স্বামীর ভালোবাসা part : 24

0
477

স্বামীর ভালোবাসা part : 24

লেখিকা সুরিয়া মিম

!
আর সবাই সাথে সাথে,
ওর পরে যাওয়া দেখে মুচকি মুচকি হেসে দেয়,
!
তারপর সবাই আরিয়ান কে ধরাধরি করে হসপিটালে নিয়ে যায়,
……
তখন ডক্টর আরিয়ানেরর চেকআপ করে বলেন,
……
পেশেন্ট ওপর থেকে নিচে পরে গিয়ে তার কপালে গুরুতর আঘাত প্রাপ্ত হয়েছেন,
….
বাট নাও হি ইজ অ্যাবসোলুটলি ফাইন,
……..
তবে তাকে প্রপার বেড রেস্টে রাখতে হবে,
…..
দু-মাস বেড রেস্টে থাকলেই সুস্থ হয়ে যাবেন,
!
ওকে ডক্টর,
!
তারপর ইমান আরিয়ান কে ওর বাসায় দিয়ে অফিসে চলে যায়,
…….
অফিস করে রাতে বাসায় ফিরে ফ্রেশ হয়ে কিচেনের দরজায় পা রাখতেই,

ইলিশ পোলাও এর গন্ধে পাগল হয়ে যায় ইমান,
…….
তাই আস্তে আস্তে মিশকার কাছে এগিয়ে যায়,
!
হঠাৎ মিশকার ঘাড়ে কারো গভীর নিঃশ্বাস এসে পরে,
….
নিঃশ্বাসের গভীরতা অনুমান করতে পরে পেছনে ফিরে বলে,
!
কি সমস্যা কি?
কি চান কি আপনি হুমম?
!
না মানে রান্না হবে কখন?
!
যখন হবে তখন দেখতেই পাবেন,
এখন আপনি আসতে পারেন,
!
ইয়া মানে বাবুরা কোথায়?
!
আমার বাবুরা ঘুমচ্ছে,
তাই ওদের বিরক্ত করবেননা কেমন?
!
জ্বি আচ্ছা,
ওকে ঠিক আছে,
!
ময়না,
!
জ্বি বৌ রানী?
!
রান্নাকরা হয়ে গেছে, ওনা কে খেতে দাও,
!
জ্বি বৌ রানী দিচ্ছি,
সাহেব আসেন,
!
হ্যা আসছি,
তোমরা যাও,
!
ইয়ে মানে বলছিলাম কি?
চলো না আমার সাথে বসে খাবে প্লিজ,
!
নো থ্যাংকস,
বাট আপনার সাথে বসে খাওয়া বা গল্পকরার কোনো টারি ইচ্ছে নেই আমার,
!
কেন?
!
সে ইচ্ছে অনেক আগেই ফুরিয়ে গেছে মিস্টার খান,
!
মিশকার কথা শুনে ইমানের চোখ দুটো লালচে বর্ণ ধারন করে,
!
কিন্তু মিশকা সেদিকে লক্ষ না করে ওর রুমে চলে যায়,
!
আর ইমান চুপটি করে খেতে বসে যায়,
!
খাওয়াদাওয়া শেষে ময়না পাখি কে বলে,
!
তোমাদের বৌ রানী খেয়েছে?
!
জ্বি সাহেব,
!
আচ্ছা আরিয়ান হঠাৎ করে পরলো কি করে?
!
তখন ওরা হাসতে হাতে বলে,
……
বৌ রানী না সিরি তে অল্প করে তেল ফেলে রাখতে বলেছিল,
……
আর তাতেই বজ্জাত টা আছাড় খেয়ে পরেছে,
হা হা হা,
!
ওদের কথা শুনে ইমান হাসতে হাসতে ওর রুমে চলে যায়,
আর ভাবে,
!
আগে তুমি আমাকে নিজের বাহুডোরে আবদ্ধ করে রাখতে,
………
সেই তুমি আমাকে এখন এক মুহূর্ত নিজের আশে পাশে সহ্য করতে পারেনা,
……
আমাকে দেখলেই তোমার চোখ দুটো ঘৃণায় জলজল করে ওঠে,
!
তুমি আমাকে ঘৃণা করো এখানে তোমার কোনো দোষ নেই,
……..
আমি তোমাকে আমাকে ঘৃণা করার রাস্তা করে দিয়েছি,
!
কিন্তু,
আমাদের বাচ্চা দুটো ও কি আমাকে এভাবে ঘৃণা করবে?
…….
না এটা হবে না,
ওরা এতো টা নির্দয় হবে না,
!
তারপর ইমান হাটতে হাটতে মিশকার রুমে চলে যায়,
……..
বেখেয়ালে রুমে ঢুকে পরতেই মিশকা ওকে ঝাড়ি মেরে বলে,
!
এই যে আপনার সমস্যা কি?
দেখছেন না ওদের খাওয়াচ্ছি?
কতো বার একটা কথা বলতে হবে
!
………যে যখন তখন এখানে চলে আসবেন না,
……..
!
না মানে আসলে ওদের দেখতে এসেছিলাম,
!
দেখা হয়ে গেছে?
এখন প্লিজ আসুন,
!
বলছি কি?
আচল টা ঠিক করে নাও দেখা যাচ্ছে,
!
তাতো যাবেই,
তাই তো আপনি এখানে এসেছেন,
বেবিরা তো বাহানা মাএ,
!
না বিশ্বাস করো আমি সত্যি?
!
কি সত্যি?
কি মিথ্যে আই রেলি ডোন্ট কেয়ার,
!
তাই আপনি এখন আসতে পারেন,
!
আর বিশ্বাস করা তাও আবার আপনাকে?
!
আপনাকে বিশ্বাস করা আর শোয়ালের কথায় নাচানাচি করা একি বিষয় মিস্টার খান,
!
তাছাড়া আপনার মতো ঠকবাজ কে বিশ্বাস করে একবার ঠকেছি,
…. …….
তাই বারবার ঠকার কোনো ইচ্ছে নেই আমার,
……
প্লিজ এখান থেকে চলে গিয়ে আমাকে বাধিত করুণ মিস্টার খান,
!
কিন্তু কে শোনে কার কথা?
……
শয়তান টা নিচে মাদুর বিছিয়ে শুয়ে পরে,
!
ব্যাটার গায়ে বোধ হয় গন্ডারের চামড়া,
কোনো কথাই তো গায়ে লাগেনা তার
!
আমি ওনাকে সহ্যকরতে পারিনা এটা বোধয় ওনার মাথায় ঢোকে না,
!
আজকে শুয়েছ তো কি হয়েছে?
!
কালকে তোমার কপালে শনি নাচে মিস্টার খান,
!
অসহ্য একটা,
মুখ দেখলেই মেজাজ টা বিগড়ে যায় আমার,
!
বিশ্রী, বাজে একটা যেন কোথাকার,
……..
ফ্লোরে শুয়ে নিজেকে মহান প্রামাণের চেষ্টা চলছে?
…..
চালিয়ে যাও চালিয়ে যাও যত পারো চালিয়ে যাও,
……
আমি আর তোমার ফাদেঁ পর ছিনা মিস্টার খান,
!
অনেক খেল খেলিয়েছ,
আর না স্বামী নামের জন্তু বলে আপনার কোনো অধিকার নেই আমার সুখস্বচ্ছন্দ কেরে নেওয়ার ,
!
কারন তোমাকে আমি ঘৃণা বই আর কিছু করিনা,
চলবে

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here