♥Love At 1st Sight $2 Part – 14

0
396

Love At 1st Sight $2

Part – 14

writer-Jubaida Sobti

সবশেষে, সবাই ঘুমিয়ে পড়লো.. সারাদিনের ক্লান্তি.. কিন্তু স্নেহার ঘুমই আসছে না… যা আজ ঘটলো… ভাবতেই স্নেহা ব্লাশিং…🙈

এদিকওদিক কাত ফিরছে.. ছটফট করছে…কোনো ভাবেই…ঘুম আসছে না…উঠে বসে পড়লো..

স্নেহা : [মনেমনে] কি আজিব! আমার ওকে এতো মনে পড়ছে কেনো..রাতের ঘুমটাও হারাম করে দিয়েছে মিষ্টার তেডি স্মাইল..

[ স্নেহা উঠে জানালা দিয়ে উকি দিলো… রাহুলের রুমের বাতি এখনো জলে আছে.. তার মানে…মিষ্টার তেডি স্মাইল ও এখনো ঘুমাইনি..স্নেহা গায়ে চাদর মুড়িয়ে… উঠোন পেড়িয়ে রাহুলের রুমের দিক গেলো.. দরজার সামনে দাড়াতেই রাহুল দরজা খুলে ফেললো… ]

স্নেহা : [ Shocked হয়ে ] তুমি কিভাবে জানো… যে আমি এসেছি ?..😨

রাহুল : ব্যাস! জেনে যায় আরকি😍

স্নেহা : যখনি আসি! হঠাৎ করে তুমি চলে আসো.. তুমি কিভাবে জেনে যাও….

রাহুল : [ স্নেহাকে টেনে ভেতরে ঢুকিয়ে ] ব্যাস মিস্ ড্রামাকুইন…হার্টকানেকশন… 😍 যখনি তুমি আমার আশেপাশে আসো আমার heartbeat fast হয়ে যায়…😜

স্নেহা : [ ব্লাশিং ] আমারও😌

রাহুল : ওহ! রিয়েলি 😍[ রাহুল স্নেহার দিক এগুতে লাগলো ]

স্নেহা : দেখো আজেবাজে কান্ড করবানা…আমি সিরিয়াসলি কিছু কথা বলতে এসেছি…

রাহুল : [ স্নেহাকে কাছে টেনে ] হ্যা এবার বলো…😍

স্নেহা : আরে! তুমি ধরে রাখলে আমি কিছইু বলতে পারবো না…🙈

রাহুল : আচ্ছা! আমি ধরলে তোমার কি হয়😜

স্নেহা : শর্ট লাগে..🙈

রাহুল : [স্নেহার কানের কাছে এসে in slow voice ] তাহলে ধরেই রাখি?…😍

স্নেহা : [ রাহুলকে ধাক্ষিয়ে ] কি বলছো কি😳

রাহুল : [ হেসে ]😂😂 ওকে রিলেক্স it’s not a pressure 😜

স্নেহা : [রাহুলের গাল টেনে দিয়ে] আজকের গানটা অনেক সুন্দর ছিলো😌..

রাহুল : তাই!😍

স্নেহা : আমার পুরা কথা শেষ হয়নি এখনো.. কথার মাঝে কথা বলবানা..😬

রাহুল : ওকে ওকে!..😂

স্নেহা : I love you 🙊[ বলেই পেছন ফিরে যায় ]

[ রাহুল পেছন থেকে স্নেহার কোমড়ে হাত দিয়ে স্নেহাকে ঝড়িয়ে ধরে…😍]

রাহুল : i love you too মিস্ ড্রামাকুইন!😍

স্নেহা : [রাহুলের দিক ফিরে] ফাইনালি মিষ্টার চাছোড়াকে ড্রামাকুইন তার ভালোবাসার জালে ফাঁসিয়েই নিয়েছে…😜

রাহুল : Shut-up don’t call ne that ok?..

স্নেহা : কেনো?..অবশ্যই এটা ডাকবো..কথা নেই বার্তা নেই..চ্যালেঞ্জ ধরেই মিস্ ইউনিভার্সের সাথে রিলেশন করে বসলে…😏

রাহুল : আমার ভুলগুলিই খালি চোখে পড়ে তোমার ভালোগুলো পড়ে না?..

