ঝগরাটে ভালবাসা পার্টঃ২

0
37
 ঝগরাটে ভালবাসা পার্ট২
 ঝগরাটে ভালবাসা পার্ট২

 ঝগরাটে ভালবাসা পার্ট২

লেখাঃতামান্না খান

 

রাতে টিভি দেখছি…..অই হাত থেকে রির্মোট নিলি ক্যান?দেখ আয়ান ভাল হবে না কিন্তু।দে বলছি।দেব না, কি করবি।কিছু না। বলে চলে আসলাম।আমার সাথে তেরামি।দেখাচ্ছি টিভি।বাইরে গিয়ে ডিসের লাইনের তার কেটে দিলাম।ভাল করে দেখ এখন।পিছন ফিরে,তুই?হ্যা আমি ।তার কাটলি ক্যান?বেশ করেছি।কিছু বলার সুযোগ না দিয়ে দৌড়ে চলে এলাম।বেশ করেছি কেটে দিয়ে।আমাকে দেখতে দিলি না আমি কিভাবে দেই।এখন ঘুমিয়ে পরি সকালে স্কুলে যেতে হবে।স্কুলে যাওয়ার সময় খেয়াল করলাম সেই ছেলেটি প্রতিদিনের মত দাড়িয়ে আছে।হঠাৎ পেছন থেকে ডাক দিয়ে আমাকে প্রোপোস করে বসলো।আমি তখনি না করে দেওয়াতে আমাকে আজেবাজে কথা বলে অপমান করলো।বাড়িতে এসে বড়মাকে সব বলে কান্না করতেছি।দরজার সামনে দাড়িয়ে সবটা শুনলো আয়ান।আয়ানকে আমরা খেয়ালই করিনি।রেগে বলে ওঠলো,কি… রাস্তায় বিরক্ত করবে আবার বড় বড় কথা বলবে।ছেলেটা কে রে।তোকে কিছু বলছি(চিল্লিয়ে) তুজো।আয়ান যাস নে বাবা ,আয়ান(বড় মা)

পরের দিন তুজোর বাবা-মা বিচার দিতে আসলো আায়ান নাকি কাল অর বন্ধুদের নিয়ে তুজোকে খুব পিটিয়েছে।বড় মা তাদেরকে তুজোর কার্যকলাপের কথা বললো ।তারা লজ্জিত হয়ে চলে গেল।

দুপুরে…..অই, কোন ছেলে কিছু বললে আমাকে বলবি।কেন?যাতে তুই গুন্ডামি করতে পারস।তুই আসলেই বান্দুন্নী।এযুগে কারো ভাল করতে নেই।শয়তান্নি কোথাকার।তোকে আমার ভাল করতে বলছে কে। এক নাম্বারের গুন্ডা।

বিকেল…..

জানিস নয়ন,কারো ভাল করতে নেই।বন্দুন্নীটার জন্য তুজোকে মারলাম আর অ আমাকেই গুন্ডা বলছে।

আয়ান তুই কি তুহিকে ভালবাসিস?তোর কি মাথা ঠিক আছে?আমি তুহিকে ভালবাসতে যাব।অর সাথে পাচ মিনিট কথা হলে তিন মিনিটই ঝগরা হয়।তোকে একটা ঘুসি মারতে ইচ্ছে করছে।

আরে রাগ করিস ক্যান?তুই সব সময় অর কথা বলিস।আর কালতো অর জন্য তুজোকে মারলি।আরে তুহিতো আমার বোন।হ্যা বোন কিন্তু খালাতো বোন।আচ্ছা তুহি তোকে কোনদিন ভাইয়া বলেছে?বলে নাই ।তবে???আর এরকম ঝগরা থেকে ভালবাসা অনেক দেখেছি।বাদ দিবি নয়ন।নাকি সত্যি আমার ঘুসি খাবি?

আজ আমাদের স্কুলে বিদাই অনুষ্ঠান।ড্রেস হচ্ছে শাড়ি।ইপ্সিতা ও রিন্তি শাড়ি পরে আমাদের বাড়িতে এসেছে।এখান থেকে তিন জনে একসাথে স্কুলে যাব।

আরে ইপ্সিতা তোমাদের দুজনকে তো দারুন লাগছে।(আয়ান)

ধন্যবাদ ভাইয়া।তুহি কই?

বান্দুন্নীটা ঘরেই।সকাল থেকে রডি হচ্ছে এখনও হয়নি।তোমরা ওর রুমে যাও।

তুহি,

তোরা এসেছিস,এইতো আমার হয়েছে,চল।

আমরা আরো আগেই এসেছি,আয়ান ভাইয়ার সাথে কথা বললাম।নিশ্চয় আমার নামে কথা বলছে।

হ্যারে তুহি,তোকে কিন্তু সেই দেখাচ্ছে।আচ্ছা এখন চলতো।রুম থেকে বের হতেই আয়ান সামনে পরলো।কি অদ্ভুদ ভাবে তাকিয়ে আছে। অর ঘোর কাটিয়ে বললাম। সরবি কি সামনে থেকে।জোরে হেসে বললো,বান্দুন্নিটাকে আজ পুরো পেত্নির মত লাগছে।অকে শয়তান বল চলে এলাম ।