ভাবিরবোন ৫ম পর্ব

0
697

ভাবিরবোন ৫ম পর্ব

#_জেএইস_জনি
.
.
এবার নিলার দিকে তাকালাম,
ওর চোখে পানি চিক চিক করছে,,
নিলাঃসামান্য একটা কারনে আপনি আমাকে এভাবে এরিয়ে চলছেন,,,
আমিঃকারনটা সামন্য হলেও কথা গুলো সামান্য ছিলো না,,
নিলাঃতার জন্য তো সরি বললাম,,আর কারন ও বলেছি,,
আমিঃতার থেকে বেসি কষ্ট লেগেছে ভাবির বলা কথা গুলো,,, কেনো সেদিন সুধু শুধু ভাবির কাছে বিচার দিলেন,, ইচ্ছা হলে দুটো থাপ্পর দিয়ে দিতেন আমায়,,
.
নিলা এবার কেদে দিয়ে বললো,,বিশ্বাষ করুন আমি আপুর কাছে বিচার দেইনি,,,আমি বিদেশ থেকে পড়া লেখা করতে পারি কিন্তু এত অহংকারি না,,
সেদিনের কথা গুলো আমি রেগে গিয়ে বলেছি, একটা কথাও মন থেকে বলিনি,,,
আমিঃযে ভাবেই বলেছেন, কথা গুলোতো সত্য,,,,
.
হঠাৎ নিলা আমাকে জড়িয়ে দরে বললো,প্লিজ এভাবে বলবেন না খুব কষ্ট হয়,,,খুব ভালোবেসে ফেলেছি আপনাকে প্লিজ,,অনেক ভালোবাসি,,
.
আমিও ওকে জড়িয়ে দরবো ঠিক তখন ভাবির কথা গুলো মনে পড়লো,,
তাই ওকে কাছ থেকে ছারিয়ে নিলাম,,
নিলা আমার দিকে অবাক নয়নে তাকিয়ে আছে,,,
নিলাঃকি হলো,, ভালোবাসবেন না,,
আমি ঃদেখুন,, আপনার যোগ্য কাউকে খুজে নিয়েন,,
আমি চোলে আসবো,,
তখন নিলা আমার হাত চেপে দরে মুখের কাছে মুখ এনে চোখে চোখ রেখে বললো,,
আমি এগুলো শুনতে চাইনি, ভালোবাসেন কি না,,
আমিঃদেখুন,, অনেক রাত হোয়ে গেছে,, কেউ দেখলে সমস্যা হবে,,,
সকালে কথা হবে
এই বলে আমি নিচে চোলে আসলাম,,
,,
সকালে ঘুম থেকে উঠে নাস্তা করার জন্য টেবিলে গেলাম,,
সবাই বসে আছি কিন্তু নিলাকে দেখছি না,,,
তখন ভাবি বললো,,কিরে নিলা কই,,
এই নিলা, নিলা নাস্তা করতে আয়,,
ইরাঃভাবি আমি ডেকে নিয়ে আসছি দারাও,,
ইরা নিলার রুমে গিয়ে নিলাকে ডেকে নিয়ে এলো,,
নিলার চোখ দেখে ভয় করে উঠলো,,,
লাল হোয়ে আছে চোখ জোড়া,,,
নিলা আমার চোখের দিকে তাকিয়ে সামনের চেয়ারে বসলো,,
ভাবিঃ কিরে তোর চোখ এমন লাল কেনো,, রাতে ঘুমাস নি,,,
তোকে নিয়ে আর পারি না,, সারা দিন শুধু বই বই আর বই নিয়ে পরে থাকে,,
এই বলে ভাবি কিচেনের দিকে যাচ্ছিলো,,তখন নিলা গম্বির শুরে বললো,,,
নিলাঃদারাও আপু,,,
ভাবি ঘুরে নিলার দিকে তাকালো,,নিলার এমন গম্বির স্বর শুনে ভাবি নিলাকে জিগাসা করলো,,
ভাবিঃকিরে নিলা তোর কি হলো,,, জ্বরটর আসলো নাকি,,
নিলা ঃআপু সেদিন কি আমি তোমার কাছে ওনার নামে কোনো বিচার দিয়েছিলাম,,,,
ভাবিঃনাতো,,
নিলাঃওনার নামে কোনো কিছু বলেছিলাম,,,
ভাবিঃনাতো,,কেনো
নিলা আমার দিকে তাকিয়ে বললো,,,দেখেছেন আমি সত্যি বলেছিলাম,,
ভাবি আমাদের দুজনের দিকে তাকিয়ে আছে,,
নিলা ঃতহলে সেদিন ওনাকে শুধু শুধু বকে ছিলে কেনো,, তোমার জন্য আজ আমায় ওনি এরিয়ে চলছে,ঠিক মতো কথা বলছে না,,,
ভাবিঃতুইতো সেদিন কান্না করতে করতে ছাদ থেকে নেমেছিলি,আমি জিগাসা করলে ও তুই তো কিছুই বলিস নি, আর ছাদে দেখলাম জনিকে,,
ভাবলাম ও বুঝি তোকে কিছু বলেছে,,,তাইতো ওকে একটু বকা দিলাম,,,
নিলাঃতোমার বকা দেওয়াতে আজ আমার সাথে ওনি ঠিক মতো কথা বলে না,,
.
