ভুতের প্রেম। পর্বঃ৩ (শেস পর্ব)

0
1072
ভুতের প্রেম। পর্বঃ৩ (শে'স পর্ব)

ভুতের প্রেম। পর্বঃ৩ (শে’স পর্ব)
মা আমাকে রুমে নিয়ে আসলো।।।
আমি চুপচাপ কোনো কথা নাই।।।
মাঃতোর কি হইছে বল তো।।।একা একা ছাদে বসে
কার সাথে কথা বলছ।।।।।
আবার বলছ কি সন্তানের কথা।।।
আমিঃ মায়ের কথায় অবাক হলাম আমি একা মানে মা কি
প্রিয়াকে দেখে নাই নাকি।।।
ও তো আমার সাথে ছিলো।।।।
আমার ভাবনা টা আরো বেরে গেলো।।
কিন্তু আবার ওই এক কথা মনে পরে গেলো
ওইখানে অন্ধকার ছিলো তাই হয়তো বা দেখতে
পায় নাই মা।।।।।।
না মা এম্নি ভাবছিলাম আরকি।।।।
মাঃও।।।
মায়ের রুম থেকে চলে আসলাম।।
অনেক্ষন ভাবলাম এই বিষয় টা নিয়ে তারপর কি
ভেবে যেনো আর কিছু মিনে করলাম না এই বিষয়
নিয়ে।।।।।
পরেরদিন। ও আর একটা কথা আমাদের কেনো যানি
কখনো দিনে দেখা বা কথা হত না এই বিষয় টাও
আমার মনে ঘুরপাক খেতো।।।
পরেরদিন রাতে ছাদে গেলাম আর ছাদে উঠার
সাথে সাথে কারো কান্নার আওয়াজ সুনতে
পেলাম।।।
দোলনার কাছে গিয়ে দেখি প্রিয়া বসে বসে
কাঁদছে।।।
প্রিয়া কি হইছে কাঁদছো কেনো।।।
কোনো সারাসব্দ নাই।।।
আমি কয়েকবার এই কথা বল্লাম কিন্তু কোনো
সারাসব্দ নাই।।।
তাই আমি চুপ করে বসে রইলাম।।।
কিছুক্ষন পর ও আমার ভুকে মাথা রেখে কাদতে
লাগে।।।।
প্রিয়াঃ আমাকে ক্ষমা করে দিয়ো।।
আমিঃমানে ক্ষমা করবো মানে কি!!!
প্রিয়াঃহ্যা।।।আমার অনেক বড় ভুল হয়ে গেছে।।।
আমিঃকি ভুল হইছে বলো আমারে।।।
প্রিয়াঃ যেটা সুনলে তুমি অনেক কস্ট পাবে
কি জানি তুমি কিভাবে থাকবে।।।।
আমিঃ প্রিয়া কি বলো।।।।
প্রিয়ার কথায় আমি অনেক টাই ভয় পেয়ে গেলাম।।।
আমার মনে হলো ওর বোদ হয় ওর বিয়ে ঠিক
হইছে।।।
কিন্তু তেমন কিছু হলে ও আমাকে বলতো।।।
আচ্ছা বাদ দাও এখন যা হবে আমার সাথে হবে তুমি
কাঁদছো কেনো।।।
ও কিছু বল্ল্য না।।
তারপর ওইভাবে কিছুক্ষন থাকার পর মায়ের ডাক তাই
ওরে বিদায় দিয়ে চলে গেলাম।।।।
পরেরদিন প্রিয়াদের বাসায় মেহমান আসবে তাই
আমাকে আর মাকে দাওয়াত দিলো।।।।।
বিকালে আমি আর মা গেলাম ওদের বাসায় মানে
দিতীয় তালায়।।।।
গিয়ে দেখি আমার ছোট একটা সালি ও আছে মানে
প্রিয়ার আব্বু বল্ল্য যে উনার ছোট মেয়ে ও যার
নাম দিয়া।।।।

ও ক্লাস থ্রিতে পরে।।।।
আমি ওর সাথে গেলাম ওর রুমে।।।।
ও আমাকে ভাইয়া বলে ডাকে।।
আমি আপু বলে।।।
তো আমি ওরে জিজ্ঞাস করলাম আপু তোমার বড়
আপু কোথায়।।।
আমার আপু চাদে চলে গেছে মা আমাকে
বল্ল্য।।।
আমিঃ আমি অবাক হয়ে গেলাম কি বলে ও।।।
আমি সরাসরি প্রিয়ার মায়ের কাছে চলে গেলাম।।।
বল্লাম আন্টি প্রিয়াকে দেখছি না যে।।।
আন্টি আমার কথা সুনে যেনো আকাশ থেকে
পরলেন।।।
আমি কি হলো আন্টি।।।।
আন্টি কোনো কথা না বলেই চলে গেলেন
অন্ন্য দিকে।।।।।
আমি আরো অবাক হয়ে গেলাম।।।
তখন আমি একপাশে একটা চেয়ারে বসে রইলাম।।।
কিছু ক্ষন পর প্রিয়ার বাবা আসলো।।
বাবা তুমি প্রিয়ার বেপারে ওর মায়ের কাছে কিছু
বলছিলা নাকি।।।।
হুম আনকেল।।।
কি বলছিলে।।।।
এইজে ওরে দেখছি না তাই জিজ্ঞাস করলাম ও
কোথায়।।।।
তুমি প্রিয়াকে ছিনো নাকি।
হুম।।।।।
কি হয় তোমার।।।
ফ্রেন্ড হয় আমার।।।।।।
বাবা ও তো বেচে নেই।।।।।।
মানে কি বলতেছেন আনকেল।।।
হ্যা এক বছর আগে ঠিক এইদিনেই প্রিয়া একটা
এক্সিডেন্ট এ মারা যায়।।।।
আমার মাথায় যেনো বাজ বেংগে পরলো।।
কি বল্ল্য উনি।।।।
কিন্ত তারপর সব সুনার পর আমি অইখান থেকে
যেনো আর লরতে পারছি না আমি।।
মা আমাকে ধরে রুমে নিয়ে আসলেন।।।
ওইদিন আমি কোথায় হারিয়ে যাই আর কিছু মনে
থাকে না।।।।।
পরে আমার চোখ জখন মেলি তখন নাকি দুই দিন পর
চোখ মেলছি।।।।
আমি তখন ও মানতে পারছিলাম না এইটা কি করে সম্বব
গত ৭ মাস ধরে আমি ওর সাথে কথা বলে আসছি।।।।।
আমার সাথে এইটা কি হলো এইটা আমি কখনোই
ভাবতে পারি না।।।।
পরে আমি প্রায় ই ছাদে বসে বসে বাশি বাজাতাম
কিন্তু প্রিয়া আর কখনই আমার কাছে আসলো না।।।।
কিন্তু আমি প্রায়ই আমার পাশে ওর অনুভুতির ছোয়াটা
ভুজতে পারতাম।।।
সমাপ্ত

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here