sanam teri kasam part 4

0
424

@@ sanam teri kasam @@
.
পর্ব : (৪)
.
লেখক : Abdullah Al Ador mamun (কাল্পনিক লেখক)
.

— গুড। এবার সামনে থেকে যা।(আমি)
.
–আর কিছুদিন পর দেখবো তুই কিভাবে আমাকে দূর দূর কুত্তার মতো তাড়াস।(নূরী)
.
–ওরে জানোয়ার ওটা কুত্তী হবে। (আমি)
.
–ওই হলো একটা আর কি।(নূরী)
.
ওরে বাপরে বাপ বকা শুরু হলে বন্ধ হওয়ার নাম নেই।ওর দোষ কি দিবো আমি নিজেও তো তেমনি আমারে কোন ভূতে বলে ওর সাথে বক বক করতে আমি যদি কথা না বলি ও তো বক বক করতে পারবে না।
দূর কোন দুঃখে যে কথাটা মাথায় আসে না বুঝতে পারি না।সবসময় শুধু পালানোর চিন্তা।
.
না না আর থাকা জাস্ট ইয়ামপসিবল আদরের পালানো কেউ আটকাতে পারবে না মাগার বিয়ের কসম পালাবো মানে পালাবো।
.
আহ্ কি শান্তি সবাই বিয়ের কাজে ব্যস্ত আমি মশাই ডান পায়ের উপর বাম পা তুলে বসে আছি আমার আর কি হলুদের রাতে পালবো মানে আজকে পালাবো তাই চিনিযুক্ত চিন্তা করা ছেড়ে বসে বসে ভুড়ি বোজ চালাচ্ছি। যা হওয়ার তা তো রাতে হবে।
.
হলুদের অনুষ্ঠানে…
.
–আমার মেয়ের জামাইটা কে একটু দেখি।কত দিন জামাই কে দেখি নাই।(আন্টি,নূরীর আম্মু)
.
–ওরে বাঁশ,আন্টি বিয়ে করতে চাই না আমি।(আমি)
.
–এখনো আন্টি ডাকবি নাকি পাগল ছেলে মা ডাকবি মা।(আন্টি)
.
–আমি মরি আমার জ্বালায় আর বুড়ি আইছে ডায়লগ দিতে।(আস্তে করে আমি)
.
–কিছু বললি বাবা।(আন্টি)
.
–কিছু তো বলি নাই বলছি শুধু বলছি আগে বিয়ে হোক তারপর না হয় ডাকবো।(আমি)
.
–শুধু তো আজকে রাতটা কালকে তো বিয়ে হয়ে যাবে।(আন্টি)
.
–হওয়াচ্ছি বিয়ে দাড়াও।(আমি)
.
–কিছু বললি নাকি।(আন্টি)
.
–না না কিছু বলি নাই।অনুষ্ঠান শুরু কর।(আমি)
.
অনুষ্ঠান শেষ হতে দাও তারপর বুঝাবো কত ধানে কত চাল হয়।এ মাইয়ারে যদি ৩ বার কবুল বলে যদি বিবাহ্ করি তাহলে আমার জীবনটা পুরো সিগারেটের মতো হয়ে যাবে।
তার থেকে বরং এটাই ভালো হবে যে পালিয়ে গিয়ে কিছুদিন ঘুরে আসি তারপর আবার না হয় বাড়িতে ডুকবো।
.
অনুষ্ঠান শেষ করার পর ঘুমাতে গেলাম।হয়তো ভাবছেন হলুদের অনুষ্ঠানে কোন নাচ গান হচ্ছে না কেনো।সত্যি বলতে আমাদের সমাজে এসব নিষিদ্ধ। আমাদের সমাজের মানুষ মনে করে বিয়ে হলো একটা শুভ কাজ এই কাজে নাচ গান করে পবিএ কাজটা অপবিত্র করা যাবে না। এই কথা সবাই মানে। যত ধনী ব্যক্তি হোক না কেনো সমাজের নিয়ম যেটা আছে সেটাই চলবে।
সমাজের কথা আর নাই বলি ওটা ওখানে থাক আমি পালিয়ে বাঁচি।
সবাই যখন ঘুমে ব্যাগটা কাঁধে নিয়ে গুটি গুটি পায়ে রুম থেকে বের হয়ে নিচে নেমে চারদিকে একবার ভালো করে দেখে নিয়ে দরজা খুলতে যেই না গেলাম তখনি পিছন থেকে কেউ টেনে ধরলো।
.
–কে রে একটু শান্তিতে পালাতেও দিবে না দেখছি।(আমি)
.
–পিছনে তাকিয়ে দেখ কে?(নূরী)
.
–ওহহহ তুই আগে বলবি তো।সবাই ঘুমাচ্ছে তুইও দরজাটা লাগিয়ে দিয়ে শুয়ে পড় গিয়ে। (আমি)
.
–শুয়ে পড়বো মানে কি?তুই কোথায় যাচ্ছিস।(নূরী)
.
–কাউকে বলিস না আমি পালিয়ে যাচ্ছি।(আমি)
.
–এ্যয়য়য়…(নূরী)
.