স্নেহা : ভালোকিছু থাকলেই তো পড়বে,😏

রাহুল : ওকে! তুমি আমাকে তোমার নাম বলেছিলে?..😕

স্নেহা : [কিছুক্ষণ ভেবে] নাহ তো!

রাহুল : 2nd দিনই আমি তোমাকে স্নেহা বলে ডেকেছি..😕খেয়াল করেছো?…

স্নেহা : 😰

রাহুল : তোমাকে যেদিন ফার্ষ্ট হোষ্টেলে পৌছে দিচ্ছিলাম..তুমি আমাকে তোমার হোষ্টেলের ঠিকানা বলেছিলে?…

স্নেহা : নাতো..😰.

রাহুল : [ স্নেহার হাত ধরে ] স্নেহা! তুমি যে প্রজেক্ট ক্লাসে, নেহার নাম চেঞ্জ করে তোমার নাম বসিয়ে দিচ্ছিলে..সব আমি দেখেছিলাম…কারণ আমার নজর ২৪ ঘন্টায় তোমার মধ্যেই থাকতো.. তুমি কোথায় যাচ্ছো না যাচ্ছো সব খবরই আমার কাছে আসতো… বাসায় বসে শুধু তোমার অপেক্ষায়…করতাম যে কখন বিকেলে তুমি আসবে…বারান্দায় দাঁড়িয়ে লুকে লুকে তোমায় দেখবো.. আর তোমার ঝুমুর পড়া নাচ…তোমার দুষ্টুমির ভঙ্গী…

স্নেহা! আমার আশেপাশে মেয়ের অভাব ছিলো না! অনেক মেয়ে দেখেছি… কিন্তু তাদের মাঝে তোমাকেই আমি চেয়েছি…কেনো জানো?..

তাদের চোখে আমি ঐ ভালোবাসাটা দেখিনি…যেটা তোমার চোখে দেখেছি..

স্নেহা! তোমার প্রশ্ন ছিলো…সামির তোমাকে মার্মেড কেফ না নিয়ে গিয়ে যে বারের মধ্যে নিয়েগেছে তা আমি কি করে জানলাম…

আমি জানতাম সামিরের উদ্দেশ্য কি…আমি তোমাকে বার বার বুঝিয়েছি কিন্তু তুমি বুঝোনি…তোমাদের আগেই গিয়ে আমি মার্মেড কেফ পৌছায়…এবং সামিরের গাড়ী ফলো করি, আমি যে তোমাদের ফলো করছিলাম তা সামির বুঝতে পেরেছিলো…তাই ও আমাকে ফাঁকি দিয়ে…তোমার সাথে😡

স্নেহা : [ রাহুলের মুখে হাত দিয়ে ] ওকে!😟

রাহুল : [ স্নেহার হাত ধরে..একপায়ের হাটু গুটিয়ে মাটিতে বসলো ] স্নেহা will you marry me?..😟

[স্নেহার বুক ফেটে কান্না আসছিলো…🙊 সে জানতো না যে কখনো কেউ তাকে এভাবে ভালোবাসবে…ভাবতেই অবাক লাগছে.. চোখ দিয়ে জল গড়িয়ে পড়লো স্নেহার না না…এই জল কোনো দুঃখ্যের জল নয়…এটি তো খুশির জল]

রাহুল : কি হলো স্নেহা?..😟

স্নেহা : [চোখ মুছে একটু হেসে..মাটিতে বসে পড়ে..] হুহ! এভাবে বললে হবে না…আমার সালমান খানের মতো করে বলতে হবে…😏

রাহুল : রিয়েলি! এই টাইমেও ড্রামা করবা?..😕

স্নেহা : মোটেও ড্রামানা… যা বলছি তা করো নাহলে বিয়ে করবো না…😏

রাহুল : মানে! এমনি এমনি বলিনি যে তুমি ড্রামাকুইন!..😋

স্নেহা : 😣 বলবা নাকি না?..

রাহুল : ওকে ওকে! মুজসে্ শাদী কারোগী স্নেহা😜

স্নেহা : [ 😂হেসে রাহুলের গাল টেনে তাকে ঝড়িয়ে ধরলো ] তাহলে আমি ড্রামাকুইন হলে তুমি হলে ড্রামাকিং.. 😂

রাহুল : [ স্নেহাকে ঝড়িয়ে ] Shut-up তোমার ড্রামার কারণেই আমার ড্রামা করতে হচ্ছে..

