স্বামীর ভালোবাসা part : 21

0
491

স্বামীর ভালোবাসা part : 21

লেখিকা সুরিয়া মিম

!
আরিয়ানের কথা শুনে আমার ভাইয়েরা ওকে ঘাড় ধরে আমাদের বাসা থেকে বেড় করে দেয়,
!
রাতে যখন আমি বাবুদের ঘুম পরাচ্ছিলাম,
তখন মিয়াদ ভাইয়া এসে বলে,
!
রুহান কোই?
আপুনি ওকে তো অনেকদিন ধরে দেখি না,
!
একচুয়ালি ভাইয়া তোরা যেদিন রাতের ফ্লাইটে লন্ডন থেকে বাংলাদেশে ফিরছিলি,
ওইদিন রাতের ফ্লাইটে রুহান ও লন্ডন গেছে বিজনেস কনফারেন্সেরর জন্যে,
!
ছেলেটার এলেম আছে বল?
লেখাপড়া ব্যবসা বাণিজ্য সব একহাতে সামলায়,
!
হুম তাতো আছেই,
দেখতে হবে না ছোটো বেলার বেষ্ট ফ্রেন্ডটা কার,
!
আচ্ছা তোর মনে হয় না একটু ডিফ্রেন্ট অন্যসব ছেলেদের থেকে?
!
হ্যা তো?
!
জাস্ট বলছি আরকি?
!
দেখো ভাইয়া তোমাদের জাস্ট ওই জাস্ট পর্যন্ত রাখো নয় তো আমি খারাপ কিছু করে ফেলবো,
!
ধুররররর,
পাগলি রুহান অনেক কেয়ারিং,
তাই বলছিলাম আর কি?
!
এই ভাইয়া এই কি হয়েছে কি তোর হুমম?
!
এসে থেকে শুধু রুহান রুহান করছিস,
বাকি সবার মতো কি তোর মাথা টাও খেয়ে ফেলেছে ও?
!
না মানে,
!
দেখো ভাইয়া হি ইজ মাই বেস্ট ফ্রেন্ড এর থেকে বেশি কিছুনা গট ইট?
তাই তোমরা হাতি ঘোড়া ভেবো না কেমন?
!
নারে বাবা ভাবছি না,
জাস্ট বলছি আরকি,
!
জাস্ট বলা হয়ে গেছে এখন তুমি আসতে পারো,
বিকজ আমি এখন ঘুমবো মিয়াদ ভাইয়া,
!
আচ্ছা বাবা যাচ্ছি,
!
হ্যা যা ভাগ এখান থেকে,
জবে থেকে আসছে রুহান রুহান করে মাথা খেয়ে ফেলছে শয়তানি যেন কোথাকার?
!
তারপর আমি আমার পরাণের পরাণ দুটো কে বুকে জড়িয়ে ধরে ঘুমিয়ে পরি,
!
পরেরদিন সকালে ইউনিভারসিটি যেতেই,
শয়তান রুহান টা আমার চুল টেনে ধরে বলে,
!
আমি তোকে কত মিছ করেছি লন্ডনে তুই সেটা জানিস?
!
ওমা তাই?
!
জ্বি,
!
আমি তো ভেবেছি দশবারো টা গালফ্রেন্ড নিয়ে চিললল করেছিস?
!
ডু ইউ থিংক আমি মেয়েদের সাথে টাইম পাছ করার মতো ছেলে?
!
নাহহহহ মনে করি না,
করতে ও চাই না?
!
এএএএএ, তুই এমন কেন?
!
জানিনা,
!
তা জানবি কি করে?
ছোটো বেলা থেকে আমাকে দেখছিস তবু ও আমাকে অন্য ছেলেদের মধ্যে গুলিয়ে ফেলছিস,
!
ও.এম.জি তাই নাকি গুডবয়?
আই এম সরি ফর দিছ গুডবয়,
!
তুই আবারো এমন করছিস?
!
শোন রুহান ওকে বলে লাভ নেই,
মেজাজ টা ভালো নেই ওর,
!
কেন?
!
আরে আরিয়ানের জন্যেরে ভাই তোকে বললাম না,
লুচ্চা টা বাড়ি বয়ে গিয়ে মিশকাকে তুলে আনার হুমকি দিয়ে এসেছে?
!
কুওার লেজ জীবনে সোজা হয় নারে ভাই ওটা ও সোজা হবে না,
!
আর মিশকাকে তো হুমকি দিয়ে আসারি কথা,
আফটার অল আমার মিশকা এতো মায়াবী বলে কথা,
আর তাই তো ইমান এখনো মিশকার কথা ছাড়তে পারেনি,
!
ওওওও হ্যালো,
ইউ জাস্ট শাট আপ আমি এখানে ওদের কথা শুনতে আসিনি ওকে?
!
আচ্ছা বাবা ঠিক আছে,
বাবুরা কেমন আছে?
!
আলহামদুলিল্লাহ্‌ ভালো আছে,
!
ঠিক মতো খাওয়াদাওয়া করে?
!
কেন রে আমার দুটো কি হাতিঘোড়া খায়?
তুই জানোস না কি খায় ওরা?
!
তুই এতো রেগে যাচ্ছিস কেন?
!
রাগ হচ্ছে তাই,
!
এতো রাগ কেন হচ্ছে তোর?
!
তোকে অনেকদিন পেটাই না তাই,
!
কি?
!
কি হ্যা,
তারপর আমি রুহান কে ধরে উওম-মাধ্যম দিতে শুরু করি,
!
পরে ও আমার পেছনে দৌড়ানি দিতে শুরু করে,
!
রুহানের দৌড়ানি থেকে বাচঁতে আমি ইউনিভারসিটির বাহিরে চলে যাই,
!
