ডেভিল হ্যাজবেন্ডের পিচ্চ বৌ♥part : 5+6+7

0
604

ডেভিল হ্যাজবেন্ডের পিচ্চ বৌ♥part : 5+6+7
সুরিয়া মিম
I
বিঃদ্রঃ এই পর্বগুলো ফেসবুক লাইট দিয়ে পড়া যাবে না।
!
প্রেম এক্কেবারে করাইয়া দিবো ফজিল মেয়ে আমার ফিলিংস নিয়ে খেলছে,
!
ভাইয়া তুমি কি রেগে আছো?
!
আমি রাগলে তোমার কি?
!
তুমি তো একটা সোনা টুঙ্কু সোনা ভাইয়া হাসো না প্লিজ,
রাগলে তোমায় ভালো লাগে না,
!
পিচ্চির কথা শুনেই হেসে ফেলি আমি,
আর ওকে বলি,
!
তোমার মতো পিচ্চি কাছে থাকলে রাগবো কি করে?
তুমিই বলো?
!
আমি বলবো কি করে আমি কি জানি?
!
হ্যা পিচ্চি তুমি জানো……..
!
দেখো ভাইয়া আমি অনেক বড় হয়ে গেছি,
তাই আমাকে পিচ্চি বলবে না কেমন?
!
ও তাই আচ্ছা ঠিক আছে,
ওই পিচ্চি ঘুমোবে না?
!
হুমমমমমম,
তুমি ঘুমু পরিয়ে দিলে আমি ও ঘুমোতে পারি,
!
ওক্কে সোনা,
!
তোমার কথা টা মনে আছে তো ভাইয়া?
!
কি কথা?
!
ওই যে আমি তোমার বন্ধু সাথে প্রেম করবো?
!
কেন আমি কি খারাপ আমাকে পছন্দ হয় না?
আমার সাথে কি প্রেম করা যায় না?
!
ভাইয়ের সাথে বোনে প্রেম করলে লোকে কি বলবে?
!
কে কি বলবে,
আয় রেয়ালি ডোন্ট কেয়ার,
তুমি কি করবে আমার সাথে প্রেম?
!
কেমনে করবো আমার তো লজ্জা করে,
আচ্ছা ভাইয়া প্রেম করে কিভাবে?
আমাকে তুমি শিখিয়ে দিবে প্লিজ?
!
হ্যা দিবো তো তবে তুমি প্রমিছ করো তুমি শুধু আমাকে প্রেম করবে?
!
ভাইয়ের সাথে প্রেম করলে পাপ হয়,
আমার পাপ হবে তো?
!
হবে না সোনা স্বামী কে প্রেম করলে পাপ হয় না,
!
সত্যি?
!
হুমমমমম সোনা,
!


