আমার বুড়ো part : 11 

0
611

আমার বুড়ো part : 11
লেখিকা সুরিয়া মিম

!
যাও যাও গিয়ে দেখে আসো, আমার মা বাবা কে এক সাথে কত সুন্দর লাগছে,
হা হা হা,
….
মা মা দেখো আমি তোমাদের রিসেপশনের চিপপপ গেস্ট কে ধরে নিয়ে এসেছি হুমমম,
….
আচ্ছা এখন চুপ করে বসো,
. …
মেয়ে আমার পাশে বসতেই সামনে তাকিয়ে দেখি,
……
উনি ধির পায়ে আমার কাছে একটু একটু করে এগিয়ে আসছেন?
…..
আমার কাছে এসে কাঁপা কাঁপা হাতে তার আনা উপহার টা আমার সামনে বেড়িয়ে দেয়,
……
আমি ও মিষ্টি হাসি দিয়ে তার হাত থেকে উপহার নিয়ে তাকে বলি,
.
থ্যাংকইউ মিস্টার খান,
.
ওওওওয়েল,
.
কি হলো তোতলাচ্ছেন কেন?

কিছুনা ওয়েলকা ,
….
নিজের বিয়ে করা বৌয়ের বৌ ভাতে তাকে ডায়মন্ড নেকলেস উপহার দিয়ে উল্টোদিকে ফিরে কেঁদে ফেলেন খান সাহেব,

তবু ও নিজেকে সামলে নিয়ে অনুষ্ঠানের বাহিরে চলে যায়,

তারপর ইয়াদ গিয়ে খান সাহেব কে ধরে এনে বলেন,

বাবা তুমি খাবে না?
সবাই তোমাকে খেতে ডাকে,
..
খিদে নেই আমার তোমরা গিয়ে খাও,
….
কেন খাবে না?
তুমি যেদিন বিয়ে করেছিলে আমার মা কে দিয়ে কোরমা পোলাও বিরিয়ানি রান্না করিয়ে ছিলে,
আমাদের মা তো বুঝতে ও পারেনি যে তার জন্যে কি অপেক্ষা করছে?
….
আমার মাকে দিয়ে রান্না করিয়েছ নতুন বৌ এনে আমার মা কে তাড়িয়ে তারি হাতের রান্নাকরা খাবার কবজি ডুবিয়ে খেয়েছ,
..
তারপর রাতে কি করেছ সেটা আমাদের দেখার বিষয় নয়,

তবে আজকে যখন তুমি এসেই পরেছ আমার মায়ের বৌ ভাতের খাবার তোমাকে খেতেই হবে,
না খেয়ে তুমি এখান থেকে একচুল ও লড়তে পারবেনা,
….
কি হয়েছে ইমান আঙ্কল চলো খেতে চলো বাবা তোমাকে খুঁজছে?
….
না মা,

কি মা?
কে মা?
কেউ না চলো খেতে চলো,

দেখো বাবা আঙ্কল কে ধরে এনেছি,

ভালো হয়েছে মা,
তোমার আঙ্কল কে আমাদের সামনে বসিয়ে দাও,

খান সাহেব সামনে বসে তার মিশুর দিকে তাকা তেই দেখে,

মিশু রুহান কে নিজের হাতে খাইয়ে দিচ্ছে,
…..
বুক টা কষ্টে ফেটে যাচ্ছে তার,
তবু ও মূর্তিমান হয়ে বসে আছে সে,

আরে খান সাহেব?
দেখো না বুড়ো তোমার বন্ধু কিছু খাচ্ছেনা,

কিরে ভাই কি হয়েছে তোর?

কোই কিছুনা তো?

শোনো ও মনে হয় ওর ভাবীর হাতে খেতে চাইছে,
তুমি ওকে খাইয়ে দাও না প্লিজ,
….
বলছ দিবো?