নিলা নাস্তা না করে,, রুমে রুমে চোলে গেলো,,
ভাবি আমার দিকে তাকিয়ে আছে তাই আমিও চোলে গেলাম,,
.
বাহিরে বের হওয়ার জন্য রেডি হচ্ছি তখন ইরা বললো,,বাহিরে যাচ্ছো বুঝি,,
আমিঃহুম,,
ইরাঃআমি বাসায় একা একা বোর হচ্ছি,,একা একা ভালো লাগে না,,
আমিঃআমার সাথে চল,,
ইরাঃনা,,তোমার সাথে বেসি ঘুরা যায় না,, তোমার বন্ধু কে বলো আসতে,, ওনি আমায় অনেক যায়গায় ঘুরায়,,,অনেক কিছু খাওয়ায়,,
আমিঃহোয়েছে,, আর বলতে হবে না,, পানি তো দেখি অন্য দিকে গড়াচ্ছে,,,
ইরা কিছুটা লজ্জা পেয়ে বললো,,ভাইয়া,,
আমিঃআচ্ছা আচ্ছা আমি রোমান কে বোলে দেবো,,
.
এই বলে আমি বাহিরে বের হোয়ে গেলাম,,,
.
ভাবি নিলার রুমে গিয়ে দেখে নিলা বালিশে মুখ গুজে কাদছে,,
ভাবি নিলার মাথায় হাত রাখলো,,
তখন নিলা চোখ মুছে উঠে বসলো,,
ভাবি ঃকিরে বোন কি হোয়েছে তোর,,
নিলাঃ???
ভাবিঃআমি যা অনুমান করছি, তা কি সত্যি,,,
.
নিলা নিচের দিকে তাকিয়ে আছে,,
ভাবিঃআমার দিকে তাকা ,,,
নিলা ভাবির দিকে তাকালো,,
ভাবিঃতুইকি জনিকে ভালোবেসে ফেলেছিস,,
নিলা আবার নিচের দিকে তাকালো,,
.
ভাবি ঃদেখ বোন আব্বু এটা কখনো মানবে না ,,
নিলাঃকেনো মানবে না,,
ভাবিঃজনি এখনো বেকার,, তাছারা তুই বিদেশ থেকে গ্রেজুয়েশন কম্পিলিট করে এসেছিস,,তুই আরো ভালো ভালো উচু লেবেলের ছেলে পাবি,, ওকে বুলে যা,,,আব্বু মানবে না,,
নিলাঃকখনো না,, আমি উচু লেবেলে ছেলে চাই না,, আমি ওকেই চাই,,, আর আব্বু কে তুমি বললে অবশ্যই মানবে,,,,
ভাবিঃআচ্ছা পরের টা পরে দেখা যাবে,,আচ্ছা তুই ওকে এই কথা বলেছিস,,,
নিলাঃহুম
ভাবিঃতো কি বললো,,
নিলা কিছুটা কাদার স্বরে বললো,,কিছুই না,, সেদিনের ওমন ব্যাবহারের জন্য আমার উপর এখন রেগে আছে,,বাকিটা তোমার বকার জন্য এখন কথাই বলছে না,,
ভাবিঃজনি একরোগা টাইপের ছেলে,, তাই বলছি তুই অন্য কোনো ছেলে দেখ,,
নিলাঃতুমি আমাকে চেনো না,,এই নিলা কি জিনিস সামনে দেখবে,,এখন ওনাকে সরি বলে আসো,,যাও
ভাবিঃআচ্ছা যাচ্ছি,,নাস্তা খেতে আয়,,
নিলাঃএখন ভালো লাগছে না,, পরে খাবো,,, যাও সরি বলে আসো,,,
ভাবি ঃআচ্ছা যাচ্ছি,,,
.
