ডাক্তার দেখিয়ে ওদের অন্য একটা বারিতে নিয়ে যায়,,, যেখানে নিলয় একা থাকে,,, নিলয় ওর বাবা,মা এর সাথে থাকে না,,, কারন নীজের মা এর সংসারে অন্য মহিলাকে ও সহ্য করতে পারে না,,, নিলয় কখনও ওর সৎ মাকে মা বলে ডাকে নি,,, ওর বাবা ও এ নিয়ে প্রতিবাদ করেনি,, আর করলেও কোনো লাভ হয় নি,,, যাই হোক,,,
,
নীরার যখন সেন্স ফিরে তখন ও নিজেকে বিছানায় দেখতে পায়,, রুমটা খুবই অগোছালো,,, আর পুরা রুম এ নীরার ছবি ঝুলানো,,, নীরার বুঝতে বাকি থাকে না যে এইটা নিলয় এর ঘর,,, আস্তে আস্তে সে চারিদিক দেখতে লাগলো,,, কোথাও নিলয়কে দেখতে পেলো না,,, নীরার সাহস বেরে গেলো, ও খুব কষ্ট করে উঠে রুম থেকে বের হয়ে মেইন দরজা খুলে বাসা থেকে পালিয়ে গেলো,,, কিন্তুু রাস্তায় এসে আর কিছু চিনতে পারে না,,,
,
নীরা::::আল্লাহ্ কোন রাস্তা এইটা ,, আমি তো কিচ্ছু চিনতে পারছিনা,, কোন দিকে যাবো ,,উফ্ মাথা টা মনে হচ্ছে ছিরে ফেলে দেই,,,,

,
নীরা রাস্তায় দৌড়াতে থেকে,,, কিনতু কোনো বাড়ি ঘর গাড়ি কিচ্ছু দেখতে পায় না, কারন নিলয় যেখানে থাকে শহর থেকে অনেক ভেতরে তার আসে পাশে কোনো বাড়ি ঘর নাই, আর দিনের বেলায় গাড়ি দেখে গেলেও রাত্রে তো কোনো পোকাও দেখা যায় না,,, এর মধ্যে নীরা সামনে একটা গাড়ি দেখতে পেলো,,, নীরা দৌরে গিয়ে তাদের কাছে সাহায্য চাইলো,,,,

,
নীরা :::: plz help me, save me plz,
,
গাড়ি থেকে ৪ টা ছেলে নেমে এলো,,, তারা লোভাতুর দৃষ্টিতে নীরার দিকে তাকালো,,
,
১ম ছেলে :::: কি problem baby,, আসো দেখি,,,

,
২য় ছেলে ‘:: ভয় পাচ্ছো কেনো? আমরা তোমার সব সমস্যার সমাধান করে দিব,,,

,
নীরা:::: আমার কোনো হেল্প লাগবে না ( বলেই দৌর দিতে লাগলো, ওমনি ৩য় ছেলেটি নীরার হাত ধরে ফেলে))

,
৩য় ছেলেটি :::: তোমার না লাগলেও আমাদের লাগবে বেবি,,,,,

,
এর মধ্যে নিলয় গাড়ি নিয়ে এসে থামলো নীরার সামনে,,, ( নিলয় বাথরুম থেকে বের হয়ে দেখে নীরা নাই আর মেইন দরজা ও খোলা, ও ভালোভাবেই বুঝতে পারে নীরা পালিয়েছে, তাই গাড়ি নিয়ে বের হয়ে আসে,,,, এসে দেখে নীরার হাত ধরে কেউ টানাটানি করছে,,)
,,, নীরা ছেলেটার হাত ছারিয়ে দৌরে এসে নিলয়কে জোঁকের মতো জরিয়ে ধরে, এর মধ্যে নিলয়ের লোকেরা এসে ৪ জন ছেলেকে পিটাতে শুরু করে ,,,,, নিলয় নীরাকে ছারাবার চেষ্টা করে, কিন্তুু ছারাতে পারে না নীরা যেভাবে ধরে কান্না করছে এতে নিলয়ের খুব কষ্ট হচ্ছে,,,, নিলয় নীরাকে জোর করে ছারিয়ে গাড়িতে নিয়ে বসায়,,, তারপর বাসায় এসে নীরাকে বিছানায় বসিয়ে দেয়,,,, নিলয় নীরার সামনে পানির গ্লাস এগিয়ে দেয়, কিন্তু নীরা সরিয়ে দেয়,এতে নিলয়ের মাথা খারাপ হয়ে যায়,,, পানির গ্লাসটা শরীরের সমস্ত শক্তি দিয়ে ফ্লোরে আছার মারে,

,
নিলয়::::: তুমি কি ভাবছো নিজেকে হ্যা , এখনই কি হইতো,,, আমার কাছ থেকে পালানোর সাহস কি করে হয় তোমার,,,, সাহস কি করে হয় অন্য কাউকে বিয়ে করার????

,
নীরা :::: আমি এ বিয়ে মানি না,

,
নিলয়’:::: তুমি মানো আর না মানো তোমাকে আমার সাথেই থাকতে হবে,,,,

,
নীরা::::: আমি আপনার সাথে থাকার চেয়ে মরে যাওয়া পছন্দ করবো ,,,,

,
নিলয়’::::: এত্তটাই অপছন্দ করো আমায়?আমি কি এতোটাই খারাপ? আমায় কি ভালোবাসা যায় না,,,??? আমি যে অনেক ভালোবাসি তোমায়,,, প্লিজ আমায় ভালোবাসো নীর পাখি, প্লিজ,,,,

,
নীরা::::: আমি আর কত্তবার বলবো আমি আপনাকে ভালোবাসি না,বাসিনা,বাসিনা,আর কেনোদিন বাসবোওনা,,,,, i just heat you,just heat yoou, ,,

,
নিলয় নীরার কথা শুনে আর নিজেকে কন্ট্রোল করতে পারে না,, নীরাকে বিছানার সাথে চেপে ধরে,,,,,
,
নিলয়::::: ভালোবাসলেও তোকে আমার সাথে থাকতে হবে আর ভালো না বাসলেও থাকতে হবে,,,
,
নীরা::::: আমি থাকবো না আপনার কাছে, আমি কালকেই চলে যাবো,
,
নীরার কথা শোনার সাথে সাথেই নিলয় নীরার চুলের মধ্যে হাত দিয়ে চুল মুঠো করে ধরে নীরার ঠোটে,গলায় পাগলের মতো কামড়াতে থাকে,,,,,

,
চলবে,,,,,,♥♥♥

প্রিয় পাঠক আপনারা যদি আমাদের (গল্প পোকা ডট কম ) ওয়েব সাইটের অ্যাপ্লিকেশনটি এখনো ডাউনলোড না করে থাকেন তাহলে নিচে দেওয়া লিংকে ক্লিক করে এখনি গল্প পোকা মোবাইল অ্যাপসটি ডাউনলোড করুন => 👇👇👇👇👇👇

https://play.google.com/store/apps/details?id=com.golpopoka.android

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here