হ্যা দাও,

তোমার খারাপ লাগবেনা?
….
একদিনি তো তেমার হাতে খাবে সারাজীবন তো খাবে না,

কথা টা খান সাহেবের হৃদয়ে আঘাত করে,
সাথে সাথে দুএক ফোটা জল তার চোখ থেকে গড়িয়ে পরে,
..
তখনি আমি গিয়ে বুড়োর মুখ টা চেপে ধরে ওর মুখে গ্রাস পুরে দেই,
….
হঠাৎ আমার কি যেন হয়ে যায়?
নিজেকে সামলাতে না পেরে মিশির হাত টা আমার গালে চেপে ধরি,
….
কারন আজকের পর থেকে হয়তো আমি ওকে আর আমার করে পাবো না,
…..
আজকে তো তোমার হাতে আমার শেষ খাওয়া মিশু,
আর কখনো তোমার হাতে খাওয়া হবেনা আমার,

আমি জানি তুমি তোমার ঘৃণা থেকে এমন টা করছ তোমার ছোয়া পেয়ে সেটা অনুভব করছি মিশু,

চল্লিশ বছর তো তোমাকে ভালোবেসে তোমাকে নিয়ে থেকেছি আমি তোমাকে আমার থেকে বেশি করে কে চেনে মিশু,

তোমার চার ছেলেময়ে যদি আমাকে আটকে না দিতো আমি তোমাকে যে ভাবে তুলে এনে বিয়ে করেছি সে ভাবে তুলে নিয়ে যেতাম,
…..
ইমান তোকে দেখে আমার করুনা হয়রে ভাই,

চল্লিশ বছর সংসার করে কেউ এমন কান্ড বাধায়? এখনো তো তুই ওকে ভালোবাসিস,
আমার বুড়ি টাও বাসে সবাই কে ভালো,
কিন্তু,
তোরা কেউ ওর ভালোবাসার সম্মান করলি না,
..
ওহে বুড়ো কি ভাবছ তুমি?
….
কিছুনা মিশু?

খান সাহেব আমি আপনাকে বলিনি আমার স্বামী কে বলেছি,
….
ভাবছি আজকে তোমাকে কত সুন্দর লাগছে লাল সাড়ি গোল্ডেন পাইর গা ভর্তি গহনা অনেক সুন্দর,
.
দেখি,
….
আরে তুমি তোমার সাড়ির আচল দিয়ে আমার মুখ মুছে দিচ্ছি কেন?.
….
নিজে লুকিয়ে লুকিয়ে মুছো আর আমি মুছে দিলে দোষ?
…..
ভাবতে পারিনি মিশু আমার চল্লিশ বছরের ভালোবাসা মাএ কয়দিনের ভালোবাসার কাছে হেরে যাবে,
..
তুমি তো আগে আমার জন্যে সাজতে,
আজকে তুমি রুহানের জন্যে সেজেছ আর ও তোমাকে ভালোবাস বে এটা আমি কি করে মেনে নিবো হুমমম,
….
আচ্ছা বুড়ো আমি রুমে মেয়ের কাছে যাচ্ছি তুমি গেস্টের সামলে নিও প্লিজ,
….
ওকে মেয়ের মা,
…..
এতো ভালোবাসা তোদের মধ্যে?

হ্যা কেন?

তোর বৌয়ের ঠান্ডার সমস্যা তুই জানিস?
রাতে তোর বৌ সাড়ি ছাড়া মানে খুলে বুকে জড়িয়ে ঘুমোয়,
….
তোর কাছে বোধ হয় তোর বৌ ও ভাবে ঘুমোত,
আমার বৌ আমার কাছে কিছু না পরে ঘুমোয়,
….
মানে এই বয়সে তোরা ফিজিক্যালি ইনভলব?

বুড়ো বয়সে মেয়ের বয়সী মেয়ে কে বিয়ে করে শুতে পারো,

আর আমি আমার বিয়ে করা বৌ কে
নিয়ে শুলে দোষ,
…..
শোন ভাই তোর এই ব্যাক ডেটেট চিন্তা ভাবনা তোর কাছে রাখ,

আমি আমার বৌ কে দেখিনি অনেকক্ষণ ওকে দেখে আসি,
চলবে

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here