স্বামীর ভালোবাসা part : 30

0
367

স্বামীর ভালোবাসা part : 30

লেখিকা সুরিয়া মিম

!
তোমার আঙ্কলেরর দাড়ি কত বড়?
!
ইয়া বড়,
!
হা হা হা,
!
মাম্মাম তুমি হেসো না,
তুমি আমার ওই দাড়িয়ালা আঙ্কল কে দেখলে ভয় পাবে,
!
কেন মাম্মাম?
!
আঙ্কল বনজঙ্গলেরর মধ্যে থাকতে থাকতে বনমানুষ হয়ে গেছে,
হা হা হা,
!
ও তাই?
তুমি ভয় পাও না,আমি ভয় পাবো কেন?
!
আসলে আঙ্কল অনেক ফর্সা তার ওপরে এতো বড়বড় দাড়ি তাই ,
হু হু হু,
!
যাহহহহ, দুষ্টু একজন দাড়ি রেখেছে তাকে নিয়ে এতো গবেষণার কি আছে আল্লাহ মালুম?
!
আঙ্কলেরে দাড়ি খুবি সফট,
!
ফাজিল বেশি দুষ্টু করলে মাইর দিবো মাইর,
!
মাম্মা তুমি শুধু মুখেই বলো,
কিন্তু কখনো মাইর দাও না হুম?
!
দিবো কেন?
আমার টুনটুনি দুটো এতো সুন্দর,
…….
এখন আমার কোলে আসো বিকেলে ঘুমু না দিলে তো আবার রাতে পড়ালেখা করতে ইচ্ছে করে না তাই না?
!
হুমমম মাম্মাম,
……
তারপর ছেলের মতো মেয়ে কেও আদর করে ঘুম পারিয়ে দেই,
!
জানিনা আর কতদিন তোমাদের ছবি দেখে কাটিয়ে দিবো?
……..
আর সহ্যশক্তি নেই আমার তুমি জানো?
…….
মাঝেমাঝে মন চায় আমি সুইসাইড করে ফেলি,
…….
কিন্তু চেয়ে ও পারিনা,
……
কারন সুইসাইড করা তো মহাপাপ,
…..
সেই পাপা করার পরে যদি তোমরা আমার কাছে ফিরে আসো তখন?
……
তখন তো এখানে তোমাদের নিয়ে থাকা হবে না,
তোমাদের ভালোবাসা পাওয়াও হবে না,
……
মনের মধ্যে সুক্ষ্ম একটা আশা নিয়ে বেঁচে আছি,,
…. ..
আর সেটা হলো,
একদিন না একদিন তুমি অবশ্যই আমার কাছে ফিরে আসবে,
….
আর সেই দিন টা দেখার জন্যে অবশ্যই আমাকে বেঁচে থাকতে হবে হুম,
…..
আচ্ছা সোনা তোমার স্বাস্থ্য কি আগের মতো আছে?
……
না রসগোল্লা মতো রসে টুসটুস হয়ে গেছো?
…..
কতদিন এই দুচোখ ভরে তোমাকে দেখি না,
খুব দেখতে ইচ্ছে করছে তোমায়,
…….
পাপাই, মাম্মাম এখনো ঘুমিয়ে আছো?
!
রাত আট টা বাজে স্টাডি করতে হবে না সোনারা?
!
মাম্মা আজকে করবোনা স্টাডিজ,
!
কেন সোনারা?
!
আজকে হোম ওয়ার্ক দেয়নি তাই,
!
ফাঁকিবাজ,
!
না মাম্মাম সত্যি হুমমমমমম হুমমম,
!
আচ্ছা সোনা,
!
মাম্মাম কোলে,
!
আচ্ছা মা আসো,
!
মাম্মাম দুদু খাবো,
!
আচ্ছা বাবা আমি এখনি বানিয়ে দিচ্ছি চকলেট মিল্ক ওকে?
!
ইয়াম্মি ইয়াম্মি,
……
তারপর মেয়ে কে কোলে নিয়ে কিচেনে গিয়ে,
ওদের জন্যে চকলেট মিল্ক বানিয়ে দেই,
…..
চকলেট মিল্ক মুখে দিতেই দুটো মিলে চ্যাংড়ামি করে বলে,
!
উফফফ,
ইয়াম্মি মাম্মাম আরেকবার বানিয়ে দিবে প্লিজ?
!
ওদের বাহানা দেখে মুখের দিকে তাকিয়ে দেখি,
…….
মুখ টা বাংলার পাঁচ হয়ে গেছে,
…..
ঠিক যেমন উনি আমার কাছে হেসে খেলে বাহানা করার পর নিজের মুখ টা লুকিয়ে ফেলতেন,
……
তখন ছেলে আমার আচল টেনে ধরে বলে,
…।…
কি হলো মাম্মাম দিবে না?
!
হ্যা বাবাই এখনি বানিয়ে দিচ্ছি,
!
আমার পাখি দুটো দুধ খেয়েই ঘুমিয়ে পরে,
!
পরেরদিন ভোরে পাখি দুটো কে চুমু খেয়ে আদর করে চুমু খেয়ে,
…….
তাজা তাজা শাকসবজি কিনতে বাজারে চলে যাই,
…. …….
শাকসবজি কিনে উল্টো দিকে ফিরতেই,
আমি হঠাৎ স্লিপ করে পরে যেতে শুরু করি,
…..
আর তখনি কেউ আমাকে পেছন থেকে জড়িয়ে ধরে বলে,
!
আর ইউ ওকে?
…….
একে তো সেই চিরো চেনা স্পর্শ তার ওপরে পাগল করা গন্ধ,
!
আল্লাহ উনি এখানে কি করছেন?
!
আপনি ঠিক আছেন?
!
হুমমম,
!
কোথাও লাগেনি তো আপনার?
!
হুমমমমম,
!
চলুন আমি আপনাকে ডক্টরের কাছে নিয়ে যাই,
!
না সাহেব তার আর দরকার হবে না,
আমি ম্যাম কে নিয়ে যাচ্ছি,
!
ওকে,
!
মিশকা গিয়ে ওর গাড়ি তে বসতেই,
ইমান হঠাৎ করে ওকে লুকিং গ্লাসে দেখে ফেলে,
…….
তাই সাথে সাথে চিৎকার করে বলে,
মিশ মিশ স্টপ দ্যা কার,
!
রহিম ভাই তুমি তাড়াতাড়ি গাড়ি চালাও,
!
কি হয়েছে স্যরর,
!
ড্রাইভার তুমি তাড়াতাড়ি ড্রাইভ করো,
ওই সাদা গাড়ি টা তোমার ম্যাডামের,
…..
সাথে সাথে ইমানের গাড়ি মিশকার গাড়ি কে ফলো করতে শুরু করে,
!
রহিম ভাইয়া প্লিজ তুমি তাড়াতাড়ি গাড়ি চালাও,
!
রুহুল তুই কি তাড়াতাড়ি ড্রাইভ পারো না?
…..
দেখ তোর ম্যাম যদি আবারো হাড়িয়ে যায়,
তাহলে আমি শেষ হয়ে যাবো,
….
হাড়িয়ে গেলে সমস্যা কি?
স্যরর?
…..
ওহহহহ এটা তো আমি ভাবিনি,
……….
এটা তো নিশ্চিত যে তোমাদের ম্যাম এই শহরে আছে?
……
তাই তো বলছি স্যর,
….
তবু ও ফলো করো,
!
জ্বি স্যরর,
!
তুমি আমাকে ঠিকি চিনেছ সোনা,
………
আমি ধ্যারধ্যারে গোবিন্দ নাম্বার ওয়ান,
……
তাই তো তোমার গায়ের গন্ধে পাগল হয়ে ও মনের ভুল ভেবে ইগনোর করে যাচ্ছিলাম,
…..
ইসসসস,
আমি কতো বোকা,
আমি কি তোমাকে কখনওই আমার করো পাবো না?
!
ধুররর,
কি হয়েছে রুহুল?
!
একটুর জন্যে ম্যামের গাড়ি টা ফসকে গেল স্যররর,
!
কি?
কি করে?
……
স্যরর ভালো করে তাকিয়ে দেখেন,
সামনে কত গুলো সাদা গাড়ি,