–মুখ বন্ধ কর মশা ডুকবে। যা লক্ষী মেয়ের মতো গিয়ে শুয়ে পড়।কিছুদিন পর আবার ফিরে আসবো।(আমি)
.
–আমি কিন্তু চিৎকার করবো বলে দিলাম।তুই এভাবে আমাকে ছেড়ে যেতে পারিস না।(নূরী)
.
–আরে আমি ফিরে আসবো তো।(আমি)
.
–আঙ্কেল,আন্টি,মা দেখে যাও আদর পালিয়ে যাচ্ছে আমাকে রেখে।(নূরী)
.
–আরে আরে কি করছিস সবাই জেগে যাবে তো।পরে আমার আর পালানো হবে না।(আমি)
.
–কে কোথায় পালাচ্ছে। (আব্বু)
.
–ও আমাকে রেখে পালিয়ে যাচ্ছে আবার বলছে ও চলে যাওয়ার পর দরজা বন্ধ করে শুয়ে পড়তে।তোমরা বল আমি ওকে ছাড়া কি এক মিনিটও থাকতে পারবো।(নূরী)
.
–তুই পালাতে দিচ্ছিস কেনো বান্দরটাকে। (আম্মু)
.
–আরে আমি তো চুরি করে পালিয়ে যাইনি যেভাবে আসামি বানিয়ে রেখেছো।নূরী তো ছিলো ওকে তো বললাম দরজা বন্ধ করতে আমি যাওয়ার পর তাহলে তোমরা বল এটাকে কি পালানো বলে তাছাড়া পালানোর আইডিয়া তো নূরী দিছে।(আমি)
.
–তুই তো বললি তোর কোন এক বন্ধু পালাবে ওর যার সাথে বিয়ে ঠিক হয়েছে তাকে বিয়ে করবে না ও পালিয়ে গিয়ে ওর gf কে বিয়ে করবে।(নূরী)
.
–ঠিকই তো আছে, বন্ধু পালানো আর আমি পালানো একি হলো।(আমি)
.
–এই চুপ,মা যা তুই ওকে নিয়ে যা পালিয়ে যেত
দিস না কখনো।(আম্মু)
.
–পালাতে দিবে না বললেই হলো নাকি আমি পালাবো।(আমি)
.
–তুই যদি পালিয়ে যাস তাহলে আমাকে নিয়ে পালাবি নয়তো তোর পালানো হবে না।(নূরী)
.
–তুই বললেই হলো নাকি।আমি পালাবো মানে পালাবো।(আমি)
.
–তোরে পালাতে দিবো না আমি, দেখি তুই কিভাবে পালাস।(নূরী)
.
–কিভাবে পালবো মানে?পালানোর আইডিয়া তো তুই দিয়েছিলি আমাকে।(আমি)
.
–কি এত বড় মিথ্যা কথা।আমি তোরে কখন পালাতে বলছি।(নূরী)
.
–সেদিন তুইতো বললি ছ যেনো পালিয়ে যাই।(আমি)
.
–সেটা তো তোর কোন এক বন্ধু পালানোর কথা ছিলো। (নূরী)
.
–বন্ধু পালানো আর আমি পালানো একি কথা।(আমি)
.
–তবে রে বান্দর পোলা, আমি তোরে পালাতে বলি নাই তুই পালাতে পারবি না।(নূরী)
.
–এই চুপকর দুজনে।তোদের এত কথা শুনতে চাই না। ঘুমাতে যা দুজনে।নূরী ওকে নিয়ে যা।(আব্বু)
.
–আমি যাবো না নূরীর সাথে। (আমি)
.
–কেনো যাবি না নূরীর সাথে।(আম্মু)
.
–আমি বিয়ে করবো না তাই যাবো না।(আমি)
.
–কেনো বিয়ে করবি না। (হবু শ্বশুড়)
.
–বিয়ে করলে আমি আমার স্বাধীনতা হারিয়ে ফেলবো তাই বিয়ে করবো না।(আমি)
.
–ভাই তুই এটা বলিস না,এটা বল যে মেয়েদের হাতে পথেঘাটে মার খাওয়ার উপায় খুজে পাবি না।(ইমন)
.
–তোরে এখানে কে ডাকছে। যা তুই এখন থেকে।(আমি)
.
–তুই পালাবি আর আমি বসে থাকবো তা কি করে হয়।(ইমন)
.
–আমি পালাবো তুই জানলি কি করে।(আমি)
.
–কেনো তোর বন্ধুরা বলছে।(নূরী)
.
–শয়তানের বাইচ্ছারা এখন কোথায়। (আমি)
.
–চিন্তা করসি না তোর বিয়েটা হয়ে যাবে।(জাহেদ)
.
–আচ্ছা তোরা আমার বন্ধু নাকি শ্রুএ কিছুই বুঝতেছি না।(আমি)
.
–ভাই এভাবে বলিস না তুই আমাদের বন্ধু আর আমরাও তোর বন্ধু।(নীরব)
.
–তাহলে তোরা এমন করিস কেনো।কোথায় আমাকে পালাতে হেল্প করবি তা না করে সবাই কে বলে বেড়াচ্ছিস।(আমি)
.
.
.চলবে

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here