তখনি কতো গুলো লোক আমাকে জোড় করে তুলে নিয়ে গাড়িতে বসিয়ে ক্লোরোফোম শুকিয়ে বেহুশ করে দেয়,
!
হুশ ফিরতেই চোখ খুলো ভালো করে চেয়ে দেখি যে,
আমাকে বিয়ের সাজ পোশাক পরিয়ে একটা বেডে শুইয়ে রাখা হয়েছে,
!
তখনি ভালো করে সামনে তাকিয়ে দেখি,
!
আরিয়ান শেরওয়ানি ও মাথায় পাগড়ি পরে আমার সামনে বড়বেশে দাঁড়িয়ে আছে,
!
এসবের মানে কি?
!
ভালোকথায় মিষ্টি কথায় তুমি তো আমাকে বিয়ে করবেনা ভালোবাস বেনা,
তাই জোড় জোড় করেই নিতে হবে সব,
!
আর আমি যখন তোমাকে ভালোবেসেছি,
তোমার সাথে সংসার করার স্বপ্ন দেখেছি আমি তোমার সাথে সংসার করবো,
তুমি আমার সন্তানের মা হবে,
আমার সন্তানেরা তোমাকে মা বলে ডাকবে,
!
অসভ্য জংলি কুওা আমি তোকে ভয় পাই না,
!
তুমি ভয় পাবে সোনা,
কারন তোমার পরাণের পরাণ দুটো আমার কাছে বন্ধি,
!
মানে মানে টাকি,
!
মানে তোমাকে বোঝাচ্ছি বিউটিফুল,
!
তারপর ও ওর আই প্যাড টা বেডের ওপরে ছুড়ে মারে,
!
সাথে সাথে আমি আই প্যাড অন করে দেখি,
!
আমার পরাণ দুটো কে আরিয়ানের লোকেরা দোলনায় শুইয়ে রেখে পাহারা দিচ্ছে,
!
হোয়াট ইজ দিছ আরিয়ান?
!
মাই ট্রাম কার্ড বেবি,
ভালোবাসা চেয়েছি ভালোবেসে তো দিবে না তাই,
!
কেন?
কেন?
এমন করছ?
কি ক্ষতি করেছি আমি তোমার?
!
তুমি আমার কোনো ক্ষতি করনি,
আমি তোমাকে ভালোবেসেছি,
আজ ও বাসি সারাজীবন বাসবো তোমাকে তোমার সন্তান কে,
!
অনেক বার চেষ্টা করেছি সোজা আঙুলে ঘি ওঠাতে,
কিন্তু সোজায় যখন কাজ হলো না,
তাই আঙুল টা একটু বাকিয়ে নিয়েছি জান,
!
দেখো আমি তোমার দুধের শিশুদের কোনো ক্ষতি করতে চাই না,
আমি ওদের ভালোবাসি ওদের বাবা হতে চাই,
!
তুমি আমাকে ওদের বাবা হওয়ার সুযোগ করে দাও,
কি হলো দিবে?
কি হলো কাঁদছ কেন হুমমম,
!
আমমি রাজি,
আমার বাচ্চাদের কিছু হবে না তো?
!
না সোনাপাখি,
!
মারুফ?
!
জ্বি স্যরর,
!
যাও কাজি কে ডেকে আনো,
!
বাচ্চা দুটো কে কি করবো স্যরর?
!
কি করবো মানে?
ওরা আমার সন্তান আমি ও তোমাদের ম্যাম আসা না পর্যন্ত ওদের ভালো করে যত্ন নিবে তোমরা,
!
জ্বি স্যরর,,
!
তারপর হঠাৎ আরিয়ান ও মারুফ মাথা ঘুড়ে পরে যায়,
আর আমি ও সেন্সলেস হয়ে যাই,
!
সেন্স ফিরতেই পাশ ফিরে দেখি,
!
আমার বাচ্চা দুটো আমার কোলের মধ্যে ঘুমিয়ে আছে,
মিস্টার খান আমার পায়ের কাছে বসে আছে,
!
ওহহহ,
বাই ওয়ান গেট ওয়ান ফ্রি?
এক আপদ ছেড়ে আসতে বা আসতে আরেক আপদ রেডি,
!
আপনার দুজনে মিলে আমাকে নিয়ে খেলছেন তাই না?
!
আব্বুর ফোন এসেছিল,
তারপরে বুঝেছি আরিয়ান তোমাকে ও হসপিটাল থেকে বাবুদের তুলে নিয়ে গেছে ,
!
ওওও হ্যালো?
আমার সাথে মোটে ও চালাকি নস কেমন?
!
তোমার সাথে চালাকি করে লাভ কি বলো?
চালাকি করলেই কি তুমি আমাকে ক্ষমা করে দিবে?
আমি জানি আমার কোনো প্রয়োজন তোমার নেই,
!
তবু ও এখানে তোমাকে নিয়ে এসেছি,
কারন আরিয়ান হিংস্র কুকুরের মতো তোমাকে সাড়া শহরে খুজে বেড়াচ্ছে,
!
তো তাতে আমার কি?
আমাকে আমার বাসায় দিয়ে আসুন,
!
আসবো না কারন তুমি বেবিদের নিয়ে কোথাও নিরাপদ নও,
!
হে ইউ আপনার এতো আমাকে ও আমাদের নিয়ে ভাবতে হবে না কেমন?
!
হাত সরান হাত সরান বলছি ,
!
আপনার ওই নোংরা হাত দিয়ে আমার বেবিদের ছোঁবেন না আন্ডারস্ট্যান্ড অর ইউওর বেটার আন্ডারস্ট্যান্ড,
!
!
!
চলবে

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here