দুষ্টু বউ “পর্ব– ৪র্থ

0
222

দুষ্টু বউ “পর্ব– ৪র্থ
jealous boy

!

!

.
–চলে গেছে মানে? (আমি)
.
–হ স্কুলে চলে গেছে। কি নাকি কাজ
আছে।(আম্মু)
.
–আচ্ছা। আমি তাহলে যাই। রিক্সা করে
স্কুল যাচ্ছি, আজ মনে হচ্ছে রিক্সা
চলছে না। রাস্তাও বুঝি আর
ফুরোচ্ছে না। কি কাজ থাকতে পারে
ওর?
না তেমন কোন কাজওতো নেই,,
আর প্রাইভেট স্যারের তো আজ পড়া
নাই।।
তবে কি কারো সাথে দেখা করতে
আসছে,, মেজাজটা বেশ খারাপ
হচ্ছে।।
রিকসা থেকে নেমে ভাড়া দিচ্ছি-
.
–মামা এই নাও
.
–কত দিলেন মামা?
.
–কেন ১৫ টাকা
.
–মামা ২০ টাকা তো।।
.
–১৫ টাকা দিছি ওটাই রাখো
.
–মামা আপনে ২০ টাকাইতো
দিতে চাইছেন।।
–দুর রাখো।।
কখনো রিকসা ওয়ালা মামাদের সাথে, উচু
গলায় কথা বলি না, কিন্তু কেন জানি আজ
বকা দিলাম। পরে আবার গিয়ে ৫ টাকা
দিয়ে আসলাম।
ক্লাসে ঢুকে যে সিন দেখলাম তা
দেখে মাথা গরম হয়ে গেলো।
আমার বউ অন্য ছেলের সাথে হাসি
তামাসা করছে। কেমন কাছে গিয়ে
কথা বলছে।
ওদের মাঝে কি তবে কিছু আছে?
ওরা কি তবে একে অপরকে,,,,,
.
না না কি সব ভাবছি আমি, আর ও চলে
গেলে তো আমার খুশি হওয়ার কথা।
আমার এমন লাগছে কেন। কেমন
যেন মনে হচ্ছে, যেমনটা প্রিয়
কোন জিনিস হারালে লাগে।
। ভাবতে
ভাবতে গিয়ে সান্তাকে ডাকলাম-
.
–সান্তা, শোন
আমার দিকে তাকিয়ে মুখ ঘুড়িয়ে
নিলো,, মনে হলো আমি যেন বিরক্ত
করছি ওকে।।
–সান্তা,, এইদিকে শোন
.
–কি হইছে? (একটু রেগেই বল্লো)
.
–এদিকে একটু শোন
.
–যা বলার এখানেই বল।।
.
–না কিছুনা।।
.
বলেই চলে আসলাম।। আমি কি কম নাকি,
গিয়ে টিনার সাথে আমিও হাসি তামাশা শুরু
করে দিলাম। বেশ কিছুক্ষণ ধরে
হাসি তামাসা করছি কিন্তু ও কোন রকম
রিসপন্স করলো না।। আজ ওর মাঝে
আর রাগ দেখতে পেলাম না। আজ আর
চোখ গরম করলো না, বেশ স্বাভাবিক
ভাবেই বসে আছে।। তবে কি সত্যি ও
ঐ ছেলেটার সাথে কোন
রিলেশনে জড়িয়েছে?
.
কেন জানি আজ আর ক্লাসে মন
বসছে না, যে মেয়ে দিনে অনেক
বার তাকাতো সে আজ ভুলেও একবার
তাকায়নি।।
.
স্কুল ছুটির পর বাসায় যাবো, কিন্তু রিকসা
পেলাম না।। তাই দুজন হেটেই যাচ্ছি
আর মাঝে মাঝে কথা বলছি–
.
–ঐ ছেলেটা কে রে?
.
–কেও না
.
–ও,, পছন্দ করিস?
.
–তাতে তোর কি?
.
–না এমনি,, তোদের ভাল মানাবে
.
–জানি,, ও কাল ওর আম্মুকে আমার কথা
বলবে।।
.
–এত ফাষ্ট তোরা?
.
–হুম
.
–আমার উপর রেগে আছিস?
.
–কেন? রাগ করবো কেন?
.
–না, এমনি মনে হলো,, আজ যে বিছানা
ভিজালি না, দুষ্টমিও করলি না।
.
–কে বলছে করি নি,, আজ ওরে (ঐ
ছেলে) কিল দিছি পিঠে।
.
–ও,, আচ্ছা তারাতারি হাট
.
কেন জানি খুব খারাপ লাগছে, আজ ও
অন্য কারো সাথে দুষ্টুমি করছে।
কিছু ভালো লাগছে না।বলতে ইচ্ছে
করছে, সান্তা তুই আমার সাথে দুষ্টমি
করবি, আর কারো সাথে না। কিন্তু সে
সুযোগটা হয়তো আর নেই।
.
বাসায় গিয়ে দেখি খেয়ে দেয়ে
সান্তা ব্যাগে কাপড় গুছাচ্ছে।।
.
–কিরে কই যাস? (আমি)
.
–কাল বাড়ি যামু
.
–কেন?
.
–তোগো বাড়ি থাইকা তোরে
দিস্টার্ব কইরা লাভ নাই। কাল আম্মু আব্বু
আসবো।
.
–তুই কোথাও যেতে পারবি না।
.
–আমাকে যেতেই হবে।
.
কেন জানি জোর করতে পারলাম না,
কারন এ বাসা থেকে যাওয়ার কারনটা যে
আমি। খুব কষ্ট হচ্ছে। বুকের
ভেতরটা কেমন যেন করছে,,
কাঁদতে পারছি না। আম্মুর কোলে মাথা
রেখে কাঁদতেছি আর আম্মু বলছে
.
–কিরে কি হইছে?
.
–আম্মু অনেক পেট ব্যাথা করছে।
(সত্য কথাটা বলতে পারলাম না যে সান্তার
জন্য খারাপ লাগছে) .
–পানি দিয়ে ঔষধটা খা।।
.
–না খাবো না, এমনিতেই চলে যাবে।।
.
রাতে আর খেলাম না, শুয়ে পড়লাম।।
সান্তা আমার পাশে আর একটা কম্বল
নিয়ে শুয়ে আছে।। কেউ কিছু বলছি
না। অনেক ক্ষণ পর আমিই কথা শুরু
করলাম।।
.
–সান্তা,,,,,,,,,, ওই সান্তা,,,, ঘুমাইছিস?
.”
–কি হইছে বল।।
.
–কালকি সত্যি তুই চলে যাবি?
.”
— হ,, থাইকা কি করুম বল।।
.
–হ তাইতো,,
……(চলবে)

হিংসুটে ছেলে

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here