তাহলে আমি আম্মু কে জিজ্ঞেস করে আসি?
!
কি কেন?
!
ভাইয়া স্বামী কে প্রেম করলে পাপ হয় কিনা তাই,
!
ধুর পাগলি সব কিছু কি আব্বু আম্মু কে বলতে আছে তাহলে তো তারা পচা মনে করবে,
!
ওহহহহ তাই তাহলে জিজ্ঞেস করবো না কেমন?
!
ইয়েস মাই গুড গার্ল,
!
তাহলে তোমার এই গুড্ডু গার্ল কে ঘুমু পারিয়ে দাও?
!
হ্যা দিচ্ছি এখন আমার কাছে আসো,
!
পিচ্চি টা আমার কাছে আসতেই আমি ওকে আদর করে ঘুম পারিয়ে দেই,
!
পরেরদিন সকালে ঘুম থেকে উঠতেই আম্মু আমার রুমে এসে পিচ্চি কে ব্রেকফাস্ট করিয়ে নিচে চলে যায়,
আর আমি ও নিচে গিয়ে বৌ ভাতের আয়োজন দেখতে থাকি,
!
কিছুক্ষণ পর আব্বু এসে আমাকে রিসেপশনের জন্যে রেডি হতে তাদের রুমে নিয়ে যায়,
আর আম্মু গিয়ে পিচ্চি টাককে সুন্দর করে সাজিয়ে নিচে নিয়ে আসে,
!
পিচ্চি নিচে নিয়ে আসতেই আমি ওকে দেখে ক্রাশ খাই,
আমার পিচ্চি টা যে এতো কিউট সেটা তো আমার আগে জানা ছিলোনা,
!
আর তখনি মামু মামী মুইম ও মাহিম ভাইয়া এবং নিশা ভাবি এসে পরে,
!
নিশা ভাবি এসেই আমাকে জিজ্ঞেস করে,
!
এই যে ইমান তোমাদের কেমন চলে?
!
ওই তো কোনো রকম,
আচ্ছা আপনি কি ওকে কিছু শেখান নি ভাবি,
!
আমি আর কি শিখাবো?
তোমার বৌ তুমি শিখা ও,
হা হা,
!
ভাবি হাইসেই না প্লিজ,
আর এমনি তেই আমার অবস্থা মারাত্মক,
!
তখন মাহিম ভাইয়া আমার পিঠ চাপড়ে বলে,
টেনশন করিস না ভাই সময় হলে ঠিকি শিখে যাবে,
ছোটো মানুষ তো এখনো এতকিছু বোঝেনা,
!
হ্যা ইমান ভাইয়া তুমি আমার নয়নের মনি ননদিনী টাকে দেখে রেখো প্লিজ,
!
তখনি পিচ্চি টা বলে ওঠে,
শুধু তোমরা দেখলে হবে আমি দেখবো না?
!
ভাইয়া তোমার বন্ধুরা কোই?
!
তখন আমি ওর কানে ফিসফিসিয়ে বলি,
কেন?
!
বারে ওরা না আসলে আমি প্রেম করবো কার সাথে?
!
কেন আমার সাথে?
!
আর তখনি আমার বেষ্ট ফেন্ড রোহান এসে পরে,
!
উফফফফ
ছেলে টা কি সুইট বলো?
!
কি?
কি বললে তুমি?
তোমার ওকে সুইচ বলে মনে হয়?
!
না মানে হয়েছিল,
কিন্তু এখন আর হয় না,
!
কেন?
!
কারন ওই ছেলেটা তোমার মতো অতো সুইট না,
!
যাক বাবা বাচঁলাম ফাইনালি আমার বৌয়ের নজর পরেছে আমার ওপর,
!
কি হলো কি ভাবছ ভাইয়া?
!
কিছুনা,
!
ভাইয়া একটা কাজ করো না ভাইয়া,
!
কি কাজ সোনা?
!
ওর থেকে ও সুইট ছেলে কে খুজে দাও না আমাকে প্রেম করার জন্যে,
!
এবার মাথা টা পুরোই বিগড়ে যায় আমার,
তবুও নিজেকে সামলে নিয়ে বলি,
তোমার কি আমাকে পছন্দ হয় সোনা?
!
আর তখন ও লজ্জা পেয়ে হ্যা সূচক দৃষ্টি তে আমার দিকে চায়,
আর আমি ওকে আমার বুকে জারিয়ে ওর কপালে চুমু খাই,
!
আর তখনি হঠাৎ ক্যামেরায় ছবি তোলারর শব্দ হয়,
বৌ কে চুমু খেয়ে সামনে তাকিয়ে দেখি আমার বন্ধু পারভেজ আমাদের ছবি তুলছে,
!
সরি ভাই তোদের ডিস্টার্ব হয়ে গেল,
আমি বলি কি এরকম কিছু পেজ দে আর আমি তোর ও ভাবির কিছু ছবি তুলে দেই,
!
আর তখনি পিচ্চি টা লজ্জা পেয়ে বলে,
!
না আমি আর কোনো ছবি তুলবো না,
!
আর তখনি সবাই হা হা করে হেসে দেয়,
!
কিছুক্ষণ পরে আব্বু এসে আমার পিচ্চি কে গহনার বক্স দিয়ে বলে,
দেখো তো মা পছন্দ হয় কি না,
!
ওওও ওয়াও ডায়মন্ডের হার আব্বু না মানে ফুফাআব্বু?
!
হ্যা মা পছন্দ হয়েছে তোমার?
!
হুমমম,
এটা খুবি সুন্দর ফুফাআব্বু,
!
কি বললে?
!
ফুফাআব্বু,
!

তার আগে কি বলেছিলে মা?
!
আব্বু,
!
তাহলে এখন থেকে আব্বু বলে ডাকবে কেমন?
!
ওকে আব্বু,
!
সোনা মা আমার,
!
তুমি ও আমার ডায়মন্ডের আব্বু,
!
আর ওর কথা শুনে বাড়ি শুদ্ধো গেস্ট হা হা করে হেসে দেয়,
তখন আব্বু ওর কপালে আলতো করে চুমু একে দেয়,
!
আর তখন ও আব্বুর কানে ফিসফিসিয়ে বলে,
!
ডায়মন্ডের আব্বু ইমান ভাইয়া কে প্রেম করলে কি আল্লাহ আমাকে পাপ দিবে?
!
না মা কেন পাপ দিবে?
আল্লাহ তো খুশিই হবে,
!
সত্যি?
!
হ্যা মা,
!
তাহলে ভাইয়া কেন বললো তোমার কাছে জিজ্ঞেস করলে তুমি আমাকে বকা দিবে,
!
ওতো বোকা তাই বুঝতে পারেনি মা,
!
ও আচ্ছা ঠিক আছে,
ডায়মন্ডের আব্বু আমার না খুব খিদে পেয়েছে,
!
আমি তোমার আম্মুদের এখনি পাঠিয়ে দিচ্ছি মা,
!
তারপর আমি আমার বন্ধুূদের নিয়ে খেতে বসি,
আর আমার আব্বু আম্মু ও শশুড় বাড়ির সবাই তাদের আদুরে মেয়ে কে নিয়ে খেতে বসে,
!
খাওয়া দাওয়ার এক পর্যায়ে আমার পিচ্চি বৌ এসে আমার বুকে ও কপালে হাত দিয়ে বলে,
!
তোমার তো জ্বরে গা পুরে যাচ্ছে,
!
কি?
আমার আবার জ্বর হলো কখন?
তবুও বৌ এর কথায় সায় দিয়ে খাওয়া ছেড়ে ওর সাথে সবার নজর থেকে একটু আড়াল হয়ে যাই,
!
কি হলো সোনা মিথ্যে বললে কেন?
!
কারন সবাই আমাকে দিলেও তুমি তো আমাকে দাও নি,
!
কি দেই নি?
!
তুমি তো আমাকে খাবার খাইয়ে দাও নি ভাইয়া,
!
ওহহহহহ তাই?
!
হুমমমমম,



