টেম্পরারি_বিয়ে _পর্ব_৪

0
531

টেম্পরারি_বিয়ে
_পর্ব_৪
Written by Avantika Anha
মাঝ রাতে আবিরের ঘুম ভাঙ্গে গেলো বিরবির শব্দে উঠে দেখে আনহা হাঁচি দিচ্ছে ।‌
.
.
আবির : ভালো হইছে আরো ভিজেন
আমি : আপনি একটা রাক্ষস ।
আবির : হাহা আর আপনি পেত্নি
আমি : হা….চ্ছি আপনি খুব বাজে ।
আবির : হাহা হাচ্ছি হাচ্ছি করতে থাকুন । আমি ঘুমালাম ।
আমি : একটা মেয়ে কে এভাবে রেখে ঘুমাতে লজ্জা করে না
আবির : আপনাকে ভিজতে কে বলছিলো ?
আমি : বৃষ্টি হলে আমি ভিজবোই ।
আবির : তাই বলে এতোক্ষণ ।
আমি : হিহি
আবির : এমন অবস্থায়ও হাসতেছেন আপনি ।
আমি : মানুষ কে সবসময় হাসতে থাকতে হয় । আপনার মতো গোমড়া মুখো হবো নাকি আমি ?
আবির : হুহ
আমি : আম্মু কে ডেকে দেন ।
আবির : এতো রাতে আম্মু কে জ্বালাতে হবে না ।
আমি : তাইলে কি করবো ? হা….চ্ছি
আবির : দাড়ান আমি কিছু করছি শ
আমি : ওকে ।
.
আবির কিছু সময় পর আমার জন্য গরম পানি , মধু দিয়ে নিয়ে এলো ।
আবির : নিন খেয়ে নিন ।
আমি : এটা কি ?
আবির : গরম পানি আর মধু ।
আমি : ও দেন ।
আবির : নেন
.
আমি হাতে নিয়েই দেখি অনেক গরম ।
আমি : আম্মু এতো গরম কেনো ।
আবির : এতো গরম না ।
আমি : না আমি খাবো না ।
আবির : খান বলছি ।
আমি : না
আবির : আপনাকে খেতেই হবে ।
….বলে জোড় করে খাওয়ায় দিলো…..
আমি : ইইইইইইইইই
আবির : হাহা
আমি : হাসতেছেন কেনো রাক্ষস
আবির : আপনি না অনেক ফানি
আমি : ওওওও ওইটা তো জানি
আবির : হাহা
আমি : একটা কথা কমু ?
আবির : বলুন
আমি : আপনাকে না হাসলে কিউট লাগে । আমি ঘুমাইলাম টাটা ।
.
বলেই শুয়ে পড়লাম । আবির আর কিছু না বলে সেও ঘুমিয়ে পড়লো ।
.
পরেরদিন সকালে…..
আমি আবির কে ফোন দিলাম ।
আমি : মি. আবিররররররর
আবির : কি হয়েছে ? ফোন দিলেন কেনো ? আপনি কই আছেন ?
আমি : উহু উহু
আবির : কাঁদছেন কেনো ?
আমি : প্রেয়সি কুত্তি টা
আবির : কি করছে ?
আমি : গাছে উঠছি আর আমাকে রাখে পালায় গেছে । আমি নামতে পারি না । মই দিয়া উঠছিলাম । মই নিচে পড়ে গেছে । আমাকে নামান ।
আবির : হায় রে এই মেয়েটা ।
আমি : আরে মেয়ে মেয়ে পরে কইরেন । আমাকে নামান ।
আবির : হাহা কই আছেন ?
আমি : বাড়ির বাগানের আম গাছে । জ্বলদি আছেন প্লিজ ।
আবির : আসতেছি ।
.
আবির আসলো….
আবির : বাহ মিস পেত্নি কে তো দারুণ লাগতেছে ।
আমি : ওই নামান আমাকে আগে
আবির : আমি কেনো নামাবো ?
আমি : প্লিজ নামান আমি কিটক্যাট দিবো আপনাকে ।
আবির : এক শর্তে
আমি : রাজি রাজি
আবির : আমার কথা শুনতে হবে
আমি : ওকে নামান ।
.
আবির গাছে উঠলো আর আমাকে নামাতে হেল্প করলো । আমি নামার পর….
আমি : মানি না মানবো না আপনার কথা মানবো না হিহি।
আবির : চিটার
আমি : হিহি আম খাবেন ? দেখেন কতোগুলো পেরেছি ।
আবির : না আপনি খান
আমি : তা খাবেন কেনো আপনি তো তিতা জিনিস সরি কফি খাবেন ।
আবির : হুম
আমি : দুরররর কথা বলা বেকার
আবির : হুমমমম
আমি : ওই হুম হুম থামান টেম্পরারি হাজবেন্ড
আবির : হুমমমম
আমি : ওই বেকামুখো
আবির : মানে
আমি : হুম
আবির : ওটা মানে কি ?
আমি : হুম
আবির : শোধ তুলছেন ?
আমি : হুম । হিহি আমি যাই কাঁচা আম গুলো মাখাবো ।
আবির : আচ্ছা
.
.
কিছু সময় পর আমগুলো মাখিয়ে আবিরের কাছে নিয়ে গেলাম ।

