বিয়ের রাত  দ্বিতীয় পর্ব

0
500

বিয়ের রাত  দ্বিতীয় পর্ব



আমার পাইজামাটা গত ঈদের নামাজ পরতে গিয়ে ছিড়ে গেছে।আর আমার কোন পেন্ট তোমার সাইজের হবে না।

–তাহলে,,,

–একটা আইডিয়া আছে,,,

–কি আইডিয়া বল শুনি,,,

–পাঞ্জাবির সাথে লুঙ্গি পরতে পারবা ??

–কি বললা তুমি ??

–না মানে,বলছিলাম যে লুঙ্গি তো ভাল জিনিস আর একটা রাতেরেই তো ব্যাপার।একটু কষ্ট করে কোন ভাবে রাতটা পার করে দেও।

–তাই বলে আমি মেয়ে হয়ে বাসর রাতে ছেলেদের লুঙ্গি পরবো ?? আর এই কথা যদি কেউ শুনে তারপর কি হবে ভেবে দেখছ ?? না এটা কোন ভাবেই সম্ভব না,,,

–তাহলে কি আর করা যেটা পরে আছো ওটা পড়েই ঘুমাও।

–এই শাড়ি পরে আমার কিছুতেই ঘুম আসবে না রাতে।প্লিজ কিছু একটা কর,,,

–এছাড়া আমার কিছু করার নাই।ভেবে দেখো তুমি কি করবা।আমার খুব ঘুম পাইছে আমি এখন ঘুমাবো,,,

–এই না,তুমি ঘুমাবা না।

–তাহলে কি করব,,,

–ওকে তোমার পাঞ্জাবী টাই দেও তাহলে,,,
কিন্তু আমি ঘুমালে তো কাপড় ঠিকঠাক থাকে না।তাহলে লুঙ্গি পরে কিভাবে ঘুমাব,,,

–দারাও তোমাকে লুঙ্গির সাথে আর একটা জিনিস দিচ্ছি,,,

এটা হচ্ছে আমার শট পেন্ট লুঙ্গির নিচে পরবা তাহলে সেফ থাকবা।

একেবারে ইনটেক জিনিস,কিনার পরে পরা হয়নাই।

মিলি আমার হাত থেকে কাপড় গুলি নিয়ে আমার দিকে তাকিয়ে আছে।আমি বুঝতে পারছি মিলি হয়তো আমার সামনে কাপড় চেন্জ করতে চাচ্ছে না।

অচেনা একজনের সামনে কাপড় চেঞ্জ করা
খুব সমস্যারই। যদিও আমি ওর হ্যাজবেন্ড তবুও,, পুরনো হলে হয়ত কোন সমস্যা ছিলনা। নতুন বলেই হয়ত এত সমস্যা।

আজ নিয়ে মাত্র তিনবার আমার সাথে ওর কথা বা দেখা হয়েছে।এখনো প্রেম ভালবাসা কিছু হয়নি। তবে শীঘ্রই হবে,, আজ রাতেই হবে হয়তো,,
.
আমি ওর অস্বস্তি বুঝতে পেরে বললাম,,,,

–আচ্ছা,,তুমি চেঞ্জ করো,,আমি বারান্দায় গিয়ে দাঁড়াচ্ছি,,

–আচ্ছা,,

বারান্দায় গিয়ে দাঁড়ানোর পাঁচ মিনিট পরেই মিলি এসে বলল,,,,

–আমার হয়ে গেছে ভেতরে আসো,,,,

ও আমাকে তুমি করে বলাতে কেমন যানি একটা অন্যরকম অনুভূতি হল।আগেও তুমি করে বলেছে কিন্তু এমন লাগেনি,,,,

আমি ঘরে ঢুকে দেখি মিলি পাঞ্জাবী পড়ে দাঁড়িয়ে আছে।একটু ঢোলাঢালা হয়েছে অবশ্য,,, দেখতে কিন্তু মন্দ লাগছিল না।

আমি কিছুক্ষন ওভাবেই তাকিয়ে রইলাম।

মিলি লজ্জা পেয়ে বলল,,,,

–এভাবে তাকিয়ে থাকা কিন্তু ঠিক না,,,

–কেন ?

–কারণ আমি অনুমতি দিচ্ছিনা,

–অনুমতি দাও হে প্রিয়তমা,,,

–আজ কোন কিছুর অনুমতি পাবে না।

–কেন ?

–ঘুমাব,,,খুব ক্লান্ত লাগছে,,,

–আচ্ছা,চলো শুয়ে পরি।

–হম,,

–আর এই নাও কাথা,এটা গায়ে দিয়ে শুয়ে পড়।

–ওকে,,,

খাটের মাঝখানে এমন দেওয়াল উঠাচ্ছ কেন ?

–তুমি যাতে এইদিকে না আসতে পারো,,,

–কি আজব ব্যাপার,আমি আমার বউয়ের কাছে যাব না,,,

–হম যাবা,,,কিন্তু আজকে না।

কি আর করা এক বুক হতাশা নিয়ে শুয়ে পড়লাম।আজ সারাদিন আমার উপর দিয়ে অনেক ধকল গেছে।এখন ভাল একটা ঘুম দিতে হবে।

সকাল বেলা,,,,

–রাফি,,,রাফি,,,এই রাফি,,,,,,,

–হম বল,,,

–কাল রাতে যে লুঙ্গি পরে শুইছিলাম এটা তো খুঁজে পাচ্ছি না,,,

–কি বল,,,আমি তো রাতে দেওয়াল টপকে তোমার কাছে যাইনি,,,

তাহলে,,,, ??

চলবে…..

লেখা:- Tuhin Ahamed

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here