চলো সোনা আমি তোমাকে খাইয়ে দেই,
!
এখানে বসে খাই?
!
ওকে সোনা,
দেন আমি ওকে খাইয়ে দেই আর পিচ্চি ও আমাকে খাইয়ে দেয়,
বৌ এর হাতে খাবার খেয়ে অজানা এক তৃপ্তি অনুভব করছি আমি আর এটা আজি প্রথম বারের মতো হয়েছে আমার,
!
হঠাৎ করে কাচের শোপিছ এর দিকে নজর যেতেই দেখি পারভেজ ও রেহান লুকিয়ে লুকিয়ে আমাদের ভিডিও করছে ও আমাদের ভালোবাসায় নজর দিচ্ছে,
!
আমি বৌয়ের হাত থেকে লেগপিছ টা মুখে নিয়ে ওদের দিকে তাকাতেই ওরা সোজা হয়ে দাড়িয়ে হা হা করে হেসে দেয় আর রোহান পিচ্চি কে বলে,
!
ভাবি আপনি আগে বললেই পারতেন,
তাহলে আমরা আপনার স্বামী কে ছেড়ে দিতাম আর আপনি ওকে আদর করে ভালোবাসে খাওয়াতেন কিন্তু সেটা না করে,
!
দেখো ভাইয়া আমি আমার ভাইয়া কে খাওয়াবো বা আদর করবো এটা আমাদের ব্যাপার,
তোমরা বেশি বুঝ কেন হুমমমম?
!

 

বৌ এর ঝাড়ি খেয়ে শয়তান দুটো চুপ হয়ে যায়,
একদম ঠিক হয়েছে ফাজিলের গুষ্ঠি এখন বোঝো মজা হা হা,
আমি আব্বুর কাছে শুনছিলাম আমার বৌ কে ওর কাজের মধ্যে ডিস্টার্ব করলে ও রেগে যায় খুব,
আর আজকে তার স্বচক্ষে প্রমাণ পেলাম হা হা হা,
!
রাতে রুমে গিয়ে দেখি আমার পিচ্চি তার বৌ-ভাতে পাওয়া গিফট গুলো খুলো খুলো দেখছে,
আমাকে দেখা মাঐ গিফট গুলো ফেলে আমার কাছে বায়না ধরে বলে,
!
তুমি আমাকে ভূতের মুভি দেখাবে ভাইয়া?
!
তোমার তো ভয় করবে পিচ্চি,
!
না করবেনা তুমি আছো না ভাইয়া?
!
আচ্ছা ঠিক আছে সোনা,
দেন আমি ওকে ও আব্বু আম্মু কে নিয়ে ভূতের মুভি দেখতে বসি,
!
মুভির এক পর্যায় নয়িকা নায়কে জড়িয়ে ধরে চুমু খায়,
!
আর তখনি আমার পিচ্চি বৌ টা আমাকে চুমুতে চুমতে ভরিয়ে দেয়,
!
আর ওমনি আব্বু আম্মু ওর কান্ডকারখানা দেখে হা হা করে হেসে দেয়,
আর নিজেদের রুমে চলে যায়,
আর আমার পিচ্চি টাও আব্বু আম্মুর হাসিতে লজ্জা পেয়ে রুমে চলে যায়,
!
এতো গুলো চুমু দিবে জানলে মুভি টা তো আগেই চালিয়ে রাখতাম,
!
ওমা কতো গুলো চুমু দিলো প্রায় পঞ্চাশটা বা তারো বেশি,
এতো চুমু দিলে তো আমি পাগল হয়ে যাবো,
!
বৌ টা আমার পিচ্চি হলেও আমাকে অনেক ভালোবাসে যেটা ওনা বুঝলে ও আমি ঠিকি বুঝি☺️☺️
..