[ গল্প করতে করতেই রাহুলের বুকে রাত কাটিয়ে দিলো স্নেহা ]

স্নেহা : আরে কটা বাজে?..😨

রাহুল : ৪:০০ টার কাছাকাছি…

স্নেহা : ওকে বাই! আমি এখন যায়.. [ স্নেহা উঠে চলে যাচ্ছে ]

রাহুল : [ দাঁড়িয়ে গিয়ে স্নেহার হাত ধরে ] কই যাও!

স্নেহা : ছাড়ো পরে কেউ দেখে ফেলবে!

রাহুল : একবার ছাড়লে কিন্তু আর ধরছি না..😜

স্নেহা : কি বললে😟

রাহুল : রিলেক্স স্নেহা! জাষ্ট কিডিং ..

স্নেহা : এসব মজা আমার মোটেও..পছন্দ না রাহুল!😟

রাহুল : [ স্নেহাকে ঝড়িয়ে ] ওকে ওকে m sorry…m sorry

[ স্নেহা শক্ত করে ঝড়িয়ে ধরে আছে রাহুলকে…]

স্নেহা : ইচ্ছে হচ্ছে! সারাজীবন এইভাবে কাটিয়ে দেই..

রাহুল : এইভাবে দাঁড়িয়ে থাকলে তো আমার পা ব্যথা করবে!😳

স্নেহা : [ মাথা তুলে রাহুলের গালে আস্তে করে একটা থাপ্পড় দেই 😂] ইডিয়ট একটা বাই!

[ স্নেহা চলে গেলো.. রাহুল ব্লাশিং😍]

স্নেহা ও ব্লাশিং হতে হতে রুমে ঢুকছিলো..হঠাৎ পেছন থেকে..

মা : কোথায় গিয়েছিলি?..

স্নেহা : [ Shocked😨 ]

মা : [স্নেহাকে নাড়িয়ে] কি হলো😡 স্নেহা! আমি কিছু জিজ্ঞেস করছি?..

স্নেহা : মা!😔 আসলে!

মা : ছিঃ ছিঃ ছিঃ পুরো বাড়ীর নাক কাটাতে বসেছিস স্নেহা তুই! এতো রাতে একটা পর পুরুষের রুম থেকে আসছিস..

স্নেহা : মা! তুমি যা ভাবছো তেমন কিছুই না!😔..

মা : খবরদার তোর এই নোংরা মুখে আমাকে মা ডাকবিনা!

মিলি : [ স্নেহার দিক এগিয়ে এসে ] আরে স্নেহা! মা! কি হয়েছে?..😟

মা : কি হয়েছে না! কি কি হয়নি তা জিজ্ঞেস কর ওর থেকে..😡 আমার তো ওর চেহেরা দেখতেই ঘৃণা লাগছে..

বাড়ীতে বসে বসে কাল সাপ পৌষছিলাম এতোদিন..

স্নেহা : মা! আমার কথাটাতো শোনো প্লিজ!😟

[ মা,স্নেহাকে সজোড়ে একটি থাপ্পড় মারে,স্নেহা আনব্যালেন্সে থাকায় মিলির উপর গিয়ে পড়ে ]

মিলি : [ স্নেহাকে ধরে] আরে! মা! কি করছোটা কি.. 😨

মা : পড়ার নাম আর মুখে😡 আনবিনা! শান্তিপুরের প্রস্তাবটা এখনো মুখ চেয়ে আছে…😡 আজই তোর বাবাকে বিয়ের কথা বলে…তাড়াতাড়ি এইঘর থেকে দূর করবো তোকে… নাহলে না জানি আরো কি কি কান্ড করে বসিস! [ স্নেহার মা চলে গেছে ]

[ স্নেহা কান্নায় ভেঙে মাটিতে বসে পড়ে ]

মিলি : স্নেহা! কাঁদিস না! প্লিজ! মা হয়তো রেগে গিয়ে এসব বলেছে..!

স্নেহা : [ কাদো কন্ঠে] আমি কিছু করিনি শুধু ওর রুমে গিয়েছিলাম!😭

মিলি : শোন! তুই রাহুলকে ভালোবাসিস!😟

স্নেহা : [ মাথা নাড়ালো ] হুম😭

মিলি : তাহলে যা! ওকে নিয়ে পালিয়ে যা!