আমি : নিন খান
আবির : আমি এসব খাই না বলেছিলাম না
আমি : আরে একটু খান
আবির : না
আমি : একটু
আবির : না মানে না
.
আমি জোড় করে খাওয়াতে গেলাম । উনি চিৎকার করে
আবির : বললাম না খাবো না । এতো বাড়াবাড়ির কি আছে ? আপনি কে আপনি কে আমার যে এতো জোড় করছেন ।
আমি : সরি ( আগেও বলেছি আমার উপর কেউ সামান্য চিৎকার করলে আমার কান্না চলে আসে )
.
আমি কেঁদে চলে গেলাম ।
আবির ভাবছে ( আন্দাজি চিৎকার করলাম । মেয়েটা কেঁদেই ফেললো )
.
কিছু সময় পর….
দুপুরে…..
খাওয়ার টেবিলে…..
আবির : ( ভাবছে আমার দিকে একবারো তাকাচ্ছে না । বেশিই বকে ফেললাম নাকি ?)
আম্মু : জামাই কে দে
আমি : তুমি নিজেই দাও
আম্মু : আচ্ছা
.
আমি খাওয়া করে উঠে গেলাম ।
আম্মু : বাবা রাগ করো না । ও একটু রাগ করে । একটু জেদীও ।
আবির : হুম না ব্যাপার না ।
.
বিকালে…..
আবির : ( ভাবছে আনহা কে সরি বলা দরকার । কিন্তু কই সে ?
.
বাইরে বাচ্চাদের হাসার আওয়াজ শুনা যাচ্ছে । আনহা ওখানে নাকি )
.
আবির বাইরে গেলো । দেখে আনহা পিচ্চি দের সাথে কুত কুত খেলছে ।
আবির : ( হাহা এই মেয়ে সত্যি বড় নাকি পিচ্চি )
.
আমি খেলছিলাম । এমন সময় মি. আবির কে দেখে পড়ে যাই ।
আবির : ( জোড়ে হেসে ফেলে )
.
আমি রাগী লুকে আবিরের দিকে তাকাই
আমি : হেসে লাভ নাই পারলে খেলে দেখান
আবির : এ আর এমন কি ।
.
আবির খেলতে গেলো । কিন্তু সহজেই পড়ে গেলো ।
আমি এটা দেখে হাসতে হাসতে শেষ ।
আমি : হিহি পারে না পারে না
.
আবির এবার রাগী লুক আমার দিকে দিলো ।
.
কিছু না বলে চলে গেলো ।
.
কিছু সময় পর আমিও রুমে গেলাম । হাতমুখ ধুয়ে ফেললাম ।
.
আবির এবার উঠে আমার হাত ধরে ফেললো ।
আমি : এ্যা হাত ধরেছেন কেনো ?
আবির : খুব হাসি পাচ্ছিলো তাই না ?
আমি : হিহি আপনি তো খেলতেও পারেন না
আবির : হুহ
আমি : একটা কথা বলবো ?
আবির : হুম
আমি : আপনার পিছনে তেলাপোকা ।
.
আবির হাত ছেড়ে পিছনে তাকালো । এই সুজোগে আমি দৌড় ।
.
.
তারপর আর বিকালে আবিরের সামনে যাই নাই ।
.
সন্ধ্যার আগে আগে আমি ছাদে বসে বসে আইস্ক্রীম খাচ্ছিলাম । এমন সময় কে জানি কাধে হাত দিলো ।
আমি : কে রে ?
.
পিছনে ঘুরে দেখি মি. আবির ।
তাড়াতাড়ি পালানোর জন্য উঠে দৌড় মারতে চাইলাম কিন্তু পড়ে যেতে ধরলাম ।
.
আবির আমাকে ধরে ফেললো । ওই টাইমে আমার বিভিন্ন মুভির রোমান্টিক সিন গুলো মনে পড়তেছিলো । মি. আবিরও আমার দিকে তাকায় ছিলো ।
আমি : তুলুন
.
( হায় কপাল । কি ভাবছেন কি হলো ? হালায় হাত ছেড়ে দিলো )
আমি : আমার কোমর আল্লাহ গো
আবির : সরি সরি ভুলে হয়ে গেছে ( আসলে ওর দিকে তাকায় কিছুটা হারিয়ে গেছিলাম । হঠাৎ ও কথা বলায় হুশ ফিরছিলো আর হাত টা ভুলে ছেড়ে গেছিলো )
.
আমি : আপনি না ফুলললল রাক্ষসসসস
আমাকে এবার তুলুন ।
.
আবির : হুম হাত দেন
.
আমি : না থাক আমি নিজেই উঠে যাবো । আপনার ভরসা নাই আবার আমাকে ফেলে দিবেন ।
.
চলবে……..

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here