ডেভিল হ্যাজবেন্ডের পিচ্চি বৌ♥
part : 6
=======

বৌ টা আমার পিচ্চি হলেও আমাকে অনেক ভালোবাসে যেটা ওনা বুঝলে ও আমি ঠিকি বুঝি,
!
তখন হঠাৎ খেয়াল করে দেখি পিচ্চি টা দু মগ কফি নিয়ে এসেছে,
আরে আরে তুমি কোথায় গেছিলে?
!
তোমার জন্যে কফি ও আমার জন্যে দুধ বানাতে গেছিলাম,
!
কি?
তোমার কি দুধ খাওয়ার বয়স আছে?
!
শোনো ভাইয়া এটা একটা খাওয়ার জিনিস,
তো এটা নিয়ে মজা করোনা প্লিজ,
!
এতে মজার কি দেখলে?
যে টা সত্যি সেটা বলেছি আমি,
!
তুমি থাকো তোমার সত্যি নিয়ে,
তুমি না খুবি খারাপ ভাইয়া, থাকো তুমি একাএকা আমি এখন আসি,
!
আর তখনি আমি ওকে চেপে ধরে বলি,
এই যে আমার পিচ্চি বৌ আমাকে ফেলে কোথায় যাওয়া হচ্ছে শুনি?
!
জানিনা ,
!
ওমা আমার পিচ্চি টাতো দেখি রেগে গেছে?
!
আমি রাগলে তোমার কি?
!
কি যে বলোনা তুমি?
তুমি তো আমার সব বিশ্বাস করো,
!
হয়েছে হয়েছে মিথ্যে বলতে হবে না আর,
!
বিশ্বাস আর তোমাকে?
তুমি খুবি পচা তুমি আমাকে প্রথমদিন থেকে বকা দিয়ে আসছ,
আমার কোনোকিছুই তোমার ভালো লাগেনা ভাইয়া,
আমি বৃথাই তোমাকে আমার বন্ধু বানানোর চেষ্টা করছি,
আর কখনওই এমটা হবে না,
তাই আমি সরি,
আর কখনওই তোমাকে আমার বন্ধু বানাতে চাইবো না ভাইয়া,
!
বলে পিচ্চি টা আমার মন খারাপ করে রুমে চলে যায়,
আচ্ছা আমি কি এই কদিনে ওকে এতটাই কষ্ট দিয়ে ফেলেছি যে ও এমন টা করছে?
ও আমাকে ওর বন্ধু বানাতে চেয়ে আর আমি সেটা না বুঝেই ওকে কত কষ্ট দিয়ে ফেলেছি,
!