স্নেহা : পালাবো মানে! কিন্তু কেনো?..

মিলি : স্নেহা! তুইতো মা কে চিনিস! মা কখনো তোর আর রাহুলের সম্পর্ক মেনে নেবে না! বাবাকে ওল্টাপাল্টা বুঝিয়ে দেবে ওর সম্পর্কে…

স্নেহা : না..নাহ এটা কিভাবে করবো…যে পরিবার আমাকে ছোট থেকে আশ্রয় দিয়েছে… আমি সে পরিবারকে..কিভাবে ঠকাবো!

মিলি : স্নেহা এখন আর এসব ভেবে কিছু করতে পারবি না!😟…আমার কথা শোন!

স্নেহা : আমার জন্য একটা কাজ করতে পারবে! প্লিজ!

মিলি : বল!😟

স্নেহা : তুমি রাহুলকে গিয়ে একটু বলেদিতে পারবে…যাতে ও এক্ষুনি..চলে যায়…

মিলি : স্নেহা!😟

স্নেহা : প্লিজ প্লিজ প্লিজ!🙏😭

মিলি : আচ্ছা ঠিকাছে! [ মিলি চলে গেলো ]

[ স্নেহা রুমে ঢুকে আয়নার সামনে দাঁড়ায়…অনেক্ষণ তাকিয়ে থাকে নিজের চেহেরার দিকে…মুখের মধ্যে আংগুলের লাল ছাপ বসে আছে.. যা স্নেহাকে তার অতীত মনে করিয়ে দিচ্ছে..ভাবতেই চোখ থেকে অশ্রু ঝড়ে পড়ছে..কেনো এমন কেনো জীবনটা…😭 ]

হঠাৎ, হুট করে দরজা খোলার শব্দ..স্নেহা ফিরে তাকাতেই দেখে রাহুল..

স্নেহা তাড়াতাড়ি মুখ লুকিয়ে অন্যদিকে ফিরে যায়,

রাহুল : [ স্নেহার দিক এগিয়ে এসে ] স্নেহা 😡..কি শুনছি এসব?…তুমি বলেছো আমাকে চলে যেতে…

স্নেহা : দেখো রাহুল তুমি এখানে কেনো এসেছো প্লিজ! বেড়িয়ে যাও…😭

রাহুল : আমার দিকে তাকাও স্নেহা! আমি বলছি তোমার মায়ের সাথে কথা!…আর তুমি পেছন ফিরে মুখ ঢেকে আছো কেনো?…

স্নেহা : বুঝো না কেনো প্লিজ রাহুল তুমি..বেড়িয়ে..

[ রাহুল একটানে স্নেহাকে তার দিকে ফেরায়… স্নেহার চেহেরা দেখে রাহুল নিস্তব্ধ😨হয়ে যায়…স্নেহার চোখ দিয়ে পানি পড়ছে..মুখের মধ্যে চড়ের ছাপ..]

রাহুল : স্নেহা! এসব?😨

কে মেড়েছে তোমাকে😡😡

[ রাহুলের আর বুঝার বাকি রইলো না রেগে স্নেহার হাত ধরে রুম থেকে বেড়িয়েই যাচ্ছিলো.. স্নেহা বুঝতে পারলো রাহুল মায়ের কাছেই যাচ্ছে… স্নেহা রাহুলের হাত ধরে আটকিয়ে ফেলে..]

[ স্নেহা অভিমান আটকাতে না পেরে রাহুলকে ঝড়িয়ে ধরে ফেলে…রাহুলের বুকে মাথারেখে ফুফিয়ে কেঁদে দিলো স্নেহা ]

[রাহুলের রাগ বাড়তেই চলছে স্নেহার ফুফিয়ে কাদার শব্দ শুনে]

স্নেহা : 😭 প্লিজ! রাহুল কিছু বলো না! ওনার হক আছে আমার উপর!…তাই উনি আমাকে মেরেছে…😭

ছোট বেলা থেকেই নিজের মেয়ের মতো করে…পেলেছে…এই অধিকারটা তো অন্তত ওনার আছে..😭

[ স্নেহার কথা শুনে রাহুল একটু অবাক হলো ]

রাহুল : নিজের মেয়ের মতো করে মানে..? উনি তোমার আসল মা নাহ?..

চলবে…..

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here