অন্য দিকে রোমান ইরা কে নিয়ে ঘুরে বাসার সামনে নামিয়ে দিলো,,
ইরাঃথ্যাংক,স
রোমানঃআচ্ছা একটা কথা জিগাসা করি,,
ইরা ঃকরেন,,
রোমান ঃআপনি কি কারো সাথে রিলেশন করেন,,
ইরাঃনা,,
রোমানঃসত্যি তো,,
ইরাঃজি,,,
রোমানঃআমার বিশ্বাষ হচ্ছে না,,সত্যি করেন নাতো,,
ইরাঃ না,, না,সত্যি করি না,,
রোমানঃও,,
এবার ইরা একটা মুচকি হাসি দিয়ে বললো,,
ইরাঃকেনো বলুন তো,
রোমান কিছুটা লজ্জা পেয়ে বললো,,কিছুনা, আমি যাচ্ছি,,,,,
.
রোমান কিছুদুর যেতেই ইরা রোমান কে পিছন থেকে ডাক দিল,,
রোমান ইরার ডাক শুনে বাইক জোরে ব্রেক করলো,,আর সাথে সাথে স্লিপ কেটে পরে গেলো,,
হাত কিছুটা ছিলে গেছে
ইরা দৌরে গিয়ে হাত টেনে উঠালো,,
ইরাঃপাগল হলেন নাকি,, এই ভাবে কেউ ব্রেক করে,,, যদি কিছু হোয়ে যেতো,, দেখেন কতটা ছিলে গেছে,রক্ত বের হচ্ছে,,,
রোমান ঃকিছু হবেনা,,
ইরাঃ ওনাকে বলেছে কিছু
হবে না, হাত দেন,,,
ইরা সাইড ব্যাগ থেকে রুমাল বের করে বেদে দিতে লাগলো,,আর বকতে লাগলো,,
ইরাঃউল্লুক কোথাকার,,, বাইকও চালাতে পারে না,,
হোয়েছে,,
রোমান চোলে যেতে লাগলো,,
ইরাঃএই আপনাকে যেতে বলেছি,,
রোমানঃনা,,
ইরাঃতাহলে যান কেনো,,
রোমান ঃআচ্ছা যাবো না,,কি বলবেন বলেন,,
ইরাঃআপনার নাম্বার দিয়ে যান,,
রোমানঃকি করবেন,,
ইরাঃ আপনার মাথা করবো, দেন,,
রোমানঃনেন,, 017894972……
ইরাঃসাবধানে যাবেন।পরে কথা হবে,,
ইরা বাসায় যাওয়া দরলেই
পিছন থেকে রোমান আবার বললো,আপনি সত্যিই রিলেশন করেন নাতো,,
ইরা মুচকি হেসে বললো,পাগল একটা , যানতো,,,
.
,,
রাতে রুমে বোসে আছি,ইরা পাসে বসে বসে ,, সারাদিন কোথায় কোথায় ঘুরলো,,তা বলছে,
তখন ইরা কফি নিয়ে রুমে ঢুকলো,,
আমার দিকে কফির মগটা বারিয়ে দিয়ে বললো,,
নিলাঃ নিন খান,,
আমি নিলার মুখের দিকে তাকিয়ে থাকলাম,,
নিলাঃ কি হলো নিন খান,,
আমি হাতে নিতেই ইরা আমার কাছ থেকে কফির মগটা নিয়ে গেলো,,
ইরাঃআমি খেয়ে টেষ্ট করে নেই,,
নিলা ইরার হাত থেকে কফির মগটা ছো মেরে নিয়ে বললো,,এটা তোমার জন্য না, ওনার জন্য,,নিন,
আমি কফির মগটা হাতে নিয়ে ইরার দিকে তাকি মুচকি হাসি দিলাম,
নিলাঃতোমার জন্য আনছি দারাও,,আপু আপু, একমগ কফি দিয়ে যাওতো,,
ভাবি কফির মগ হাতে নিয়ে রুমে ঢুকলো,
নিলাঃইরাকে দেও কফিটা,
.