কিন্তু এখন তো আমি ওর সাথে মজা করছিলাম,
আর ও সেটা না বুঝেই আমাকে ভুল বুঝে চলে গেল?
!
অবশ্য এতে ওর কোনো দোষ নেই কারন ওতো কিছু করেনি,
বিয়ের বাসর রাত হতে আজ পর্যন্ত আমি ওকে অনেক বার অনেক ভাবে কষ্ট দিয়েছি আর ও আমাকে শুধু সহ্য করেছে,
!
ভেবে ছিলাম ও আমাকে বিরক্ত করবে কিন্তু না ওতো আমার বন্ধু হতে চায়,
আর আমি ও ওর বন্ধু হতে চাই ,
!
আগে ভাবতাম রিয়া মতো ভালো মেয়া পাওয়া দুষ্কর,
বাট এখন দেখি আমার পিচ্চির মতো মানুষ পাওয়া দুষ্কর,
!
কিন্তু এখন কি করি?
কি করে ওর রাগ টা ভাঙাই,
পিচ্চি টাতো খুবই রেগে আছে,
!
তাই আমি রুমে চলে যাই ম্যাডামের রাগ ভাঙাতে,
বিয়ের পর এই প্রথম আমার পিচ্চি বৌ আমার ওপরে রাগ করেছে তাই ওর রাগ ভাঙাতে হবে না?
কিন্তু রুমে গিয়ে দেখি পিচ্চি টা এখনো বসে বসে দুধ খাচ্ছে,
!
পিচ্চিটার দুধ খাওয়া দেখে হঠাৎ আমার হাসি পেয়ে যায়,
আর এই হাসির কারন হলো,
!
যে পিচ্চি নিজেই কিছুদিন পরে আরেক পিচ্চির মা হবে, সেই পিচ্চি নিজেই এখনো বাচ্চাদের মতো দুধ খাচ্ছে,
হা হা হা,
!
তারপর আমি আমার পিচ্চি বৌ এর রাগ ভাঙাতে ওর সামনে গিয়ে কান ধরে উঠবস করা শুরু করে দেই,
হঠাৎ পিচ্চিটার নজর আমার ওপরে আসতেই আমাকে দেখে ও হা হা করে হেসে দেয় আর আমি ওকে আমার বুকে জড়িয়ে ধরি,
!
কি হলো ভাইয়া,
কি হয়েছে তোমার?
!
কিছুনা,
তবে তুমি কি আমার ওপরে রেগে আছো পিচ্চি,
!
না কেন রাগবো ভাইয়া রাগ করার তো কিছু নেই,
আমার মনে হল তুমি আমাকে পছন্দ করো না তাই আরকি,
তবে তাতে কি হয়েছে ভাইয়া,
সবাই কি সবাই কে পছন্দ করে?
আচ্ছা ভাইয়া তুমি কি কাও কে পছন্দ করো?
তাহলে আমাকে বলো আমি আব্বু ও আম্মুর সাথে কথা বলবো,
!
হ্যা করি আমি তোমাকে পছন্দ করি,
!
আমাকে পছন্দ করে লাভ নেই গো তোমার,
কারন আমি তোমার ছোটো বোন তো তাই না?
!
বোন না তুমি আমার বৌ,
!
পচা শুধু খালি পচা কথা বলে,
শোনো না ভাইয়া আমার না খুব ঘুম পেয়েছে তাই আমা ওকে ঘুম পারিয়ে দেই,
!
কিছুদিন ধরে লক্ষ করছি আমার পিচ্চি বৌ টা আমার থেকে দূরত্ব বজায় রেখে চলছে,
আচ্ছা কেন ও এমন টা করছে?
ওর জীবনে কি ও এমন কাও কে পেয়ে গেছে যাকে ও আমার থেকে বেশি ভালোবাসে?
না এটা হতে পারেনা কেউ হঠাৎ করে কি করে আসবে ওর জীবনে?
!
এসব ভাবতে ভাবতে আমি আমার সমস্ত অফিসের কাজ করে বাসায় ফিরে যাই,
!
বাসায় গিয়ে দেখি পিচ্চির মেজাজ টা খিটখিট করছে, কথায় কথায় বিরক্তির ভাব প্রাকাশ করছে এবং আমাকে ইগনোর করছে,
কিন্তু কেন ও এমন টা করছে?
আর আমি সেটা জানবো কি করে?
এসব ভাবতে ভাবতে ফ্রেশ হয়ে রুমে চলে যাই,
সেখানে গিয়ে দেখি ওর হাতে কিসের যেন একটা প্যাকেট,
!
হঠাৎ করে আমাকে দেখা মাঐ পিচ্চি টা প্যাকেট টা লুকিয়ে ফেলে,
আর আমি সেটা দেখেও না দেখার ভান করে বিছানায় গিয়ে শুয়ে পরি,
আর তখনি ও লকার খুলে প্যাকেট টা লকারের মধ্যে লুকিয়ে রাখে,
আশ্চর্য প্যাকেটের মধ্যে এমন কি আছে?
যে প্যাকেট টা প লাকারের মধ্যে লুকিয়ে রাখল?
আচ্ছা এই প্যাকেট টার মধ্যেই কি আমার সব প্রশ্নের উওর লুকিয়ে আছে?
আমার সেটা জানতেই হবে,
তাই সে বেডরুম দিয়ে বের হতেই আমি লকার নিয়ে টানাটানি শুরু করে দেই,
বাট লকার খুলতে অসমর্থ হই,
!
মাঝ রাতে পিচ্চি টা হঠাৎ ওর পেট চেপে ধরে কান্নাকাটি জুড়ে,
আর তখনি আমি আম্মু কে গিয়ে ডেকে আনি,
!
আর আম্মু এসেই পিচ্চি টা নিম পাতার বড়া খাইয়ে দেয় আর আমাকে লাকারের চাবি দিয়ে বলে,
!
বাবা লকারের মধ্য একটা প্যাকেট রাখা আছে ওটা এনে আমাকে দেও তো,
!
এই তো সুযোগ লকারে ও কি লুকিয়ে রেখেছে সেটা দেখার,
লকার খুলে প্যাকেট টা হাতে নিতেই চমকে যাই আমি,
!
কারন প্যাকেট টি পিরিওড টাইমে ব্যাবহারিত ন্যাপকিনের ছিল,
তাহলে ও আমাকে এর জন্যে ইগনোর করছিল?
মেজাজ টা ওর এরি জন্য খিটখিট করছিল,
কিন্তু ও আমাকে বিষয় টি লুকচ্ছিল কেন?
ও কি আমাকে ভয় করছিল?
তাই ও আমার থেকে দূরে দূরে থাকছিল?
অনেক হয়েছে দূরে থাকা আমার বৌ এখন আমার কাছে কাছে থাকবে,
!
তাই আম্মু যেতেই আমি তকে আমার বুকে টেনে নিয়ে ওর গালে গলায় চুমু খেতে থাকি,
আর তখন আমি খেয়াল করে দেখি ও আমাকে ভয় পাচ্ছে ও আমার থেকে দূরে দূরে থাকার চেষ্টা করছে,
!
কিন্ত আমি এবার ওকে দূরে না যেতে দিয়ে খুব শক্ত করেই ওকে আমি আমার বুকে চেপে রাখি,
!
প্লিজ ভাইয়া আমার ভালো লাগছে না আমাকে যেতে দাও প্লিজ,
!
কেন যেতে দিবো পিচ্চি,তুমি কোথাও যাবেনা, আর তুমি কাঁদছ কেন হুমমম?
তুমি কি আমাকে ভয় পাচ্ছ?
দেখো আমি সব জানি, তুমি আমাকে আগে কেন বলো নি যে তোমার এতো কষ্ট হচ্ছে?
!