এর মধ্যে ম্যামের গাড়ি কোনটা?
সেটাই তো আইডেন্টিফাই করা মুশকিল,
….
ওকে তাহলে বাসায় ফিরে চলো,
!
জ্বি স্যর,
!
মাম্মাম তুমি কাঁদছ কেন?
!
কোই কিছুনা তো এমনি বাবাই,
!
তুমি কাঁদবে না তাহলে আমাদের কষ্ট হবে মাম্মাম,
!
আচ্ছা আমি কাঁদবো না,
……
তবে উনি এখানে কেন এসেছেন?
..
উনি কি আমার বাচ্চা দুটো কে কেরে নিতে এসেছেন?
কি চাইছেন টাকি উনি?
!
আমি শুধু তোমাকে চাই,
.।. । .
আর তুমি যখন এখানে আছো, আমি তোমাকে আর পালিয়ে পালিয়ে বাঁচতে দিবো না,
….
খুব ছোটো একটা শহর,
আমি তোমাকে তাড়াতাড়ি খুজে বেড় করবো,
. .
তুমি আর আমার থেকে দূরেদূরে থাকতে পারবেনা কিছু তেই না,
!
স্যর আপনি ডেকেছেন?
!
হ্যা,
শোনো তোমার চেনাজানা যত লোক আছে সবাই কে আমার সাথে দেখা করতে বলবে,
!
জ্বি স্যরর,
!
আর হ্যা আমার পুলিশ সুপার বন্ধু আসছে,
তাই ভালোমন্দ রান্নাকরার ব্যবস্থা করো,
!
ওকে স্যর,
!
মিশকা তোকে এতো চিন্তিত দেখাচ্ছে কেন?
!
নাথিং

চলবে

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here