ভাবি ইরাকে কফির মগটা দিয়ে আমার পাসে এসে বসলো,,
ভাবিঃভাই আমার, ক্ষমা করে দে আমায়,, সেদিন না বুৃঝে কত কি বলেছি,,
আমিঃকি যে বলো,,মা থাকলে হয়তো এমনই শাষন করতো,,তুমি মায়ের মতো আমাকে বকতেই পারো,,
ভাবিঃআচ্ছা তোরা কথা বল,,আমি কিচেনে গেলাম,,,
.
ভাবি কিচেনে চোলে গেলো,,
.
নিলা বসে বসে আমার কফি খাওয়া দেখছে,,
কফি অর্ধেক শেষ হোতেই নিলা আমার কাছ থেকে কফির মগটা নিয়ে গিয়ে বললো,,আর খেতে হবে না, দেন,,
আমিঃশেষ করি,,
নিলাঃখেতে হবে না, বাকিটা আমি খাবো,,
.
পাগল টাগল হলো কিনা কে জানে,,,
.
এভাবেই একসপ্তাহ কেটে গেলো,,
.
সকাল সকাল ড্রইং রুমে বসে টিবি দেখছি, তখন নিলা সহ ভাবি আসলো,,,
আমি ঃকিছু বলবে ভাবি,,
ভাবিঃএকটু নিলার সাথে এয়ারপোর্ট যাতো,,
আমি ঃকেনো,,
ভাবিঃবিদেশ থেকে আমার ফুফাতো বোন আসবে,,নিলা যাদের বাসায় থেকে স্টাডি করেছে,,
আমিঃতুমি সাথে গেলেইতো পারো,,
ভাবিঃআমার হাতে কাজ আছে,, আমি যেতে পারবো না,,তুই যানা,,আব্বু গাড়ি পাঠিয়েছে,,
আমিঃআচ্ছা যাচ্ছি,,
.
নিলা আর আমি নিচে গেলাম,,
গাড়িটার সামনে গিয়ে দারালাম,,
ভাবলাম একা একা গিয়ে কি বোর হবো নাকি, তাই আমার কাছের ফ্রেন্ড #সাগরকে আসতে বললাম,,
পিছন থেকে নিলা বললো,,আমাদের মাঝে আবার আপনার বন্ধুকে টানছেন কেনো,,
আমিঃএকা একা বোর হবো নাকি,,
নিলা আর কিছুই বললো না,,
.
সাগর আসলে ওকে নিলার সাথে পিছন বসতে বললাম,তখন নিলা বলো,
নিলাঃ না ভাইয়া আপনি সামনে বসেন,,
কি আর করার,, সাগর সামনে বসলো আর আমি নিলার সাথে পিছন বসলাম,,
.
গাড়ি চলছে আপন গতিতে এয়ারপোর্টের দিকে,,

আর আমি চুপচাপ বসে আছি,,
নিলা হঠাৎ আমার হাতের আঙুল গুলো ওর হাতের আঙুল দিয়ে পেচিয়ে দরলো,,
আমিঃএই কি করছেন,,ছারেন,,সাগর দেখবে,,
নিলা আমার চোখের দিকে তাকিয়ে অন্যহাত দিয়েও আমার হাত চেপে দরলো,,
.
আমি হাত ছারাতে না পেরে চুপ করে থাকলাম,,
নিলা আমার এক হাত ওর দুহাতের মাঝে চেপে দরে আছে,,
আমার অবস্থা দেখে নিলা আমার চোখের দিকে তাকিয়ে মুচকি একটা হাসি দিলো,,
সামনে থেকে সাগর আমাদের কাহীনি দেখে হাসছে,,
নিলা আমার হাতটায় হঠাৎ একটা চুমু দিলো,
আমি সিহরিত হোয়ে গেলাম ওর আলতো ছোয়ায়….
.
To Be Continue……..

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here