তুমি যদি সব জানো?
!
হ্যা জানি,
!
তুমি আমাকে আগে কেন বলনি?
!
তোমার বকা খাওয়ার ভয়তে বলিনি,
!
পাগলি আমি বকা দিবো কেন?
আমি তো সবি জানি আমি মেডিকেলে লেখা পরা করেছি না,
!
তাহলে তুমি আব্বুর অফিসে যাও কেন?
!
আমার বিজনেস করতে ভালো লাগে তাই,
এখন তুমি আমাকে প্রমিছ করো আর কোনো সময় কোনো কিছু আমার থেকে লুকোবে না,
!
কিন্তু এগুলো ভাইয়া জানলে পাপ হয়,
!
একটা মাইর দিবো বোকা মেয়ে কোনো পাপ হয় না বুঝছ,
ফারদার যদি এভাবে কিছু লুকিয়ে একাএকা কষ্ট পাও না আমি তোমাকে তাহলে মেরেই ফেলবো,
!
তারপর একে অপর কে জড়িয়ে কাঁদতে থাকি আমরা,
অনেক শিক্ষা হয়েছে আমার আর কখনো এমন কিছু করবোনা যাতে ও আমাকে ভয় পেয়ে ওর থেকেই দূরে ঠেলে দেয়,
!
পরেরদিন সকালেই আমি আমার পিচ্চি বৌ কে নিয়ে শশুড় বাড়ি বেড়াতে যাই,
!
সেখানে যেতেই বড় শালার চার বছরের ছেলেটা এসে আমার কেলে উঠে বলে,
!
পাপা আমার মাম্মামেরর কি বেবি হবে?
!
কেন বাবা?
!
আমার খালামনির বেবি হবে তাহলে কি আমার মাম্মামের ও বেবি হবে পাপা,
!
ছেলের কথা শুনে আমি মনে মনে বলি,
!
বাবারে আমি তোর মাম্মাম কে ফুলেরটোকা ও দেই নি যে তার বেবি হবে,
..
ডেভিল হ্যাজবেন্ডের পিচ্চি বৌ♥
part : 7
=======

ছেলের কথা শুনে আমি মনে মনে বলি,
!
বাবা রে আমি তো
তের মাম্মাম কে ফুলেরটোকা ও দেই নি তাহলে তার বেবি হবে কি করে?
আমি কিছু করবো তারপরি তো বেবি হবে,
!
কি হলো পাপা কি ভাবছ?
!
কিছুনা বাবা,
!
কিরে বাবা হলে বসে থাকবি?
রুমে গিয়ে ফ্রেশ হবিনা?
!
হ্যা আব্বু হবো তো,
!
তা আব্বু আম্মু কে নিয়ে এলেনা কেন?
!
আব্বু আসলে আব্বুর একটা ইম্পরট্যান্ট মিটিং আছে তাই তারা কালকে আসবে,
!
ও আচ্ছা,
তাহলে যাও বাবা ফ্রেশ হয়ে আসো,
!
হ্যা আব্বু যাচ্ছি,
তারপর আমি নিয়ন কে ভাবির কাছে রেখে রুমে চলে যাই,
!
রুমে যেতেই দেখি আমার পিচ্চি বৌ পেটিকোট ব্লাউজ পরে দাড়িয়ে আছে,
আমি ওর কাছে যেতেই ও আমার শার্টের বাটান গুলো খুলে দেয়,
!
উফফফ,
ফাইনালি ও আমার ফিলিংস গুলো বুঝতে পেরেছে,
সো আয় এম রেয়ালি হ্যাপি,
!
কিন্তু তখনি আমার পিচ্চি টা আমার ফিলিংসের তেরো টা বাজিয়ে বলে,
!
যাও গিয়ে গোসল করে আসো ভাইয়া,
!
কেন?
!
বারে গা থেকে ঘামের গন্ধ আসছে আর বোকা হাদার মতো জিজ্ঞেস করছ কেন?
!
তা নয় বুঝলাম কিন্তু তুমি আমার শার্টেরর বাটান খুললে কেন?
!
তুমি তো খুলতেই তেই তাই আমি খুলে দিলাম,
আর এমনি তেও তুমি খুব ঘেমে গেছ,
সো যাও গিয়ে ফ্রেশ হয়ে আসো,
!
হ্যা যাচ্ছি,
তারপর আমি গিয়ে ফ্রেশ হয়ে আসি,
ফ্রেশ হয়ে রুমে আসতেই দেখি,
বৌ আমার একা একাই সাড়ি পরার চেষ্টা করছে,
কিন্তু ও পরতে পারছেনা দেখে আমি ওকে সাড়ি পরিয়ে দেই,
!
তখনি খেয়াল করে দেখি বৌ আমার দিকে কেমন যেন তাকিয়ে আছে,
ওই পিচ্চি এভাবে তাকিয়ে কি দেখছ তুমি?
!
ভাইয়া তুমি এভাবে নাঙ্গুপাঙ্গু হয়ে টাওয়াল পরে দাড়িয়ে আছো কেন?
!
তোমাকে দেখার জন্যে বেবি,
!
দেখে ভাইয়া মজা করোনা প্লিজ,
ট্রাউজার টা পরে এসো যাও না সোনা,
!
আচ্ছা যাচ্ছি,
আর তখনি স্লিপ করে পিচ্চি বৌ কে নিয়ে বিছানায় শুয়ে পরি,
এবং ওকে আমার বুকে জড়িয়ে চুমুতে চুমুতে পাগল করে দেই,
কিন্তু একি যাকে পাগল করার জন্য এতে কিছু তারি কোনো হেলদোল নেই,
হঠাৎ ও কান্নাকাটি জুড়ে দেয়,
!
কি হলো কাঁদছ কেন?
!
প্লিজ আমাকে ছেড়ে দাও, এগুলো তুমি কি করছ ভাইয়া?
!



আমি আমার পিচ্চি বৌ কে আদর করে চুমু খেয়ে প্রেম করছি,
!
আমি করবো না গো তোমার সাথে প্রেম?
!
কেন করবেনা শুনি?
আব্বু তো তোমাকে বলেই দিয়েছে আমার সাথে প্রেম করলে পাপ হবে না তোমার,
তাহলে তুমি কেন আমার সাথে প্রেম করতে চাও না?
কি সমস্যা কি তোমার?
!
আমার সমস্যা তুমি,
আর তোমাকে ভয় পাই আমি,
তুমি প্লিজ আমাকে ছেড়ে দাও,
!
ছাড়বো কেন দুঃখ্যে তুমি আমার দেন মহর দিয়ে বিয়ে করা বৌ,
তাই আমার সম্পূর্ণ অধিকার আছে তোমার ওপরে,
!
তুমি খুবি পচা ভাইয়া,
একটু ও আমার কথা শোনোনা তুমি,
!
এই কানের কাছে ঘ্যানঘ্যান করোনাতো,
ভাইয়া টাইয়া বাদ এখন আমি তোমার স্বামী,
!
স্বামী বলে এমন টা করবে ভাইয়া?
!
তখনি রাগে ফায়ার হয়ে যাই আমি,
কিন্তু বৌয়ের সাথে চোখাচোখি হতেই দেখি,
সোনা টা আমার ভয় তে কাঁপছে,
!
তাই আমি রাগে ফায়ার হওয়া ছেড়ে দিয়ে,
পিচ্চি কে বুকে জড়িয়ে আদর করে বলি,
তুমি আমাকে চুমু দিলেই আমি তোমাকে ছেড়ে দিবো,
!
সত্যি?
!
হ্য আমার সোনা পাখি,
!
তারপর আমার পিচ্চি টা আমাকে চুমুতে চুমুতে ভরিয়ে দেয়,
চুমুর শেষ পর্যায় আমি ওকে আমার ঠোঁট জোড়া দেখিয়ে দেই,
আর তখনি ও লজ্জা পেতে শুরু করে,
কিন্তু আমি ওকে লজ্জা পাওয়ার সুযোগ না দিয়ে,
আমি ওর ঠোঁট জোড়া দখল করে নেই,
!
এভাবে কিছুক্ষণ কেটে যাওয়ার পর,
ভাবি এসে আমাদের খেতে নিয়ে যায়,
!
ডায়নিং যেতেই নিয়ন তার মাম্মামের কাছে বায়না ধরে ওকে খাবার খাইয়ে দাওয়ার জন্যে,
তারপর,
তার মাম্মাম নিজের হাতেই তাকে খাবার খাইয়ে দেয়,
খাবার খাওয়া শেষে নিয়ন হঠাৎ বলে ওঠে,
মাম্মাম তোমার মেয়ে বাবু হলে আমার সাথে তার বিয়ে দিবে তো?
!
নিয়নের কথা শুনেই তখনি সবাই হা হা করে হেসে দেয়,
!
দুপুরের খাবার খেয়ে কিছুক্ষণ রেস্ট নিয়ে আমি ও আমার একটা জরুরি কনফারেন্সের জন্য অফিসে চলে যাই,
!
কনফারেন্স শেষে বাসায় ফিরে দেখি আমার বৌ নিয়ন কে কোলের মধ্যে বসিয়ে আদর করে পড়াচ্ছে,
u for umbrella
কিন্তু নিয়ন পরছে,
ইউ ফর আম ফেলা,
হা হা হা,
নিয়নের পড়াশোনা দেখে সবাই হা হা করে হেসে দেয়,
!
তার কিছুক্ষণ পরে আমরা ডিনার করে যে যার রুমে গিয়ে শুয়ে পরি,
আর তখনি নিয়ন এসে আমার গলা জড়িয়ে শুয়ো পরে বলে,
!
পাপা আমি কি তোমাদের কাছে শুতে পারি?
!
হ্যা বাবা তা তোমার মাম্মাম কোই?
!
আমার জন্যে দুদু বানাতে রান্না ঘরে গেছে,
!
ও আচ্ছা
আর তখনি আমার পিচ্চি টা আমাকে এসে নিয়ন কে দুধ খাইয়ে দরজা লাগিয়ে আদর করে ঘুম পারাতে থাকে,
!
আমার পিচ্চির হাবভাবে মনে হচ্ছে নিয়ন যেন আমাদের সন্তান,
আর শুধু তাই নয় ওর আচার ব্যাবহারের একজন আদর্শ মায়ের চরিএ ফুটে উঠেছে,
এসব ভাবতে ভাবতে খেয়াল করে দেখি,
আমার পিচ্চি টা আমার মাথায় হাত বুলিয়ে দিচ্ছে,
!
আর তাই আমি তখনি নিয়ন কে ওর কোলের মধ্যে রেখে ওর আরো ক্লোজ হয়ে শুই আর ও আমাকে ও ঘুম পরিয়ে দেয়,
!


পরেরদিন সকালে ঘুম ভেঙে যেতেই দেখি,
নিয়ন আমার বুকে মাথা রেখে কান্নাকাটি করছে,
!
কি হলো বাবা কাঁদছ কেন?
!
তুমি আমার মান্মাম কে নিয়ে গেলে আমি কি নিয়ে থাকবো,
আমার তো মাম্মাম কে ছাড়া ভালো লাগেনা,
!
তাহলে তুমি ও আমাদের সাথে চলো বাবা,
!
কি বাবা কাঁদছ কেন?
!
তুমি কি আমাকে ছেড়ে চলে যাবো মাম্মাম?
!
না বাবা আমি কোথায় যাবো?
যেখানে যাবো সেখানে তোমাকে নিয়েই যাবো বাবা,
!
তারপর নিয়ন ওর মাম্মাম ও আমাকে চুমুতে চুমুতে ভরিয়ে দেয়,
!
দেন আমি ফ্রেশ হয়ে ব্রেকফাস্ট করতে নিচে চলে যাই,
!
নিচে যেতেই দেখি আব্বু আম্মু এসে তাদের আদুরে বৌ মা কে আরো আদর করছে,
অবশ্য এতে দোষের কিছু নেই,
কারন আমার বাবা মায়ের মেয়ের অভাব টা ওই পুরুন করেছে,
তখন আমার ভাবনায় বিচ্ছেদ ঘটিয়ে আব্বু আমাকে বলেন……
!
শশুড় বাড়ি এসে জামাই আদর খেতে খেতে বাবা-মায়ের কথা ভুলে গেছ তাই না?


!
না আব্বু আসলে আমার খেয়াল ছিলন,
!
তাহলে তোমার খেয়াল থাকে কোই বাবা?
!
ওমনি নিয়ন পিচ্চি টা বলে ওঠে,
!
মাম্মামের কাছে,
!
দাদুভাই কি বলছ তুমি?
!
বলছি পাপার মন মাম্মামের কাছে থাকে,
হা হা হা
!
নিয়নের কথা গুলো শুনেই সবাই মিলে হাসির বন্যা বইয়ে দেয়,
!
আর আমি ও বেশ লজ্জা পেয়ে যাই,
জানিনা
বাবু টা এসবের কি বোঝে?
তবে ও একদম খাটি কথা বলেছে,
যে আমার মন আমার পিচ্চির কাছে থাকে,
!
তখনি হঠাৎ খেয়াল করে দেখি পিচ্চি টা নেই,
আশ্চর্য ও গেল কোই?
!
তখনি ভাবি আমাকে বলে,
!
ইমান তুমি যাকে খুঁজছ সে তার রুমে,
ও তাই,
তারপর আমি সবাই কে বাহানা রুমে চলে যাই,
রুমে যেতেই দেখি আমার বৌ মাঐ শাওয়ার নিয়ে পেটিকোট ব্লাউজ পরে বাথরুম থেকে বেরিয়েছে,
তাই আমি ওকে পেছন থেকে জড়িয়ে ধরি,
!
আর ও ভয় পেয়ে আমাকে বলে,
ভাইয়া তুমি যাও আমি এখন সাড়ি পরবো …..
!
তারপর আমি ওকে আর কিছু বলার সুযোগ না দিয়ে ওকে বুকের সাথে চেপে ধরে আবারো ওর ঠোঁটে জোড়া দাখিল করে নেই,
!
হঠাৎ কিছুক্ষণ পর কি মজা কি মজা পাপা মাম্মাম কে পাপ্পি দিচ্ছে
!
আর তখনি বৌ টা আমাকে ফেলে দিয়ে বাথরুমে চলে যায়,
!
হায় আল্লাহ ছেলেটা তো সব দেখে নিয়েছে এখন কি হবে?.
!
দেখ বাবা আমার সোনা বাবা আমি তোকে চকলেটের দোকান কিনে দিবো তুই কাও কে বলবি না কেমন?
!
হুহহহহহহহ,
তুমি মাম্মম কে আদুর করছ আমি সবাই কে বলে দিবো,
!
আমি বললাম তো চকলেট কিনে দিবো,
!
সত্যি দিবে তো?
!
হ্য বাবা,
!
মনে থাকে যেন,
ভুলে গেলে সবাই কে বলে দিবো তুমি আমার মাম্মামমমম কে হা হা হা ঠুটের ওপরে পাপ্পি দিছো হা হা,
!
ওরে ফাজিল ছেলে দিবো নাকি মাইর?
!
আমি ও দিবো নাকি সবাই কে বলে
!
ওমা এ দেখি আমাকে ব্লাকলেল করে
!
কি ফাজিল ছেলেরে বাবা এখনি এতো ফিউচার তো সামনে পইরা রইছে??চলবে…….

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here